বিষয়বস্তুতে চলুন

উয়েফা ইউরো ২০২০ নকআউট পর্ব

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

উয়েফা ইউরো ২০২০-এর নকআউট পর্ব ২০২১ সালের ২৬শে জুলাই তারিখে ১৬ দলের পর্বে মাধ্যমে শুরু হয়ে ১১ই জুলাই তারিখে ইংল্যান্ডের লন্ডনের ওয়েম্বলি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ফাইনালের মাধ্যমে শেষ হয়েছে।[১]

নিম্নে তালিকাভুক্ত ম্যাচগুলোর সময় মধ্য ইউরোপীয় গ্রীষ্মকালীন সময় অনুযায়ী উল্লেখ করা হয়েছে (ইউটিসি+২)। যদি স্থানটি একটি ভিন্ন সময় অঞ্চলে অবস্থিত হয় তবে স্থানীয় সময়ও উল্লেখ করা হয়েছে।

বিন্যাস

[সম্পাদনা]

নকআউট পর্বে, যদি একটি খেলার ফলাফল ৯০ মিনিট পরেও সমতায় থাকে, অতিরিক্ত সময়ের খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছিল (১৫ মিনিট করে দুই অর্ধে ৩০ মিনিট), যেখানে প্রতিটি দলের ষষ্ঠ খেলোয়াড় বদল করার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল।[২] যদি অতিরিক্ত সময়ের পরেও খেলার ফলাফল সমতায় থাকে, তবে খেলার ফলাফল পেনাল্টি শুট-আউটের মাধ্যমে নির্ধারণ করা ছিল।[৩]

উয়েফা ১৬ দলের পর্বের জন্য নিম্নলিখিত সময়সূচী নির্ধারণ করেছিল:[৩]

  • ম্যাচ ১: গ্রুপ বি-এ প্রথম স্থান অধিকারী বনাম গ্রুপ এ/ডি//এফ-এ তৃতীয় স্থান অধিকারী
  • ম্যাচ ২: গ্রুপ এ-এ প্রথম স্থান অধিকারী বনাম গ্রুপ সি-এ দ্বিতীয় স্থান অধিকারী
  • ম্যাচ ৩: গ্রুপ এফ-এ প্রথম স্থান অধিকারী বনাম গ্রুপ এ/বি/সি-এ তৃতীয় স্থান অধিকারী
  • ম্যাচ ৪: গ্রুপ ডি-এ দ্বিতীয় স্থান অধিকারী বনাম গ্রুপ ই-এ দ্বিতীয় স্থান অধিকারী
  • ম্যাচ ৫: গ্রুপ ই-এ প্রথম স্থান অধিকারী বনাম গ্রুপ এ/বি/সি/ডি-এ তৃতীয় স্থান অধিকারী
  • ম্যাচ ৬: গ্রুপ ডি-এ প্রথম স্থান অধিকারী বনাম গ্রুপ এফ-এ দ্বিতীয় স্থান অধিকারী
  • ম্যাচ ৭: গ্রুপ সি-এ প্রথম স্থান অধিকারী বনাম গ্রুপ ডি/ই/এফ-এ তৃতীয় স্থান অধিকারী
  • ম্যাচ ৮: গ্রুপ এ-এ দ্বিতীয় স্থান অধিকারী বনাম গ্রুপ বি-এ দ্বিতীয় স্থান অধিকারী

কোয়ার্টার-ফাইনাল ম্যাচের সময়সূচী ছিল:[৩]

  • কোয়ার্টার-ফাইনাল ১: ম্যাচ ১-এর বিজয়ী বনাম ম্যাচ ২-এর বিজয়ী
  • কোয়ার্টার-ফাইনাল ২: ম্যাচ ৩-এর বিজয়ী বনাম ম্যাচ ৪-এর বিজয়ী
  • কোয়ার্টার-ফাইনাল ৩: ম্যাচ ৫-এর বিজয়ী বনাম ম্যাচ ৬-এর বিজয়ী
  • কোয়ার্টার-ফাইনাল ৪: ম্যাচ ৭-এর বিজয়ী বনাম ম্যাচ ৮-এর বিজয়ী

সেমি-ফাইনাল ম্যাচের সময়সূচী ছিল:[৩]

  • সেমি-ফাইনাল ১: কোয়ার্টার-ফাইনাল ১-এর বিজয়ী বনাম কোয়ার্টার-ফাইনাল ২-এর বিজয়ী
  • সেমি-ফাইনাল ২: কোয়ার্টার-ফাইনাল ৩-এর বিজয়ী বনাম কোয়ার্টার-ফাইনাল ৪-এর বিজয়ী

ফাইনালের সময়সূচী ছিল:[৩]

  • সেমি-ফাইনাল ১-এর বিজয়ী বনাম সেমি-ফাইনাল ২-এর বিজয়ী

উয়েফা ইউরো ১৯৮৪-এর পর থেকে প্রতিটি আসরের মতো এই আসরেও তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচ নেই।

১৬ দলের পর্বের ম্যাচের বিন্যাস

[সম্পাদনা]

তৃতীয় স্থান অধিকারী দলগুলোর ম্যাচের সময়সূচী কোন চারটি তৃতীয় স্থান অধিকারী দল ১৬ দলের পর্বে উত্তীর্ণ হবে তার উপর নির্ভর করবে:[৩]

