কিম সু হিয়ন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কিম সু হিয়ন
KBS "The Producers" press conference, 11 May 2015 11.jpg
২০১৫ সালের মে মাসে
জন্ম (1988-02-16) ১৬ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৮ (বয়স ৩১)
শিক্ষানাট্য এবং চলচিত্র
যেখানের শিক্ষার্থীচুং-আং ইউনিভার্সিটি
পেশাঅভিনেতা
কার্যকাল২০০৭-বর্তমান
প্রতিনিধিকিইস্ট
(২০১০-বর্তমান)
ওয়েবসাইটসো-হায়ুন
স্বাক্ষর
150px

কিম সু হিয়ন(জন্মঃ ফেব্রুয়ারি ১৬, ১৯৮৮) একজন দক্ষিণ কোরিয়ান অভিনেতা যিনি টেলিভিশন ড্রামা সিরিজ “ড্রিম হাই”(২০১১),[১][২]মুন এমব্রাসিং দ্যা সান (২০১২), মাই লাভ ফ্রম দ্যা স্টার(২০১৩) এবং দা প্রডিউসার (২০১৫) এবং চলচ্চিত্র দ্যা থিভস(২০১২) এবং সিক্রেটলি, গ্রেটলি (২০১৩)[৩][৪] ইত্যাদি নাটকে অভিনয়ের জন্য সুপরিচিত। টিভি নাটকে তার অনবদ্য সাফল্য সমগ্র এশিয়া জুড়ে তাকে হালিয়ু তারকা হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত করেছে।

প্রাথমিক এবং ব্যাক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

কিম তার মায়ের উৎসাহে ও নিজের অন্তর্মুখী স্বভাব কাটিয়ে উঠতে হাইস্কুলে পড়াকালে অভিনয়ের ক্লাসে অংশ নিতেন। তার বাবা কিম ছং হুন আশির দশকে সেভেন ডলফিন ব্যান্ডের দলনেতা গায়ক ছিলেন কিন্তু তিনি সু-হিয়নের ছোটবেলাতেই পরিবার ত্যাগ করেন।[৫][৬] কিম ২০০৯ সালে জুং-আং বিশ্ববিদ্যালয়ের চলচ্চিত্র ও নাট্যকলা বিভাগে ভর্তি হন। ২০১৫ সালে গণমাধ্যমে প্রথম প্রকাশ পায় যে, কিম জু না নামে কিম সু হিয়নের একটি সৎ বোন আছে। কিম জু না ২০১৬ সালে সংগীত প্রতিযোগিতা প্রোডিউস ১০১ এ অংশগ্রহণ করেছিল।[৭]

পেশা জীবন[সম্পাদনা]

কিম সু হিয়ন ২০০৭ সালে কিমচি চিজ স্মাইল নাটকে সহ-অভিনেতা হিসেবে টেলিভিশনে পদার্পণ করেন। এবং ২০০৮ সালে মূল ভূমিকায় “জঙ্গল ফিস” নাটকে। যেটি সত্য ঘটনার উপর নির্মিত হয়েছিল, এটি তুলে ধরেছিল গুরুত্বপূর্ণ সমস্যাগুলোকে যার মধ্যে ছিল বিদ্যালয়গুলোতে প্রতরণা, বিদ্যালয়ের প্রতিযোগিতার মান এবং মিথষ্ক্রিয় ব্লগিং নব উপায়ে। নাটকটি অসংখ্য পুরুষ্কার লাভ করে।[৮][৯]

২০০৯ সালে কিম অভিনয় করেন সল্পদৈর্ঘ্য চলচিত্র “ওর্স্ট ফ্রেন্ডস” এ যেটি সেরা সামাজিক নাটক পুরুষ্কার জিতে মিসে এন সিন শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভাল এ।[১০][১১][১২] কিমকে আরো উপরে নিয়ে যায় উইল ইট স্নো ফর ক্রিসমাস? এবং জায়ান্ট নাটকে তার পুরুষ মূল ভূমিকাইয়।[১৩][১৪] যেটি তাকে পরবর্তিতে তার প্রথম অভিনেতা পুরুষ্কার এনে দেয়। পুরুষ্কার নেয়ার সময় তিনি জনপ্রিয় “১০ বছরের প্রতিজ্ঞা” স্বীকৃত বক্তৃতা দেন এবং বলেন “অনুগ্রহ করে আমাকে ভালমত দেখাশুনা করুন আগামী দশ বছর আমার প্রতি আরো দৃষ্টি দিয়ে, আমি সত্যিকারের অভিনেতা হয়ে উঠব।” কিম একটি পারিবারিক নাম হয়ে যান ২০১১ সালে একটি দেশীয় ভাঁড় ভূমিকায় অভিনয় করে কৈশোর নাটক “ড্রিম হাই” এ অভিনয় করে[১৫][১৬] । কিমের জনপ্রিয়তা আকাশচুম্বী হয় যখন সে “মুন এম্ব্রাসিং দা সান”[১৭][১৮] নাটকে অভিনয় করে রাজা লি হিওন এর তরুণ ভূমিকায়। নাটকটি সেসময়কার সেরা নাটক হয় এবং জাতীয় নাটক খেতাব পায়।[১৯]

রাজা লি হিওন ভূমিকায় মুন এম্ব্রাসিং দা সান(২০১২) নাটকে

২০১২ সালে কিম বড় পর্দায় পদার্পন করেন “দা থিবস” ছবির মাধ্যমে যেটি ছিল অসিন ইলেভেন এর কোরিয়ান ভার্সন।[২০][২১] ছবিটি ১২.৯ মিলিয়নের বেশি টিকেট বিক্রি করে কোরিয়ার চলচিত্র ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ব্যাবসাসফল ছবি হয়ে উঠে।[২২]

