কুইলি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
কুইলি
জন্ম১৭০০-এর দশক, কুদঞ্চাবাদী, শিবগঙ্গা জেলা, তামিলনাড়ু
মৃত্যু১৭৮০, শিবগঙ্গাই

কুইলি ছিলেন রানি ভেলু নাচিয়ারের একজন সেনা সর্বাধিনায়ক। রানির সঙ্গে তিনি ১৮ শতকে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির বিরুদ্ধে অভিযানে অংশগ্রহণ করেছিলেন। কুইলি ছিলেন একজন বীর যোদ্ধা এবং তফসিলি জাতির অন্তর্ভুক্ত। কুইলির মা সাহসিকতার জন্য সুপরিচিত ছিলেন। কথিত আছে যে, তাঁর বাবা তাঁর মায়ের মৃত্যুর পর, তাঁকে মায়ের অনেক সাহসী কাজের কথা বলে বড় করেছিলেন, যা তাঁকে অনুপ্রাণিত করেছিল। কুইলির বাবা আত্মগোপনকারী ভেলু নাচিয়ারের গুপ্তচর হিসেবে কাজ করে ছিলেন। যুদ্ধের সময় তিনি এবং তাঁর কন্যা রানির পাশাপাশি যুদ্ধ করেছিলেন।[১] কুইলিকে ভারতীয় ইতিহাসে প্রথম আত্মঘাতী বোমারু এবং "প্রথম নারী শহীদ" হিসেবে বিবেচনা করা হয়।[২][৩][৪][৫]

জীবন[সম্পাদনা]

কুইলি ১৮ শতকে শিবগঙ্গাই জেলার কাছে কুদঞ্চাবাদিতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। কুইলিকে বীরথালাপতি (সাহসী সেনাপতি) বা বীরমাঙ্গাই (সাহসী মহিলা) বলে সম্বোধন করা হয়। কুইলির জন্ম পেরিয়ামুথান এবং রাকুর ঘরে, যাঁরা মাঠে কাজ করতেন। কুইলির মা রাকু সাহসিকতার জন্য সুপরিচিত ছিলেন। একটি বন্য ষাঁড়ের থেকে ক্ষেতগুলিকে ধ্বংস হওয়া থেকে বাঁচাতে গিয়ে তিনি মারা যান। বিধ্বস্ত পেরিয়ামুথান তখন কুইলির সাথে শিবগঙ্গাইয়ের কাছে চলে আসেন, যেখানে তিনি মুচি হিসেবে কাজ করতেন।[১] কুইলি ভেলু নাচিয়ারের একজন নিষ্ঠাবান সেনাপতি ছিলেন এবং অনেক সময়ে তাঁর জীবন রক্ষা করেছিলেন। এমনই এক সময়ে যখন তিনি জানতে পারলেন যে তাঁর সিলম্বম শিক্ষক আসলে একজন গুপ্তচর, তিনি তৎক্ষণাৎ রানীকে বাঁচাতে ব্যবস্থা নেন। আরেকবার, যখন রাণী ঘুমের মধ্যে আক্রান্ত হয়েছিলেন, কুইলি শত্রুকে আক্রমণ করেন এবং সেই সময় নিজে আহত হন। তাঁর আনুগত্য ও সাহসিকতা দেখে, তাঁকে রানির সেনাবাহিনীর মহিলা শাখার সর্বাধিনায়ক করা হয়েছিল। কুইলি পরে রানির শিবগঙ্গা অভিযানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।[৬][৭]

লড়াই ও মৃত্যু[সম্পাদনা]

১৭৭২ সালে, শিবগঙ্গার দ্বিতীয় রাজা মুথুভাদুগানাথ পেরিয়া উদায়া থেভার আর্কটের নবাবের দাবি মানতে অস্বীকার করার জন্য নবাবের সাথে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়েন। যেহেতু ব্রিটিশরা নবাবকে সহযোগিতা করেছিল, থেভার নিজের সৈন্য বাহিনী নিয়ে তাদের আটকাতে পারেন নি। শেষ পর্যন্ত এই যুদ্ধে তাঁর মৃত্যু হয়েছিল।[৮]

