ক্যাপ্টেন (নেপালি চলচ্চিত্র)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ক্যাপ্টেন
Film poster of its casually-dressed protagonist holding a football
চলচ্চিত্রের পোস্টার
পরিচালকদিবাকর ভট্টারাই
প্রযোজকভুবন কে.সি.
নির্বাহী প্রযোজক
জিয়া কে.সি.
শ্রেষ্ঠাংশেআনমল কে.সি.
সুনীল থাপা
উপসানা সিং ঠাকুরী
প্রিয়াঙ্কা এমভি
উইলসন বিক্রম রায়
সরোজ খানাল
প্রশান্ত তাম্রকর
চিত্রগ্রাহকনবরাজ উপ্রেতি
সম্পাদকদির্ঘা রাজ খড়কা
প্রযোজনা
কোম্পানি
সুপার কাজল ফিল্মস
মুক্তি
  • ১ মার্চ ২০১৯ (2019-03-01) (Nepal)
দেশনেপাল
ভাষানেপালি
নির্মাণব্যয়টেমপ্লেট:Nepalese rupeeকোটি
আয়টেমপ্লেট:Nepalese rupeeকোটি

ক্যাপ্টেন (নেপালি: क्याप्टेन; এর চিপ্পি ক্যাপ্টেন: ম্যাচ বিগনিং সুন দ্বারাও পরিচিত) ২০১৯ সালে মুক্তি পাওয়া নেপালি ক্রীড়া নাট্য চলচ্চিত্র। এটি পরিচালনা করেছেন দিবাকর ভট্টারাই, সামিপ্য রাজ তিমলসেনা, সাগর খারেল, ব্রজেশ খানাল এবং প্রযোজনা করেছে ভুবন কে.সি. ও জিয়া কে.সি. ছবিটি সুপার কাজল ফিল্মসের ব্যানারে নির্মিত হয়েছে। এতে অভিনয় করেছেন আনমল কে.সি., সুনীল থাপা, সরোজ খানাল, উইলসন বিক্রম রায়, উপসানা সিং ঠাকুরী, প্রিয়াঙ্কা এমভি, এবং প্রশান্ত তাম্রকর প্রমুখ। এই ছবিটি একটি কিশোরের কাঠিনীকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে, কিশোরটি ফুটবলে তার বাবার পদানুসরণ করতে সংগ্রাম করে যায়। ছবিটি ঝাপা এবং ইলাম অঞ্চলে চিত্রায়িত করা হয়েছে।[১] এটি ২০১৯ সালের ১ মার্চ নেপালে মুক্তি পায়।[২][৩] এটি এর কাহিনীবিন্যাস, ভিজ্যুয়াল বিশেষ আবহ এবং বিষণ্ন অভিনয়ের কারণে দর্শকদের কাছ থেকে মিশ্র প্রতিক্রিয়া এবং সমালোচকদের কাছ থেকে বেশিরভাগ প্রতিকূল প্রতিক্রিয়া পায়। এটি বক্স অফিসে গড় মানের নিচে মান অর্জন করে এবং দ্বিতীয় সপ্তাহান্তের পরে এটির প্রদর্শণী বন্ধ হয়ে যায়।

কাহিনী সংক্ষেপ[সম্পাদনা]

মদন খড়কা (সরোজ খানাল) একজন প্রতিভাবান ফুটবলার ছিলেন, তবে ফুটবল তার পরিবারকে সহায়তা করতে পারেনি, তাই তিনি কাজের সন্ধানে সৌদি আরব যান। তার ছেলে ইশান (আনমল কে.সি.) তার বাবার পদানুসরণ করে এবং পেশাদার ফুটবলার হতে চায়। বিদেশে কোন এক দুর্ঘটনায় তার বাবা যখন আহত হয়, তখন পরিবারকে সহায়তা করার জন্য ইশান তার পেশা চালিয়ে যাবে না অন্য কোন কাজ করবে তা নিয়ে দ্বন্দ্বের মুখোমুখি হয়।

অভিনয়ে[সম্পাদনা]

  • আনমল কে.সি. - ইশান খড়কা চরিত্রে[৪]
  • উপসানা সিং ঠাকুরী - শ্রেয়া চরিত্রে[৫]
  • প্রিয়াঙ্কা এমভি - চারু চরিত্রে[৬][৭]
  • সুনীল থাপা - কোচ চরিত্রে[৮]
  • প্রশান্ত তাম্রকর - ইমাম বিক্রম থাপা চরিত্রে[৮]
  • সরোজ খানাল - মদন খড়কা (ইশানের বাবা) চরিত্রে[৯]
  • ভুবন কে.সি. ("কার্লি কার্লি কপাল" এ ক্যামিও উপস্থিতি)[১০]
  • নিরুতা সিং ("কার্লি কার্লি কপাল" এ ক্যামিও উপস্থিতি)[১১]

সঙ্গীত[সম্পাদনা]

নং.শিরোনামগীতিকারসুরকারগায়ক(সমূহ)দৈর্ঘ্য
১."রাহার ছা সাংগাই"দিগজ ধৌরালিঅর্জুন পোখারেলঅঞ্জু পান্তা, সুগম পোখারেল৪:৪৫
২."কার্লি কার্লি কপাল"হার্কা সাউদ, মনীষ ঢাকালএসডি যোগী, সুশান্ত গৌতমমেলিনা রায়, এসডি যোগী৩:৫৪
৩."সাকদিনাকি বাচনা"দিগজ ধৌরালিঅর্জুন পোখারেলসুমন কে.সি., দীপা লামা৩:১৫

