ক্যাটস আই (মাঙ্গা)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ক্যাটস আই
ক্যাটস আই (মাঙ্গা).jpg
জাম্প কমিকস সংস্করণের অষ্টম খণ্ডের প্রচ্ছদে চিত্রিত ক্যাটস আইয়ের কিসুগি পরিবারের তিন।
キャッツ アイ
(Kyattsu Ai)
ধরনমারপিটধর্মী, অপরাধ, রহস্য[১][২]
মাঙ্গা
লেখকসুকাসা হোজো
প্রকাশকশুয়েশা
মুদ্রণজাম্প কমিক্স
ম্যাগাজিনসাপ্তাহিক শৌনেন জাম্প
জনতাত্ত্বিকশৌনেন
আসল চলিত১৬ জুন ১৯৮১১৫ জানুয়ারি ১৯৮৫
খণ্ড১৮ (খণ্ডের তালিকা)
অ্যানিমে টেলিভিশন ধারাবাহিক
পরিচালকইয়োশিও তাকেওচি
প্রয়োজক
  • নোরিও হাতসুকাওয়া
  • শুনজো কাতো
সঙ্গীতকাজুও ওটানি
স্টুডিওটোকিও মুভি শিনশা
লাইসেন্সকারী
মূল নেটওয়ার্কনিপ্পন টিভি
ইংরেজি নেটওয়ার্ক
আসল চালিত ১১ জুলাই ১৯৮৩ ২৬ মার্চ ১৯৮৪
পর্ব৩৬ (পর্বের তালিকা)
অ্যানিমে টেলিভিশন ধারাবাহিক
ক্যাটস আই ২
পরিচালককেনজি কোডামা
প্রয়োজক
  • নোরিও হাতসুকাওয়া
  • শুনজো কাতো
সঙ্গীতকাজুও ওটানি
স্টুডিওটোকিও মুভি শিনশা
লাইসেন্সকারী
মূল নেটওয়ার্কনিপ্পন টিভি
আসল চালিত ৮ অক্টোবর ১৯৮৪ ৮ জুলাই ১৯৮৫
পর্ব৩৭ (পর্বের তালিকা)
মাঙ্গা
ক্যাটস আই
লেখকসাকুরা নাকামেগুরো
অঙ্কনশিল্পীশিন আসাই
প্রকাশকতোকুমা শোতেন
ম্যাগাজিনমাসিক কমিক জেনোন
জনতাত্ত্বিকসেইনেন
আসল চলিত২৫ অক্টোবর ২০১০২৫ জানুয়ারি ২০১৪
খণ্ড
লাইভ-অ্যাকশন চলচ্চিত্র
প্রবেশদ্বার আইকন আনিমে এবং মাঙ্গা প্রবেশদ্বার

ক্যাটস আই (জাপানি: キャッツ♥アイ, হেপবার্ন: Kyattsu Ai, CAT'SEYE হিসেবেও লেখা হয়) সুকাসা হোজো দ্বারা লিখিত ও চিত্রিত একটি জাপানি মাঙ্গা ধারাবাহিক। এটি ১৯৮১ থেকে ১৯৮৫ সাল পর্যন্ত সাপ্তাহিক শোনেন জাম্প-এ প্রকাশ করা হয়েছিল এবং শুয়েশা দ্বারা ১৮টি টাঙ্কোবন-এ সংগ্রহ করা হয়েছিল। গল্পটি তিনজন কিসুগি বোন — হিতোমি, রুই এবং আই-দের দুঃসাহসিক কাজ তুলে ধরে, যারা শক্তিশালী শিল্প চোর হিসেবে তাদের নিখোঁজ বাবার সমস্ত সৃষ্টিকর্ম সংগ্রহ করার চেষ্টা করে।

মাঙ্গাটি অবলম্বনে একটি টেলিভিশন অ্যানিমে ধারাবাহিক তৈরি করা হয়েছিল যা মূলত ১৯৮৩ থেকে ১৯৮৪ পর্যন্ত নিপ্পন টিভিতে সম্প্রচারিত হয়, যা দ্বিতীয় মরসুম সমেত ১৯৮৫ সালে শেষ হয়েছিল। এর দুটি অভিযোজিত কর্মও রয়েছে; ১৯৮৮ সালে একটি টেলিভিশন চলচ্চিত্র এবং ১৯৯৭ সালে একটি হলে মুক্তিপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র

