খাদ্য নিরাপত্তা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বার্লির ক্ষেত

খাদ্য নিরাপত্তা (ইংরেজি: Food security) খাদ্যের লভ্যতা এবং মানুষের খাদ্য ব্যবহারের অধিকারকে বোঝায়। কোন বাসাকে তখনই "খাদ্য নিরাপদ" বলে মনে করা হয়, যখন এর বাসিন্দারা ক্ষুধার্ত অবস্থায় বসবাস করেন না কিংবা খাদ্যাভাবে উপবাসের কোন আশঙ্কা করেন না।

বিশ্বজুড়ে প্রায় ৮৫ কোটি মানুষ চরম দারিদ্র‌্যের কারণে বহুদিন যাবৎ ক্ষুধার্ত। প্রায় ২০০ কোটি মানুষের বিভিন্ন মাত্রার দারিদ্র‌্যের কারণে খাদ্য নিরাপত্তা ছাড়াই বাস করছেন। (উৎস: বিশ্ব খাদ্য সংস্থা, ২০০৩)। ২০০৭ সালের শেষ দিকে জৈবজ্বালানির জন্য বিশেষ কৃষিকাজের প্রসার,[১] বিশ্ববাজারে খনিজ তেলের দামের উচ্চমূল্য,[২] বিশ্বব্যাপী জনসংখ্যার বৃদ্ধি,[৩] জলবায়ুর পরিবর্তন,[৪] আবাসিক প্রয়োজনে ও শিল্পকারখানার কারণে কৃষিজমির পরিমাণ হ্রাস,[৫][৬] এবং সম্প্রতি চীন ও ভারতে ভোক্তাদের চাহিদায় বৃদ্ধির ফলে [৭] বিশ্বব্যাপী খাদ্যশস্যের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। [৮][৯] বিশ্বের বহু দেশে খাদ্য রায়ট হয়েছে। [১০][১১][১২]

দারিদ্র‌্য ও খাদ্য গ্রহণের হারের মধ্যে সরাসরি সম্পর্ক আছে। যেসব পরিবারের চরম দারিদ্র‌্য এড়ানোর সামর্থ্য আছে, তারা কদাচিৎ দীর্ঘস্থায়ী ক্ষুধার শিকার হয়। অন্যদিকে দরিদ্র পরিবারগুলি কেবল ক্ষুধার শিকারই নয়, খাদ্যস্বল্পতা ও দুর্ভিক্ষের সময় এরাই সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

খাদ্য নিরাপত্তার প্রধান স্তম্ভসমূহ[সম্পাদনা]

WHO খাদ্য নিরাপত্তার ক্ষেত্রে তিনটি প্রধান স্তম্ভ নির্ধারণ করেছে। এগুলো হলঃ খাদ্যের পর্যাপ্ততা, খাদ্যের সহজলভ্যতা এবং খাদ্যের ব্যবহার-অপব্যবহার।[১৩] FAO চার নম্বর স্তম্ভটি যুক্ত করেছে। এটি হল স্থায়ীত্ব। অর্থাৎ অপর তিনটি স্তম্ভ সবসময় যেন স্থায়ী হয় সেদিকে খেয়াল রাখা।[১৪] ২০০৯ সালে ওয়ার্ল্ড সামিট বলেছে, "খাদ্য নিরাপত্তার প্রধান চারটি স্তম্ভ হচ্ছে পর্যাপ্ততা, সহজলভ্যতা, সদ্ব্যব্যবহার ও স্থায়ীত্ব।[১৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "2008: The year of global food crisis"। ২২ আগস্ট ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মে ২০০৮ 
  2. "The global grain bubble"। ৩০ নভেম্বর ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মে ২০০৮ 
  3. Food crisis will take hold before climate change, warns chief scientist
  4. Global food crisis looms as climate change and fuel shortages bite
  5. Experts: Global Food Shortages Could ‘Continue for Decades'
  6. Has Urbanization Caused a Loss to Agricultural Land?
  7. "The World's Growing Food-Price Crisis"। ২৯ নভেম্বর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মে ২০০৮ 
  8. The cost of food: Facts and figures
  9. "Food Price Unrest Around the World, September 2007- April 2008"। ১২ এপ্রিল ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ মে ২০০৮ 
  10. Riots and hunger feared as demand for grain sends food costs soaring
  11. Already we have riots, hoarding, panic: the sign of things to come?
  12. Feed the world? We are fighting a losing battle, UN admits
  13. WHO। "Food Security"। সংগ্রহের তারিখ ১৫ অক্টোবর ২০১৩ 
  14. FAO Agricultural and Development Economics Division (জুন ২০০৬)। "Food Security" (2)। সংগ্রহের তারিখ জুন ৮, ২০১২ 
  15. FAO (২০০৯)। Declaration of the World Food Summit on Food Security (PDF)। Rome: Food and Agriculture Organization of the United Nations। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]