কাব্য মাধবন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
কাব্য মাধবন
Kavya Madhavan.jpg
জন্ম (1984-09-19) ১৯ সেপ্টেম্বর ১৯৮৪ (বয়স ৩৭)
জাতীয়তাভারতীয়
পেশা
কর্মজীবন১৯৯১-২০১৬
দাম্পত্য সঙ্গী
  • নিশল চন্দ্র (বি. ২০০৯; বিচ্ছেদ. ২০১১)
  • দিলীপ (বি. ২০১৬)

কাব্য মাধবান (জন্ম ১৯ সেপ্টেম্বর ১৯৮৪) একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী, তিনি কয়েকটি তামিল চলচ্চিত্রে অভিনয় করলেও মূলত একজন মালায়ালাম চলচ্চিত্র অভিনেত্রী । ১৯৯১ সালে তিনি পুক্কালাম বড়ভায়ি চলচ্চিত্রে শিশু অভিনেত্রী হিসাবে অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্র জগতে তার অভিষেক হয়। ১৯৯৯ সালে নবম শ্রেণিতে পড়ার সময় লাল জোসের পরিচালিত চন্দ্রান্নুদিক্কুন্না দিখিল চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি সর্বপ্রথম প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন। চলচ্চিত্রটিতে তার সাফল্য ২০০০ এর দশকে মালায়ালাম চলচ্চিত্রের শীর্ষস্থানীয় অভিনেত্রী হিসাবে তার মর্যাদা প্রতিষ্ঠা করেছিল। পেরুমাজক্কালম (২০০৪) এবং গাদ্দামা (২০১০) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি দুবার সেরা অভিনেত্রী বিভাগে কেরল রাজ্য চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন।

ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

কাব্য ১৯ সেপ্টেম্বর ১৯৮৪ সালে জন্মগ্রহণ করেন। [১] সাত বছর বয়সে চলচ্চিত্র পরিচালক কামালের প্রযোজিত পুক্কালাম বড়ভায়ি (১৯৯১) চলচ্চিত্রে শিশু অভিনেত্রী হিসেবে অভিনয়ের মাধ্যমে তার চলচ্চিত্র জীবনের সূচনা হয়। পরবর্তীকালে তিনি কামাল পরিচালিত পভাম আইএ ইভাচান (১৯৯৪), পারাসসালা পাচন পায়্যান্নুর পরমু (১৯৯৪) সহ বিভিন্ন চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন।

১৯৯৯ সালে তাকে দিলীপ অভিনীত চন্দ্রানুদিক্কুন্না দিখিল চলচ্চিত্রে প্রধান অভিনেত্রী হওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। [২]

চন্দ্রানুদিক্কুন্না দিখিল চলচ্চিত্রে সাফল্যের পরে, কাব্য মাধবন এবং দিলীপ মালায়ালাম সিনেমায় জনপ্রিয় জুটি হয়ে ওঠেন এবং তারা ১৮ টি সিনেমায় একসঙ্গে কাজ করেছিলেন। [৩] তাদের অভিনীত কয়েকটি চলচ্চিত্র হলো থেংকাসিপট্টনম (২০০০), ডার্লিং ডার্লিং (২০০০), মীসা মাধবন (২০০২) (লাল জোসের পরিচালিত চলচিত্রটি বছরের অন্যতম বৃহদাকার উপার্জনকারী), মিজি রেন্ডিলম (২০০৩), (এই চলচ্চিত্রে তিনি দ্বৈত চরিত্রে অভিনয় করেছেন), সদানন্দন্তে সময়ম (২০০৩), জয়রাজ পরিচালিত থিলাক্কম (২০০৩), জোশি পরিচালিত রানওয়ে (২০০৪), কোচি রাজাভু (২০০৫), লায়ন (২০০৬), জোশী পরিচালিত চক্করা মুঠু (২০০৬), ইন্সেপক্টর গারুদ (২০০৭), পাপ্পী অপাচা (২০১০), ভেল্লারিপ্রভিনেতি চঙ্গথি (২০১১) এবং পিন্নেয়াম (২০১৬)। তাদের বেশিরভাগ সিনেমা রোমান্টিক কমেডি ঘরানার ছিল।