  ১৬ দলের পর্বের জন্য উত্তীর্ণ চারটি দলের বিন্যাস
গ্রুপ হতে উত্তীর্ণ
তৃতীয় স্থান অধিকারী
১বি
বনাম
১সি
বনাম
১ই
বনাম
১এফ
বনাম
বি সি ডি ৩এ ৩ডি ৩বি ৩সি
বি সি ৩এ ৩ই ৩বি ৩সি
বি সি এফ ৩এ ৩এফ ৩বি ৩সি
বি ডি ৩ডি ৩ই ৩এ ৩বি
বি ডি এফ ৩ডি ৩এফ ৩এ ৩বি
বি এফ ৩ই ৩এফ ৩বি ৩এ
সি ডি ৩ই ৩ডি ৩সি ৩এ
সি ডি এফ ৩এফ ৩ডি ৩সি ৩এ
সি এফ ৩ই ৩এফ ৩সি ৩এ
ডি এফ ৩ই ৩এফ ৩ডি ৩এ
বি সি ডি ৩ই ৩ডি ৩বি ৩সি
বি সি ডি এফ ৩এফ ৩ডি ৩সি ৩বি
বি সি এফ ৩এফ ৩ই ৩সি ৩বি
বি ডি এফ ৩এফ ৩ই ৩ডি ৩বি
সি ডি এফ ৩এফ ৩ই ৩ডি ৩সি

উত্তীর্ণ দল

[সম্পাদনা]

৬টি গ্রুপের প্রতিটি গ্রুপ থেকে শীর্ষ দুই স্থান অধিকারী দল সেরা চারটি তৃতীয় স্থান অধিকারী দল ১৬ দলের পর্বের উত্তীর্ণ হয়েছে।[৩]

গ্রুপ প্রথম স্থান অধিকারী দ্বিতীয় স্থান অধিকারী তৃতীয় স্থান অধিকারী
(সেরা চার উত্তীর্ণ)
 ইতালি  ওয়েলস   সুইজারল্যান্ড
বি  বেলজিয়াম  ডেনমার্ক
সি  নেদারল্যান্ডস  অস্ট্রিয়া  ইউক্রেন
ডি  ইংল্যান্ড  ক্রোয়েশিয়া  চেক প্রজাতন্ত্র
 সুইডেন  স্পেন
এফ  ফ্রান্স  জার্মানি  পর্তুগাল

বন্ধনী

[সম্পাদনা]
 
১৬ দলের পর্বকোয়ার্টার-ফাইনালসেমি-ফাইনালফাইনাল
 
              
 
২৭ জুন ২০২১ – সেভিয়া
 
 
 বেলজিয়াম
 
২ জুলাই ২০২১ – মিউনিখ
 
 পর্তুগাল
 
 বেলজিয়াম
 
২৬ জুন ২০২১ – লন্ডন
 
 ইতালি
 
 ইতালি (অ.স.প.)
 
৬ জুলাই ২০২১ – লন্ডন
 
 অস্ট্রিয়া
 
 ইতালি (পে.) ১ (৪)
 
২৮ জুন ২০২১ – বুখারেস্ট
 
 স্পেন ১ (২)
 
 ফ্রান্স ৩ (৪)
 
২ জুলাই ২০২১ – সেন্ট পিটার্সবার্গ
 
  সুইজারল্যান্ড (পে.) ৩ (৫)
 
  সুইজারল্যান্ড ১ (১)
 
২৮ জুন ২০২১ – কোপেনহেগেন
 
 স্পেন (পে.) ১ (৩)
 
 ক্রোয়েশিয়া
 
১১ জুলাই ২০২১ – লন্ডন
 
 স্পেন (অ.স.প.)
 
 ইতালি (পে.) ১ (৩)
 
২৯ জুন ২০২১ – গ্লাসগো
 
 ইংল্যান্ড ১ (২)
 
 সুইডেন
 
৩ জুলাই ২০২১ – রোম
 
 ইউক্রেন (অ.স.প.)
 
 ইউক্রেন
 
২৯ জুন ২০২১ – লন্ডন
 
 ইংল্যান্ড
 
 ইংল্যান্ড
 
৭ জুলাই ২০২১ – লন্ডন
 
 জার্মানি
 
 ইংল্যান্ড (অ.স.প.)
 
২৭ জুন ২০২১ – বুদাপেস্ট
 
 ডেনমার্ক
 
 নেদারল্যান্ডস
 
৩ জুলাই ২০২১ – বাকু
 
 চেক প্রজাতন্ত্র
 
 চেক প্রজাতন্ত্র
 
২৬ জুন ২০২১ – আমস্টারডাম
 
 ডেনমার্ক
 
 ওয়েলস
 
 
 ডেনমার্ক
 

১৬ দলের পর্ব

[সম্পাদনা]

