এইচআইভি/এইডসের ইতিহাস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
স্ক্যানিং ইলেক্ট্রন মাইক্রোগ্রাফে পর্যবেক্ষিত লিম্ফোসাইট থেকে অঙ্কুরিত সবুজ বর্ণের এইচআইভি-১ 

হিউম্যান ইমিউনোডেফিসিয়েন্সি ভাইরাস (এইচআইভি) দ্বারা সংক্রমিত এইডস রোগের সূচনা ঘটে মধ্য ও পশ্চিম আফ্রিকার প্রাইমেটদের মধ্যে। অবশ্য এই ভাইরাসের সহ-দলীয় অন্যান্য ভাইরাস বিভিন্ন সময় মানুষকে আক্রমণ করেছে। এই থেকেই ১৯২০ সালে কঙ্গোর কিনশাসায় বৈশ্বিক মহামারীতে রূপ নেয়া এইচআইভি-১ এর সহগ্রুপ এম স্ট্রেইনের উৎপত্তি ঘটে।[১]

এইচআইভি দুই ধরনের হয়ে থাকে। এইচআইভি-১ ও এইচআইভি-২ এর মধ্যে এইচআইভি-১ তুলনামূলক বেশি তীব্র এবং সহজেই সংক্রামিত করে। এই ভাইরাসটিই বৈশ্বিকভাবে বেশিরভাগ এইচআইভি সংক্রামনের কারণ। [২] পৃথিবীব্যাপী ছড়ানো এইচআইভি-১ এর সাথে সম্পর্ক পাওয়া গেছে শিম্পাঞ্জির এক প্রজাতির মধ্যে। এই প্রজাতির শিম্পাঞ্জির বসতি মধ্য আফ্রিকার দেশগুলো ক্যামেরুন, বিষুবীয় গিনি, গ্যাবন, কঙ্গো প্রজাতন্ত্র এবং মধ্য আফ্রিকান প্রজাতন্ত্র দেশগুলোতে।এইচআইচি-২ অপেক্ষাকৃত কম সংক্রামক এবং পশ্চিম আফ্রিকায় বিস্তৃত। এই ভাইরাসটি আবার দক্ষিণ সেনেগাল, গিনি-বিসাউ, সিয়েরা লিওন, লাইবেরিয়া এবং আইভরি কোস্টের পশ্চিমে বসতি স্থাপন করা পুরনো বিশ্বের বানরের মাঝে প্রাপ্ত এক ভাইরাসের (Cercocebus atys atys) সাথে গভীর সম্পর্কযুক্ত। [৩]

মানুষ নয় এমন প্রাণী থেকে মানুষের মাঝে সংক্রমণ[সম্পাদনা]

অধিকন্তুক এইচআইভি গবেষক এব্যাপারে একমত যে,  সিমিয়ান ইমিউনোডেফিসিয়েন্সি ভাইরাস (SIV) থেকে নিবিড় সম্পর্কযুক্ত এইচআইভি কোন একসময় মিউটেশনের মাধ্যমের স্বীয় রূপ লাভ করেছে এবং মানুষ নয় এমন প্রাইমেট থেকে অনাদিকালে মানুষের মাঝে সংক্রমিত হয়েছে।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] এক্ষেত্রে গবেষণার্থে গবেষকেরা মলিকুলার ফাইলোজিনেটিক্স পদ্ধতিতে ভাইরাল জিনোমিক সিকুয়েন্স দ্বারা মধ্যকার সম্পর্ক নির্নয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। 

শিম্পাঞ্জি ও গরিলা থেকে মানুষের মাঝে এইচআইভি-১ [সম্পাদনা]

