বিষণ্ণতানাশক এবং আত্মহত্যার ঝুঁকি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

বিষণ্ণতানাশক এবং আত্মহত্যা ঝুঁকির মধ্যকার সম্পর্ক চিকিৎসাবৈজ্ঞানিক গবেষণার অন্যতম একটি বিষয়। গবেষণায় কিছু বিষণ্ণতানাশকের সাথে রোগীর আত্মহত্যা ঝুঁকি বৃদ্ধির সম্পর্ক পাওয়া গেছে। এই সমস্যাটি এখন এতটাই গুরুত্বপূর্ণ রূপ নিয়েছে যে কিছু জায়গায় সরকারী হস্তক্ষেপের দ্বারা বিষণ্ণতানাশক সেবনের কারণে আত্মহত্যা ঝুঁকির অধিকতর সম্ভাবনার লেবেল যুক্ত করা হয়েছে। ঠিক কোন্‌ পরিস্থিতির কারনে এরকম হয় তা এখনও পরিষ্কার নয়, কিন্তু অন্যান্য গবেষণা দেখিয়েছে এন্টিডিপ্রেসেন্ট আত্মহত্যা চিন্তার প্রতিরোধ করে। 

তরুণদের জন্য উচ্চ মাত্রার ঝুঁকি[সম্পাদনা]

২৪ বছরের চেয়ে কম বয়সের ব্যক্তিদের মধ্যে যাত্রা বিষণ্নতায় ভোগেন তাদেরকে সতর্ক করা হয় যে, এন্টিডিপ্রেসেন্টগুলো আত্মহত্যা চিন্তা ও আচরণের ঝুঁকি বৃদ্ধি করতে পারে। ফেডারেল হেলথ কর্মকর্তাগণ এই বিপদের ব্যাপারে ব্যবহারকারীকে সতর্ক করার জন্য এন্টিডিপ্রেসেন্টের লেবেলে ওষুধে ২০০৬ সালের ডিসেম্বরে পরিবর্তনের প্রস্তাবের কথা প্রকাশ করেন।

এফডিএ বিষণ্নতায় ভোগা শিশু ও কিশোরকে পাক্সিল ও প্রোজ্যাক ব্যবহার করতে নিষেধ করে।

যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় নিয়ন্ত্রণ সংস্থাসমূহ পেডিয়াট্রিক রোগীদের জন্য এন্টিডিপ্রেসেন্টগুলোর সাম্ভাব্য আত্মহত্যা ঝুঁকির ব্যাপারে সতর্ক করার পর শিশু ও কিশোরদেরকে এসরসআরআই ওষুধের (SSRIs - selective serotonin reuptake inhibitors) নির্দেশনা দেয়া কমে যায়। আর ওষুধ সমূহের এই নির্দেশনার কমে যাওয়াটা ছিল যুক্তরাষ্ট্রে ও নেদারল্যান্ডে শিশু ও কিশোরের আত্মহত্যার হার যথাক্রমে ১৪% ও ৫০% বৃদ্ধির সাথে সম্পর্কিত। 

সিলেক্টিভ সেরোটনিন রিআপটেক ইনহিবিটরস (SSRIs) এবং সেরোটনিন-নরএপিনেফ্রিন রিআপটেক ইনহিবটরস (SNRIs) নিয়ে ৭০টি ক্লিনিকাল ট্রায়াল নিয়ে ২০১৬ সালে একটি রিভিউ তৈরি করা হয়, যেখানে ১৮,৫০০ জন্য ব্যক্তি অংশগ্রহণ করেছিল। এই ব্যক্তিদের এবং ক্লিনিকাল রিপোর্ট ও প্রাপ্ত উপাত্তসমূহের মাধ্যমে চারটি ফলাফল সম্পর্কে অনুসন্ধান করা হয় – মৃত্যু, আত্মহত্যাপ্রবণতা, আক্রমণাত্মক আচরণ এবং উত্তেজনা। এখান থেকে দেখা যায়, প্রাপ্ত উপাত্ত সমূহ থেকে এই চারটি বিষয় সম্পর্কে শক্তিশালী উপসংহার টানা যায় না। এই ঔষধ গ্রহণ করা প্রাপ্তবয়স্কগণের মধ্যে এই চারটি বিষয়ের ক্ষেত্রে অধিকতর ঝুঁকি লক্ষ্য করা যায় নি, কিন্তু শিশুদের ক্ষেত্রে দেখা যায়, আত্মহত্যা এবং আক্রমণাত্মক হবার ঝুঁকি দ্বিগুণ হয়ে যায়। রিভিউ রিপোর্ট এর লেখকগণ অসম্পূর্ণ রিপোর্টিং এবং অতিরিক্ত উপাত্তের অভাব এবং হতাশা ব্যক্ত করেন। ক্লিনিয়াল ট্রায়াল সাজানোর ব্যাপারেও তাদের মধ্যে কিছুটা হতাশা কাজ করেছিল।[১]