ক্যাটস আই হল সাপ্তাহিক শোনেন জাম্প-এর সর্বকালের সেরা-বিক্রীত মাঙ্গা ধারাবাহিকের মধ্যে একটি যার ২ কোটিরও অধিক কপি বিক্রি হয়েছে।[৩] কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, ফিলিপাইন এবং চীন সহ জাপানের বাইরে বেশ কয়েকটি দেশেও এনিমে প্রচারিত হয়েছে। ২০০৭ সালে ইমাজিনেশিয়ান অ্যানিমেটির প্রথম মরসুম সম্প্রচার করে, তারপর ধারাবাহিকটির প্রথমার্ধকে প্রথমনারের মত উত্তর আমেরিকার ঘরোয়া ভিডিও প্রকাশ করে। রাইট স্টাফ ইনক. ঘোষণা করে যে তারা ২০১৩ সালে সম্পূর্ণ ধারাবাহিকটির লাইসেন্স কিনে নিয়েছে এবং এটি তাদের নোজোমি শিরোনামে ডিভিডি যোগে প্রকাশ করবে।[৪] পুরো অ্যানিমে ধারাবাহিকটি উত্তর আমেরিকায় দুটি ডিভিডিতে ২০১৪ সালের জুলাই ও নভেম্বরে প্রকাশিত হয়েছিল। ২০১৯-এর এপ্রিলে ঘোষণা করা হয় যে রাইট স্টাফের লাইসেন্সের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গেছে।[৫]

শিঙ্গো আসাই দ্বারা আঁকা সিরিজের একটি রিমেক মাঙ্গা, যার শিরোনামও ছিল ক্যাটস আই (কানজিতে "ভালোবাসা", যা কখনও কখনও 'ক্যাটস আই' হিসাবে উল্লেখ করা হয়), টোকুমা শোটেন'র মাসিক কমিক জেনন সংকলনের প্রথম সংখ্যায় প্রকাশ করা শুরু করে, যা ২৫ অক্টোবর, ২০১০-এ প্রকাশিত হয়েছিল।[৬] এটি আটটি ট্যাঙ্কবোন খণ্ড নিয়ে ২৫ জানুয়ারী, ২০১৪ পর্যন্ত ধারাবাহিকভাবে প্রকাশ করা হয়েছিল।[৭][৮]

পটভূমি[সম্পাদনা]

হিতোমি কিসুগি, তার বড় বোন রুই এবং ছোট বোন আইয়ের সাথে টোকিওতে "ক্যাটস আই" নামক একটি ক্যাফে চালায়। তিন বোনেরা পরিচয় গোপন রেখে জীবনযাপন করে যারা অত্যন্ত দক্ষ শিল্প চোর হিসেবে তাদের নিখোঁজ পিতা মাইকেল হাইঞ্জের শিল্পকর্ম চুরি করে যিনি নাৎসি শাসনের সময় একজন জনপ্রিয় শিল্প সংগ্রাহক ছিল। হিতোমির বাগদত্তা হল তোশিও উৎসুমি, একজন আনাড়ি তরুণ পুলিশ অফিসার যে ক্যাটস আইয়ের একজন তদন্ত কর্মকর্তা। ক্যাফেতে ঘন ঘন আসা যাওয়া সত্ত্বেও সে ওই তিন মেয়েদের দ্বৈত জীবন সম্পর্কে অবগত নয়। হিতোমি নিয়মিতভাবে "ক্যাটস আই" কলিং কার্ড পাঠিয়ে তার পরবর্তী চুরি সম্পর্কে পুলিশকে আগে থেকেই অবহিত করে এবং তারপর কাজের পরিকল্পনা করতে সাহায্য করার জন্য লক্ষ্যের চারপাশের নিরাপত্তা সম্পর্কে তোশিওর তথ্যকে ব্যবহার করে।