ওয়েলস বনাম ডেনমার্ক

[সম্পাদনা]
ওয়েলস[৫]
ডেনমার্ক[৫]
গো ১২ ড্যানি ওয়ার্ড
রা.ব্যা. ১৪ কনর রবার্টস ৪০তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৪০'
সে.ব্যা. জো রোডন হলুদ কার্ড ২৬'
সে.ব্যা. ২২ ক্রিস মেফাম
লে.ব্যা. বেন ডেভিস
সে.মি. ১৬ জো মোরেল ৫৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৫৯'
সে.মি. জো অ্যালেন
রা.উ. ২০ ড্যানিয়েল জেমস ৭৮তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৮'
অ্যা.মি. ১০ অ্যারন রামজি
লে.ফ. ১১ গ্যারেথ বেল (অধি:) হলুদ কার্ড ৯০+৩'
সে.ফ. ১৩ কিফার মুর হলুদ কার্ড ৪০' ৭৮তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৮'
বদলি খেলোয়াড়:
নেকো উইলিয়ামস ৪০তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৪০'
হ্যারি উইলসন লাল কার্ড ৯০' ৫৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৫৯'
টাইলার রবার্টস ৭৮তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৮'
১৯ ডেভিড ব্রুকস হলুদ কার্ড ৮০' ৭৮তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৮'
ম্যানেজার:
ওয়েলস রব পেজ
গো ক্যাসপার স্মাইকেল
সে.ব্যা. অ্যান্দ্রেয়াস ক্রিস্টেনসেন
সে.ব্যা. সিমোন কেয়ার (অধি:) ৭৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৭'
সে.ব্যা. ইয়ানিক ভেস্টারগার্ড
রা.মি. ১৭ ইয়েন্স স্ট্রিগার লারসেন ৭৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৭'
সে.মি. ২৩ পিয়ের-এমিল হোইবিয়ার্গ
সে.মি. টমাস ডেলেনি ৬০তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬০'
লে.মি. ইওয়াকিম ম্যালে
রা.ফ. ১৪ মিকেল ডামসগার্ড ৬০তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬০'
সে.ফ. ১২ ক্যাসপার ডলবার্গ ৬৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৯'
লে.ফ. মার্টিন ব্র্যাথওয়েট
বদলি খেলোয়াড়:
২৪ মাটিয়াস ইয়েনসেন ৬০তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬০'
১৫ ক্রিস্টিয়ান নরগার্ড ৬০তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬০'
২১ অ্যান্দ্রেয়াস কোর্নেলিউস ৬৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৯'
২৬ নিকোলাই বোইলেসেন ৭৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৭'
ইওয়াকিম আন্দারসেন ৭৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৭'
ম্যানেজার:
ডেনমার্ক ক্যাসপার ইয়ুলম্যান্দ

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
ক্যাসপার ডলবার্গ (ডেনমার্ক)[৬]

সহকারী রেফারি:[৫]
ইয়ান সাইডেল (জার্মানি)
রাফায়েল ফল্টিন (জার্মানি)
চতুর্থ রেফারি:
ওভিদিউ হাতেগান (রোমানিয়া)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
সেবাস্তিয়ান গেয়র্গে (রোমানিয়া)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
বাস্টিয়ান ডানকার্ট (জার্মানি)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
ক্রিস্টিয়ান ডিনগার্ট (জার্মানি)
ক্রিস্টিয়ান গিটেলমান (জার্মানি)
মার্কো ফ্রিৎস (জার্মানি)

ইতালি বনাম অস্ট্রিয়া

[সম্পাদনা]
ইতালি[৮]
অস্ট্রিয়া[৮]
গো ২১ জানলুইজি দন্নারুম্মা
রা.ব্যা. জোভান্নি দি লোরেনৎসো হলুদ কার্ড ৫০'
সে.ব্যা. ১৯ লেওনার্দো বোনুচ্চি (অধি:)
সে.ব্যা. ১৫ ফ্রানচেস্কো আচের্বি
লে.ব্যা. লেওনার্দো স্পিনাৎসলা
সে.মি. ১৮ নিকোলো বারেল্লা হলুদ কার্ড ৫১' ৬৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৭'
সে.মি. জর্জিনিয়ো
সে.মি. মার্কো ভেররাত্তি ৬৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৭'
রা.ফ. ১১ দোমেনিকো বেরার্দি ৮৪তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৪'
সে.ফ. ১৭ চিরো ইম্মোবিলে ৮৪তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৪'
লে.ফ. ১০ লোরেনৎসো ইনসিনিয়ে ১০৮তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০৮'
বদলি খেলোয়াড়:
১২ মাত্তেও পেসসিনা ৬৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৭'
মানুয়েল লোকাতেল্লি ৬৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৭'
আন্দ্রেয়া বেলত্তি ৮৪তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৪'
১৪ ফেদেরিকো কিয়েজা ৮৪তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৪'
১৬ ব্রায়ান ক্রিস্তান্তে ১০৮তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০৮'
ম্যানেজার:
ইতালি রোবের্তো মানচিনি
গো ১৩ ডানিয়েল বাখমান
রা.ব্যা. ২১ স্টেফান লাইনার ১১৪তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১১৪'
সে.ব্যা. আলেকসান্দার দ্রাগোভিচ হলুদ কার্ড ১২০+১'
সে.ব্যা. মার্টিন হিন্টেরেগার হলুদ কার্ড ১০৩'
লে.ব্যা. ডেভিড আলাবা (অধি:)
সে.মি. ২৩ সাভার শ্লাগার ১০৬তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০৬'
সে.মি. ১০ ফ্লোরিয়ান গ্রিলিচ ১০৬তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০৬'
রা.উ. ২৪ কোনরাড লাইমার ১১৪তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১১৪'
অ্যা.মি. মার্সেল জাবিৎসার
লে.ফ. ১৯ ক্রিস্টোফ বাউমগার্টনার ৯০তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯০'
সে.ফ. মার্কো আরনাউতোভিচ হলুদ কার্ড ২' ৯৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯৭'
বদলি খেলোয়াড়:
১৮ আলেসান্ড্রো শোপফ ৯০তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯০'
২৫ সাশা কালায়জিচ ৯৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯৭'
১৭ লুইস শাউব ১০৬তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০৬'
১১ মাইকেল গ্রেগোরিচ ১০৬তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০৬'
স্টেফান ইলজাঙ্কার ১১৪তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১১৪'
১৬ ক্রিস্টোফার ট্রিমেল ১১৪তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১১৪'
ম্যানেজার:
জার্মানি ফ্রাংকো ফোডা

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
লেওনার্দো স্পিনাৎসলা (ইতালি)[৬]

