এদিনসন কাভানি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এদিনসন কাভানি
Edinson Cavani URU.jpg
২০১১ সালে উরুগুয়ের হয়ে একটি খেলার পূর্বে কাভানি।
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম এদিনসন রবের্তো কাভানি গোমেজ
জন্ম (1987-02-14) ১৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৭ (বয়স ৩৩)
জন্ম স্থান সালতো, উরুগুয়ে
উচ্চতা ১.৮৪ মি (৬ ফু ০ ইঞ্চি)[১]
মাঠে অবস্থান ফরোয়ার্ড
যুব পর্যায়
২০০০–২০০৫ দানুবিও
জ্যেষ্ঠ পর্যায়*
সাল দল ম্যাচ (গোল)
২০০৫–২০০৭ দানুবিও ২৫ (১১)
২০০৭–২০১০ পালেরমো ১০৯ (৩৪)
২০১০–২০১৩ নাপোলি ১০৪ (৭৮)
২০১৩–২০২০ পারি সাঁ-জের্‌মাঁ ১৭৪ (১২৫)
জাতীয় দল
২০০৬–২০০৭ উরুগুয়ে অনূর্ধ্ব ২০ ১৪ (৯)
২০০৮– উরুগুয়ে ৬০ (২০)
২০১২ উরুগুয়ে অলিম্পিক (৩)
* শুধুমাত্র ঘরোয়া লীগে ক্লাবের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা গণনা করা হয়েছে এবং ৭ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখ অনুযায়ী সকল তথ্য সঠিক।
‡ জাতীয় দলের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা ২০ নভেম্বর ২০১৩ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

এদিনসন রবের্তো কাভানি গোমেজ (স্পেনীয়: Edinson Roberto Cavani Gómez, স্পেনীয় উচ্চারণ: [ˈeðinson ka'βani]; জন্ম ১৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৭) উরুগুয়ের একজন পেশাদার ফুটবলার যিনি ফরোয়ার্ড হিসেবে ফরাসি ক্লাব পারি সাঁ-জের্‌মাঁ এবং উরুগুয়ে জাতীয় দলের হয়ে খেলেন। কাভানি তার চিত্তাকর্ষক গোল করার ক্ষমতা এবং ক্লান্তিহীন কর্মদক্ষতার কারণে সুপরিচিত।[২] ২০১২ সালে, দ্য গার্ডিয়ান কর্তৃক প্রকাশিত বিশ্বের ১০০ জন সেরা ফুটবলারের তালিকায় ১০ম স্থান অর্জন করেন কাভানি[৩]

কাভানি তার কর্মজীবন শুরু করেন মন্তেভিদিও শহরের দানুবিও নামক ক্লাবে। সেখানে তিনি দুই বছর খেলেন। এরপর ২০০৭ সালে তিনি যোগ দেন পালেরমোতে। তিনি ক্লাবে চারটি মৌসুম কাটান এবং লীগের ১০৯ খেলায় ৩৪ গোল করেন। ২০১০ সালে, কাভানি যোগ দেন নাপোলিতে। ২০১১–১২ মৌসুমে, তিনি ক্লাবের হয়ে কোপা ইতালিয়া শিরোপা জিতেন। যা ক্লাবের হয়ে তার প্রথম সম্মাননা। ঐ প্রতিযোগিতায় তিনি ৫ গোল করে শীর্ষ গোলদাতা হন। নাপোলির হয়ে প্রথম দুই মৌসুমে কাভানি ৩৩টি করে গোল করেন এবং তৃতীয় মৌসুমে ৩৮টি গোল করে মৌসুমে সিরি এ এর সর্বোচ্চ গোলদাতা হন। ২০১৩ সালের ১৬ জুলাই, ৬৪ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে পিএসজিতে স্থানান্তরিত হন কাভানি।[৪]

জাতীয় দলের হয়ে কাভানির অভিষেক হয় ২০০৮ সালে ফেব্রুয়ারি ৬কলম্বিয়ার বিপক্ষে। তিনি উরুগুয়ের হয়ে ২০১০ ফিফা বিশ্বকাপ এবং ২০১১ কোপা আমেরিকায় অংশগ্রহণ করেন। ২০১০ বিশ্বকাপে তিনি একটি গোল করেন, প্রতিযোগিতায় উরুগুয়ে চতুর্থ হয়। তিনি উরুগুয়ে দলের সদস্য হিসেবে ২০১১ কোপা আমেরিকা শিরোপা জিতেন, যা উরুগুয়ের রেকর্ড ১৫তম শিরোপা।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Edinson Roberto Cavani"। এসএসসি নাপোলি। সংগ্রহের তারিখ ৪ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  2. "Messi? Falcao? Don't forget Napoli's Edinson Cavani"ব্লিচার রিপোর্ট। ৯ নভেম্বর ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ৪ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  3. "The 100 best footballers in the world – interactive"দ্য গার্ডিয়ান। ২০ ডিসেম্বর ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ৪ ডিসেম্বর ২০১৩ 
  4. "Ligue 1 - Cavani completes blockbuster £55.4m move to PSG"ইয়াহু। ১৬ জুলাই ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ৪ ডিসেম্বর ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]