খেরুয়াজানী ইউনিয়ন

স্থানাঙ্ক: ২৪°৪৫′৩০″ উত্তর ৯০°১৬′০০″ পূর্ব / ২৪.৭৫৮৩° উত্তর ৯০.২৬৬৭° পূর্ব / 24.7583; 90.2667
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
খেরুয়াজানী
ইউনিয়ন
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সীল.svg ১০নং খেরুয়াজানী ইউনিয়ন পরিষদ
খেরুয়াজানী ময়মনসিংহ বিভাগ-এ অবস্থিত
খেরুয়াজানী
খেরুয়াজানী
খেরুয়াজানী বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
খেরুয়াজানী
খেরুয়াজানী
বাংলাদেশে খেরুয়াজানী ইউনিয়নের অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৪°৪৫′৩০″ উত্তর ৯০°১৬′০০″ পূর্ব / ২৪.৭৫৮৩° উত্তর ৯০.২৬৬৭° পূর্ব / 24.7583; 90.2667
দেশবাংলাদেশ
বিভাগময়মনসিংহ বিভাগ
জেলাময়মনসিংহ জেলা
উপজেলামুক্তাগাছা উপজেলা উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
মানচিত্র

খেরুয়াজানী ইউনিয়ন বাংলাদেশের ময়মনসিংহ জেলার মুক্তাগাছা উপজেলার অন্তর্গত একটি ইউনিয়ন[১][২]

অবস্থান ও সীমানা[সম্পাদনা]

উত্তরে ৫নং বাসাটি ইউনিয়ন, পশ্চিমে কাশিমপুর ও

পূর্ব পাশে ময়মনসিংহের কাতলাসেন ইউনিয়ন এবং দক্ষিনে ফুলবাড়িয়া উপজেলার ৪নং বালিয়ান ইউনিয়ন।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ময়মনসিংহ জেলার মুক্তাগাছা উপজেলার একটি ঐতিহ্যবাহী ও বৃহত্তম জনপদ হলো ১০ নং খেরুয়াজানী ইউনিয়ন। কালের পরিক্রমায় আজ অত্র ইউনিয়ন শিক্ষা, সংস্কৃতি, ধর্মীয় অনুষ্ঠান, খেলাধুলা সহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে তার নিজস্ব স্বকীয়তায় আজও সমুজ্জ্বল। প্রাচীনকাল থেকেই এই অঞ্চলের মানুষের বসবাস। প্রাচীনকাল থেকে এখানে ইসলামিক কার্যকলাপ চলে আসছে,দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এখানে ইসলাম প্রচারের লক্ষে আউলিয়া, বুজুর্গ ব্যক্তিগণ খেরুয়াজানী তে আসেন। তার একটি প্রাচীন নিদর্শন হচ্ছে গড়বাজাইল বাজার। এর পুরাতন নাম ছিল বুজুর্গ ভিটা। এই বাজারের নিচে বহু পুরাতন কবর রয়েছে। ধারণা করা হয় এরা বিভিন্ন অঞ্চল থেকে এখানে ইসলাম প্রচারের জন্য এসেছিলেন। মুক্তাগাছা অঞ্চলে ইসলাম প্রচারের জন্য এখান থেকেই তারা মূলত ধর্ম প্রচার শুরু করেন। তারা মূলত ফকির নামেই পরিচিত। এবং এই অঞ্চলে ফকির বংশের অনেক লোকজন বসবাস করে তাদের পূর্বসূরিরা এখানে ইসলাম প্রচার করেন বলে তাদের ধারণা।

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

উত্তরে বাষাটি ইউনিয়ন, পূর্বে কাতলাসেন ইউনিয়ন, দক্ষিনে বালিয়ান ইউনিয়ন। এবং পশ্চিমে কাশিমপুর ইউনিয়ন অবস্থিত।

গ্রাম সমুহ[সম্পাদনা]

১ গড়বাজাইল ( দুটি অংশ ৫ নং ওয়ার্ড ভিটিবাড়ি ও ৬ নং ওয়ার্ড নবীনগঞ্জ) ২ ভিটি বাড়ি ৩ রমেশ বাড়ি ৪ খেরুয়াজানী (দুটি অংশ) ৫ মহেশ বাড়ি ৬ সৈয়দ গ্রাম ৭ বাহির বাজাইল ৮ চাপুরিয়া ৯ শিবপুর ১০ কবিরপুর ১১ কৃষ্ণ বাড়ি ১২ বানিয়াবাড়ী ১৩ যাত্রাটি ১৪ বানিয়াকাজী ১৫ খিলগাতি ১৬ আমবুদপুর ১৭ বন্ধগোয়ালিয়া ১৮ হরিপুরদেউলী ১৯ রহিমবাড়ি ২০ ইটাচকি ২১ পলশা

হাট বাজার[সম্পাদনা]

খেরুয়াজানী বাজার , গরবাজাইল বাজার , নবীনগঞ্জ বাজার , ভিটিবাড়ি বাজার , কালিবাড়ি বাজার , মিলনগঞ্জ বাজার

উল্লেখযোগ্য স্থান[সম্পাদনা]

আয়তন ও জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

৩০.২০ বর্গ কিলোমিটার। লোকসংখ্যা- ৩৩৬৮৮ জন।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

শিক্ষার হার : ৪৩.৬৫ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিদ্যালয় ১) খেরুয়াজানী উচ্চ বিদ্যালয়। ২) পলসা আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়। ৩) গড়বাজাইল উচ্চ বিদ্যালয়। ৪) লক্ষ্মীপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়। ৫) বানিয়াবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়। মাদ্রাসা ১) বিডি বাড়ি আলিম মাদ্রাসা। ২) হাজী কাশেম আলী মহিলা দাখিল মাদ্রাসা নবীগঞ্জ বাজার।

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

প্রাচীন ভূইয়া বাড়ি জামে মসজিদ,

কৃষ্ণবাড়ি ইউপি পরিষদ

গড়বাজাইল নবিনগঞ্জ বাজারের পূর্বপাশে আয়মন নদীর তীর বা বৈরাগী কাঁঠাল তলা।

উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

জনপ্রতিনিধি[সম্পাদনা]

বর্তমান চেয়ারম্যান- রফিকুল ইসলাম মাজহারুল

প্রাক্তন চেয়ারম্যানগণের তালিকা
ক্রমিক নাম মেয়াদ
০১ আব্দুল হান্নান ১৯৯৬-২০০১
০২ মাহাবুবুল আলম ফকির ২০০১-২০১১
০৩ আমিনুল ইসলাম রিপন ২০১১-২০১৬
০৪ রফিকুল ইসলাম মাাাজহার ২০১৬-বর্তমান
০৫
০৬
০৭

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "খেরুয়াজানী ইউনিয়ন"বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০২০ 
  2. "মুক্তাগাছা উপজেলা"বাংলাপিডিয়া। ২৯ জানুয়ারি ২০১৫। ২৪ মে ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ এপ্রিল ২০২০