কামিং আউট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search

কামিং আউট অব দ্য ক্লোসেট , অথবা শুধুমাত্র কামিং আউট শব্দজোড়া এলজিবিটি সম্প্রদায়ের মাঝে বহুল ব্যবহৃত। এই শব্দদ্বয় দিয়ে মূলত রূপক অর্থে নিজের যৌন অভিমুখিতার কথা জনসম্মুক্ষে স্বীকার করা বা আত্মপ্রকাশ করাকে বোঝায়। অবশ্য, এলজিবিটি সম্প্রদায় ছাড়াও কামিং আউট শব্দজোড়া ব্যবহৃত হয়। উদাহরনস্বরূপঃ নাস্তিকতা স্বীকার অর্থে। 

নিরাপত্তাজনিত কারনে, "কামিং আউট অব দ্য ক্লোসেট" মানসিক প্রক্রিয়া বা ভ্রমনরূপে ব্যাখ্যা করা যায়।[১] সিদ্ধান্ত নেয়া অথবা ঝুঁকি নেয়া , একটি পরিকল্পনা, বক্তব্য তৈরি , ব্যক্তিগত স্বাধীনতা, নিজস্বতা, ক্যারিয়ার ধ্বংস ইত্যাদি এই আত্মপ্রকাশের এর সাথে সম্পৃক্ত।[২] সামাজিক চাপে পড়ে এর ফলাফল কোন কোন ক্ষেত্রে তীব্র হতে পারে।[৩] লেখক স্টিভেন সীডম্যান বলেন, "বিংশ শতাব্দীর আমেরিকায় সমকামিতাকে ব্যক্তিগিত, সামাজিক ও রাজনৈতিক নাটক করে তুলেছে ক্লোসেটের এতটাই ক্ষমতা"[৪]

আমেরিকার লিঙ্গ তত্ত্ববিদ, জুডিথ বাটলার দাবী করেন, "কামিং আউট" প্রক্রিয়া একজন সমকামির স্বাধীনতা নিশ্চিত করে না। যদিও , এর মাধ্যমে কেউ ব্যক্তিগতভাবে নিজের স্বকীয়তা বজায় রেখে চলার স্বাধীনতা বোধ করতে প্রে, তবে তা সম্পূর্ন নির্ভর করে ব্যক্তির আশেপাশের বিষমকামীদের আচরনের উপর। জুডিথ বাটলার তার এই আলোচনা ১৯৯১ সালে প্রকাশিত লিমিটেশন এন্ড জেন্ডার ইন্সাবরডিনেশনে উল্লেখ করেছেন। 

ইতিহাস[সম্পাদনা]

উনবিংশ শতাব্দীতে কার্ল হেনরিক উলরিখস "কামিং আউট" ধারনাকে স্বমুক্তি বা ব্যক্তিগত স্বাধীনতা বলে প্রবর্তন করেন।  

১৮৬৯ সালে, স্টোনওয়াল দাঙ্গার একশ বছর পূর্বে। জার্মানির সমকামি অধিকার এডভোকেট কার্ল হেনরিক উলরিখস সর্বপ্রথম স্বপরিচয় প্রদানকে সামাজিক ধারণা থেকে মুক্তি হিসেবে অভিহিত করেন। তাঁর মতে, সামাজিকভাবে সমকামিতাকে মেনে না নেয়ার অন্যতম কারন হল নিজের যৌন অভিমুখিতাকে প্রকাশ না করা। তাই তিনি, সমকামিরা যেন সমলিঙ্গের প্রতি তাদের আকর্ষনের ব্যাপার প্রকাশে এগিয়ে আসে সে ব্যাপারে জোর প্রচারনা চালান। ১৯০৬ সালে জার্মান-ইহুদী চিকিৎসক ইভান ব্লখ রচিত Das Sexualleben unserer Zeit in seinen Beziehungen zur modernen Kultur (আমাদের সময়ে যৌন জীবন ও আধুনিক সভ্যতার সাথে এর সম্পর্ক) বইতে বয়স্ক সমকামিরা নিজেদের পরিবারের কাছে স্বীয় যৌন অভিমুখিতা তুলে ধরে। ১৯১৪ সালে ম্যাগনাস হিরসফেল্ড তাঁর অন্যতম বড় কাজ "পুরুষ ও নারীর সমকামিতা" তে এই বিষয় নিয়ে পুনরায়  আলোচনা করেন।[৫]

