কয়ারিয়া ঈদগাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কয়ারিয়া ঈদ্গাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়
ঠিকানা
কয়ারিয়া-রমজানপুর হাট রোড
কালকিনি
মাদারীপুর, ৭৯২০
বাংলাদেশ
স্থানাঙ্ক২২°৫৯′৫০″ উত্তর ৯০°১৬′৫৯″ পূর্ব / ২২.৯৯৭২৯° উত্তর ৯০.২৮৩০৮২° পূর্ব / 22.99729; 90.283082স্থানাঙ্ক: ২২°৫৯′৫০″ উত্তর ৯০°১৬′৫৯″ পূর্ব / ২২.৯৯৭২৯° উত্তর ৯০.২৮৩০৮২° পূর্ব / 22.99729; 90.283082
তথ্য
নীতিবাক্যশিক্ষাই আলো
প্রতিষ্ঠাকাল১৯৬৮
বিদ্যালয় বোর্ডঢাকা শিক্ষা বোর্ড
বিদ্যালয় জেলামাদারীপুর
বিদ্যালয় নম্বর১১০৬৬৫
প্রধান শিক্ষকলাল মিঞা জমাদার
শ্রেণী৬-১০
লিঙ্গবালক ও বালিকা
ওয়েবসাইট

কয়ারিয়া ঈদগাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাদারীপুর জেলার কলকিনি উপজেলার কয়ারিয়া ইউনিয়নের একটি বিখ্যাত উচ্চ বিদ্যালয়। এটি কয়ারিয়া ইউনিয়নের কেন্দ্রস্থলে এবং ময়দান নামে একটি বিখ্যাত জায়গায় অবস্থিত। এটি ১৯৬৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে সরকারি নিবন্ধিত উচ্চ বিদ্যালয়।

এটি একটি সুপরিচিত মাধ্যমিক বিদ্যালয় কয়ারিয়া ইউনিয়নের মধ্যে। কয়ারিয়া ঈদ্গাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ইআইআইএন নম্বর '১১০৬৬৫' এবং কয়ারিয়া ঈদ্গাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয় কালকিনি, বাংলাদেশে অবস্থিত। কয়ারিয়া ঈদ্গাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভৌগোলিক দিকনির্দেশনা ২৩ ° ৪'৩১.৭৯ "উত্তর, ৯০ ° ১৩'৩৬.৫৩" পূর্ব।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

কয়ারিয়া ঈদ্গাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রথমত প্রতিষ্ঠিত হয় কয়ারিয়া ইউনিয়নে মেয়েদের শিক্ষার উন্নয়নের জন্য। এই বিদ্যালয় কয়ারিয়া ইউনিয়ন সবচেয়ে পুরাতন বিদ্যালয়। কয়ারিয়া ইউনিয়নে মাধ্যমিক শিক্ষার জন্য কোন বিদ্যালয় ছিল না, সব ছেলেরা দীর্ঘ সময় পায়ে হেঁটে বিদ্যালয়ে যেত। কিন্তু মেয়েরা তাদের সাথে এত দূরে যেতে পারত না। গ্রামের লোকজন বুঝতে পেরেছিল যে, তাদের মেয়েরা ছেলেদের থেকে পিছিয়ে পরছে। গ্রামের গণ্যমান্য ব্যাক্তিরা স্ব-উদ্যোগে একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয় খুলআর সিদ্ধান্ত নেয়। গ্রামের সব লোকই বিদ্যালয়ে জন্য টাকা বা টিন বা কাঠ প্রদান করে বিদ্যালয় তৈরিতে অবদান রাখেন। এটি কয়ারিয়া ইউনিয়নের সকল লোকের একটি অলাভজনক সহযোগিতার ফসল।


একাডেমিক গঠন[সম্পাদনা]

ষষ্ঠ শ্রেণী থেকে অষ্টম শ্রেণী বা জেএসসি[সম্পাদনা]

কয়ারিয়া ঈদ্গাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয় শুরু থেকে ষষ্ঠ শ্রেণী থেকে অষ্টম শ্রেণী বা জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি)। এই স্তরটি জুনিয়র মাধ্যমিক স্তরের প্রাথমিক শিক্ষা হিসাবেও পরিচিত। এটি সেকেন্ডারী স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) দ্বারা অনুসরণ করা হয়।

নবম ও দশম শ্রেণী বা সেকেন্ডারী স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি)[সম্পাদনা]

সেকেন্ডারী স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষার ফল, মাধ্যমিক শিক্ষার সমাপ্তির পরীক্ষা হিসাবে বাংলাদেশ একটি পাবলিক পরীক্ষা। ১০ তম গ্রেড / ক্লাসের শিক্ষার্থীরাই এই পরীক্ষা দেয়। কয়ারিয়া ঈদ্গাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে, তিনটি বিভাগ আছে।

  • বিজ্ঞান বিভাগ
  • কলা বিভাগ (মানবিক)
  • বাণিজ্য বিভাগ

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]