ধারাবাহিকের শেষের দিকে, হাইঞ্জ তার মেয়েদের জন্য একটি চিঠি রেখে যায় যাতে বলা হয় যে সে এখনও নিজেকে প্রকাশ করতে পারবে না কেননা মাফিয়ারা তাকে হত্যা করতে পারে, কিন্তু সে পাঁচ বছরের মধ্যে ফিরে আসে। যাইহোক, পরবর্তীতে জানা যায় সেই "হাইঞ্জ" আসলে বোনদের বিশ্বাসঘাতক চাচা ক্রানফ, যে কয়েক বছর আগে মাইকেলের সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করেছিল। ক্যাটস আইয়ের কাছে একটি চূড়ান্ত বাজি হারার পর ক্রানফ তার পাপের প্রায়শ্চিত্ত করতে নিজের জাদুঘরে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যা করার সিদ্ধান্ত নেয়। হিতোমি শেষ পর্যন্ত তোশিওর কাছে স্বীকার করে সে ক্যাটস আইয়ের সদস্য এবং সে তাকে গ্রেফতার করার আগেই পালিয়ে যায়। তোশিও তাকে খুঁজে বের করার অঙ্গীকার করে এবং হিতোমিকে বিমানবন্দরে বিয়ের আংটি সহ "গ্রেপ্তার" করার চেষ্টা করে। সে পুলিশ বাহিনী থেকে পদত্যাগ করে এবং হিতোমিকে খুঁজতে যুক্তরাষ্ট্রে যায়, কিন্তু সেখানে গিয়ে দেখতে পায় যে ভাইরাল মেনিনজাইটিস এর কারণে হিতোমি নিজের স্মৃতিশক্তি হারিয়ে ফেলেছে। তোশিও তার স্মৃতি ফিরে না আসা পর্যন্ত তার সাথে সময় কাটায় এবং দুজন নিজেদের সম্পর্ককে আবার জাগিয়ে তোলে।

চরিত্র[সম্পাদনা]