সমকামি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করা প্রথম কোন প্রখ্যাত আমেরিকান হলেন কবি রবার্ট ডানকান। ১৯৪৪ সালে পলিটিক্স নামের এক সাময়িকীতে নিজের নামে একটি নিবন্ধে সমকামিরা সংখ্যালঘু ও নির্যাতনের স্বীকার।[৬]

১৯৫১ সালে, ডোনাল্ড ওয়েবস্টার করি[৭][৮] তার উল্লেখযোগ্য প্রকাশনা "আমেরিকায় সমকামি"তে প্রকাশ করেন, "সমাজ আমাকে একটি মুখোশ পড়ে থাকতে বাধ্য করেছে।"করি ছদ্মনামী হলেও তার স্বচ্ছ ও অকপট বাকভঙ্গি সমাজে একটি ধনাত্মক প্রভাব আনতে ভূমিকা রেখেছে।

সমাজভাষাবিজ্ঞান উৎস[সম্পাদনা]

বর্তমানে প্রচলিত "কামিং আউট" শব্দজোড়া বিংশ শতাব্দীতে সমকামিদের মধ্যে প্রচলিত কামিং আউট পার্টি থেকে এসেছে। এই পার্টি প্রকৃতপক্ষে উচ্চবিত্ত নারীর প্রাপ্তবয়স্ক প্রাপ্তিতে আয়োজন করা হত। ঐতিহাসিক জর্জ চউনসে দেখিয়েছেন, সমকামিরা যুদ্ধ (প্রথম বিশ্বযুদ্ধ) পূর্ববর্তী সময়ে কামিং আউট শব্দ জোড়া বর্তমানে আমরা যেটাকে গে ক্লোসেট থেকে বের হয়ে আসা বলি, সেটা বোঝাতো না বরং সমকামি বিশ্বে প্রবেশ করা অর্থে ব্যবহার হত।[৯]

ক্লোসেটেড[সম্পাদনা]

ক্লোসেটের মাঝে বাস বা "বীয়িং ইন ক্লোসেট" দ্বারা বোঝায় একজন ব্যক্তি নিজের যৌন অভিমুখিতা সম্পর্কে সচেতন। তবে সামাজিক ও ব্যক্তিগত কারনে তা প্রকাশ করে না। কখনো কখনো একজন ক্লোসেটেড এলজিবিটি হিসেবে নিজের পরিচয়কে অস্বীকার করে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ক্লোসেটে থাকার কারণ হল হোমোফোবিয়া, ট্রান্সফোবিয়া এবং হেটেরোসেক্সিস, যা এলজিবিটি সম্প্রদায়কে একটি নির্দিষ্ট দল করে।

পরিচয় ইস্যু[সম্পাদনা]

আত্মপ্রকাশ বা "কামিং আউট" একটি প্রক্রিয়া বলে আখ্যায়িত হলেও একই সাথে ব্যক্তির সমলিঙ্গের প্রতি আকর্ষণকে এবং যৌন পরিচয়কে তুলে ধরে। তাই আত্মপ্রকাশের প্রাথমিক ধাপকে নতুনভাবে জন্ম বা নতুন পরিচয়ে আবির্ভাব বলেও আখ্যায়িত করা হয়।[১০] অনেক এলজিবিটি সম্প্রদায়ের সদস্যদের মতে, বয়ঃসন্ধি কিংবা শিশুকাল থেকেই এই ধাপের শুরু হয়। এই সময়েই ব্যক্তি সমলিংগের প্রতি আকর্ষণ অনুভব শুরু করে। 

