কমলা শংকর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বিদুষী ড. কমলা শংকর
কমলা শংকর.jpg
প্রাথমিক তথ্য
জন্ম (1966-12-05) ৫ ডিসেম্বর ১৯৬৬ (বয়স ৫৪)
উদ্ভববারাণসী, উত্তর প্রদেশ, ভারত
ধরনভারতীয় শাস্ত্রীয় সংগীত
পেশাসংগীতজ্ঞ / ভারতীয় স্লাইড গিটার বাদক / শাস্ত্রীয় গায়ক
বাদ্যযন্ত্রসমূহশঙ্কর গিটার
কার্যকাল১৯৮৪–বর্তমান
ওয়েবসাইটthekamalashankar.com

বিদুষী ড. কমলা শংকর, খ্যাতনামা প্রথম ভারতীয় মহিলা যিনি শাস্ত্রীয় স্লাইড গিটার সংগীতশিল্পী। তিনি ভারতীয় শাস্ত্রীয় সংগীতের অনিন্দ্য ও সুমধুর সুর তাঁর স্লাইড গিটারে বাজিয়ে বিশ্বকে মুগ্ধ করেছিলেন। শংকর স্লাইড গিটার আবিষ্কার করার কৃতিত্ব কমলার। তিনি তাঁর যন্ত্রের বিস্ময়কর নিয়ন্ত্রণের পাশাপাশি তার বহুমুখিতার জন্য পরিচিত। তাঁর ‘গায়কি আং’ ধরনের বাজানোর ব্যতিক্রমী এবং প্রাকৃতিক ক্ষমতা রয়েছে। তাঁর সংগীত জনপ্রিয় ''সিংগিং গিটার'' হিসাবে পরিচিত।

শংকর প্রথম স্লাইড গিটারিস্ট যিনি মধ্য প্রদেশ সরকার কর্তৃক ২০১৩ সালে সংগীত জাতীয় পুরস্কার "রাষ্ট্রীয় কুমার গন্ধর্ব সম্মান" লাভ করেছিলেন।

প্রথম বছর[সম্পাদনা]

কমলা শংকর তামিলনাড়ুর তাঞ্জোরে জন্মগ্রহণ করেছেন এবং বারাণসীতে বেড়ে উঠেছেন। ৪ বছর বয়সে তিনি তাঁর মায়ের কাছে কণ্ঠসংগীতে দীক্ষিত হন এবং এরপর বারাণসীর গুরু পণ্ডিত অমরনাথ মিশ্রের কাছে ৮ বছর ধরে হিন্দুস্তানী শাস্ত্রীয় সংগীত শিখেছিলেন। তাঁর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কারটি ছিল হাওয়াইয়ান স্লাইড গিটার। গিটারে তাঁর প্রাথমিক প্রশিক্ষণ ডাঃ শিবনাথ ভট্টাচার্যের কাছে শুরু হয়েছিল। বারাণসীর গুরু পদ্মভূষণ পণ্ডিত ছন্নুলাল মিশ্রের কাছ থেকে তিনি মূল্যবান দিকনির্দেশনা পেয়েছিলেন। তিনি কেবল ধ্রুপদী নয়, রবীন্দ্র সংগীত ও ভজনের সাথে ঠুংরী, কাজরী, দাদরা, চৈতীর মতো পুরব আংও শিখেছেন। পরবর্তী কয়েক বছর তিনি পণ্ডিত বিমলেন্দু মুখার্জির তত্ত্বাবধানে ছিলেন। একজন গবেষক হিসাবে তিনি স্লাইড গিটারের ধরন ও কৌশল বিষয়ে ডক্টরেট ডিগ্রি অর্জন করেছেন। বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশন শিল্পকলা বিভাগের ডক্টর গোপাল শঙ্কর মিশ্রের অধীনে তিনি এই গবেষণা করেন।

সংগীতের পাশাপাশি তিনি প্রাণিবিদ্যায় স্নাতক ডিগ্রি অর্জন করেছেন। তিনি স্নাতকোত্তর করার জন্য দন্ত্যচিকিৎসা বিভাগে নির্বাচিত হন কিন্তু তাঁর প্রথম পছন্দ সংগীতের প্রতি তাঁর আগ্রহের কারণে তিনি সেখানে যোগ দেননি।

পেশাগত পরিবেশন[সম্পাদনা]

