করুণাময়ী রাণী রাসমণি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
করুণাময়ী রাণী রাসমণি
করুণাময়ী রাণী রাসমণি.png
ধারবাহিকটির স্ক্রীনশট
অন্য নামকরুণাময়ী রাণী রাসমণি : উত্তর পর্ব
ধরননাটক, সামাজিক
নির্মাতাসুব্রত রায়, সম্রাট ঘোষ
ভিত্তিলোকমাতা রাণী রাসমণির জীবনী
পরিচালকরাজেন্দ্র প্রসাদ দাস
অভিনয়েদিতিপ্রিয়া রায়
উদ্বোধনী সঙ্গীততোমার তুলনা তুমি .... করুণাময়ী রাণী রাসমণি
মূল দেশভারত
মূল ভাষাবাংলা
মৌসুমের সংখ্যা
পর্বের সংখ্যা১৫৪৯
নির্মাণ
ব্যাপ্তিকালপ্রায় ২২ মিনিট
নির্মাণ কোম্পানিজি বাংলা
মুক্তি
মূল নেটওয়ার্কজি বাংলা
মূল মুক্তির তারিখ২৪ জুলাই, ২০১৭ –
১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২
বহিঃসংযোগ
ওয়েবসাইট

করুণাময়ী রাণী রাসমণি ভারতীয় বাংলা টেলিভিশন ধারাবাহিক। এটি একটি ঐতিহাসিক টেলিভিশন সিরিজ যা বাংলা বিনোদন চ্যানেল জি বাংলায় প্রচারিত হয় এবং টিভি সম্প্রচারের আগেও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম জি ফাইভ-এ এটি  উপলব্ধ। এটি ২৪ জুলাই ২০১৭তে প্রথম প্রদর্শন হয়েছিল৷ ধারাবাহিকটি আগে সুব্রত রায় প্রযোজনা করেছিলেন এবং এখন এটি জি বাংলা প্রযোজনা করছে৷ এটি ২৪ জুলাই ২০২০ তারিখে ১০০০তম পর্ব এবং ২৬ ডিসেম্বর ২০২১-এ ১৫০০টি পর্ব সম্পন্ন করে। ধারাবাহিকটির শেষ পর্ব সম্প্রচারিত হবে ১৩ই ফেব্রুয়ারী, ২০২২।

এই ধারাবাহিকটির মূল চরিত্র লোকমাতা রাণী রাসমণি। হালিশহরের ছোট রানী থেকে তাঁর সারা বাংলার রাণী হয়ে ওঠার ঘটনায় পুঙ্খানুপুঙ্খ রূপে দেখানো হয়েছে এই ধারাবাহিকে। ধারাবাহিকের প্রধান চরিত্র রাণীমার মৃত্যু হলো দশকের বিপুল চাহিদার কথা মাথায় রেখে ধারাবাহিকটিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় - " করুণাময়ী রাণী রাসমণি - উত্তর পর্ব  " নামে। সেখানে আলোকপাত করা হয় গদাধরের শ্রীরামকৃষ্ণ হয়ে ওঠার, আধ্যাত্মিক জগতে সারদামণির পদার্পণের। পাশাপাশি জানবাজারের বাড়িতে রাণীমার কনিষ্ঠ কন্যা জগদম্বা, তাঁর দুই পুত্র দ্বারিকানাথ বিশ্বাস এবং ত্রৈলোক্যনাথ বিশ্বাসের ঐতিহাসিক হয়ে ওঠার কাহিনীও সমান গুরুত্ব পায়। দেখানো হয় তাঁদের দ্বারা ব্যারাকপুরের সুবিখ্যাত অন্নপূর্ণা মন্দির প্রতিষ্ঠার কাহিনী। দ্বারিকানাথ ও তাঁর স্ত্রী - কুমুদিনী, ত্রৈলোক্যনাথ ও তাঁর দুই স্ত্রী - কনকলতা ও সুভাষিনীর বৈবাহিক টানাপোড়েনও দেখানো হয় এই ধারাবাহিকে।

দীর্ঘদিন সাড়ে ছটার স্লটে থাকার পর ১০ই জানুয়ারি থেকে এটি সন্ধ্যে ছটায় সম্প্রচারিত হতে থাকে। এখনো পর্যন্ত এটিই দীর্ঘতম ভারতীয় বাংলা ধারাবাহিক।[১][২][৩][৪][৫][৬]

কাহিনি[সম্পাদনা]