রূপান্তর লিঙ্গ ও রূপান্তরকামী সম্প্রদায়[সম্পাদনা]

আইনি দিক[সম্পাদনা]

বিশ্বের যে সমস্ত অঞ্চলে সমকামিতা দন্ডনীয় ও শাস্তিযোগ্য অপরাধ, সেসকল অনচলে এলজিবিটি সম্প্রদায়ের সদস্য হিসেবে কামিং আউটের পরিণতি ক্ষতিকর হতে পারে। এর ফলে,সামাজিকভাবে হেনস্থার শিকার হওয়া ছাড়াও আইনী দিক থেকেও শাস্তি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। মিশর, ইরান, সিঙ্গাপুর এবং আফগানিস্তানসহ বিশ্বের ৭৬টি দেশে কামিং আউট  আইনগতভাবে শাস্তিযোগ্য অপরাধ। 

এলজিবিটি নয় এরূপক্ষেত্রে ব্যবহার[সম্পাদনা]

রাজনৈতিক ভাবে বা অন্যান্য ক্ষেত্র বিশেষে "কামিং আউট" বা আত্মপ্রকাশ ভিন্নার্থে ব্যবহার হয়ে আসছে। "কামিং আউট" শব্দজোড়া দ্বারা অধিকাংশ ক্ষেত্রেই কোন গোপন পরিচয় প্রকাশকে বোঝায়। সেটা হতে পারে "এসক্সুয়াল হিসেবে আত্মপ্রকাশ"[১১], "এলকোহলিক হিসেবে আত্মপ্রকাশ"[১২], "রক্ষণশীল হিসেবে আত্মপ্রকাশ"[১৩] , "প্রতিবন্ধী হিসেবে আত্মপ্রকাশ"[১৪], "আন্তঃলিঙ্গের সদস্য হিসেবে আত্মপ্রকাশ"[১৫],"যৌনকর্মী হিসেবে আত্মপ্রকাশ"[১৬] ইত্যাদি। 

আরোও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Coming Out: A Journey"। Utahpridecenter.org। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৬-২৪ 
  2. Belfast Telegraph: "GAA star Donal Og Cusack: Teammates helped me through ordeal of revealing I am gay," October 20, 2009, accessed January 16, 2012
  3. Queerty: Japhy Grant, "Rupert Everett Says Coming Out Killed His Career," February 20, 2009, accessed January 16, 2012
  4. Seidman, Steven (2003). Beyond the Closet; The Transformation of Gay and Lesbian Life, 25, আইএসবিএন ০-৪১৫-৯৩২০৭-৬
  5. Johansson&Percy, p.24
  6. "Robert Duncan and Romantic Synthesis: A Few Notes". This article also republished as "On Robert Duncan" at Modern American Poetry website
  7. Donald Webster Cory on glbtq.com
  8. "Sagarin bio"। Glbtq.com। ১৯১৩-০৯-১৮। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৬-২৪ 
  9. Chauncey, George (1994). Gay New York: Gender, Urban Culture, and the Making of the Gay Male World, 1890–1940. New York: Basic Books, emphasis added.
  10. "Gay Epiphany"। সংগ্রহের তারিখ ৮ অক্টোবর ২০১৪ 
  11. Follow More Tracy Clark-Flory. (২০১৪-০৯-১৬)। "You're about as sexually attractive to me as a turtle: Coming out as asexual in a hypersexual culture"। Salon.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৯-১৩ 
  12. Theroux, Louis (২০০১-১১-০৩)। "The show must go on"। London: Guardian। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৬-২৪ 
  13. Coming-out day for conservatives আর্কাইভ February 6, 2007, at the Wayback Machine.
  14. "Coming out as disabled - Ekklesia"ekklesia.co.uk 
  15. "The LA radio host who came out as intersex and why no one gossiped"Gay Star News। সংগ্রহের তারিখ ৮ অক্টোবর ২০১৪ 
  16. "What It's Like to Come Out of the Hooker Closet" 

আরো পড়ুন[সম্পাদনা]