হিতোমি কিসুগি (来生 瞳, কিসুগি হিতোমি, ২৪ বছর)
কণ্ঠ দিয়েছেন: কেইদো তোদা (জাপানি); অ্যালেক্সিস টিপটন (সিটি হান্টার: শিনজুকু প্রাইভেট আইজ) (ইংরেজি) [৯]
হিতোমি ধারাবাহিকের প্রধান চরিত্র। মাইকেল হাইঞ্জের দ্বিতীয় কন্যা, যে ক্যাটস আইয়ের সদস্য হিসেবে চুরির কাজগুলো করে, তাই অনন্যভাবে দ্য ক্যাটস আই হিসাবে উল্লেখ করা হয়। রুইয়ের মতো সে একজন দক্ষ ক্রীড়াবিদ এবং ঘোড়ার পিঠে চড়া থেকে তালা খোলা পর্যন্ত বিভিন্ন কাজ ও দক্ষতায় পারদর্শী। সে একজন দক্ষ জিমন্যাস্ট এবং সহজে এবং দক্ষতার সাথে জটিল অ্যাক্রোবেটিক চালগুলি সম্পাদন করতে সক্ষম। ন্যূনতম প্রচেষ্টায় সে বেশিরভাগ হাতকড়া এড়াতে সক্ষম হন এবং এটি অনুমান করা হয় যে সে দুশ্চিন্তাপূর্ণতার পাশাপাশি ডবল জয়েন্টেড। সে একজন দক্ষ মার্শাল আর্টিস্ট যার বেশ কয়েকটি বিষয়ে দক্ষতা রয়েছে, বিশেষ করে জুডো, বক্সিংকারাতে, এবং কেন্ডো এবং আইকিডো স্নাতকও রয়েছে। হিতোমি খুব কমনীয়, চতুর, মিষ্টি, ভগিনী, অনুগত, ধূর্ত, ছেনালিপূর্ণ, যত্নশীল এবং দয়ালু।
রুইয়ের মতো হিতোমিও অনায়াসে তার চেহারা ছদ্মবেশে ধারণ করতে সক্ষম এবং আরও কয়েকটি ভাষায় কথা বলতে পারে।
রুই কিসুগি (来生 泪, কিসুগি রুই, ২৭ বছর)
কণ্ঠ দিয়েছেন: তোশিকো ফুজিতা, কেইদো তোদা (সিটি হান্টার: শিনজুকু প্রাইভেট আইজ) (জাপানি); ডউন এম. বেনেট (সিটি হান্টার: শিনজুকু প্রাইভেট আইজ) (ইংরেজি) [৯]
রুই সিরিজের দ্বিতীয় প্রধান চরিত্র। হিতোমির মার্জিত এবং সুরুচিসম্মত বড় বোন রুই হল "ক্যাটস আই" গ্রুপের নেতা এবং পরিকল্পনাকারী যে সাধারণত কৌশলের রূপরেখা দেয় ডাকাতির পরিকল্পনা করে। আদর্শ সুন্দর চেহারা, জাগতিক পরিশীলিততা, এবং একটি ক্ষুর-তীক্ষ্ণ বুদ্ধিমত্তা সহ সে প্রায় যেকোনো পরিস্থিতি সমাধান করতে সক্ষম। সে অত্যন্ত ক্রীড়াপ্রেমী ও কার রেসিং, হ্যাং গ্লাইডিং, প্যারাশুটিং, হেলিকপ্টার পাইলটিং, মোটরসাইকেল চালানো, মার্শাল আর্ট, ইলেক্ট্রনিক্স, হ্যান্ডগান, রোলার স্কেটিং, স্কেটবোর্ডিংস্কুবা ডাইভিং সহ প্রচুর সংখ্যক কার্যকলাপ এবং দক্ষতায় দক্ষ। সে একজন দক্ষ অভিনেত্রী এবং অনায়াসে চেহারা ছদ্মবেশ ধারনে সক্ষম। সে ইংরেজি, ফরাসি এবং জার্মান সহ বেশ কয়েকটি ভাষায় সাবলীল; সে সঠিকভাবে ঠোঁট পড়তে পারেন।
রুই তার বোনদের জন্য অভিভাবক হিসেবে কাজ করে ও তাদের জন্য সুরক্ষার কথা ভাবে। সে হচ্ছে একমাত্র বোন যার বাবা-মায়ের চিরস্থায়ী স্মৃতি রয়েছে।
আই কিসুগি (来生 愛, কিসুগি আই, ১৬ বছর)
কণ্ঠ দিয়েছেন: চিকা সাকামোতো (জাপানি); মেগান শিপম্যান (সিটি হান্টার: শিনজুকু প্রাইভেট আইজ) (ইংরেজি) [৯]
আই সিরিজের তৃতীয় প্রধান চরিত্র। কিসুগিদের ছোট বোন হিসাবে আই সাহসী, গেছো ব্যক্তিত্বের এবং একটি প্রতিভা-স্তরের আইকিউ সহ সে কম্পিউটার প্রোগ্রামিং, ইঞ্জিনিয়ারিং ও মেকানিক্সে বিশেষভাবে পারদর্শী। সে তার বোনদেরকে চুরি করতে সাহায্য করার জন্য যন্ত্রাংশ তৈরি করে। সাধারণ কিশোরী হিসেবে তাকে ব্যস্ত মনে হলেও সে প্রেমে পড়ার স্বপ্নে বিভোর। একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের মেয়ে আইয়ের "টাইগার" নামে একটি পোষা বিড়ালছানা আছে।
যদিও সে তার বোনদের মতো দক্ষ না হলেও, আই নিয়মিতভাবে গাইরোকপ্টার, ট্রাক, মোটরসাইকেল, গাড়ি, মিনি-প্লেন ও হেলিকপ্টার সহ ডাকাতির জন্য যানবাহনের ব্যবস্থা করে। তার সবচেয়ে বড় দুর্বলতা এই যে সে শারীরিকভাবে তিন বোনদের মাঝে সবচেয়ে দুর্বল তবে সেও অনেক চটপটে।