রানী রাসমনি দক্ষিণেশ্বর কালী মন্দিরের প্রতিষ্ঠাতা হিসাবে এবং উনিশ শতকে বাংলায় ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির আগ্রাসনের বিরুদ্ধে তার অদম্য উদ্দীপনা এবং লড়াইয়ের জন্য সর্বাধিক পরিচিত। নাটকে তার জীবনের ঘটনাগুলি দেখানো হয়। "রানী" নামে পরিচিত ১১ বছর বয়সী একটি ছোট মেয়ে থেকে শুরু করে, তার পৈতৃক গ্রাম হালিসাহারে তার বৈষ্ণব বাবা এবং পিসির সাথে বসবাস, কলকাতার জানবাজারের 'বাবু রাজচন্দ্র দাস' কে বিয়ে এবং কীভাবে তিনি তৎকালীন ব্রিটিশ শাসিত পিতৃতান্ত্রিক সমাজের সময় সমস্ত প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে লড়াই করে একজন অসাধারণ মহিলা হয়ে ওঠেন তা এতে দেখানো হয়।

ধারাবাহিকের একটি দৃশ্যের ছবি : কালীঘাটে রাণী রাসমণি

অভিনয়ে[সম্পাদনা]

প্রধান চরিত্র[সম্পাদনা]

  • দিতিপ্রিয়া রায় রাসমণি দাসী ওরফে "রাণী" ওরফে "রাণীমা" , রাজচন্দ্রের স্ত্রী হিসাবে - (প্রধান নেতৃত্ব) (মৃত) ;
  • জানবাজারের বাবু রাজ চন্দ্র দাস (মাড়) হিসাবে গাজী আবদুন নূর - রাসমণির স্বামী জানবাজারের ধনী ও আকর্ষণীয় জমিদার। (মৃত)
  • সৌরভ সাহা শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব হিসাবে একজন বিংশ শতাব্দীর বাংলার ভারতীয়  সাধক। তিনি নিজেকে ঈশ্বরের অবতার বলে বিশ্বাস করা হয়।
  • সারদা দেবী চরিত্রে সন্দীপ্তা সেন - উনিশ শতকের উল্লেখযোগ্য সাধিকা এবং শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ পরমহংস দেবের স্ত্রী।

পৌনঃপুনিক[সম্পাদনা]