সতর্কতা[সম্পাদনা]

ফুড এন্ড ড্রাগ এডমিনিস্ট্রেশনের (এফডিএ) এর নির্দেশনা অনুযায়ী সকল এসএসআরআই ওষুধের জন্য “ব্ল্যাক বক্স ওয়ার্নিংস” (ওষুধের উপর যে ওয়ার্নিং থাকে) সেখানে লেখা থাকবে, শিশু ও কিশোরদের ক্ষেত্রে এই ওষুধের বেলায় আত্মহত্যা ঝুঁকির দ্বিগুণ হয় (১,০০০ এর মধ্যে ২ থেকে ১,০০০ এর মধ্যে ৪)।[২] এটা এখনও বিতর্কিত যে এই বর্ধিত আত্মহত্যা ঝুঁকি ঔষধের কারণেই (একটি প্যারাডক্সিকাল এফেক্ট বা হেঁয়ালি প্রভাব) নাকি বিষণ্নতার কারনেই এটা হয়ে থাকে (অর্থাৎ, যারা প্রচণ্ড মাত্রার বিষণ্নতায় ভোগেন (যারা বিষণ্নতার কারণে স্বাভাবিকভাবেই প্যারালাইজড বা পক্ষাঘাতগ্রস্ত হবেন) এন্টিডিপ্রেসেন্টগুলো তাদেরকে আরও বেশি সতর্ক হবার জন্য সক্রিয় করে এবং তাদের ডিপ্রেসিভ এপিসোড থেকে সম্পূর্ণ সেড়ে ওঠার আত্মহত্যা প্রবণতা তৈরি করে)।[৩]

২০০৯ সালের একটি গবেষণায় দেখা যায়, এন্টিডিপ্রেসেন্ট গ্রহণের ফলে আত্মহত্যা প্রবণতা ও আচরণ এবং শুধু আত্মহত্যা আচরণের ঝুঁকি বয়স এর উপর নির্ভরশীল। গবেষণায় দেখা যায়, আত্মহত্যা প্রবণতা বা আচরণ (এদের মধ্যে যেকোনটা হতে পারে এমন ক্ষেত্রে) এবং শুধু আত্মহত্যা আচরণের অড রেশিও ২৫ বছরের নিচের ব্যক্তির ক্ষেত্রে যথাক্রমে ১.৬২ ও ২.৩; ২৫ থেকে ৬৫ বছরের মধ্যবর্তী বয়সের ব্যক্তিদের মাঝে এটা যথাক্রমে ০.৭৯ এবং ০.৮৭, আর ৬৫ বছর বয়সের অধিক বয়সীদের ক্ষেত্রে এটি ০.৩৭ এবং ০.০৬। এখান থেকে সিদ্ধান্ত টানা যায়, ২৫ বছরের কম বয়সী ব্যক্তির ক্ষেত্রে অনেক বেশি, ২৫ থেকে ৬৫ বছরের ব্যক্তির মধ্যে এই ঝুঁকি তুলনামূলক কম থাকে এবং ৬৫ বছরের অধিক বয়সের ক্ষেত্রে এই ঝুঁকি একেবারেই কমে যায়। এখান থেকে আরও দেখা যায়, আত্মহত্যা চিন্তা অথবা আচরণের বেলায় অড রেশিও প্রতি বছরে ২.৬% এর মত কমতে থাকে, এবং শুধুমাত্র আত্মহত্যা আচরণে অড রেশিও প্রতি বছর ৪.৬% হারে কমতে থাকে।[৪]