তোশিও উৎসুমি (内海 俊夫, উৎসুমি তোশিও, ২৪ বছর)
কণ্ঠ দিয়েছেন: ইয়োশিতো ইয়াশুহারা
ধারাবাহিকটির প্রধান চরিত্র তোশিও হল হিতোমির হাই স্কুলের প্রিয়তম। হাই স্কুলে থাকাকালীন তোশিও সবসময় একজন পুলিশ গোয়েন্দা হওয়ার স্বপ্ন দেখত এবং একাডেমি থেকে স্নাতক পাওয়ার পর তাকে টোকিওর কেন্দ্রস্থল ইনুনাকি (犬鳴, "ক্রন্দনরত কুকুর") জেলা থানায় নিয়োগ দেওয়া হয়। তোশিও হিতোমিকে বিয়ে করতে চাইলেও প্রতিজ্ঞা করেছিল যে যতক্ষণ না সে ক্যাটস আইদের গ্রেফতার করবে ততদিন সে বিয়ে করবেনা (তবে সে বিয়ের প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে তাকে প্রস্তাব দেয়)।
যদিও কিছুটা আনাড়ি, খুব নির্বোধ, দুর্ভাগ্যজনক এবং রহস্য খুঁজে বের করার ক্ষেত্রে খুব একটা ভালো নয় কিন্তু তার দৃঢ় সংকল্প এবং অদম্য অধ্যবসায় তার কর্মকর্তাদের প্রভাবিত করত। তবে সে খুবই একগুঁয়ে এবং তার প্রধানের সাথে প্রতিনিয়ত তর্ক করে। তোশিও আগ্নেয়াস্ত্র বহন করে না এবং অপরাধীদের সাথে লড়াই করার জন্য তার বুদ্ধি এবং মুষ্টি ব্যবহার করতে পছন্দ করে। সুন্দরী মহিলাদের (বিশেষত স্বর্ণকেশী) প্রতি তার দুর্বলতা রয়েছে এবং এটা ক্রমাগত হিতোমিকে ঈর্ষান্বিত করে তোলে।
বস (課長, কাচো)
কণ্ঠ দিয়েছেন: কেনজি উৎসুমি
তোশিওর বিভাগীয় প্রধান, যে ইনুনাকি থানা এলাকার গোয়েন্দা বিভাগের তত্ত্বাবধান করে। তার সম্পর্কে সত্যিই কিছুই জানা যায় না, এমনকি তার পুরো নামও প্রকাশ করা হয় না। ক্যাটস আই তদন্ত পরিচালনার বিষয়ে সে তোশিওর সাথে ক্রমাগত বিতর্কে লিপ্ত থাকে এবং সুযোগ পেলেই তোশিওকে তিরস্কার করে।
মিতসুকো আসাতানি (浅谷 光子, আসাতানি মিতসুকো, ২৪ বছর)
কণ্ঠ দিয়েছেন: ইয়োশিকো সাকাকিবারা
ক্যাটস আই তদন্তে সহায়তা করার জন্য টোকিও পুলিশ সদর দফতর থেকে তাকে বিশেষ তদন্তকারী হিসেবে পাঠানো হয়। আসাতানি খুব বুদ্ধিমান এবং খুব ধূর্ত ব্যক্তি যাকে টোকিও মেট্রোপলিটন পুলিশ বিভাগের একজন অভিজাত কর্মকর্তা হিসাবে বিবেচনা করা হয়। সে একজন বিশেষজ্ঞ মার্কসউইমেন (সর্ব জাপান এয়ার পিস্তল চ্যাম্পিয়নশিপ বিজিতা) এবং বিভিন্ন মার্শাল আর্ট ফর্মে পারদর্শী, সে কারাতে ৪র্থ ডিগ্রি ব্ল্যাক বেল্ট এবং জুডোতে ২য় ডিগ্রী ব্ল্যাক বেল্ট প্রাপ্ত, যা তাকে হিতোমির চেয়ে বেশি যোগ্যতাসম্পন্ন করে তুলেছে। সে বেশ সুন্দরী, এমনকি ক্যাটস আই ঘটনাগুলোর মাঝে একটিতে বিউটি কুইনের মুকুটও পেয়েছিল। প্রথম ব্যক্তিদের মধ্যে সে একজন যে হিতোমিকে ক্যাটস আই হিসেবে সন্দেহ করেছিল, কিন্তু কখনই নিশ্চিত প্রমাণ খুঁজে পায়নি। তার প্রধান দুর্বলতা হল তাকে সর্বদা প্রেসক্রিপশন চশমা পরতে হবে, কারণ এটা ছাড়া সে কার্যত অন্ধ।
টিভি ধারাবাহিকে কখনও বিশদে না বলা হলেও মাঙ্গায় উল্লেখ করা হয় তোশিওকে সে গোপনে পছন্দ করত, হিতোমির ক্ষোভের ফলে জন্ম নেওয়া সহমর্মিতার ফলস্বরূপ।
মাইকেল হাইঞ্জ (ミケール・ハインツ)
১৯৩০-এর দশকে জার্মানিতে একজন শিশু শিল্পী হাইঞ্জ এতটাই প্রতিভাধর ছিল যে ১০ বছর বয়সে সে তার চিত্তাকর্ষক শিল্প সংগ্রহের সূচনা রচনা করতে শুরু করে, যেটিতে শুধুমাত্র বিস্তৃত চিত্রকর্ম এবং লিথোগ্রাফই নয় বরং এর মধ্যে ছিল একটি এক ধরনের গয়না, ভাস্কর্য এবং ধাতব সৃষ্টিকর্ম। হাইঞ্জ এমনকি চমৎকার বাদ্যযন্ত্র তৈরি করতে সক্ষম হয়েছিল। যেমন হাইঞ্জের কাজগুলি শিল্প সংগ্রাহক এবং গ্যালারির মধ্যে খুব জনপ্রিয় ছিল এবং অনেকেই তার কাজের একটির মালিক হতে প্রচুর পরিমাণে অর্থ প্রদান করত।