আত্মীয় - স্বজন
  • প্রাণকৃষ্ণ বিশ্বাস হিসাবে প্রান্তিক ব্যানার্জি - মথুরের বড় ভাই, মনমোহিনীর স্বামী।  এর আগে করুণার সাথে বিবাহের সম্পর্ক স্থাপিত হওয়ার কথা ছিল। (প্রস্থানিত)
  • মনমোহিনী বিশ্বাস চরিত্রে সৌমী ঘোষ - প্রাণকৃষ্ণের স্ত্রী। (প্রস্থানিত)
  • জয়নারায়ণ বিশ্বাস হিসাবে দিগন্ত বাগচী - প্রাণকৃষ্ণ এবং মথুরামোহনের পিতা।তিনি অহংকারী এবং মথুরকে ত্যাজ্যপুত্র করেছিলেন কারণ মথুর অনুমতি ছাড়াই করুণাকে বিয়ে করেছিলেন। তিনি ভিতারি গ্রামের জমিদার। (মৃত)
  • হরেকৃষ্ণ চরিত্রে শঙ্কর দেবনাথ - রাসমণির পিতা। (মৃত)
  • সংযুক্তা রায়চৌধুরী ক্ষেমঙ্করী দেবী, হরেকৃষ্ণের ছোট বোন, রাসমণির পিতৃশ্বসা  হিসাবে তিনি তাকে বড় করেছেন। (মৃত)
  • সোহান বন্দোপাধ্যায় প্রীতিরাম দাস (মাড়) - যোগমায়ার স্বামী, রাজচন্দ্রের বাবা এবং রাসমণির শ্বশুর। (মৃত)
  • সমতা দাস  ওরফে "মায়া" / "যুগী" - যুগল মান্নার কন্যা, প্রীতিরাম দাসের স্ত্রী, রাজচন্দ্রের মা এবং রাশমণির শাশুড়ি। (মৃত)
  • সুছন্দ্রা বন্দ্যোপাধ্যায় সুকুমারী দাসী - প্রীতরামের কনিষ্ঠ ভাই কালীপ্রসাদের স্ত্রী,  যোগমায়া দাসীর জা , রাজচন্দ্রের ছোটখুড়ীমা , অভয়ের মা। তিনি দুষ্ট এবং সম্পদের লোভী এবং চান তাঁর পৌত্র মাধব রাজচন্দ্রের সম্পত্তির উত্তরাধিকারী হন। (মৃত)
  • তানিয়া কর আনন্দময়ী দাসীর চরিত্রে - অল্প বয়সে বিধবা। রাসমণির বড় জা । (প্রস্থানিত)
  • অভয় চন্দ্র দাস হিসাবে ধ্রুবজ্যোতি সরকার / সুদীপ রাহা - কালীপ্রসাদ এবং সুকুমারীর পুত্র, রাজ চন্দ্রের ছোট খুড়তুতো ভাই, রাসমণির দেওর , মাধবের বাবা।
  • শ্যামৌপ্তি মুদলী / ঈপ্সিতা মুখার্জি সরযূবালা হিসেবে - অভয়ের প্রথম স্ত্রী, রাসমণির ছোট জা, মাধবের মা যিনি পরে তাঁর স্বামীকে তার দুষ্টতার কারণে ত্যাগ করেছিলেন
  • মাধবচন্দ্র দাস হিসাবে প্রীতম দাস - অভয় এবং সরযূর পুত্র, রাজচন্দ্র-রাসমণির ভ্রাতুষ্পুত্র , সুকুমারীর নাতি, পদ্মর ছোট খুড়তুতো ভাই, কুমারী-করুণা-জগদম্বার বড় খুড়তুতো ভাই। তিনি তার পিতা এবং ঠাকুরমার একটানা অশুভ মতামত সত্বেও পুণ্যবান ব্যক্তি ছিলেন।
  • কুসুমের চরিত্রে শীর্ষা গুহঠাকুরতা - যুবতী বিধবা। তার বাবা ছিলেন একজন চিকিৎসক ('বদ্দিমশাই') যিনি এক বিশাল দুর্ভিক্ষের সময় জগদম্বা অসুস্থ হয়ে পড়লে তার জীবন বাঁচিয়েছিলেন। মাধব কুসুমকে ভালোবাসতো ও তাকে বিয়ে করতে চেয়েছিলো তাকে সামাজিক সম্মান দিতে।
  • ধীরেনের বাবা হিসাবে অর্ঘ্য মুখোপাধ্যায়
  • ধীরেনের মা হিসাবে সাহানা সেন
কন্যা ও জামাতা
  • দিয়া চক্রবর্তী পদ্মমণি আটা (বা দাসি) ওরফে "পদ্ম" চরিত্রে - রাজচন্দ্র-রাসমণির বড় মেয়ে, রামচন্দ্রের স্ত্রী।
  • জগদম্বা বিশ্বাস (দাসী) ওরফে "ছোটখুকি" হিসাবে সম্পূর্ণা মন্ডল / রোশনি ভট্টাচার্য / মিমি দও- রাজচন্দ্র-রাসমণির কনিষ্ঠ কন্যা। তিনি উদার-মনের, নিবেদিত এবং প্রকৃতিগত ভাবে নির্ভীক। মথুরামোহনের দ্বিতীয় স্ত্রী।
  • গৌরব চ্যাটার্জী মথুরামোহন বিশ্বাস ওরফে "মথুর" - করুণাময়ীর স্বামী এবং রাজচন্দ্র-রাসমণির কনিষ্ঠ জামাতা। তিনি রাসমণি -রাজচন্দ্রের কাছে ছেলের মতো হয়ে গেলেন (যা তাদের কখনও জৈবিকভাবে হয়নি)। করুণাময়ীর মৃত্যুর পরে তিনি জগদম্বাকে (তাঁর ছোট বোন) বিয়ে করেছিলেন।