থেভারের স্ত্রী রানি ভেলু নাচিয়ার, এই ঘটনার আট বছর পরে, ১৭৮০ সালে, নবাবের বাহিনীর উপর আক্রমণ চালানোর সিদ্ধান্ত নেন। এই যুদ্ধে কুইলির নিঃস্বার্থ বলিদান ব্রিটিশদের অপমানজনক পরাজয়ের মুখে দাঁড় করিয়েছিল। নবাব এবং ব্রিটিশ সৈন্যদের উপর চূড়ান্ত আক্রমণের কৌশল করেছিলেন কুইলি।[৮]

তাঁর নির্দেশে, কুইলির সঙ্গীরা তাঁর উপর ঘি ও তেল ঢেলে দেয়। এর পরে, কুইলি অস্ত্রাগারের কক্ষে চলে যান এবং নিজের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেন। এরপরেই ভেলু নাচিয়ারের জয় নিশ্চিত হয়ে যায়।[৮] এটা খুবই সম্ভব যে কুইলির কাজটি মানবজাতির ইতিহাসে আত্মঘাতী বোমা হামলার প্রথম দৃষ্টান্তগুলির মধ্যে একটি হতে পারে। এর পরে ব্রিটিশদের প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য গোলাবারুদের কিছুই অবশিষ্ট ছিল না।[৮][৯][১০][১১][১২][১৩][১৪]

উত্তরাধিকার[সম্পাদনা]

তামিলনাড়ু সরকার শিবগঙ্গাই জেলায় কুইলির জন্য একটি স্মারক নির্মাণ করেছে।[১৫]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Kuyili: The Dalit Commander Whose Sacrifice Remains An ..."। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০২২ 
  2. "First Woman Suicide Bomber of India against British during Freedom Struggle"myIndiamyGlory (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-১৭ 
  3. "FIVE Unsung Women Martyrs of Indian Freedom Struggle"myIndiamyGlory (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-১৭ 
  4. "Of valour and victory"The Hindu। Chennai, India। ২৬ জুলাই ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  5. "வியூகங்களால் வென்றவள் | If you won multiple strategies - Dinakaran"www.dinakaran.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-১৭ 
  6. Udayavani। "Kuyili- A brave commander who was the First ever suicide bomber in history"Udayavani (কন্নড় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৮-০৬ 
  7. MV, Amudha। "Kuyili: The Dalit Commander Whose Sacrifice Remains An Unsung Tale"feminisminindia.com। সংগ্রহের তারিখ ৬ মে ২০১৯ 
  8. "Velu Nachiyar & Kuyili: The Women Who Took Down The British 85 Yrs Before 1857!"। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০২২ 
  9. "Tamil Nadu to build memorial for freedom fighter Kuyili"Times of india। Chennai, India। ১৬ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪ 
  10. "Velu Nachiyar & Kuyili: The Women Who Took Down The British 85 Yrs Before 1857!"। Chennai, India। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৮ 
  11. Remembering Queen Velu Nachiyar of Sivagangai, the first queen to fight the British. The News Minute. 3 January 2017
  12. "Of woman power and Tamizh glory"IBN Live। Chennai, India। ১৪ জুন ২০১১। 
  13. "A Durga A Day-Day 6: Mata Katyayini-Rani Velu Nachiyar and Kuyili"। Chennai, India। ১৫ অক্টোবর ২০১৮। 
  14. "Veeramangai Velu Nachiyar"The Hindu Business Line। Chennai, India। ১৮ জানুয়ারি ২০১৯। 
  15. "Tamil Nadu to build memorial for freedom fighter Kuyili"Times of India। Chennai, India। ১৬ মে ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৩ আগস্ট ২০১৪