কুনাল বসু

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কুনাল বসু
Kunal Basu - Kolkata 2014-01-31 8198 Cropped.JPG
জন্ম (1956-05-04) ৪ মে ১৯৫৬ (বয়স ৬৪)
কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত
পেশাঅক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাইড বিজনেস স্কুল-এ মার্কেটিং বিষয়ে শিক্ষকতা করেন
দাম্পত্যসঙ্গীসুস্মিতা বসু
ওয়েবসাইট
https://www.kunalbasu.com

কুনাল বসু ইংরেজি কথাসাহিত্যের একজন ভারতীয় লেখক। তার লেখা পাঁচটি উপন্যাস – দি ওপিয়াম ক্লার্ক (২০০১), দি মিনিয়েচারিস্ট (২০০৩), র‍্যাসিস্টস (২০০৬), দি ইয়েলো এম্পেরর'স কিওর (২০১১) এবং কলকাতা (২০১৫)।[১] এছাড়া তিনি প্রচুর ছোটগল্প লিখেছেন, জাপানি ওয়াইফ (২০০৮), শিরোনামে লেখা তার গল্পের উপর ভিত্তি করে ভারতীয় চলচ্চিত্র নির্মাতা অপর্ণা সেন একটি চলচ্চিত্র নির্মাণ করেছেন একই শিরোনামে।

জীবন বৃত্তান্ত[সম্পাদনা]

কুনাল বসু কলকাতায় সুনীল কুমার বসুু (একজন সাহিত্যিক ও প্রকাশক এবং ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির অন্যতম প্রথম সদস্য) এবং ছবি বসুুর (একজন লেখক ও অভিনেত্রী) সন্তান হিসাবে জন্মগ্রহণ করেন। কমিউনিস্ট পরিবারে জন্ম হওয়ার দরুন তিনি বই পড়ায় উত্সাহিত ছিলেন। বাড়িতে বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বদের  যাতায়াতের ফলে সমৃদ্ধ কথোপকথন ছিল।

এরই মধ্যে তিনি একটি বিজ্ঞাপন সংস্থায় কাজ করেন, ফ্রিল্যান্স সাংবাদিকতার, চলচ্চিত্র নির্মাণের মধ্যে ডাৱলেড, এবং ১৬ মাসের একটি সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন। ১৯৮২ সালে তিনি সুস্মিতার সঙ্গে মিলিত হন এবং বিবাহ করেন। এরপর তাদের কন্যা, অপরাজিতা জন্মগ্রহণ করেন।

তার ডক্টরেট ডিগ্রির পর, তিনি ১৯৮৬-১৯৯৯ সাল পর্যন্ত কানাডায় ম্যাকগ্রিল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ছিলেন। ম্যাকগিলের ১৩ বছর অধ্যাপনার মধ্যে তিনি ১৯৮৯ সালে কলকাতার ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অব ম্যানেজমেন্ট-এ সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য ফিরে আসেন। ১৯৯৯ সাল থেকে, তিনি অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির সৈদ বিজনেস স্কুলে শিক্ষাদান করছেন। তিনি ব্যবসায়িক প্রকাশনাগুলির জন্য ফাস্ট কোম্পানি এবং এমআইটি স্লওন ম্যানেজমেন্ট রিভিউ-এর মতো বিত্ত বিষয়ক নিবন্ধও লিখেছেন।

প্রভাব এবং বিষয়[সম্পাদনা]

কুনাল বসু ইংরেজি কথাসাহিত্যের খুব অল্প সংখ্যক ভারতীয় লেখক বা অনুশীলনকারীদের মধ্যে একজন। ইতিহাসের ভালোবাসার পাশাপাশি তার প্রিয় লেখক, বাঙালি ঔপন্যাসিক বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায় (১৮৩৮-৯৪)-এর প্রভাব রয়েছে তার লেখনিতে। বঙ্কিমচন্দ্র (নিজে প্রচন্ডভাবে ওয়াল্টার স্কট দ্বারা প্রভাবিত), ঐতিহাসিক উপন্যাস লেখক ছিলেন, ১৯তম ও ২০তম শতাব্দিতে অন্যান্য অনেক বাংলা লেখকদের মত; তখন কুনাল বসু একজন শিশু হিসাবে রমেশ চন্দ্র দত্ত এবং শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়েরও পাঠক ছিলেন। কিন্তু তিনি বলেছেন "ঐতিহাসিক উপন্যাসে রোমান্টিক সম্ভাবনা" এই ধারাটি তাকে সবচেয়ে আকর্ষণ করে। কুনাল বসু আফিম ব্যবসায় নিয়ে প্রথম ভারতীয় উপন্যাস লেখক। ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক ইতিহাসের এই অংশটি আজকাল ব্রিটিশ ইতিহাস পাঠ্যবইগুলিতে উপেক্ষা করা হয়।

আবারও, দা মিনিয়েচারিস্ট ভারতীয়-ইংরেজি কাহিনীতে মুগল আদালত প্রথমবারের মত উপস্থাপিত হয়। কুনাল বসুর মধ্যে সবসময় মুঘল ইতিহাসের প্রতি একটি দুর্দান্ত মোহ ছিল। সেই ঐতিহ্যবাহী স্বার্থে আগরা ও ফতেহপুর সিক্রীের কয়েকটি ভ্রমণের সাহায্যে তিনি ১৬ শতকের সংস্কারের পুনরাবৃত্তি করতে সাহায্য করে।

কুনাল বসু দ্বারা এই মুসলিম উপন্যাস অনুসরণ করা হয় রেসিস্টস'য়ে। এটি এমন একটি বই যেখানে একটি একক ভারতীয় চরিত্র ছিল না। এটি একটি অ-শ্বেতাঙ্গ দ্বারা লেখা প্রথম ভিক্টোরিয়ান উপন্যাস এবং ক্রসওয়ার্ড বুক অ্যাওয়ার্ডের জন্য মনোনীত হয়েছিল।

বসু বলেছিলেন যে, তার কাজের মধ্যে 'গভীর' ('পৃষ্ঠতলের' বিপরীত) আত্মজীবনী অবশ্যই আছে, এবং ১৯ শতকের তরুণ বঙ্গের সদস্য মাহিম - এই চরিত্রটি তার নিকটতম এক ব্যক্তির। তার প্রথম উপন্যাসের গল্প আংশিকভাবে তার জন্মের শহর নিয়ে গড়ে উঠেছে - যদিও তার উপন্যাসের গল্পটি তার জন্মের ১০০ বছর পূর্বের কলকাতার ছিল।

গ্রন্থপঞ্জী[সম্পাদনা]

উপন্যাস[সম্পাদনা]

  • দি ওপিয়াম ক্লার্ক (২০০১)
  • দি মিনিয়েচারিস্ট, ২০০৩
  • রেসিস্টস, ২০০৬
  • দি ইয়েলো এম্পেরর'স কিওর (২০১১)
  • কলকাতা, ২০১৫

ছোট গল্প[সম্পাদনা]

  • জাপানি ওয়াইফ (২০০৮)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Kunal Basu Books: কুনাল বসু এর বই সমূহ"। সংগ্রহের তারিখ ২৪ মার্চ ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]