বিপণন[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্রের পোস্টার ২০১৮ সালের আগস্টে প্রকাশিত হয়, পোস্টারে প্রধান অভিনেতা আনমল কে.সি. কে তুলে ধরা হয়[১২] এবং ম্যাচ শীঘ্রই শুরু হবে চিপ্পি লাগানো হয় ।[১৩] ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে একটি ট্রেলার প্রকাশিত হয়।[১৪]

প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

বক্স অফিস[সম্পাদনা]

ক্যাপ্টেন চার দিনের মধ্যে বক্স অফিসে আয় করে ২.৮৫ কোটি নেপালি রুপি (रू২৮.৫ মিলিয়ন)।[১৫] তবে এর দ্বিতীয় সপ্তাহান্তের মধ্যে ছবিটি ৪.৫০ কোটি নেপালি রুপি (रू৪৫ মিলিয়ন) উপার্জন করে এবং এর প্রদর্শনী বন্ধ হয়ে যায়।[১৬]

সমালোচনা[সম্পাদনা]

ক্যাপ্টেন সমালোচকদের কাছ থেকে খুব কম সমালোচনা পায়। দ্য কাঠমান্ডু পোস্টের অভিমন্যু দীক্ষিত চলচ্চিত্রটিকে “অনভিপ্রেত ব্যঙ্গচিত্র” বলে মন্তব্য করেন এবং এটিকে পাঁচের মধ্যে মাত্র এক নম্বর দিয়ে বলেন: “ভুবন দা, এটি একটি আন্তরিক কাকুতি। কিন্তু আপনার দর্শক আপনার চিন্তার চেয়ে বেশি পরিণত। দয়া করে এর পরের বার বিচক্ষণ কিছু উপহার দিয়ে আমাদের বিস্মিত করে দিন।”[১৭] অনলাইনখবর এর দেওয়াকর পিয়াকুরেল লিখেছেন:“অভিনেতা আনমল কেসি নির্মাতাদের গল্প বুঝতে পারেনি” এবং ছবিটিকে পাঁচের মধ্যে দুই নম্বর দিয়ে বলেছেন: “ক্যাপ্টেন অন্যান্য ক্রীড়া ঘরণার চলচ্চিত্রের ভবিষ্যতের পত্রোদ্গত হওয়ার উদাহরণ হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে ব্যর্থ হয়েছে। পরিবর্তে সাধারণ খেলোয়াড়দের মতো এটি আলো ছড়ারবার জন্য কিছু ব্যর্থ চেষ্টা করেছে।”[১৮] ছবিটি নেপালের প্রধানমন্ত্রী খড়্গ প্রসাদ ওলীর কাছ থেকে ইতিবাচক সমালোচনা পেয়েছিল, তিনি বলেন: “ছবিটি বুদ্ধিদীপ্ত এবং এটি দেশপ্রেম, বিনোদন সহ একটি সামাজিক বার্তা ...আমাদের এমন বিষয়বস্তু দরকার, যা নেপালি চলচ্চিত্র শিল্পকে উৎসাহিত করতে পারে।”[১৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "The Next Anmol KC film a football drama"kathmandupost.ekantipur.com (English ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২১ 
  2. "Anmol KC Starrer CAPTAIN Gets Release Date, Hollywood's CAPTAIN MARVEL Follows Next Week" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১০ 
  3. "Captain"Captain। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২১ 
  4. "को बन्छ करोडपतिमा अनमोल केसी पुग्दा राजेश हमालले सुनाए यस्तो जोक | राजेश हमाललाई अनमोलले ट्वाइलेटमा देखेको खुलासा ( हेर्नुस रमाइलो अन्तर्वार्ता )"Latest News Updates। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২৪ 
  5. "Anmol KC; New Movie, New Actress, Upasana Singh Thakuri"Nepali Movies, films (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-১২-২৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২৪ 
  6. "It's Final! Anmol KC has two leading ladies in Captain" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২৪ 
  7. "फिल्म समीक्षाः मैदानबाहिर बहकिएको 'क्याप्टेन'"Online Khabar (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-১৯ 
  8. "Will Prasant Tamrakar And Sunil Thapa Team Up As Villains For Anmol KC's Captain?" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২৪ 
  9. "Anmol KC Reaches Ilaam For CAPTAIN shoot, Here's The Detail :" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২৪ 
  10. "Anmol KC, Niruta Singh and Bhuwan KC rock the floor in 'Curly Curly Kapal'. Watch song:"THE CINEMA TIMES (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০২-১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২৪ 
  11. "Watch: The KC Men Dance With Niruta On 'Curly Curly Kapal' From Captain"Street Nepal (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২৪ 
  12. "Poster Alert! Anmol KC Releases A Brand New Poster Of CAPTAIN" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২১ 
  13. "Anmol KC upcoming film Captain first look poster says – Match beginning soon"Nepali Movies, films (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-০৮-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২১ 
  14. Republica। "Captain trailer releases"My City (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২১ 
  15. "Box Office : CAPTAIN Cruises With Rs. 2.85 Crore Gross, THE BREAKUP Is Struggling" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২১ 
  16. "Captain Scores Fourth Century In Second Weekend Debut: Box Office" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২১ 
  17. "An unintentional parody"The Kathmandu Post। সংগ্রহের তারিখ ২১ মার্চ ২০১৯ 
  18. "Captain movie review: This Anmol KC starrer is a story of makers' misses – OnlineKhabar" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৩-২১ 
  19. "What PM Oli Said After Watching The Movie Captain?" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-০১ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]