তরুণ রোগীদের ক্ষেত্রে, বিশেষ করে থেরাপি গ্রহণের প্রথম আট সপ্তাহ খুব যত্নের সাথে পর্যবেক্ষণ করতে হবে, এবং দেখতে হবে কোন ধরণের আত্মহত্যা চিন্তা বা আত্মহত্যা আচরণের লক্ষণ প্রকাশ পাচ্ছে কিনা। প্রচণ্ড মাত্রার বিষণ্নতায় আক্রান্ত তরুণদের বেলায় সারট্রালাইন, ট্রাইসাইক্লিক এজেন্ট এবং ভেনলাফ্যাক্সিনের বেলায় আত্মহত্যা প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে দেখা গেছে।[৫]

চিকিৎসা বন্ধ করায় অধিকতর ঝুঁকি[সম্পাদনা]

২০০৯ সালের একটি গবেষণায় দেখা যায়, চিকিৎসার ক্ষেত্রে ইনিশিয়েশন (নতুন ওষুধ নেয়া শুরু করা), টাইট্রেশন (কাঙ্ক্ষিত ফলাফল পাওয়া না গেলে ওষুধের ডোজ বাড়ানো বা কমানো) এবং ডিসকন্টিনুয়েশনের (ওষুধ গ্রহণ থামিয়ে দেয়া) বেলায় আত্মহত্যা ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়।[৬] ১৫৯,৮১০ জন এমিট্রিপটাইলিন (amitriptyline), ফ্লুক্সেটিন (fluoxetine), প্যারোক্সেটিন (paroxetine) বা ডোথিয়েপিন (dothiepin) এর যেকোনটির সেবনকারীদের নিয়ে করা একটি গবেষণায় দেখা যায় এই এন্টিডিপ্রেসেন্টগুলো গ্রহণ করা শুরুর প্রথম মাসে, বিশেষ করে শুরুর প্রথম ১ থেকে ৯ দিনের মধ্যে আত্মহত্যা আচরণের ঝুঁকি বৃদ্ধি পায়।[৭]

প্রাদুর্ভাব[সম্পাদনা]

২০০৭ সালের ৬ সেপ্টেম্বরে সেন্টারস ফর ডিজিস কনট্রোল এন্ড প্রিভেনশন রিপোর্ট করে যে, যুক্তরাষ্ট্রের কিশোর-কিশোরিদের মধ্যে (বিশেষ করে ১০ থেকে ২৪ বছর বয়সী মেয়েদের ক্ষেত্রে) ২০০৩ থেকে ২০০৪ সালে আত্মহত্যা হার ১৫ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে যা ছিল ৮ শতাংশ।[৮] ২০০৩ সালে ১০ থেকে ২৪ বছর বয়সীদের মধ্যে যেখানে আত্মহত্যার সংখ্যা ছিল ৪,২৩২ জন, সেখানে ২০০৪ সালে এটি বেড়ে দাঁড়ায় ৪,৫৯৯ জনে, যার ফলে আত্মহত্যা হার বেড়ে গিয়ে দাঁড়িয়েছিল প্রতি লাখে ৭.৩২ জন। এর পূর্বে ১৯৯০ সালে প্রতি লেখে আত্মহত্যা হাত ৯.৪৮ জন থেকে কমে গিয়ে ২০০৩ সালে ৬.৭৮ এ নেমে এসেছিল। এই গবেষণাটির একজন সমালোচক, জন জুরেইদিনি যুক্তরাষ্ট্রে ২০০৪ সালের আত্মহত্যার হিসাব পূর্বের বছরগুলোর হিসাবের সাথে পরিসংখ্যানগতভাবে তুলনা করা হয়েছে, কিন্তু এই কয়েক বছরে হয়ে যাওয়া বিভিন্ন বিষয়ের পরিবর্তন এখানে বিবেচনা করা হয়নি”।[৯] বিভিন্ন পরিবর্তনকে বিবেচনা না করবার ভুলটি আরও স্পষ্ট হয়ে ওঠে যখন নতুন এপিডেমিওলজিকাল উপাত্ত অনুসারে এসএসআরআই ওষুধ এর নির্দেশনা দান করা কমার পরও ২০০৫ সালে আত্মহত্যা হার কমে যায়। “আলাদা ভাবে বছর হিসেবে এন্টিডিপ্রেসেন্ট এর প্রেসক্রিপশন এবং আত্মহত্যার বাড়া কমা নিয়ে সীমাবদ্ধ ইকোলজিক বিশ্লেষণ থেকে কোন উপসংহার টানা ঝুঁকিপূর্ণ”।[১০]