তিনি মম্মুট্টী এবং মোহনলালের সাথে চলচ্চিত্রে এবং ঈ পট্টনাথিল ভূতম, ক্রিশ্চিয়ান ব্রাদার্স এবং চায়না টাউন এর মতো বেশ কয়েকটি তারকাদের সিনেমাতেও অভিনয় করেছিলেন। পেরুমাজক্কলম চলচ্চিত্রে গঙ্গার চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি সমালোচকদের ব্যাপক প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন; যার জন্য তিনি ২০০৪ সেরা অভিনেত্রী বিভাগে কেরল রাজ্য চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। গাদ্দামা চলচ্চিত্রে সৌদি আরবে কর্মরত গৃহকর্মী হিসাবে অশ্বতীর চরিত্রে অভিনয় করেও তিনি খুব প্রশাসিত হয়েছিলেন। সিনেমাটি ভাষাপোশিনিতে প্রকাশিত কে ইউ ইকবালের একটি ফিচারের উপর ভিত্তি করে তৈরি হয়েছিল। [৪] চলচ্চিত্রটি তাঁর পরামর্শদাতা কামাল দ্বারা পরিচালিত হয়েছিল। ২০১১ সালে তিনি দ্বিতীয়বারের মতো কেরল রাজ্য চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছিলেন। ২০১১ সালে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে কেরেলা চলচ্চিত্র সমালোচক পুরস্কার, শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে অমৃত-এফএএফকেএ, শ্রেষ্ঠ মালায়ালাম চলচ্চিত্র অভিনেত্রী বিভাগে ৫৯তম ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে থিক্কুরিসি ফাউন্ডেশন পুরস্কার পেয়েছেন। [৫]

তিনি সেরা অভিনেত্রী বিভাগে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার (ভারত) জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের জন্য মনোনীত হলেও চূড়ান্ত পর্বে হেরে যান। ২০১১ সালে ক্রিশ্চিয়ান ব্রাদার্স এবং চায়না টাউন এর মতো অধিক আয়কারী চলচ্চিত্রের অংশ থাকায় তিনি ২০১১ সালে মালায়ালাম চলচ্চিত্রে শীর্ষ নারী তারকা নির্বাচিত হয়েছিলেন।

তিনি আদুর গোপালকৃষ্ণন পরিচালিত নালু পেনুঙ্গল চলচ্চিত্রে পার্শ্ব অভিনেত্রী হিসেবে অভিনয় করেছিলেন।

তামিল চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তাকে অনেক প্রস্তাব করা সত্ত্বেও মালায়ালাম চলচ্চিত্রে ব্যস্ততার কারণে এই প্রস্তাবে তিনি খুব অনীহা প্রকাশ করেছিলেন। তার অভিনীত প্রথম তামিল চলচ্চিত্রটি ছিল কাসি (২০০১) যা বিনয়ন পরিচালিত বসন্তীয়ুম লক্ষ্মীয়ুম পিন্নে এনজানুম নামক মালায়ালাম চলচ্চিত্রের পুনঃনির্মাণ। পরবর্তিতে তিনি এন মন বানিল এবং সাধু মিরান্ডা নামক তামিল চলচ্চিত্রে অভিনয় করে মাঝারি সাফল্য লাভ করেন।