বিজ্ঞানীরা সাধারণত এইচআইভি-১ এবং সিমিয়ান ইমিউনোডেফিসিয়েন্সি ভাইরাসের (SIVs) মধ্যকার সম্পর্ক মেনে নিয়েছেন। উল্লেখ্য, সিমিয়ান ইমিউনোডেফিসিয়েন্সি ভাইরাস (SIVs) পশ্চিম আফ্রিকার জঙ্গলে নরবানরের মাঝে ছড়িয়েছিল। আরো স্পষ্টভাবে বললে, এইচআইভি-১ এর সাথে শিম্পাঞ্জির মাঝে সংক্রমণ হওয়া এসআইভির অথবা পশ্চিমের নিম্নভূমির গরিলার মাঝে ছড়ানো SIVgor ভাইরাসের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে।[৪][৫][৬][৭][৮][৯]  বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া এইচআইভি-১ (গ্রুপ এম বা প্রধান) এবং ক্যামেরুনের মানুষ হতে সংগ্রহকৃত (গ্রুপ এন) বিরল স্ট্রেইন গবেষণা করে দেখা গেছে এই ভাইরাসগুলো স্পষ্টত শিম্পাঞ্জির মাঝে ছড়ানো এসআইভিসিপিযি (SIVcpz s) স্ট্রেইন Pan troglodytes troglodytes ভাইরাস থেকেই এসেছে।এইচআইভি-১ এর আরেক স্ট্রেইন (গ্রুপ পি) স্পষ্টত গরিলার মাঝে সংক্রমিত এসআইভিগর (SIVgor) থেকে বিবর্তিত। সর্বশেষে, এইচআইভি-১ (গ্রুপ ও), যা ক্যামেরুনের প্রায় ১ লক্ষ মানুষকে সংক্রমিত করেছে তাও একই এসআইভিগর থেকে উৎপন্ন হয়েছে। বলা যায়, ক্যামেরুনের (পূর্বাঞ্চলে) সাংঘা নদীর কাছবর্তী এলাকাতেই এই ভাইরাসের সংক্রমণ শিম্পাঞ্জি থেকে মানুষের মাঝে ঘটে। অবশ্য কিছু বিজ্ঞানী এই সংক্রমণ ক্যামেরুনে হয়েছে বলে মানতে নারাজ। তাদের মতে কঙ্গো প্রজাতন্ত্রের দক্ষিণে, খুব সম্ভববত দেশটির রাজধানী কিনশাসাতেই প্রথম মানুষের মাঝে এইচআইভির সংক্রমণ ঘটে।[১০][১১]

সুটি মাঙ্গাবি বানর থেকে মানুষের মাঝে এইচআইভি-১[সম্পাদনা]

একই ধরনের গবেষণা এসআইভি স্ট্রেইন পশ্চিম আফ্রিকার সিয়েরা লিওন, লাইবেরিয়া এবং আইভরি কোস্টের একাধিক সুটি মাঙ্গাবি বানর (Cercocebus atys atys) থেকে সংগ্রহ করা হয়েছিল। ফাইলোজেনেটিক এনালাইসিস দেখিয়েছে যে এইচআইভি-২ এর দুই স্ট্রেইনের সাথে এই ভাইরাসে ঘনিষ্ট সম্পর্ক আছে। 

মলিকুলার তারিখ নির্ণয় পদ্ধতিতে জানা গেছে, এইচআইভির দুই স্ট্রেইনই (এ এবং বি) ১৯০৫ থেকে ১৯৬১ এর মধ্যে (আরো মধ্যবর্তী সময় বিবেচনায় ১৯৩২-১৯৪৫) মানুষের মাঝে ছড়ানো শুরু হয়েছে।[১২] [১৩]

বন্যমাংস ভক্ষণ[সম্পাদনা]

প্রাকৃতিক বদল তত্ত্বানুসারে ("শিকারী তত্ত্ব" বা "বন্যমাংস তত্ত্ব" নামেও পরিচিত) ভিন্ন প্রজাতির মাঝে সংক্রমণ ছড়ানোর "সবচেয়ে সহজ সম্ভাব্য ব্যাখ্যা" পাওয়া যায়। এসআইভি অথবা মিউটেশন পূর্ববর্তী এইচআইভি নরবানর বা বানর থেকে মানুষের মাঝে সংক্রমণ হয়েছে যখন মানুষ বন্যমাংস বিক্রির জন্য বা শিকার করতে গিয়ে কোন পশু কর্তৃক কামড় বা আঘাতে শিকার হয়েছে। এর ফলে সম্ভবত আহত ব্যক্তির রক্ত বা অন্য কোন শারীরিক তরল সেই পশুর এসআইভির সংস্পর্শে এসে সংক্রমিত হয়েছে। [১৪] ইউরোপের নিজস্ব চাহিদা বৃদ্ধিতে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পূর্ববর্তী সময়ে সাহারা সংলগ্ন আফ্রিকার নিবাসীদের জোর করে বনের দিকে বসবাস করতে ঠেকে দেয়া হয়েছিল।সেই থেকে গ্রাম্য আফ্রিকানরা কৃষি অপেক্ষা বন-জঙ্গল থেকে বন্য পশুর মাংস সংগ্রহ করে নিজদের প্রোতিনের চাহিদা পূরণে স্বচ্ছন্দবোধ করতে শুরু করে।বন্যপশুর মাংসের এই হঠাৎ চাহিদা বৃদ্ধি মানুষের রক্তের সাথে পশুর রক্তের সংস্পর্শে আসসার হার হুট করেই বাড়িয়ে দেয়। এর ফলে সম্ভাব্য সংক্রমণ হয়েছে বলে ধারণা করা হয়। [১৫]