একটি বিশ্বাসযোগ্য রোগতাত্ত্বিক প্রচেষ্টায় সাইকোট্রপিক চিকিৎসার সাথে আত্মহত্যার মধ্যকার সম্পর্ক পরীক্ষা করা হয়। এখানে দীর্ঘ সময় জুড়ে ছোট ছোট ভৌগলিক অঞ্চল থেকে উপাত্ত সংগ্রহ করা হয়। যতক্ষণ পর্যন্ত না এখান থেকে বিস্তারিত বিশ্লেষণ (detailed analysis) জানা না যায়, ততক্ষণ পর্যন্ত জনস্বাস্থ্য প্রতিক্রিয়ার উপর এফডিএ সতর্কতা নিয়ে কোন মন্তব্য প্রদান না করাই বিচক্ষণতার পরিচায়ক।[১১][১২] পরবর্তী ফলো-আপ গবেষণাগুলো এন্টিডিপ্রেসেন্ট ঔষধ আত্মহত্যা ঝুঁকি কমিয়ে দেয় এই প্রকল্পকে সমর্থন করেছে।[১৩][১৪]

এন্টিডিপ্রেসেন্ট আত্মহত্যা ঝুঁকি কমিয়ে দেয়[সম্পাদনা]

৯০০০ এরও বেশি রোগীকে নিয়ে করা ৪১টি ক্লিনিকাল ট্রায়ালের উপাত্ত থেকে ২০১২ সালের একটি গবেষণায় উপসংহার টানা হয়, “ফ্লুওক্সিটিন (Fluoxetine) এবং ভেনলাফাক্সিন (venlafaxine) প্রাপ্তবয়স্ক এবং সাধারণ রোগীদের মধ্যকার আত্মহত্যা চিন্তা ও আচরণ কমিয়ে দেয়। এক্ষেত্রে চিকিৎসার ফলে বিষণ্নতার লক্ষণ কমার সাথে সাথে আত্মহত্যা চিন্তা ও আচরণ কমতে দেখা যায়। তরুণদের ক্ষেত্রে, আত্মহত্যা চিন্তা ও আচরণে এই ওষুধগুলোর কোন প্রভাব লক্ষ্য করা যায়নি, যদিও চিকিৎসার ফলে বিষণ্নতা কমতে দেখা গেছে। সক্রিয় চিকিৎসা গ্রহণকারী তরুণদের মধ্যে আত্মহত্যা ঝুঁকি বৃদ্ধি সংরান্ত কোন সাক্ষ্যপ্রমাণ পাওয়া যায় নি”।[১৫]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Sharma, Tarang; Guski, Louise Schow; Freund, Nanna; Gøtzsche, Peter C. (২০১৬-০১-২৭)। "Suicidality and aggression during antidepressant treatment: systematic review and meta-analyses based on clinical study reports"BMJ (ইংরেজি ভাষায়)। 352: i65। doi:10.1136/bmj.i65PMID 26819231আইএসএসএন 1756-1833পিএমসি 4729837অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  2. Lenzer, J. (২০০৬)। "Antidepressants double suicidality in children, says FDA"BMJ332 (7542): 626। doi:10.1136/bmj.332.7542.626-cপিএমসি 1403224অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  3. "SSRI Antidepressants"। Patient.info। ২০১০-১০-২৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১২-১১-৩০ 
  4. Stone, M.; Laughren, T.; Jones, M L.; Levenson, M.; Holland, P C.; Hughes, A.; Hammad, T. A; Temple, R.; Rochester, G. (২০০৯)। "Risk of suicidality in clinical trials of antidepressants in adults: Analysis of proprietary data submitted to US Food and Drug Administration"BMJ339: b2880। doi:10.1136/bmj.b2880PMID 19671933পিএমসি 2725270অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  5. Olfson, Mark; Marcus, Steven; Shaffer, David (আগস্ট ২০০৬)। "Antidepressant Drug Therapy and Suicide in Severely Depressed Children and Adults"Arch Gen Psychiatry63 (8): 868। doi:10.1001/archpsyc.63.8.865PMID 16894062। সংগ্রহের তারিখ ১৮ এপ্রিল ২০১৭ 
  6. Valuck, Robert J.; Orton, Heather D.; Libby, Anne M. (২০০৯)। "Antidepressant Discontinuation and Risk of Suicide Attempt"। The Journal of Clinical Psychiatry70 (8): 1069–77। doi:10.4088/JCP.08m04943PMID 19758520 
  7. Jick, H.; Kaye, JA; Jick, SS (২০০৪)। "Antidepressants and the Risk of Suicidal Behaviors"। JAMA292 (3): 338–43। doi:10.1001/jama.292.3.338PMID 15265848 
  8. Carey, Benedict (সেপ্টেম্বর ৭, ২০০৭)। "Suicide Rises in Youth; Antidepressant Debate Looms"New York Times 
  9. Jureidini, J. (২০০৭)। "The Black Box Warning: Decreased Prescriptions and Increased Youth Suicide?"। American Journal of Psychiatry164 (12): 1907; author reply 1908–10। doi:10.1176/appi.ajp.2007.07091463PMID 18056248 
  10. "Adverse Effects of Anti-depressants"। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মার্চ ২০১৫ 
  11. Olfson, M.; Shaffer, D. (২০০৭)। "SSRI Prescriptions and the Rate of Suicide"। American Journal of Psychiatry164 (12): 1907–1908। doi:10.1176/appi.ajp.2007.07091467PMID 18056247 
  12. Kung HC, Hoyert DL, Xu J, Murphy SL। "N C H S - Health E Stats - Deaths: Preliminary Data for 2005"। National Center for Health Statistics। ১২ ডিসেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-১২-১২ 
  13. Bridge, Jeffrey A.; Iyengar, S; Salary, CB; Barbe, RP; Birmaher, B; Pincus, HA; Ren, L; Brent, DA (২০০৭)। "Clinical Response and Risk for Reported Suicidal Ideation and Suicide Attempts in Pediatric Antidepressant Treatment: A Meta-analysis of Randomized Controlled Trials"। JAMA297 (15): 1683–96। doi:10.1001/jama.297.15.1683PMID 17440145 
  14. Beasley, Charles M.; Ball, Susan G.; Nilsson, Mary E.; Polzer, John; Tauscher-Wisniewski, Sitra; Plewes, John; Acharya, Nayan (২০০৭)। "Fluoxetine and Adult Suicidality Revisited"। Journal of Clinical Psychopharmacology27 (6): 682–6। doi:10.1097/jcp.0b013e31815abf21PMID 18004137 
  15. Gibbons, Robert D.; Brown, C. Hendricks; Hur, Kwan; Davis, John M.; Mann, J. John (২০১২)। "Suicidal Thoughts and Behavior with Antidepressant Treatment: Reanalysis of the Randomized Placebo-Controlled Studies of Fluoxetine and Venlafaxine"Archives of General Psychiatry69 (6): 580–7। doi:10.1001/archgenpsychiatry.2011.2048PMID 22309973পিএমসি 3367101অবাধে প্রবেশযোগ্যlay summaryHealthDay News (ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১২)। 

