গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন বাংলাদেশের মধ্যাঞ্চলের গাজীপুর জেলায় অবস্থিত স্থানীয় সরকার সংস্থা। এটি বাংলাদেশের একটি পৌর প্রশাসন ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান। বাংলাদেশের সিটি কর্পোরেশনগুলোর মধ্যে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠাকালের দিক থেকে কনিষ্ঠতম এবং আয়তনের দিক থেকে সবচেয়ে বড় সিটি কর্পোরেশন।

ইতিহাস ও আত্মপ্রকাশ[সম্পাদনা]

গাজীপুর সিটি করপোরেশন ২০১৩ সালের ১৬ জানুয়ারি প্রতিষ্ঠিত হয়।[১] ৭ জানুয়ারি প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় কমিটির (নিকার) সভায় টঙ্গি ও গাজীপুর পৌর এলাকা নিয়ে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন গঠনের সিদ্ধান্ত অনুমোদন হয়। এর প্রেক্ষিতে গত ১৬ জানুয়ারি গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের গেজেট প্রকাশিত হয়।[২]

রাজধানী ঢাকার সন্নিকটে অবস্থিত গাজীপুর জেলাকে ২০১০ সালের ১৬ মার্চ বিশেষ শ্রেণীর জেলা হিসেবে ঘোষণা করা হয়। ১৯৭৪ সালে ৩২ দশমিক ৩৬ কিলোমিটার আয়তনের টঙ্গী পৌরসভা গঠন করা হয়। অপরদিকে গাজীপুর পৌরসভার আয়তন ৪৮ দশমিক ৫০ বর্গ কিলোমিটার। এটি ১৯৮৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এই দুই পৌরসভা এবং গাজীপুর ক্যান্টনমেন্টের ১৮৮৮ দশমিক ৩৮ একর এলাকা নিয়ে গাজীপুর সিটি করপোরেশন গঠন করা হল।[৩]

২০১৩ সালে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের প্রথম মেয়র নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে মেয়র হিসেবে নির্বাচিত হন বিএনপি সমর্থিত সাবেক ধর্ম প্রতিমন্ত্রী এম. এ. মান্নান

ভৌগোলিক সীমানা[সম্পাদনা]

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের আয়তন ৩২৯ দশমিক ৯০ বর্গকিলোমিটার।[৪]

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের উত্তরে গাজীপুর সদর উপজেলার মিজুপুর ইউনিয়ন, দক্ষিণে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ও সাভার উপজেলার ইয়ারপুর ইউনিয়ন, পূর্বে গাজীপুর সদর উপজেলার বাড়িয়া ইউনিয়ন, কালীগঞ্জ উপজেলার নাগরি ইউনিয়ন ও শ্রীপুর উপজেলার প্রহল্বাদপুর ইউনিয়ন এবং পশ্চিমে কালিয়াকৈর উপজেলার মৌচাক ও মধ্যপাড়া ইউনিয়ন এবং সাভার উপজেলার শিমুলিয়া ও দামসোনা ইউনিয়ন অবস্থিত।[৫]

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের জনসংখ্যা প্রায় ২০ লাখ।[৪]

পরিকাঠামো ও অন্যান্য উপাত্ত[সম্পাদনা]

৫৭ টি ওয়ার্ড নিয়ে গাজীপুর সিটি করপোরেশন গঠিত। [৬]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]