ভাইরাসের সনাক্তকরণ[সম্পাদনা]

মে ১৯৮৩ঃ এলএভি[সম্পাদনা]

ফ্রান্সে পাস্তুর ইন্সটিটিউটে ১৯৮৩ সালের মে মাসে, এক দল ডাক্তার লিম্ফয়েড গ্যাংগ্লিয়ন থেকে এক ধরনের নতুন রেট্রোভাইরাস সনাক্ত করেছেন বলে রিপোর্ট করেন। তারা এটাও বলেন যে, তাদের বিশ্বাস এই ভাইরাসের কারণেই এইডস রোগ হয়।ডাক্তারদের এই দলের মাঝে ছিলেন ফ্রান্সিস্কো ব্যারে সিনৌসি এবং লুক মন্টাগ্নিয়ের। ভাইরাসটিকে লিম্ফাডেনোপ্যাথি-এসোসিয়েটেড ভাইরাস (lymphadenopathy-associated virus) বা এলএভি নামকরণ করা হয়। এর নমুনা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রোগ প্রতিরোধ অধিদপ্তরে পাঠানো হলে তা পরবর্তীতে ন্যাশনাল ক্যান্সার ইন্সটিটিউটের কাছে প্রেরিত হয়।[১৬][১৭]

মে ১৯৮৪ঃ এইচটিএলভি-III[সম্পাদনা]

১৯৮৪ সালের মে রবার্ট গেলোর তত্ববধানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের একটি দল ভাইরাসটি আবিষ্কারের ব্যাপারে নিশ্চিত করেন। তবে তারা ভাইরাসটিকে হিউম্যান টি লিম্ফোট্রপিক ভাইরাস টাইপIII (HTLV-III) নামে নতুনভাবে নামকরণ করেন।[১৮]

আগস্ট ১৯৮৪ঃ এআরভি[সম্পাদনা]

স্যান ফ্রান্সিসকোর ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ডক্টর জে লেভির দল এইচআইভি আবিষ্কারে ভূমিকা রেখেছেন। তিনি স্বাধীনভাবে এইডসের ভাইরাস ১৯৮৩ সালে সংগ্রহ করেন এবং এর নাম দেন এইডস-এসোসিয়েটেড রেট্রোভাইরাস বা এআরভি। তার এই আবিষ্কার ১৯৮৪ সালের সায়েন্স পত্রিকায় প্রকাশিত হয়।[১৯]

জানুয়ারি ১৯৮৫ঃ উভয়ই একই[সম্পাদনা]

I১৯৮৫ সালের জানুয়ারিতে একাধিক গবেষনা লব্ধ্য ফলাফল থেকে প্রতীয়মান হয় যে, এলএভি এবংএইচটিএলভি-III উভয় ভাইরাসই মূলতঃ একই ভাইরাস। গ্যালোর ল্যাবে প্রাপ্ত ভাইরাস মূলতঃ মন্ট্যাগ্নিয়েরের ১৯৮৩ সালের রিপোর্টে দেয়া এক রোগীর লসিকাগ্রন্থি থেকে সংগ্রহকৃত।[২০]--- এবং এটাই এইডস রোগের কারণ।[২১][২২]

মে ১৯৮৬ঃ এইচআইভি নামকরণ[সম্পাদনা]

১৯৮৬ সালের মে মাসে, আন্তর্জাতিক ভাইরাস শ্রেণিবিদ্যা কমিটি ভাইরাসটির জন্য উভয় নামই বাতিল করে এবং এইচআইভি নাম ব্যবহারের আদেশ জারী করে।[২৩]

নোবেল[সম্পাদনা]