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

  • Fergusson D, Doucette S, Cranley-Glass K (২০০৫)। "The association between suicide attempts and SSRIs: A systematic review of 677 randomised controlled trials representing 85,470 participants"। British Medical Journal330: 396–399। 
  • Healy D, Herxheimer A, Menkes D (2006). Antidepressants and violence: Problems at the interface of medicine and law. PLoS Medicine 3, September
  • Healy D, Harris M, Tranter R, Gutting P, Austin R, Jones-Edwards G, Roberts AP (2006). Lifetime suicide rates in treated schizophrenia: 1875–1924 and 1994–1998 cohorts compared. British Journal of Psychiatry 188, 223–228. With Commentary by T Turner, 229–230.
  • Reseland S, Le Noury J, Aldred G (২০০৮)। "National suicide rates 1961–2003: further analysis of Nordic data for suicide, autopsies and ill-defined death rates"। Psychotherapy and Psychosomatics77: 78–82। doi:10.1159/000112884 
  • Healy D, Brent D (২০০৯)। "Are Selective Serotonin Reuptake Inhibitors a risk factor for adolescent suicides?"। Canadian Journal of Psychiatry54: 69–71। 
  • Healy D (২০১১)। "Science, rhetoric and the causality of adverse events"। International J Risk & Safety in Medicine23 (3): 149–162। 

বহিঃস্থ সূত্র[সম্পাদনা]