তিনি ওয়ান ওয়ে টিকিট (২০০৮) এবং আকাশাবনী (২০১৬) চলচ্চিত্রের "এন খলবিল্লুলোরু পন্নানু" গানটি লিখেছেন। মাতিনি (২০১২) নামক মালায়ালাম চলচ্চিত্রে তিনি প্রথমবারের মতো প্লেব্যাক সঙ্গীত শিল্পী হিসেবে গান গেয়েছেন। [৬] তিনি হাদিয়া (২০১৭) এবং দৈবমে কৈথোজহাম কে. কুমার আকনাম (২০১৮) চলচ্চিত্রেও গান গেয়েছেন। এছাড়াও তিনি অনেক বিজ্ঞাপন, টিভি শো, স্টেজ শোতে অংশগ্রহণ করেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

কাব্য মাধবন ২০০৯ সালের ৯ ফেব্রুয়ারীতে তিনি নিশল চন্দ্রকে বিয়ে করে [৭] কুয়েতে চলে যান। [৮] কিন্তু, একই বছর জুন মাসে বাড়িতে ফিরে আসেন। কিন্তু, একই বছর জুন মাসে বাড়িতে ফিরে আসেন। তারপর ২০১০ সালের ২৪ জুলাই তারিখে তিনি বিবাহ বিচ্ছেদের আবেদন করেন। [৭][৯] ২০১১ সালের ২৫ মে তারিখে কাব্য ও নিশালল আদালতে হাজির হন এবং তারা দুজনই বিবাহ বিচ্ছেদের ইচ্ছা প্রকাশ করেন। ৩০ মে তারিখে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায়। পরবর্তীতে ২০১৬ সালের ২৫ নভেম্বরে কোচিতে অবস্থিত বেদান্ত হোটেলে অভিনেতা দিলিপের সাথে তিনি বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। [১০][১১]

এই দম্পতির মহলক্ষ্মী নামে একটি মেয়ে আছে। সে ২০১৮ সালের ১৯ অক্টোবরে জন্মগ্রহণ করে।

কাব্য মাধবন লক্সিয়াহ নামে একটি টেক্সটাইল দোকানের মালিক। ২০১৩ সালের এপ্রিল মাসে, মথ্রুভূমি বুকস কথায়িল আল্পম কাব্যম নামে তার লিখা স্মৃতিকথা মূলক বই প্রকাশ করে। বইটিতে তিনি তাঁর শৈশব স্মৃতি, স্কুল জীবন এবং চলচ্চিত্র জগতে তাঁর অভিজ্ঞতা সম্পর্কে লিখেছেন। ১১ এপ্রিলে কোজিকোডের কে. পি. কেসভা মেনন হল এ অনুষ্ঠিত একটি অনুষ্ঠানে লেখক সুভাষ চন্দ্রন ও দেদী দামোদরানের বইটি মুক্তি পায়। [১২]

চলচ্চিত্রের তালিকা[সম্পাদনা]