এইচআইভির আবিষ্কাররে গ্যালো নাকি মন্টাগ্নিয়ের কার বেশি অবদান এ নিয়ে বিপুল বিতর্ক রয়েছে। ফ্রান্সিস্কো ব্যারে সিনৌসি সহ ২০০৮ সালে মন্টাগনিয়ের "এইচআইভি আবিষ্কারের জন্য" চিকিৎসাবিজ্ঞানে নোবেল পদক লাভ করেন।[২৪]জরায়ুমুখ ক্যান্সারের জন্য দায়ী হিউম্যান প্যাপিলোমা ভাইরাস আবিষ্কারের জন্য হারাল্ড ৎসুর হাউজেন সেই বছর পদকটির অংশীদার হন। তবে গ্যালোকে এক্ষেত্রে সম্মাননা দেয়া হয়নি। গ্যালোর মতে অন্যদের সাথে নোবেল পদকে সহ-সম্মাননা না পাওয়া "হতাশাজনক" ছিল।[২৫] অপরদিকে মন্টাগনিয়ে নোবেল কমিটির এই সিদ্ধান্তে বিস্মিত হন এবং রবার্ট গ্যালোর জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন।[২৬]

নিন্দিত প্রকল্প[সম্পাদনা]

এইডসের উদ্ভবের ব্যাপারে অন্য আরেকটি প্রকল্পের প্রস্তাবনা করা হয়েছে। এইডস অস্বীকারকারীদের মতে এইচআইভি বা এইডসের কোন অস্তিত্ব নেই অথবা এইচআইভি এইডসের কারণ নয়। এই মতবাদের বিশ্বাসীরা মনে করেন, এইডস জীবনধারার কারণে হয়। তাদের মতে এইচআইভি নয় বরং যৌনতা অথবা মাদকগ্রহণ ইত্যাদিকে এইডসের কারণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। কিছু ষড়যন্ত্র তত্ত্ব মোতাবেক হিসেবে এইচআইভি পরীক্ষাগারে তৈরি এক ধরনের জৈবঅস্ত্র। খুব সম্ভবত গণহত্যার উদ্দেশ্যে অথবা দূর্ঘটনার ফলে এই ভাইরাস তৈরি। এই প্রকল্পগুলো বিজ্ঞান মহলের দ্বারা বাতিল হয়েছে। সাধারণভাবে প্যাথলজিস্টরা মেনে নিয়েছেন, " এইচআইভি যে এইডস রোগের কারণ তা বৈজ্ঞানিকভাবেই প্রমাণিত" ,[২৭] এবং তথাকথিত বৈজ্ঞানিক বিতর্কের যে কুতর্ক প্রচলিত আছে, তা মেয়াদোত্তীর্ণ তথ্যের ভুল ও মিথ্যে বর্ননা।[২৮][২৯]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

টিকা[সম্পাদনা]