সহকারী রেফারি:[৮]
গ্যারি বেসউইক (ইংল্যান্ড)
অ্যাডাম নান (ইংল্যান্ড)
চতুর্থ রেফারি:
জান্দ্রো শ্যারার (সুইজারল্যান্ড)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
স্তেফান দে আলমেইদা (সুইজারল্যান্ড)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
স্টুয়ার্ট অ্যাটওয়েল (ইংল্যান্ড)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
ক্রিস কাভানাগ (ইংল্যান্ড)
লি বেটস (ইংল্যান্ড)
পল ভান বোকেল (নেদারল্যান্ডস)

নেদারল্যান্ডস বনাম চেক প্রজাতন্ত্র

[সম্পাদনা]
নেদারল্যান্ডস[১০]
চেক প্রজাতন্ত্র[১০]
গো মার্টেন স্টেকেলেনবুর্খ
সে.ব্যা. স্টেফান ডে ভ্রেই
সে.ব্যা. মাটেইস ডে লিখট লাল কার্ড ৫৫'
সে.ব্যা. ১৭ ডেলি ব্লিন্ড ৮১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮১'
রা.উ.ব্যা. ২২ ডেনজেল ডুমফ্রিস হলুদ কার্ড ৪৬'
লে.উ.ব্যা. ১২ পাট্রিক ভান আনহোল্ট ৮১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮১'
সে.মি. ১৫ মার্টেন ডে রোন ৭৩তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৩'
সে.মি. ২১ ফ্রেংকি ডে ইয়ং হলুদ কার্ড ৮৪'
অ্যা.মি. জর্জিনিয়ো ওয়েইনাল্ডুম (অধি:)
সে.ফ. ১০ মেমফিস ডেপাই
সে.ফ. ১৮ ডোনিয়েল মালেন ৫৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৫৭'
বদলি খেলোয়াড়:
১১ কুইন্সি প্রোমেস ৫৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৫৭'
১৯ ওয়াউট ওয়েখহোর্স্ট ৭৩তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৩'
স্টেভেন বের্খহইস ৮১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮১'
২৫ ইয়ুরিয়েন টিম্বার ৮১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮১'
ম্যানেজার:
নেদারল্যান্ডস ফ্রাংক ডে বুর
গো তোমাশ ভাৎসলিক
রা.ব্যা. ভ্লাদিমির সুফাল হলুদ কার্ড ৫৬'
সে.ব্যা. ওন্দ্রেই চেলুস্তকা
সে.ব্যা. তোমাশ কালাস
লে.ব্যা. পাভেল কাদেরাবেক
সে.মি. তোমাশ হোলেশ ৮৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৫'
সে.মি. ১৫ তোমাশ সুচেক (অধি:)
রা.উ. ১২ লুকাশ মাসোপুস্ত ৭৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৯'
অ্যা.মি. আন্তোনিন বারাক ৯০+২তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯০+২'
লে.উ. ১৩ পেত্র শেভচিক ৮৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৫'
সে.ফ. ১০ পাত্রিক শিক ৯০+২তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯০+২'
বদলি খেলোয়াড়:
১৪ ইয়াকুব ইয়াঙ্কতো ৭৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৯'
১৯ আদাম হলোজেক ৮৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৫'
২১ আলেক্স ক্রাল ৮৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৫'
১১ মিখায়েল ক্রমেনচিক ৯০+২তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯০+২'
২৬ মিখাল সাদিলেক ৯০+২তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯০+২'
ম্যানেজার:
চেক প্রজাতন্ত্র ইয়ারোস্লাভ শিলহাভি

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
তোমাশ হোলেশ (চেক প্রজাতন্ত্র)[৬]

সহকারী রেফারি:[১০]
ইগর দেমেশকো (রাশিয়া)
মাকসিম গাভ্রিলিন (রাশিয়া)
চতুর্থ রেফারি:
স্তেফান ফ্রাপার (ফ্রান্স)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
মিকায়েল বের্শেব্রু (ফ্রান্স)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
স্টুয়ার্ট অ্যাটওয়েল (ইংল্যান্ড)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
ক্রিস কাভানাগ (ইংল্যান্ড)
লি বেটস (ইংল্যান্ড)
পাভেল গিল (পোল্যান্ড)