মাসেরাতি তিন প্রচারে

২০১৩ থেকে ২০১৪ পর্যন্ত কিম অভিনয় করেন এসবিএস এর ধারাবাহিক নাটক মাই লাভ ফ্রম দা স্টার এ।[২৩] কিম একজন ভীনগ্রহীর ভূমিকায় অভিনয় করেন যে পৃথিবীতে অবতরণ করেছে জসিয়ন রাজবংশের সময় এবং চারশ বছর পর হালয়ু তারকা চয়িং সং-ই এর প্রেমে পড়ে। নাটকটি স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিকভাবে জনপ্রিয়তা লাভ করে।[২৪][২৫] ৭ম কোরিয়ান ড্রামা এওয়ার্ড এ কিম লাভ করেন দায়সুং(মুখ্য পুরুষ্কার) যেটি কোরিয়ার টেলিভিশনে সর্বোচ্চ পুরুষ্কার।

২০১৪ সালে পাইকসাং আর্টস এওয়ার্ড এ

চলচিত্রসমূহ[সম্পাদনা]

নাটক[সম্পাদনা]

  • কিমচি চিজ স্মাইল (২০০৭)
  • জঙ্গল ফিস(২০০৮)
  • সেভেন ইয়ারস অব লাভ(২০০৯)
  • উইল ইট স্নো ফর ক্রিসমা(২০০৯)
  • ফাদার’স হাউজ (২০০৯)
  • জায়ান্ট (২০১০)
  • ড্রিম হাই (২০১১)
  • মুন এম্ব্রাসিং দা সান (২০১২)
  • ড্রিম হাই ২ (২০১২)
  • মাই লাভ ফ্রম দা স্টার (২০১৩-২০১৪)
  • দা প্রডিউসার (২০১৫)

ছায়াছবি[সম্পাদনা]

  • চেরি ব্লুসম (সল্প দৈর্ঘ্য) (২০০৮)
  • ওর্স্ট ফ্রেন্ডস (সল্প দৈর্ঘ্য) (২০০৯)
  • দা থিবস (২০১২)
  • সিক্রেটলি গ্রেইটলি (২০১৩)
  • মিস গ্রানী (২০১৪)
  • রিয়েল (২০১৬)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. INTERVIEW: Actor Kim Soo-hyun – Part 1, asiae.co.kr, 15 March 2011.
  2. INTERVIEW: Actor Kim Soo-hyun – Part 2, asiae.co.kr, 15 March 2011.
  3. INTERVIEW: Actor Kim Soo-hyun – Part 1 ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২ জুন ২০১৪ তারিখে, tenasia.com, 10 June 2013.
  4. INTERVIEW: Actor Kim Soo-hyun – Part 2 ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২ জুন ২০১৪ তারিখে, tenasia.com, 10 June 2013.
  5. "Actor Kim Soo Hyun's Father was a Singer"Soompi 
  6. "What Was Kim Soo Hyun Like as a Student?" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৪ জুলাই ২০১৪ তারিখে, mwave.interest.me, 27 March 2012.
  7. "Kim Soo Hyun's Half Sister to Participate in Girl Group Survival Show "Produce 101""Soompi 
  8. "Jungle Fish"The Peabody Awards। সংগ্রহের তারিখ ১ জুন ২০১৪ 
  9. "Jungle Fish Wins a Peabody", world.kbs.co.kr, 2 April 2009.
  10. "Friends of the worst (Worst Friends)"Jeonju International Film Festival। ৩০ নভেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১২ 
  11. "제11회 미쟝센 단편영화제"Mise-en-scène Short Film Festival। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১২ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  12. "Selected Bookshop – Your-Mind"Your-mind.com। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০১২ 
  13. MY NAME IS: Kim Soo-hyun.10Asia. 12 January 2010.
  14. Kim Soo-hyun in SBS's Giant, Dramabeans.com, 19 March 2010.
  15. Kim Soo-hyun signs on as Dream High's lead, dramabeans.com, 26 October 2010.
  16. PREVIEW: KBS TV series "Dream High" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৬ এপ্রিল ২০১২ তারিখে, 10.asiae.co.kr, 28 December 2010.
  17. "King status no guarantee for love for Kim Soo-hyun" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৫ মার্চ ২০১৪ তারিখে, 10.asiae.co.kr, 2 January 2012.
  18. PREVIEW: MBC TV series "The Moon Bearing the Sun" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৫ মার্চ ২০১৪ তারিখে, 10.asiae.co.kr, 4 January 2012.
  19. "'The Moon That Embraces The Sun' breaks 40%, but will not be extended", 24 February 2012.
  20. Kim Soo-hyun joins cast of high-profile movie. 10Asia. 21 March 2011.
  21. ‘The Thieves’ all-star cast set to steal show ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৩০ নভেম্বর ২০১২ তারিখে. JoongAng Daily. 13 June 2012.
  22. 2012 South Korea Yearly Box Office.Box Office Mojo.
  23. "Kim Soo-hyun, Jun Ji-hyun to Pair Up in New Drama"TenAsia। ১৬ আগস্ট ২০১৩। ২৯ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ নভেম্বর ২০১৬ 
  24. Korean TV Show Sparks Chicken and Beer Craze in China.The Wall Street Journal.26 February 2014.
  25. ‘You Who Came From the Stars’ Reaches Over 2 Billion Views in China ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৮ ডিসেম্বর ২০১৫ তারিখে, mwave.interest.me, 8 April 2014.

বহিসংযোগ[সম্পাদনা]