  1. James Gallagher (অক্টোবর ২, ২০১৪)। "Aids: Origin of pandemic 'was 1920s. Kinshasa'"। BBC। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৫, ২০১৪ 
  2. Reeves JD, Doms RW (২০০২)। "Human immunodeficiency virus type 2"। The Journal of General Virology83 (Pt 6): 1253–65। doi:10.1099/0022-1317-83-6-1253PMID 12029140 
  3. Santiago ML, Range F, Keele BF, Li Y, Bailes E, Bibollet-Ruche F, Fruteau C, Noë R, Peeters M, Brookfield JF, Shaw GM, Sharp PM, Hahn BH (২০০৫)। "Simian Immunodeficiency Virus Infection in Free-Ranging Sooty Mangabeys (Cercocebus atys atys) from the Tai Forest, Cote d'Ivoire: Implications for the Origin of Epidemic Human Immunodeficiency Virus Type 2"Journal of Virology79 (19): 12515–27। doi:10.1128/JVI.79.19.12515-12527.2005PMID 16160179পিএমসি 1211554অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  4. Keele BF, Van Heuverswyn F, Li Y, Bailes E, Takehisa J, Santiago ML, Bibollet-Ruche F, Chen Y, Wain LV, Liegeois F, Loul S, Ngole EM, Bienvenue Y, Delaporte E, Brookfield JF, Sharp PM, Shaw GM, Peeters M, Hahn BH (২০০৬)। "Chimpanzee Reservoirs of Pandemic and Nonpandemic HIV-1"Science313 (5786): 523–6। doi:10.1126/science.1126531PMID 16728595পিএমসি 2442710অবাধে প্রবেশযোগ্যবিবকোড:2006Sci...313..523K 
  5. "HIV's ancestry traced to wild chimps in Cameroon"USA Today। ২০০৬-০৫-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১০-০৫-২০ 
  6. Van Heuverswyn F, Li Y, Neel C, Bailes E, Keele BF, Liu W, Loul S, Butel C, Liegeois F, Bienvenue Y, Ngolle EM, Sharp PM, Shaw GM, Delaporte E, Hahn BH, Peeters M (২০০৬)। "Human immunodeficiency viruses: SIV infection in wild gorillas"। Nature444 (7116): 164। doi:10.1038/444164aPMID 17093443বিবকোড:2006Natur.444..164V 
  7. Plantier JC, Leoz M, Dickerson JE, De Oliveira F, Cordonnier F, Lemée V, Damond F, Robertson DL, Simon F (২০০৯)। "A new human immunodeficiency virus derived from gorillas"। Nature Medicine15 (8): 871–72। doi:10.1038/nm.2016PMID 19648927 
  8. Sharp PM, Bailes E, Chaudhuri RR, Rodenburg CM, Santiago MO, Hahn BH (২০০১)। "The origins of acquired immune deficiency syndrome viruses: where and when?"Philosophical Transactions of the Royal Society B: Biological Sciences356 (1410): 867–76। doi:10.1098/rstb.2001.0863PMID 11405934পিএমসি 1088480অবাধে প্রবেশযোগ্য 
  9. Takebe, Y; Uenishi, R; Li, X (২০০৮)। "Global Molecular Epidemiology of HIV: Understanding the Genesis of AIDS Pandemic"। Jeang, Kuan-Teh। HIV-1: Molecular Biology and Pathogenesis। Advances in Pharmacology। 56। পৃষ্ঠা 1–25। doi:10.1016/S1054-3589(07)56001-1আইএসবিএন 9780123736017 
  10. Gao F, Bailes E, Robertson DL, Chen Y, Rodenburg CM, Michael SF, Cummins LB, Arthur LO, Peeters M, Shaw GM, Sharp PM, Hahn BH (১৯৯৯)। "Origin of HIV-1 in the chimpanzee Pan troglodytes troglodytes"। Nature397 (6718): 436–441। doi:10.1038/17130PMID 9989410বিবকোড:1999Natur.397..436G 
  11. de Sousa JD, Müller V, Lemey P, Vandamme AM (২০১০)। "High GUD Incidence in the Early 20th century Created a Particularly Permissive Time Window for the Origin and Initial Spread of Epidemic HIV Strains"PLoS ONE5 (4): e9936। doi:10.1371/journal.pone.0009936PMID 20376191পিএমসি 2848574অবাধে প্রবেশযোগ্যবিবকোড:2010PLoSO...5.9936S 
  12. Lemey P, Pybus OG, Wang B, Saksena NK, Salemi M, Vandamme AM (২০০৩)। "Tracing the origin and history of the HIV-2 epidemic"Proceedings of the National Academy of Sciences100 (11): 6588–92। doi:10.1073/pnas.0936469100PMID 12743376পিএমসি 164491অবাধে প্রবেশযোগ্যবিবকোড:2003PNAS..100.6588L 
  13. Wertheim JO, Worobey M (২০০৯)। Drummond AJ, সম্পাদক। "Dating the Age of the SIV Lineages That Gave Rise to HIV-1 and HIV-2"PLoS Computational Biology5 (5): e1000377। doi:10.1371/journal.pcbi.1000377PMID 19412344পিএমসি 2669881অবাধে প্রবেশযোগ্যবিবকোড:2009PLSCB...5E0377W 
  14. Annabel Kanabus & Sarah Allen. Updated by Bonita de Boer (২০০৭)। "The Origins of HIV & the First Cases of AIDS"AVERT (an international HIV and AIDS charity based in the UK)। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০২-২৮ 
  15. Chitnis A, Rawls D, Moore J (২০০০)। "Origin Of HIV Type 1 In Colonial French Equatorial Africa?"। AIDS Research and Human Retroviruses16: 5–8। doi:10.1089/088922200309548PMID 10628811 উদ্ধৃতি শৈলী রক্ষণাবেক্ষণ: একাধিক নাম: লেখকগণের তালিকা (link)