ক্রমিক নং বছর চলচ্চিত্র চরিত্র পরিচালক টীকা
০১ ১৯৯১ পুক্কালাম বড়ভায়ি গীতুর বান্ধবী কামাল
০২ ১৯৯৪ প্রভম আই.এ. ইভাচান সারা ইভাচান রায় পি. থমাস
০৩ ১৯৯৪ দ্য প্রেসিডেন্ট শিশু অভিনেত্রী মুক্তিপ্রাপ্ত হয়নি
০৪ ১৯৯৪ পরসসাসলা পচন পায়্যান্নুর পরমু নীনা পি. বেণু
০৫ ১৯৯৬ আজকিয়া রাবনন যুবতী অনুরাধা (ভানুপ্রিয়া) কামাল
০৬ ১৯৯৭ ওরাল মাত্রম গোপিকা মেনন সত্যায়ন অন্তিক্কদ
০৭ ১৯৯৭ স্নেহসিঁদুরম অঞ্জলি কৃষ্ণম মুন্নাড্ডু
০৮ ১৯৯৭ ভূতক্কন্নডি মীনু লোহিতা দাস
০৯ ১৯৯৭ ইরাত্তাকুট্টিকালুদে আচান ধন্য সত্যায়ন অন্তিক্কদ
১০ ১৯৯৭ কৃষ্ণদিয়িল ওরু প্রণয়কালতু অঞ্জলি কামাল
১১ ১৯৯৮ কাট্টাথরু পেনপুভু যমুনা মোহন কুপ্পলেরি
১২ ১৯৯৯ চন্দ্রনুদিক্কুন্না দিখিল রাধা লাল জোসে দ্বিতীয় সেরা অভিনেত্রী হিসেবে কেরেলা চলচ্চিত্র সমালোচক পুরস্কার প্রাপ্ত হন
১৩ ২০০০ মধুরনোম্বারাকাট্টু সুনাইনা কামাল
১৪ ২০০০ ডার্লিং ডার্লিং পদ্মজা/পাপ্পি রাজাসেনান
১৫ ২০০০ কোচু কোচু সন্তোষঙ্গ সেলিন সত্যায়ন অন্তিক্কদ দ্বিতীয় সেরা অভিনেত্রী হিসেবে কেরেলা চলচ্চিত্র সমালোচক পুরস্কার প্রাপ্ত হন
১৬ ২০০১ সহযাত্রীকাক্কু স্নেহপুরভম মায়া এম. শংকর
১৭ ২০০১ থেংকাসিপট্টনম দেবু রাফি মেকার্টিন
১৮ ২০০১ রক্ষাসা রাজাভু দৈসি বিনয়ন
১৯ ২০০১ দোস্ত গীতু (দিলীপের বোন) তুলসীদাস
২০ ২০০১ জীবন মসাই মঞ্জরি টি এন গোপাকুমার
২১ ২০০১ মাঝামেঘা প্রভুকল মলু প্রদীপ
২২ ২০০২ ওন্নাম্যান সুহারা থাম্পি কন্নমতনম
২৩ ২০০২ ওমাপ্পেন্নিনু উরিয়াদপ্পায়্যান গোপিকা বিনয়ন
২৪ ২০০২ কাসি লক্ষ্মী (বিক্রমের বোন) বিনয়ন তামিল চলচ্চিত্র
২৫ ২০০২ মীসা মাধবন রুক্মিণী লাল জোসে
২৬ ২০০২ এন মানা বানিল তিলক বিনয়ন তামিল চলচ্চিত্র
২৭ ২০০৩ তিলক্কম আম্মু (ওদুবিলের মেয়ে) জয়রাজ
২৮ ২০০৩ সদানন্দন্তে সময়ম সুমঙ্গলা (দিলীপের স্ত্রী ) আকবর-লাল জোসে
২৯ ২০০৩ কাধা মীরা সুন্দর দাস
৩০ ২০০৩ মিঝি র‍্যান্ডিলাম ভদ্র / ভম
(দ্বৈত চরিত্র)
রঞ্জিত দ্বিতীয় সেরা অভিনেত্রী বিভাগে কেরেলা চলচ্চিত্র সমালোচক পুরস্কার প্রাপ্ত হন
৩১ ২০০৩ পুলিবাল কল্যনাম গঙ্গা (লালু এলেক্সের মেয়ে) শাফি
৩২ ২০০৩ গৌরীশংকরম গৌরী নেমোম পুষ্পরাজ
৩৩ ২০০৪ রানওয়ে গোপিকা জোশি
৩৪ ২০০৪ অপরিচিতন মীনাক্ষী সঞ্জীব সিভন
৩৫ ২০০৪ গ্রিটিংস শীতল সাজুন করিয়াল
৩৬ ২০০৪ পেরুমাজাক্কলম গঙ্গা কামালউদ্দিন মুহাম্মদ শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে কেরল রাজ্য চলচ্চিত্র পুরস্কার
৩৭ ২০০৫ ইরুবত্তম মনবাত্তি ভূমিকা স্যানাল