তিনি ভারতের বিভিন্ন নামীদামী সংগীত উৎসবে পরিবেশন করেছেন, যেমন তানসেন সমরোহ, পুনের সোয়াই গন্ধর্ব সমরোহ, কালিদাস সমরোহ, তাজ মহোৎসব, চেন্নাইয়ের সংগীত একাডেমির অনুষ্ঠান, পাটনার বিহার মহোৎসব, গঙ্গা মহোৎসব, কেরলের সূর্য্য উৎসব, জলন্ধরের হরবল্লভ সংগীত সমরোহ, বারাণসীর সংকট মোচন সমরোহ, আইসিসিআর, সিমলা মহোৎসব, সিংহস্থ কুম্ভ উজ্জয়ন, নাগাল্যান্ডের কোহিমার হর্নবিল উৎসব ইত্যাদি। তিনি হাঙ্গেরির বুদাপেস্টে ট্র্যাফো মিউজিক ফেস্টিভালের মতো আন্তর্জাতিক উৎসবগুলিতেও বাদ্য পরিবেশন করেছেন। তিনি যেসব দেশ ভ্রমণ করেছেন, তার মধ্যে আছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, লন্ডন, সুইজারল্যান্ড, দুবাই, আল-শারজা, বাহরাইন, মাস্কাট, দোহা, আবু ধাবি, হাঙ্গেরি, অস্ট্রিয়া, স্লোভাকিয়া, ফ্রান্স, সিঙ্গাপুর ইত্যাদি। ভারত সরকারের মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক তাঁকে সংগীতের ক্ষেত্রে জুনিয়র ও সিনিয়র ফেলোশিপ দিয়েছে। ভারতের, সুর সিঙ্গার সংসদ, মুম্বাই তাঁকে "সুরমণি", সাংবাদিক সমিতি তাঁকে ''কলাশ্রী সম্মান'' এবং ২০০৯ সালে ভারত সরকার তাঁকে সর্বাধিক মর্যাদাপূর্ণ জাতীয় পুরস্কার "রাষ্ট্রীয় গন্ধর্ব সম্মান"এ ভূষিত করে।

ড. কমলা ভারতীয় বংশীবাদক পণ্ডিত রোনু মজুমদার, বিদুষী ড. জয়ন্তী কুমারেশ, ওস্তাদ ফজল কোরেশি, বেহালাবাদক ললিতা নন্দিনী প্রমুখের সাথে অনুষ্ঠান করেছেন। ডক্টর কমলা ১৯৯৪ সাল থেকে আইসিসিআর-এর প্যানেলভুক্ত এবং ১৯৯৯ সাল থেকে নিয়মিতভাবে পুরো ভারতে স্পিক-ম্যাকের হয়ে অনুষ্ঠান করছেন। তিনি ২০০৭ সাল থেকে বারাণসীতে অবস্থিত শঙ্কর আর্টস ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক। কমলা বিশ্বব্যাপী বিভিন্ন কর্মশালার আয়োজন করেন এবং বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বক্তৃতা দিয়ে থাকেন। তিনি শীর্ষ গিটার শিল্পী হিসাবে আকাশবাণী ও দূরদর্শনের অনেক জাতীয় কর্মসূচী এবং রেডিও সংগীত সম্মেলন করেছেন। ১৯৯২ সালে কমলা আন্তর্জাতিক রোটারির একটি কর্মসূচীতে ভারতের সাংস্কৃতিক প্রতিনিধি হিসাবে প্রতিনিধিত্ব করেছিলেন এবং টেক্সাস [মার্কিন] এবং লন্ডন সফর করেছিলেন।

কমলার সাধারণ মানের হাওয়াইয়ান গিটার থেকে 'শঙ্কর গিটার' উদ্ভাবনের কৃতিত্ব রয়েছে। এর অনন্য বৈশিষ্ট্য হ'ল এটির অন্যান্য গিটারের মতো কোনও শব্দ গর্ত নেই। এতে চারটি প্রধান তার এবং এগারো সংবেদী তার সহ তিনটি চিকারি তার রয়েছে। এটি সিডার কাঠের এক ফাঁপা টুকরো দিয়ে তৈরি। এই যন্ত্রটির নাম রাখা হয়েছে বারাণসীর দেবতা ভগবান শঙ্করের উদ্দেশ্যে উৎসর্গ করে।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

তিনি বারাণসীতে তাঁর বাবা খ্যাতনামা চিকিৎসক ডাঃ রঙ্গস্বামী শংকর ও মা বিজয়া শংকরের সাথে বাস করেন।

শিক্ষার্থীরা[সম্পাদনা]

কমলা শংকরের দেশ বিদেশে অনেক শিক্ষার্থী রয়েছে। তন্মধ্যে ড. সঞ্জয় ভার্মা এবং নির্মল সায়নী প্রমুখ অর্ন্তভুক্ত।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

ডিস্ক[সম্পাদনা]

  • এইচএমভি (আরপিজি) কর্তৃক মিউজিক ম্যালোডি অন গিটার। রাগ বাগেশ্রী, মিশ্র কাফির রাগ শ্যাম কল্যাণ ও ধুন
  • এলি লিলি অ্যান্ড কোম্পানী [ভারত] প্রাইভেট লিমিটেড কর্তৃক গ্রেট মাস্টার্স
  • মিস্টিকা মিউজিক রাগ যোগ ও রাগ মিয়া মালহার কর্তৃক টানতরঙ্গ
  • কিংবদন্তি লিগ্যাসি প্রোমোশন প্রাইভেট লিমিটেড কর্তৃক ঝংকার রিচ হেরিটেজ। রাগ বৈরাগী, রাগ বিলক্ষনি তোদি ও মিশ্র পাহাড়ী ধুন

বহিঃ সংযোগ[সম্পাদনা]