খুবজীপুর ইউনিয়ন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(খুবজিপুর ইউনিয়ন থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
খুবজীপুর
ইউনিয়ন
Government Seal of Bangladesh.svg খুবজীপুর ইউনিয়ন পরিষদ
দেশ বাংলাদেশ
বিভাগরাজশাহী বিভাগ
জেলানাটোর জেলা
উপজেলাগুরুদাসপুর উপজেলা উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
জনসংখ্যা (২০১১)
 • মোট২০,৮৩২
সাক্ষরতার হার
 • মোট৭৩%
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
ওয়েবসাইটপ্রাতিষ্ঠানিক ওয়েবসাইট উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন

খুবজীপুর (Khubjipur) নাটোর জেলার অন্তর্গত গুরুদাসপুর উপজেলার একটি ইউনিয়ন।

অবস্থান[সম্পাদনা]

খুবজীপুর ইউনিয়ন নাটোর জেলার গুরুদাসপুর উপজেলার অন্তর্গত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

খুবজীপুর ইউনিয়নের ইতিহাস সম্পর্কে সঠিক ভাবে কিছু জানা যায় নাই। তবে অনেকে বলেন যে, 'খু' অর্থ কাছে, 'জী' অর্থ জা বা আত্মা এবং 'পুর' অর্থ নগরী। অর্থাৎ, খুবজীপুর = আত্মার নগরী।

প্রশাসনিক অবস্থা[সম্পাদনা]

খুবজীপুর ইউনিয়ন এর মোট আয়তন ৫৫৬০ একর। ১০টি গ্রামের সমন্বয়ে এ ইউনিয়ন গঠিত। মৌজার সংখ্যা ১০টি।

খুবজীপুর ইউনিয়নের গ্রামগুলি হল-

  • খুবজীপুর
  • শ্রীপুর
  • পিপলা
  • চরপিপলা
  • বামনবাড়িয়া
  • চরবিলসা
  • বিলসা
  • রুহাই
  • কালাকান্দ
  • তেলকুপি

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

এ ইউনিয়নের লোকসংখ্যা প্রায় ২০৮৩২ জন। পুরুষ ১০৮৮৯ জন, মহিলা ৯৯৪৩ জন।

শিক্ষা[সম্পাদনা]

শিক্ষার হার ৭৩%। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে মহাবিদ্যালয় ২টি, উচ্চ বিদ্যালয় ৩টি, প্রাথমিক বিদ্যালয় ৮টি, মাদ্রাসা ৪টি (২টি দাখিল ও ২টি এবতেদায়ী)।

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

অর্থনীতি মূলত কৃষিনির্ভর। মোট আবাদী জমির পরিমাণ ৪৯৩৪ একর। এর মধ্যে একফসলী ১২৩১ একর, দুইফসলী ৩৮২৩ একর, তিন ফসলী ৪৭৮ একর। পতিত জমির পরিমাণ ২৫৩ একর। হাট বাজারের সংখ্যা ২টি।[১]

  • খুবজীপুর বাজার - প্রতি রবিবার ও বুধবার এখানে সাপ্তাহিক হাট বসে।
  • বিলসা বাজার - বর্ষাকালে এই বাজারের চারপাশে শুধু পানি আর পানি থাকে ।

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

চলনবিল অঞ্চলের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি রক্ষার উদ্দেশ্যে খুবজীপুর গ্রামে অধ্যক্ষ এম. এ. হামিদ সাহেব এর উদ্যোগে ১৯৭৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে চলনবিল জাদুঘর। এটি বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব বিভাগের আওতাধীন। পিপলা গ্রামে মুঘল আমলের একটি প্রাচীন মসজিদ রয়েছে। এছাড়া শ্রীপুর গ্রামের বহু পুরোনো আমলের একটি বিশালাকার শিমুল গাছ দর্শনার্থীদের নিকট দর্শনীয় বস্তু হয়ে উঠেছে।

কৃতি ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

যোগাযোগ ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

প্রধান যোগাযোগ মাধ্যম রিক্সা, ভ্যান ও নৌকা। পাকা রাস্তা পিচ কার্পেটিং ০৩ কি.মি ও ইট পাড়া ০৩ কি.মি। কাচা রাস্তা ২১কি.মি। ব্রিজের সংখ্যা ৪টি।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]