৩৮ ২০০৫ আন্নোরিক্কাল পন্নু শরৎচন্দ্র ওয়ানন্দ
৩৯ ২০০৫ কোচি রাজাভু অশ্বতি জনি অ্যান্টনি
৪০ ২০০৫ অনন্তভদ্রম ভদ্র সন্তোষ শিবান শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে কেরালা চলচ্চিত্র সমালোচক পুরস্কার প্রাপ্ত হন
৪১ ২০০৫ সীলবতী সীলবতী শারেৎ
৪২ ২০০৬ লায়ন শারিকা জোশি
৪৩ ২০০৬ বদক্কুম্নাধন ভামা সাজুন কারিয়াল
৪৪ ২০০৬ ক্লাসমেটস তারা কুরুপ লাল জোসে
৪৫ ২০০৬ চক্কর মুথু অনিতা লোহিত দাস
৪৬ ২০০৬ বাস্তবম সুমিত্র এম. পদ্মকুমার
৪৭ ২০০৬ অরুণম বলি বিনোদ মঙ্করা
৪৮ ২০০৬ কিলুক্কাম কিলুকিলুক্কাম চাঁদনী সন্ধ্যা মোহন
৪৯ ২০০৭ ইনস্পেক্টর গারুদ সেতুলক্ষ্মী আইএএস জনি আন্টনি
৫০ ২০০৭ অতিশায়ন মায়া বিনয়ন
৫১ ২০০৭ নাদিয়া কল্লাপেট্টা রাত্রি নাদিয়া / নাদিরা
(দ্বৈত চরিত্র)
কে. মধু
৫৩ ২০০৭ নালু পেন্নুগাল সুভদ্র আদুর গোপালকৃষ্ণন
৫৩ ২০০৭ ক্যাঙ্গারু জ্যান্সি রাজ বাবু
৫৪ ২০০৮ টুয়েন্টি:20 জ্যান্সি জোশি
৫৫ ২০০৮ সাধু মিরান্ডা প্রিয়া সিদ্দিক তামিল চলচ্চিত্র
৫৬ ২০০৮ মদম্পি জয়লক্ষ্মী বি. উন্নিকৃষ্ণন
৫৭ ২০০৯ বেনারস অমৃত নেমম পুষ্পরাজ
৫৮ ২০০৯ ঈ পট্টনাথিল ভূতম অ্যান্সি জনি অ্যান্টনি
৫৯ ২০১০ পাপ্পি আপ্পাচা আন্নিয়ে মমস কে. চন্দ্রন মনোনীত: শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার
৬০ ২০১১ গাদ্দামা অশ্বতি কামালউদ্দিন মুহাম্মদ শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে কেরল রাজ্য চলচ্চিত্র পুরস্কার
শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে কেরালা চলচ্চিত্র সমালোচক পুরস্কার
শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার
৬১ ২০১১ ক্রিশ্চিয়ান ব্রাদার্স মীনাক্ষী জোশি
৬২ ২০১১ চায়না টাউন রোজাম্মা রাফি ম্যাককার্টিন
৬৩ ২০১১ ভক্ত জনঙ্গলুদে স্রাধাক্কু সুমঙ্গলা প্রিয়ানন্দনন
৬৪ ২০১১ ভেনিসাইল বেপারী আম্মু শাফি
৬৫ ২০১১ বেল্লারিপ্রভিন্তে চঙ্গতি সুলেখা / মেরি ভারগিস আক্কু আকবর
৬৬ ২০১২ বাবুট্টিয়ুদে নমথিল বনজ জিএস বিজয়ন মনোনীত: শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার
৬৭ ২০১৩ লোকপাল ডক্টর গীতা জোশি
৬৮ ২০১৩ প্লেয়ার্স রোজ স্যানাল
৬৯ ২০১৩ ব্রেকিং নিউজ লাইভ নয়ন সুধীর অম্বলপদ্দু
৭০ ২০১৩ অঞ্চু সুন্দরিকাল গৌরী লক্ষ্মী আশিক আবু
৭১ ২০১৫ শি টেক্সি দেবযানি (টেক্সি চালক) সাজি সুরেন্দ্রন
৭২ ২০১৬ আকাশবাণী বনি খাইস মিলেন
৭৩ ২০১৬ পিন্নেয়াম দেবী আদুর গোপালকৃষ্ণন
৭৪ ২০১৬ ভূমিক্কুরু চরমগীতম শর্ট ফিল্ম
৭৫ ২০১৬ কাভালল শর্ট ফিল্ম
৭৬ ২০১৬ কাচাধাপ্পা শর্ট ফিল্ম