  • রামচন্দ্র আটা ওরফে "আটামশাই" হিসাবে চন্দ্রনীভ মুখোপাধ্যায় / সৌরভ চক্রবর্তী(রাজা) - পদ্মর স্বামী, রাজ চন্দ্র-রাসমণির বড় জামাই।
  • কুমারী চৌধুরী  হিসাবে সহেলি ঘোষ রায় /অশ্মী ঘোষ - রাজচন্দ্র-রাসমণির দ্বিতীয় কন্যা, প্যারিমোহনের স্ত্রী। (মৃত)
  • প্যারিমোহন চৌধুরী চরিত্রে পার্থিব ব্যানার্জি - কুমারীর স্বামী, রাজচন্দ্র-রাসমণির দ্বিতীয় (মধ্যম) জামাতা। (মৃত)
  • করুণাময়ী বিশ্বাস (দাসী) ওরফে "করুণা" হিসাবে ঐন্দ্রিলা সাহা - রাজচন্দ্র-রাসমণির তৃতীয় কন্যা, মথুরামোহনের প্রথম স্ত্রী যিনি তার সন্তানের (ভূপাল) জন্ম দেওয়ার পরে মারা গিয়েছিলেন । (মৃত)
দৌহিত্র, দৌহিত্রী , নাতজামাই ও নাতবৌ
  • পদ্মমণি দাসির জ্যেষ্ঠ পুত্র এবং রানী রাসমণির নাতি মহেন্দ্রনাথ আটা হিসাবে সায়ক চক্রবর্তী। (মৃত)
  • শুভ্রজিৎ সাহা রানী রাসমণির নাতি কুমারী দাসীর পুত্র যদুনাথ চৌধুরী চরিত্রে
  • বিশ্ববাসু বিশ্বাস , ভূপালচন্দ্র বিশ্বাস হিসেবে। তিনি করুণাময়ী ও মথুরামোহনের একমাত্র পুত্র।
  • সোমাশ্রী ভট্টাচার্য ভূপালচন্দ্রের স্ত্রী প্রসন্নময়ীর ভূমিকায়, জগদম্বা দাসীর বড় পুত্রবধূ।
  • নিস্তারিণী বিশ্বাস , মথুর বাবু ও জগদম্বা দাসীর মেয়ের চরিত্রে বিয়াস ধর।
  • যদুনাথের প্রথম স্ত্রী আশালতা হিসাবে অলকানন্দা গুহ। কুমারী দাসী এবং প্যারিমোহন চৌধুরীর পুত্রবধূ। (মৃত)
  • অনিকেত চক্রবর্তী / অরুণাভ দে মথুর বাবু এবং জগদম্বা দাসীর দ্বিতীয় পুত্র ত্রৈলোক্যনাথ বিশ্বাস হিসাবে।
  • পুনম বসাক - ত্রৈলোক্যনাথের স্ত্রী কনকলতা হিসেবে
  • পদ্মমণি দাসী ও রামচন্দ্র আটার জ্যেষ্ঠ পুত্রবধূ মহেন্দ্রনাথের স্ত্রী কমলার চরিত্রে সৌমী চক্রবর্তী।
  • অমিতাভ দাস রাঘবেন্দ্ররূপে, তিনি মহেন্দ্রনাথের বিধবা স্ত্রী  কমলার সাথে বিবাহ করেছিলেন।
  • পদ্মমণি দাসী ও রামচন্দ্র আটার কনিষ্ঠ পুত্র হিসাবে গণেশ চন্দ্র হিসাবে প্রণয়চন্দ্র / কৌশিক দাস
  • গনেশ চন্দ্রের স্ত্রী অন্নদা হিসাবে প্রমিতা চক্রবর্তী
  • দয়াল, নিস্তারিণীর স্বামী চরিত্রে সুজয় সাহা
  • ধীরেনের চরিত্রে অরিত্র দত্ত, দয়ালের বড় খুড়তুতো ভাই
  • শমীক চক্রবর্তী মেঘনাথ উপাধ্যায় হিসাবে
  • জগদম্বা দাসীর জ্যেষ্ঠ পুত্র  এবং রানী রাসমণির নাতি দ্বারিকানাথ বিশ্বাসের ভূমিকায় নীলোৎপল বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ পরমহংস দেবের ভক্ত ছিলেন এবং অন্নপূর্ণা মন্দির নির্মাণে তাঁর মা জগদম্বা দাসীকে সহায়তা করেছিলেন। পরে সুমন দে এই চরিত্রে অভিনয় করছেন
  • কুমুদিনী দাসী , দ্বারিকানাথের হবু স্ত্রীর চরিত্রে সুস্মিলি আচার্য্য
শ্রীরামকৃষ্ণদেব ও মা সারদার সম্পর্কিত চরিত্রাবলী
  • গদাধরের বড় ভাই রামকুমার চট্টোপাধ্যায় এবং দক্ষিণেশ্বর কালী মন্দিরের প্রাক্তন প্রধান পুরোহিত হিসাবে মনোজ ওঝা। (মৃত)
  • ছোট মা সারদা হিসাবে অয়ন্যা চট্টোপাধ্যায়
  • সারদামণির মা হিসাবে ত্বরিতা চট্টোপাধ্যায়