বেলজিয়াম বনাম পর্তুগাল

[সম্পাদনা]
বেলজিয়াম[১২]
পর্তুগাল[১২]
গো থিবো কোর্তোয়া
সে.ব্যা. টবি অল্ডারওয়েরেল্ট হলুদ কার্ড ৮১'
সে.ব্যা. ইয়ান ভের্টোনেন
সে.ব্যা. টমাস ভের্মালেন হলুদ কার্ড ৭২'
রা.মি. ১৫ তমা মোনিয়ে
সে.মি. ইউরি তিলেমান্স
সে.মি. আক্সেল ভিটসেল
লে.মি. ১৬ তোরগান আজার ৯০+৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯০+৫'
রা.উ. কেভিন ডে ব্রুইন ৪৮তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৪৮'
লে.উ. ১০ এদেন আজার (অধি:) ৮৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৭'
সে.ফ. রোমেলু লুকাকু
বদলি খেলোয়াড়:
১৪ ড্রিস মের্টেনস ৪৮তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৪৮'
১১ ইয়ানিক কারাস্কো ৮৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৭'
১৯ লেয়ান্ডার ডেন্ডনকার ৯০+৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯০+৫'
ম্যানেজার:
স্পেন রোবের্তো মার্তিনেস
গো রুই পাত্রিসিও
রা.ব্যা. ২০ দিয়োগো দালোত হলুদ কার্ড ৫১'
সে.ব্যা. রুবেন দিয়াস
সে.ব্যা. পেপে হলুদ কার্ড ৭৭'
লে.ব্যা. রাফায়েল গেরেইরো
সে.মি. জোয়াও মৌতিনিয়ো ৫৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৫৫'
সে.মি. ২৬ জোয়ানো পালিনিয়া হলুদ কার্ড ৪৫' ৭৮তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৮'
সে.মি. ১৬ রেনাতো সানচেস ৭৮তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৮'
রা.উ. ১০ বের্নার্দো সিলভা ৫৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৫৫'
লে.উ. ২১ দিয়োগো জোতা ৭০তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭০'
সে.ফ. ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো (অধি:)
বদলি খেলোয়াড়:
২৩ জোয়াও ফেলিক্স ৫৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৫৫'
১১ ব্রুনো ফের্নান্দেস ৫৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৫৫'
আন্দ্রে সিলভা ৭০তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭০'
১৩ দানিলো পেরেইরা ৭৮তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৮'
২৪ সের্জিও অলিভেইরা ৭৮তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৮'
ম্যানেজার:
পর্তুগাল ফের্নান্দো মানুয়েল সান্তোস

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
তোরগান আজার (বেলজিয়াম)[৬]

সহকারী রেফারি:[১২]
মার্ক বর্শ (জার্মানি)
স্টেফান লুপ (জার্মানি)
চতুর্থ রেফারি:
গেয়র্গি কাভাকভ (বুলগেরিয়া)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
মার্তিন মার্গারিতভ (বুলগেরিয়া)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
মার্কো ফ্রিৎস (জার্মানি)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
ক্রিস্টিয়ান ডিনগার্ট (জার্মানি)
ক্রিস্টিয়ান গিটেলমান (জার্মানি)
বাস্টিয়ান ডানকার্ট (জার্মানি)

ক্রোয়েশিয়া বনাম স্পেন

[সম্পাদনা]
ক্রোয়েশিয়া[১৪]
স্পেন[১৪]
গো দোমিনিক লিভাকোভিচ
রা.ব্যা. ২২ ইয়োসিপ ইয়ুরানোভিচ ৭৩তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৩'
সে.ব্যা. ২১ দোমাগোয় ভিদা
সে.ব্যা. দুয়ে চালেতা-সার হলুদ কার্ড ৮৪'
লে.ব্যা. ২৫ ইয়োশকো গভারদিয়ল
ডি.মি. ১১ মার্ৎসেলো ব্রোজোভিচ হলুদ কার্ড ৭৩'
সে.মি. ১০ লুকা মদরিচ (অধি:) ১১৪তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১১৪'
সে.মি. মাতেও কোভাচিচ ৭৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৯'
রা.উ. ১৩ নিকোলা ভ্লাশিচ ৭৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৯'
লে.উ. ১৭ আন্তে রেবিচ ৬৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৭'
লে.ফ. ২০ ব্রুনো পেতকোভিচ ৪৬তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৪৬'
বদলি খেলোয়াড়:
আন্দ্রেই ক্রামারিচ ৪৬তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৪৬'
১৮ মিস্লাভ ওরশিচ ৬৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৭'
ইয়োসিপ ব্রেকালো ৭৩তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৩'
১৪ আন্তে বুদিমির ৭৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৯'
১৫ মারিও পাশালিচ ৭৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৯'
২৬ লুকা ইভানুশেৎস ১১৪তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১১৪'
ম্যানেজার:
ক্রোয়েশিয়া জ্লাৎকো দালিচ
গো ২৩ উনাই সিমোন
রা.ব্যা. সেসার আসপিলিকুয়েতা
সে.ব্যা. ১২ এরিক গার্সিয়া ৭১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭১'
সে.ব্যা. ২৪ এমেরিক লাপোর্ত
লে.ব্যা. ১৪ হোসে গায়া ৭৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৭'
সে.মি. কোকে ৭৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৭'
সে.মি. সের্হিও বুস্কেৎস (অধি:) ১০১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০১'
সে.মি. ২৬ পেদ্রি
রা.উ. ১১ ফেরান তোরেস ৮৮তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৮'
লে.ফ. আলভারো মোরাতা
লে.উ. ২২ পাবলো সারাবিয়া ৭১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭১'
বদলি খেলোয়াড়:
১৯ দানি ওলমো ৭১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭১'
পাও তোরেস ৭১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭১'
১৮ জর্দি আলবা ৭৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৭'
১৭ ফাবিয়ান রুইস ৭৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৭'
২১ মিকেল ওয়ারসাবাল ৮৮তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৮'
১৬ রোদ্রি ১০১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০১'
ম্যানেজার:
স্পেন লুইস এনরিকে

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
সের্হিও বুস্কেৎস (স্পেন)[৬]

সহকারী রেফারি:[১৪]
বাহাত্তিন দুরান (তুরস্ক)
তারিক ওনগুন (তুরস্ক)
চতুর্থ রেফারি:
আন্ড্রেয়াস একবার্গ (সুইডেন)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
মেহমেত কুলুম (সুইডেন)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
বাস্টিয়ান ডানকার্ট (জার্মানি)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
ক্রিস্টিয়ান ডিনগার্ট (জার্মানি)
ক্রিস্টিয়ান গিটেলমান (জার্মানি)
পাভেল গিল (পোল্যান্ড)