  16. Centers for Disease Control (CDC). (July 1982)। "Isolation of a T-lymphotropic retrovirus from a patient at risk for acquired immune deficiency syndrome (AIDS)"Science220 (4599): 868–71। doi:10.1126/science.6189183PMID 6189183বিবকোড:1983Sci...220..868B  একের অধিক author-name-list parameters উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য); এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |year= / |date= mismatch (সাহায্য)একের অধিক author-name-list parameters উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য); এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |year= / |date= mismatch (সাহায্য)
  17. Kingman, Sharon; Connor, Steve (July 1982)। "The search for the virus"MMWR Morb. Mortal. Wkly. Rep.। Harmondsworth [Eng.]: Penguin। 31 (26): 353–4, 360–1। PMID 6811853আইএসবিএন 0-14-011397-5  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |year= / |date= mismatch (সাহায্য)এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |year= / |date= mismatch (সাহায্য)
  18. Popovic M, Sarngadharan MG, Read E, Gallo RC (১৯৮৪)। "Detection, isolation, and continuous production of cytopathic retroviruses (HTLV-III) from patients with AIDS and pre-AIDS"। Science224 (4648): 497–500। doi:10.1126/science.6200935PMID 6200935বিবকোড:1984Sci...224..497P 
  19. Levy, J.A., et al., Isolation of lymphocytopathic retroviruses from San Francisco patients with AIDS. Science, 1984. 225: p. 840-842
  20. Coghlan, Andy (7 October 2008)। "Was Robert Gallo robbed of the Nobel prize?"Science220 (4599): 868–71। doi:10.1126/science.6189183PMID 6189183বিবকোড:1983Sci...220..868B। সংগ্রহের তারিখ 16 September 2017  একের অধিক author-name-list parameters উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য); এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |year= / |date= mismatch (সাহায্য)একের অধিক author-name-list parameters উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য); এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |year= / |date= mismatch (সাহায্য)
  21. Kingman, Sharon; Connor, Steve (March 1985)। A virus by any other name . .227। Harmondsworth [Eng.]: Penguin। পৃষ্ঠা 1449–51। doi:10.1126/science.2983427PMID 2983427আইএসবিএন 0-14-011397-5বিবকোড:1985Sci...227.1449M  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |year= / |date= mismatch (সাহায্য)এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |year= / |date= mismatch (সাহায্য)
  22. Chang SY, Bowman BH, Weiss JB, Garcia RE, White TJ (জুন ১৯৯৩)। "The origin of HIV-1 isolate HTLV-IIIB"Nature363 (6428): 466–9। doi:10.1038/363466a0PMID 8502298বিবকোড:1993Natur.363..466C 
  23. Coffin J, Haase A, Levy JA, Montagnier L, Oroszlan S, Teich N, Temin H, Toyoshima K, Varmus H, Vogt P (১৯৮৬)। "What to call the AIDS virus?"। Nature321 (6065): 10। doi:10.1038/321010a0PMID 3010128বিবকোড:1986Natur.321...10. 
  24. "The Nobel Prize in Physiology or Medicine 2008"। Nobel Foundation। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ২৮, ২০০৯ 
  25. Altman, Lawrence (২০০৮-১০-০৬)। "Three Europeans Win the 2008 Nobel for Medicine"। New York Times। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১০-০৬ 
  26. Cohen J, Enserink M (১০ অক্টোবর ২০০৮)। "Nobel Prize in Physiology or Medicine: HIV, HPV researchers honored, but one scientist is left out"। Science322 (5899): 149–175। doi:10.1126/science.322.5899.174PMID 18845715 
  27. Medicine, Institute of (১৯৬৯-১২-৩১)। Confronting AIDS: Update 1988 (ইংরেজি ভাষায়)। পৃষ্ঠা 2। doi:10.17226/771আইএসবিএন 9780309038799... the evidence that HIV causes AIDS is scientifically conclusive. 
  28. "HIV/AIDS | NIH: National Institute of Allergy and Infectious Diseases"www.niaid.nih.gov (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-১৯ 
  29. "Denying science"Nature Medicine (ইংরেজি ভাষায়)। 12 (4): 369–369। ২০০৬-০৪-০১। doi:10.1038/nm0406-369PMID 16598265আইএসএসএন 1078-8956To support their ideas, some AIDS denialists have also misappropriated a scientific review in Nature Medicine which opens with this reasonable statement: "Despite considerable advances in HIV science in the past 20 years, the reason why HIV-1 infection is pathogenic is still debated." 

আরোও পড়ুন[সম্পাদনা]