বিজ্ঞাপন[সম্পাদনা]

  • নিরপরা
  • প্যারাসুট
  • বনমালা
  • অ্যা গিরীপাই জুয়েলারি
  • ধাত্রী
  • দুবাই গোল্ড এন্ড ডায়মন্ড
  • ভি.জি.এন জুয়েলার্স
  • স্মার্টেক্স
  • কোসমট্টম গোল্ড লোন
  • শামা স্পাইস
  • আলুক্কাস ওয়েডিং সেন্টার
  • আনেশ্বর সিল্কস
  • স্লিপনস

পুরস্কার[সম্পাদনা]

কেরল রাজ্য চলচ্চিত্র পুরস্কার
  • ২০০৪: পেরুজ্জাক্কালাম চলচ্চিত্রের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে।
  • ২০১১: গাদ্দামা চলচ্চিত্রের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে।
ফিল্মফেয়ার পুরস্কার দক্ষিণ
  • ২০১১: গাদ্দামা চলচ্চিত্রের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার-মালয়ালম। [১৩]
এশিয়াভিশন পুরস্কার
  • ২০১৩: শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে [১৪]
কেরল চলচ্চিত্র সমালোচক সমিতি পুরস্কার
  • ২০০০: দ্বিতীয় সেরা অভিনেত্রী - চন্দ্রানুদ্দিকুন্ন দিকিল চলচ্চিত্রের জন্য।
  • ২০০১: দ্বিতীয় সেরা অভিনেত্রী - কোচু কোচু সন্তোষঙ্গ চলচ্চিত্রের জন্য।
  • ২০০৩: দ্বিতীয় সেরা অভিনেত্রী - মিজি রেন্ডিলাম চলচ্চিত্রের জন্য।
  • ২০০৪: শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী - পেরুমাজক্কলম, আনোরিকিকল চলচ্চিত্রের জন্য।
  • ২০০৫: শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী - আনন্দভদ্রম
  • ২০১০: শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী - গাদ্দামা
দক্ষিণ ভারতীয় আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র পুরস্কার
  • ২০১৩: মালয়ালম চলচ্চিত্রে অবদানের জন্য 'সিমা'র বিশেষ প্রশংসা পুরস্কার।
  • ২০১১: শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী - গাদ্দামা চলচ্চিত্রের জন্য।
এশিয়ানেট চলচ্চিত্র পুরস্কার
  • ২০০০: বিশেষ জুরি অ্যাওয়ার্ড - কোচু কোচু সন্তোষঙ্গল এবং মধুরোনম্বারকত্তু চলচ্চিত্রের জন্য।
  • ২০০২: সেরা তারকা জুটি - মীসা মাধবন
  • ২০০২: শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী]] - ওমাপেন্নু উড়িয়াডাপায়ন চলচ্চিত্রের জন্য।
  • ২০০৪: বিশেষ জুরি অ্যাওয়ার্ড (অভিনেত্রী) - পেরুজ্জাক্কালাম চলচ্চিত্রের জন্য।
  • ২০০৯: শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী - বনরস চলচ্চিত্রের জন্য।
  • ২০১১: শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী - গাদ্দামা এবং ভক্ত জনঙ্গলদ শ্রাদক্কু চলচ্চিত্রের জন্য।
  • ২০১২:শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী - বাভুতিউদে নমথিল চলচ্চিত্রের জন্য।
ভনিতা চলচ্চিত্র পুরস্কার
  • ২০০৪: সেরা অভিনেত্রী - মিজি রেন্ডিলাম চলচ্চিত্রের জন্য।
  • ২০০৬: সেরা অভিনেত্রী - আনন্দভদ্রম চলচ্চিত্রের জন্য।
  • ২০১১: শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী - গাদ্দামা চলচ্চিত্রের জন্য।
  • ২০১১: সত্যায়ন পুরস্কার [১৫]
  • ২০১১: ট্রাভানকোর সিস্টার্স (ললিতা-পদ্মিনী-রাগিনী) স্মৃতি পুরস্কার। [১৬]
  • ২০১১: শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে দর্শকের পছন্দ পুরস্কার - গাদ্দামা চলচ্চিত্রের জন্য। [১৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Kavya Madhavan turns 32 years old today: Controversies that rocked her life"The Indian Express। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭। ১ মে ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ মে ২০১৮ 