ফ্রান্স বনাম সুইজারল্যান্ড

[সম্পাদনা]
ফ্রান্স[১৬]
সুইজারল্যান্ড[১৬]
গো উগো লরিস (অধি:)
সে.ব্যা. রাফায়েল ভারান হলুদ কার্ড ৩০'
সে.ব্যা. ক্লেমোঁ লংলে ৪৬তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৪৬'
সে.ব্যা. প্রেসনেল কিম্পেম্বে
রা.উ.ব্যা. বঁজামাঁ পাভার হলুদ কার্ড ৯১'
লে.উ.ব্যা. ১৪ আদ্রিয়েঁ রাবিও
সে.মি. পল পগবা
সে.মি. ১৩ এনগোলো কঁতে
অ্যা.মি. অঁতোয়ান গ্রিয়েজমান ৮৮তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৮'
লে.ফ. ১৯ করিম বেনজেমা ৯৪তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯৪'
লে.ফ. ১০ কিলিয়ান এমবাপে
বদলি খেলোয়াড়:
২০ কিংসলে কোমঁ হলুদ কার্ড ৮৮' ৪৬তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৪৬' ১১১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১১১'
১৭ মুসা সিসোকো ৮৮তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৮'
অলিভিয়ে জিরু ৯৪তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯৪'
২৬ মার্কুস তুরাম ১১১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১১১'
ম্যানেজার:
ফ্রান্স দিদিয়ে দেশঁ
গো ইয়ান সোমার
সে.ব্যা. নিকো এলভেদি হলুদ কার্ড ৩২'
সে.ব্যা. মানুয়েল আকানজি হলুদ কার্ড ১০৮'
সে.ব্যা. ১৩ রিকার্দো রোদ্রিগ্রেস হলুদ কার্ড ৬২' ৮৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৭'
রা.উ.ব্যা. সিলভান ভিডমার ৭৩তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৩'
লে.উ.ব্যা. ১৪ স্টিভেন জুবার ৭৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৯'
সে.মি. রেমো ফ্রয়লার
সে.মি. ১০ গ্রানিত জাকা (অধি:) হলুদ কার্ড ৭৬'
অ্যা.মি. ২৩ জেরদান শাচিরি ৭৩তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৩'
লে.ফ. হারিস সেফেরোভিচ ৯৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯৭'
লে.ফ. ব্রেল এমবোলো ৭৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৯'
বদলি খেলোয়াড়:
১৯ মারিও গাভ্রানোভিচ ৭৩তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৩'
কেভিন এমবাবু ৭৩তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৩'
১৬ ক্রিস্টিয়ান ফাসনাখট ৭৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৯'
১১ রুবেন ভারগাস ৭৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৯'
১৮ আদমির মেহমেদি ৮৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৭'
২২ ফাবিয়ান শেয়ার ৯৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯৭'
ম্যানেজার:
যুগোস্লাভিয়া সমাজতান্ত্রিক যুক্তরাষ্ট্রীয় প্রজাতন্ত্র ভ্লাদিমির পেতকোভিচ

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
গ্রানিত জাকা (সুইজারল্যান্ড)[৬]

সহকারী রেফারি:[১৬]
হুয়ান পাবলো বেলাত্তি (আর্জেন্টিনা)
দিয়েগো বোনফা (আর্জেন্টিনা)
চতুর্থ রেফারি:
বার্তোশ ফ্রানকোভস্কি (পোল্যান্ড)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
মারৎসিন বোনিয়েক (পোল্যান্ড)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
হুয়ান মার্তিনেস মুনুয়েরা (স্পেন)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
আলেহান্দ্রো এর্নান্দেস এর্নান্দেস (স্পেন)
ইনিয়িগো প্রিয়েতো লোপেস দে সেরাইন (স্পেন)
মাসসিমিলিয়ানো ইররাতি (ইতালি)

ইংল্যান্ড বনাম জার্মানি

[সম্পাদনা]
ইংল্যান্ড[১৮]
জার্মানি[১৮]
গো জর্ডান পিকফোর্ড
সে.ব্যা. কাইল ওয়াকার
সে.ব্যা. হ্যারি ম্যাগুয়ার হলুদ কার্ড ৭৭'
সে.ব্যা. জন স্টোনস
রা.মি. ১২ কিরান ট্রিপিয়ার
সে.মি. ১৪ ক্যালভিন ফিলিপস হলুদ কার্ড ৪৫'
সে.মি. ডেকলান রাইস হলুদ কার্ড ৮' ৮৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৭'
লে.মি. লুক শ
রা.উ. ২৫ বুকায়ো সাকা ৬৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৯'
লে.ফ. হ্যারি কেন (অধি:)
লে.উ. ১০ রাহিম স্টার্লিং
বদলি খেলোয়াড়:
জ্যাক গ্রিলিশ ৬৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৯'
জর্ডান হেন্ডারসন ৮৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৭'
ম্যানেজার:
ইংল্যান্ড গ্যারেথ সাউথগেট
গো মানুয়েল নয়ার (অধি:)
সে.ব্যা. মাটিয়াস গিন্টার হলুদ কার্ড ২৫' ৮৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৭'
সে.ব্যা. মাটস হুমেলস
সে.ব্যা. আন্টোনিও রুডিগার
রা.মি. ইয়োজুয়া কিমিশ
সে.মি. ১৮ লেয়ন গোরেৎস্কা
সে.মি. টনি ক্রুস
লে.মি. ২০ রবিন গোসেন্স হলুদ কার্ড ৭২' ৮৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৭'
অ্যা.মি. কাই হাভের্ৎস
অ্যা.মি. ২৫ থমাস মুলার ৯০+২তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯০+২'
লে.ফ. ১১ টিমো ভেয়ার্নার ৬৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৯'
বদলি খেলোয়াড়:
১০ সের্জ নাব্রি ৬৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৯'
২৩ এমরে জান ৮৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৭'
১৯ লিরয় জানে ৮৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৭'
১৪ জামাল মুসিয়ালা ৯০+২তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯০+২'
ম্যানেজার:
জার্মানি ইওয়াখিম ল্যোভ