যখন নাৎসি দল জার্মানির দখল নিতে শুরু করে, হাইঞ্জ রাজনৈতিক/শৈল্পিক দমনের ভয়ে দেশ ছেড়ে পালিয়ে যায়। বিশ্বজুড়ে ভ্রমণ করে, সে অবশেষে জাপানে বসতি স্থাপন করে, যেখানে একজন তরুণ জাপানি মহিলার সাথে তার দেখা হয় এবং তারা বিয়ে করে। তাদের তৃতীয় কন্যার জন্মের পর, হাইঞ্জ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যায় যেখানে সে রহস্যজনক পরিস্থিতিতে নিখোঁজ হয়ে যায়। তাঁর শিল্পকর্মের বিশাল এবং অমূল্য সংগ্রহ শীঘ্রই নিলামে তোলা হয় এবং সারা বিশ্বে শিল্প ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করা হয়। অবশেষে, অনেকগুলো চিত্র বিভিন্ন ব্যক্তিগত চুক্তির (অনেকটি অপরাধমূলক সম্পর্কযুক্ত) মাধ্যমে জাপানে চলে আসে। পরবর্তী বছরগুলিতে সংগ্রহটি পৃথক করে চুরি করা হয়েছিল, শক্তিশালী নিরাপত্তা সত্ত্বেও নিজেদেরকে "ক্যাটস আই" বলে ডাকা চোরের দল যারা আসলে হাইঞ্জের প্রাপ্তবয়স্ক কন্যারা তার অবস্থান সম্পর্কে সূত্র খুঁজছিল এবং তার প্রতি মনোযোগ আকর্ষণ করার আশা করেছিল।
রুই, হিতোমি এবং আই দেখতে পায় যে তাদের বাবা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে আছেন এবং তারা তাকে খুঁজে বের করতে সেখানে যায়। অবশেষে এটি প্রকাশ পায় যে মাইকেল আসলে বিশ্বাসঘাতকতা করেছিল এবং নির্বাসনে বাধ্য হয়েছিল তার ঈর্ষান্বিত যমজ ভাই ক্রানফ (クラナッフ), যে তখন সিন্ডিকেটের সাথে লাভের জন্য মাইকেলের পরিচয় চুরি করেছিলেন। উদ্ঘাটনের পর বোনদের তার শিল্পকর্ম স্মরণ করার মাধ্যমে তাদের বাবাকে খুঁজে পাওয়ার আশা শেষ হয়ে যায় এবং পরে ক্যাটস আই বন্ধ হয়ে যায়।
সাদাৎসুগু নাগাইশি (永石 定嗣, নাগাইশি সাদাৎসুগু)
কণ্ঠ দিয়েছেন: তামিও অকি
তিন বোনের বিশ্বস্ত এবং তাদের বাবা হেইঞ্জ ও তার স্ত্রীর খুব ভাল বন্ধু। নাগাইশি ক্যাটস আইয়ের কাজের জন্য বিশদ তথ্য সরবরাহ করে এবং তাদের যেকোন হার্ডওয়্যার এবং/অথবা অন্যান্য অত্যাধুনিক সরঞ্জাম প্রদানে সহায়তা করে যা তাদের প্রয়োজন হতে পারে কিন্তু আইয়ের পক্ষে সম্ভব নয়। তার অতীত জীবন একটি রহস্য কিন্তু বলা যায় সে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্য ছিল কারণ তার কিছু সামরিক দক্ষতা রয়েছে।
কাজুমি (和美)
কণ্ঠ দিয়েছেন: চিয়োকো কাওয়াশিমা
আইয়ের স্কুলের এক ছাত্রী যে টেলিলেন্স দিয়ে চাঁদের ছবি তোলার সময় হিতোমির ছবি তুলেছিল। পরে সে তার এক বন্ধুর কাছে গর্ব করেছিলেন যে সে ক্যাটস আইয়ের ছবি তুলেছে, আই (যে খবরটি শুনে ফেলেছিল) আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। কাজুমি ক্যাটস আইদের আসল পরিচয় বের করার জন্য দৃঢ়প্রতিজ্ঞ হয়ে ওঠে এবং তার ক্যামেরা নিয়ে ক্যাটস আই-এর পরবর্তী লক্ষ্য স্থানে যাওয়ার পরিকল্পনা করে। সে ক্যাটস আইয়ের পিছনের দিকে একটি ভাল ছবি তুলেছিল এবং ভেবেছিল হিতোমির সাথে ছবির মানুষটির খুব ভাল মিল পাওয়া যায় এবং যখন সে হিতোমিকে পার্কে খেলতে দেখে তখন সে এই ব্যাপারে আরও নিশ্চিত হয়। আসাতানিও তা লক্ষ্য করে এবং কাজুমির কথা বিশ্বাস করে। তার বাবা দূরে থাকার কারণ দেখিয়ে (কেননা একটি অল্পবয়সী মেয়ের জন্য বাড়িতে একা থাকা অনিরাপদ), কাজুমি কিসুগির বাড়িতে আসে এবং আই তাকে রাত থাকতে দেয়। যাই হোক, কিসুগি বোনেরা ধূর্ততার সাথে কাজুমির সন্দেহ দূর করে দেখায় যে হিতোমি ক্যাটস আইয়ের চুরি করার সময় বাড়িতেই ছিল।