  2. movie.webindia123.com (n.d.)। "Kavya Madhavan Profile"। Movie.webindia123.com। ২৪ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ অক্টোবর ২০১৩ 
  3. "Kavya Dileep Kadha Ithu vare – Mazhavil Manorama Live"। ১৯ ডিসেম্বর ২০১১। ১ আগস্ট ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ অক্টোবর ২০১৩ – YouTube-এর মাধ্যমে। 
  4. "Maid film highlights abuse"। Khaleejtimes.com। ১৪ জানুয়ারি ২০১১। ১ অক্টোবর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ অক্টোবর ২০১৩ 
  5. "`Aadminte Makan Abu chosen best film by Thikkurissy foundation, IBN Live News"। Ibnlive.in.com। ৭ জানুয়ারি ২০১২। ১৯ জানুয়ারি ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ অক্টোবর ২০১৩ 
  6. "Kavya Madhavan Singing – Mounamai Manasil Song – MATINEE Movie"। ১২ নভেম্বর ২০১২। ২১ জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ অক্টোবর ২০১৩ – YouTube-এর মাধ্যমে। 
  7. Raymond Ronamai (২৮ জুলাই ২০১০)। "Actress Kavya Madhavan"। Entertainment.oneindia.in। ২৩ অক্টোবর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১১  অজানা প্যারামিটার |4= উপেক্ষা করা হয়েছে (সাহায্য)
  8. Super Admin (২৩ জুলাই ২০০৯)। "Kavya Madhavan"। Entertainment.oneindia.in। ২৩ অক্টোবর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১১ 
  9. "Kavya Madhavan files for divorce"। Nowrunning.com। ২৪ জুলাই ২০১০। ৮ অক্টোবর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ডিসেম্বর ২০১১ 
  10. "Kavya Madhavan's Marriage Photos" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৮ মার্চ ২০১৯ তারিখে. Keralaweddingtrends.com. Retrieved 27 January 2017.
  11. Dileep Kavya Madhavan Marriage Photos Videos ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৩০ জানুয়ারি ২০১৮ তারিখে. Filmclickz.com (22 July 2002). Retrieved 27 January 2017.
  12. "Kavya Madhavan's Memoirs Released" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৩ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে. The New Indian Express
  13. "The 59th Idea Filmfare Awards 2011(South)"। ৪ ডিসেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০১২ 
  14. Sathish, VM। "Mammotty, Kavya Madhavan bag Asiavision awards"। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১৬ 
  15. "Sathyan Awards 2011"kottaka.com। অক্টোবর ২০১১। ২৫ অক্টোবর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  16. "Lalitha Padmini ragini memorial award for Kavya"kottaka.com। নভেম্বর ২০১১। ১০ নভেম্বর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  17. "Viewers Choice Award – Malayalam 2011"filmcrack.com। ২৪ ডিসেম্বর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]