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
হ্যারি ম্যাগুয়ার (ইংল্যান্ড)[৬]

সহকারী রেফারি:[১৮]
হেসেল স্টেগস্ট্রা (নেদারল্যান্ডস)
ইয়ান ডে ভ্রিস (নেদারল্যান্ডস)
চতুর্থ রেফারি:
স্রদান ইয়োভানোভিচ (সার্বিয়া)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
উরোশ স্তোয়কোভিচ (সার্বিয়া)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
পল ভান বোকেল (নেদারল্যান্ডস)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
কেভিন ব্লম (নেদারল্যান্ডস)
ইনিয়িগো প্রিয়েতো লোপেস দে সেরাইন (স্পেন)
আলেহান্দ্রো এর্নান্দেস এর্নান্দেস (স্পেন)

সুইডেন বনাম ইউক্রেন

[সম্পাদনা]
সুইডেন ১–২ (অ.স.প.) ইউক্রেন
প্রতিবেদন
সুইডেন[১৯]
ইউক্রেন[১৯]
গো রবিন ওলসেন
রা.ব্যা. মিকায়েল লুস্তিগ ৮৩তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৩'
সে.ব্যা. ভিক্তর লিন্দেলফ
সে.ব্যা. ২৪ মার্কুস দানিয়েলসন লাল কার্ড ৯৯'
লে.ব্যা. লুদভিগ আউগুস্তিনসন ৮৩তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৩'
রা.মি. সেবাস্তিয়ান লারসন (অধি:) ৯৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯৭'
সে.মি. ২০ ক্রিস্তোফার ওলসন ১০১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০১'
সে.মি. আলবিন একদাল
লে.মি. ১০ এমিল ফশবার্গ হলুদ কার্ড ৮৫'
লে.ফ. ২১ দেয়ান কুলুসেভস্কি হলুদ কার্ড ৬৯' ৯৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯৭'
লে.ফ. ১১ আলেক্সান্দার ইসাক ৯৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯৭'
বদলি খেলোয়াড়:
পিয়ের বেংতসন ৮৩তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৩'
১৬ এমিল ক্রাফথ ৮৩তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৩'
২২ রবিন কুয়েসন ৯৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯৭'
মার্কুস বার্গ ৯৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯৭'
১৭ ভিক্তর ক্লাসন ৯৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯৭'
১৪ ফিলিপ হেলান্দার ১০১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০১'
ম্যানেজার:
সুইডেন ইয়ানে আন্দারসন
গো হেয়র্হি বুশ্চান
রা.ব্যা. ২১ অলেকসান্দ্র কারাভায়েভ
সে.ব্যা. ১৩ ইলিয়া জাবারনি
সে.ব্যা. সের্হি ক্রিভৎসভ
লে.ব্যা. ২২ মিকোলা মাতভিয়েঙ্কো
সে.মি. সের্হি সিদোরচুক ১১৮তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১১৮'
সে.মি. তারাস স্তেপানেঙ্কো ৯৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯৫'
সে.মি. ১৭ অলেকসান্দ্র জিনচেঙ্কো
রা.ফ. আন্দ্রি ইয়ারমোলেঙ্কো (অধি:) হলুদ কার্ড ৭৯' ১০৬তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০৬'
লে.ফ. রোমান ইয়ারেমচুক ৯১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯১'
লে.ফ. ১০ মিকোলা শাপারেঙ্কো ৬১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬১'
বদলি খেলোয়াড়:
রুসলান মালিনোভস্কি ৬১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬১'
১৯ আর্তেম বেসেদিন ৯১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯১' ১০১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০১'
১৪ ইয়েভহেনি মাকারেঙ্কো ৯৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯৫'
১৫ ভিক্তর সিহানকভ ১০১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০১'
২৬ আর্তেম দোভবিক হলুদ কার্ড ১২০+১' ১০৬তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০৬'
১৮ রোমান বেজুস ১১৮তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১১৮'
ম্যানেজার:
ইউক্রেন আন্দ্রি শেভচেঙ্কো

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
অলেকসান্দ্র জিনচেঙ্কো (ইউক্রেন)[৬]

সহকারী রেফারি:[১৯]
আলেসসান্দ্রো জাল্লাতিনি (ইতালি)
ফাবিয়ানো প্রেতি (ইতালি)
চতুর্থ রেফারি:
দাভিদে মাসসা (ইতালি)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
স্তেফানো আলাসসিও (ইতালি)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
মাসসিমিলিয়ানো ইররাতি (ইতালি)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
মার্কো দি বেল্লো (ইতালি)
ফিলিপ্পো মেলি (ইতালি)
পাওলো ভালেরি (ইতালি)

কোয়ার্টার-ফাইনাল

[সম্পাদনা]