সিটি হান্টার-এর সাথে সম্পর্ক[সম্পাদনা]

অ্যাঞ্জেল হার্টের বিপরীতে (যেখানে সিটি হান্টারের চরিত্রগুলি থাকা সত্ত্বেও গল্পটি বিকল্প মহাবিশ্বে সাজানো), ক্যাটস আই এবং সিটি হান্টার ধারাবাহিকের কাহিনী উভয়ই একই মহাবিশ্বে সাজানো হয়েছে। সিটি হান্টারের প্রধান চরিত্র রিও সায়েবা তাদের ব্যাপারে অবগত। তাদের সাথে রিওর শত্রুতাও রয়েছে কেননা সে ক্যাটস আইদের ধরতে পুলিশকে সহায়তা করছিল। সিটি হান্টার ও ক্যাটস আইদের মাঝে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকে সত্ত্বেও, অপরাধীদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে তাদের ঐক্যবদ্ধ একটি দুর্দান্ত দল। সিটি হান্টার দ্য মুভি: শিনজুকু প্রাইভেট আইজ-এ রিওকে উদ্ধারে কিসুগি বোনেরা এগিয়ে আসে যখন রিও তার শত্রুকে পরাজিত করতে গিয়ে বিপদে পড়েছিল।

মাধ্যম[সম্পাদনা]

মাঙ্গা[সম্পাদনা]

সুকাসা হোজো'র ক্যাটস আই ১৯৮১ থেকে ১৯৮৫ সাল পর্যন্ত সাপ্তাহিক শোনেন জাম্প-এ ধারাবাহিকভাবে প্রকাশ করা হয়েছিল, যার অধ্যায়গুলি ১৮টি টাঙ্কোবন দ্বারা সংগৃহীত হয়েছিল। শুয়েশা। এটি পরবর্তীতে ১৯৯৪ সালে ১০টি আইজোবান, ১০টি বুঙ্কোবান হিসেবে ১৯৯৬ সালে পুনরায় প্রকাশ করার পাশাপাশি ২০০৫-২০০৬ এর মধ্যে ১৫টি আইজকানজেনবান হিসেবে প্রকাশিত হয়েছিল। আইজকানজেনবান প্রকাশিত কমিকগুলো শুয়েশার পরিবর্তে তোকুমা শোতেন দ্বারা প্রকাশিত হয়েছিল।

এছাড়াও মাঙ্গাটি দেশীয়ভাবে বেশ কয়েকটি বিদেশী দেশে প্রকাশিত হয়েছিল, যেমন ইতালিতে স্টার কমিক্স, ফ্রান্সে টোঙ্কাম এবং মালয়েশিয়ায় কমিক্স হাউস দ্বারা।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

অন্যান্য বই[সম্পাদনা]