  • অদিতি চ্যাটার্জী ভৈরবী ব্রাহ্মণী (বা যোগেশ্বরী) - এক যোগেশ্বরী যিনি রামকৃষ্ণকে  তন্ত্র (২০২১-বর্তমান) দীক্ষা দিয়েছিলেন ।
  • ক্ষুদিরাম চট্টোপাধ্যায় হিসাবে ভাস্বর চ্যাটার্জী - শ্রী রামকৃষ্ণের পিতা, একজন দরিদ্র ব্রাহ্মণ । (মৃত)
  • হলধারী ঠাকুরের ভূমিকায় রঘুবীর
  • হৃদয় ঠাকুরের চরিত্রে সিদ্ধার্থ ঘোষ
  • লোপামুদ্রা সিনহা চন্দ্রমণি দেবী হিসাবে - শ্রী রামকৃষ্ণের মা
  • কাত্যায়নী দেবী হিসাবে কৃষ্ণা মিত্র - শ্রী রামকৃষ্ণের বড় বোন
  • রামেশ্বর চরিত্রে আদিত্য রায় - শ্রী রামকৃষ্ণের দ্বিতীয় বড় ভাই
  • রামেশ্বরের স্ত্রী হিসাবে কন্যাকুমারী মুখোপাধ্যায় - শ্রী রামকৃষ্ণের দ্বিতীয় বড় বৌদি
দেবদেবী
  • মা কালীর বালিকারূপ ঐশ্বর্যা রায় করেছিলেন।
  • অনিন্দিতা ভট্টাচার্য / তনুশ্রী ভট্টাচার্য বসু / সরগামী রুমপা দেবী ভবতারিনী হিসাবে।
ঐতিহাসিক ব্যক্তিত্ব
  • ডোনাল্ড সাহেবের চরিত্রে জয়জিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়
  • চম্পাবাই চরিত্রে অনিন্দিতা রায়চৌধুরী
  • ফাহিম মির্জা রাম মোহন রায় চরিত্রে (মৃত)
  • দ্বারকানাথ ঠাকুরের ভূমিকায় রাজ ভট্টাচার্য
  • রাধাকান্ত দেবের ভূমিকায় সৌরভ চ্যাটার্জী
  • ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর চরিত্রে সৌরভ দাস
  • সাবর্ণ রায়চৌধুরী চরিত্রে কৌশিক বন্দ্যোপাধ্যায়
  • ঠগী চরিত্রে সুমিত সমাদ্দার
  • হিয়া দে মা কালী চরিত্রে
  • নাপিত বউ চরিত্রে জুঁই সরকার
  • কাপালিকা চরিত্রে ঋতা দত্ত চক্রবর্তী
  • বিখ্যাত টপ্পা গায়ক নিধু বাবু চরিত্রে অরিন্দম গাঙ্গুলী।
  • কালীমতির মা লক্ষ্মীমতি হিসাবে জাগৃতি গোস্বামী। (প্রস্থানিত)
  • তর্কালঙ্কার মহাশয়ের চরিত্রে সঞ্জীব সরকার - বাচস্পতি মহাশয়ের মৃত্যুর পরে ব্রাহ্মণ সমাজের প্রধান। তিনি গোঁড়া হিন্দু এবং ঘন ঘন বিরোধের কারণে মাড় পরিবারের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করেছেন। (মৃত)
  • গৌতম দে বাচস্পতি মহাশয় হিসাবে - ১৯ শতকের গোড়ার দিকে বাংলার গোঁড়া ব্রাহ্মণ সমাজের প্রধান। (মৃত)
  • অঘোর শাস্ত্রী মহাশয়ের চরিত্রে বরুণ চন্দ - উনিশ শতকের গোড়ার দিকে বাংলার সমসাময়িক ব্রাহ্মণ সমাজের প্রাক্তন প্রধান, মানসিকতায় গোঁড়া। (মৃত)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "King-size lives of small-screen stars - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-০১ 
  2. "Rani Rashmoni beats popular shows on TV; rules the TRP chart - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-০১ 
  3. "'Rani Rashmoni' actress Tania Kar gets married - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-০১ 
  4. "King-size lives of small-screen stars - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-০১ 
  5. "Rani Rashmoni beats popular shows on TV; rules the TRP chart - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-০১ 
  6. "'Rani Rashmoni' actress Tania Kar gets married - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৩-০১