১৯৯৬ সালের ডিসেম্বর মাসে হিদেও তাকায়াশিকি রচিত ক্যাটস আই উপন্যাস প্রকাশিত হয়। আইএসবিএন ৪-০৮-৭০৩০৫৫-৫

২০০০ সালের ২২ মার্চে প্যারোট: ধন্য ব্যক্তি—সুকাসা হোজোর ছোটগল্প সংগ্রহ (Parrot 幸福の人—北条司短編集, Parotto: Kōfuku no Hito—Hōjō Tsukasa Tanpenshū) প্রকাশিত হয়। ফুতোশি নাগাতার ডিজিটাল অঙ্কন সহ বইটির লেখক ছিলেন সুকাসা হোজোআইএসবিএন ৪-০৮-৮৫৭০৪০-৫

অ্যানিমে[সম্পাদনা]

ক্যাটস আই অবলম্বনে টোকিও মুভি শিনশা একটি অ্যানিমে ধারাবাহিক নির্মাণ করে যা ইয়োশিও তাকেউচি পরিচালনা করেছিল। এর ৩৬টি পর্ব ১১ জুলাই, ১৯৮৩ থেকে ২৬ মার্চ, ১৯৮৪ পর্যন্ত সম্প্রচার করা হয়েছিল।[১০]

পরবর্তীতে এর দ্বিতীয় ধারাবাহিকটি তৈরি করা হয় যা ৮ অক্টোবর, ১৯৮৪ থেকে ৮ জুলাই, ১৯৮৫ পর্যন্ত ৩৭টি পর্ব সম্প্রচার করা হয়।[১১]

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

২৭ আগস্ট ১৯৯৭-এ অভিযোজিত লাইভ-অ্যাকশন চলচ্চিত্র ক্যাটস আই মুক্তি পায়। ছবিটি পরিচালনা করেছেন কাইজো হায়াশি এবং অভিনয় করেছেন ইউকি উচিদানোরিকা ফুজিওয়ারা। ক্যাটস আই সিক্রেট নামে চলচ্চিত্রটির নির্মাণ প্রামাণ্যচিত্র তৈরি করা হয়েছিল।

২০১৯ সালে কিসুগি বোনেরা অ্যানিমেটেড ফিল্ম সিটি হান্টার দ্য মুভি: শিনজুকু প্রাইভেট আইজ-এ উপস্থিত হয়েছিল। চিকা সাকামোতো এবং কেইকো টোডা আশির দশকের অ্যানিমে ধারাবাহিক থেকে আই এবং হিতোমি হিসাবে তাদের নিজ নিজ ভূমিকার পুনঃপ্রবর্তিত হয়, ২০১৮ সালে তোশিকো ফুজিতার মৃত্যুর কারণে টোডাও রুইয়ের কণ্ঠ দেয়।[১২]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Moody, Allen। "Cat's Eye"THEM Anime Reviews। সংগ্রহের তারিখ মে ১২, ২০২০ 
  2. "Cat's Eye Season 2 DVD Collection"। Nozomi Entertainment। জুলাই ১৭, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুন ১৮, ২০১৭ 
  3. "劇団ゲキハロ「キャッツ・アイ」"Moon-light। জুলাই ২৭, ২০১২। সংগ্রহের তারিখ মে ১, ২০২১ 
  4. "Right Stuf Adds Cat's Eye, Princess Nine, Campanella, Sengoku Collection Anime"। Anime News Network। সংগ্রহের তারিখ ৫ জুলাই ২০১৩ 
  5. Hodgkins, Crystalyn (এপ্রিল ২০, ২০১৯)। "Right Stuf's License for Cat's Eye Anime Expires"Anime News Network। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ২০, ২০১৯ 
  6. "Cat's Eye returns in Comic Zenon" (জাপানি ভাষায়)। Comic Natalie 
  7. "Cat's Eye Remake Manga Ending This Month"Anime News Network। জানুয়ারি ৫, ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ জানুয়ারি ৫, ২০২০ 
  8. "Archived copy" キャッツ♥愛 (জাপানি ভাষায়)। Comic-zenon.jp। সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুন ১৯, ২০১৪ 
  9. "City Hunter: Shinjuku Private Eyes" 
  10. "キャッツアイ(1)"। Tvdrama-db। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৪ 
  11. "キャッツアイ(2)"। Tvdrama-db। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৪ 
  12. "Three Kisugi Sisters from Cat's Eye Make Special Appearance in New City Hunter Film" 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]