সুইজারল্যান্ড বনাম স্পেন

[সম্পাদনা]
সুইজারল্যান্ড[২১]
স্পেন[২১]
গো ইয়ান সোমার
সে.ব্যা. নিকো এলভেদি
সে.ব্যা. মানুয়েল আকানজি
সে.ব্যা. ১৩ রিকার্দো রোদ্রিগ্রেস
রা.উ.ব্যা. সিলভান ভিডমার হলুদ কার্ড ৬৭' ১০০তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০০'
লে.উ.ব্যা. ১৪ স্টিভেন জুবার ৯০+২তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯০+২'
সে.মি. দেনিস জাকারিয়া ১০০তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০০'
সে.মি. রেমো ফ্রয়লার লাল কার্ড ৭৭'
অ্যা.মি. ২৩ জেরদান শাচিরি (অধি:) ৮১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮১'
অ্যা.মি. ব্রেল এমবোলো ২৩তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ২৩'
সে.ফ. হারিস সেফেরোভিচ ৮১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮১'
বদলি খেলোয়াড়:
১১ রুবেন ভারগাস ২৩তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ২৩'
১৫ জিব্রিল সো ৮১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮১'
১৯ মারিও গাভ্রানোভিচ হলুদ কার্ড ১২০+১' ৮১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮১'
১৬ ক্রিস্টিয়ান ফাসনাখট ৯০+২তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯০+২'
কেভিন এমবাবু ১০০তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০০'
২২ ফাবিয়ান শেয়ার ১০০তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০০'
ম্যানেজার:
যুগোস্লাভিয়া সমাজতান্ত্রিক যুক্তরাষ্ট্রীয় প্রজাতন্ত্র ভ্লাদিমির পেতকোভিচ
গো ২৩ উনাই সিমোন
রা.ব্যা. সেসার আসপিলিকুয়েতা
সে.ব্যা. ২৪ এমেরিক লাপোর্ত হলুদ কার্ড ৯০+৩'
সে.ব্যা. পাও তোরেস ১১৩তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১১৩'
লে.ব্যা. ১৮ জর্দি আলবা
সে.মি. কোকে ৯০+১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯০+১'
সে.মি. সের্হিও বুস্কেৎস (অধি:)
সে.মি. ২৬ পেদ্রি ১১৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১১৯'
রা.ফ. ১১ ফেরান তোরেস ৯১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯১'
সে.ফ. আলভারো মোরাতা ৫৪তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৫৪'
লে.ফ. ২২ পাবলো সারাবিয়া ৪৬তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৪৬'
বদলি খেলোয়াড়:
১৯ দানি ওলমো ৪৬তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৪৬'
জেরার্ত মোরেনো ৫৪তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৫৪'
মার্কোস ইয়োরেন্তে ৯০+১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯০+১'
২১ মিকেল ওয়ারসাবাল ৯১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯১'
১০ থিয়াগো ১১৩তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১১৩'
১৬ রোদ্রি ১১৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১১৯'
ম্যানেজার:
স্পেন লুইস এনরিকে

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
উনাই সিমোন (স্পেন)[৬]

সহকারী রেফারি:[২১]
স্টুয়ার্ট বার্ট (ইংল্যান্ড)
সিমন বেনেট (ইংল্যান্ড)
চতুর্থ রেফারি:
ওভিদিউ হাতেগান (রোমানিয়া)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
সেবাস্তিয়ান গেয়র্গে (রোমানিয়া)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
ক্রিস কাভানাগ (ইংল্যান্ড)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
ক্রিস্টিয়ান ডিনগার্ট (জার্মানি)
লি বেটস (ইংল্যান্ড)
স্টুয়ার্ট অ্যাটওয়েল (ইংল্যান্ড)

বেলজিয়াম বনাম ইতালি

[সম্পাদনা]
বেলজিয়াম ১–২ ইতালি
প্রতিবেদন
বেলজিয়াম[২৩]
ইতালি[২৩]
গো থিবো কোর্তোয়া
সে.ব্যা. টবি অল্ডারওয়েরেল্ট
সে.ব্যা. টমাস ভের্মালেন
সে.ব্যা. ইয়ান ভের্টোনেন (অধি:)
রা.মি. ১৫ তমা মোনিয়ে ৬৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৯'
সে.মি. আক্সেল ভিটসেল
সে.মি. ইউরি তিলেমান্স হলুদ কার্ড ২১' ৬৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৯'
লে.মি. ১৬ তোরগান আজার
অ্যা.মি. কেভিন ডে ব্রুইন
অ্যা.মি. ২৫ জেরেমি দোকু
সে.ফ. রোমেলু লুকাকু
বদলি খেলোয়াড়:
১৪ ড্রিস মের্টেনস ৬৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৯'
২২ নাসের শাদলি ৬৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৯' ৭৩তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৩'
২৬ ডেনিস প্রাট ৭৩তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৩'
ম্যানেজার:
স্পেন রোবের্তো মার্তিনেস
গো ২১ জানলুইজি দন্নারুম্মা
রা.ব্যা. জোভান্নি দি লোরেনৎসো
সে.ব্যা. ১৯ লেওনার্দো বোনুচ্চি
সে.ব্যা. জর্জো কিয়েল্লিনি (অধি:)
লে.ব্যা. লেওনার্দো স্পিনাৎসলা ৭৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৯'
সে.মি. ১৮ নিকোলো বারেল্লা
সে.মি. জর্জিনিয়ো
সে.মি. মার্কো ভেররাত্তি হলুদ কার্ড ২০' ৭৪তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৪'
রা.উ. ১৪ ফেদেরিকো কিয়েজা ৯০+১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯০+১'
সে.ফ. ১৭ চিরো ইম্মোবিলে ৭৪তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৪'
লে.উ. ১০ লোরেনৎসো ইনসিনিয়ে ৭৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৯'
বদলি খেলোয়াড়:
১৬ ব্রায়ান ক্রিস্তান্তে ৭৪তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৪'
আন্দ্রেয়া বেলত্তি ৭৪তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৪'
১১ দোমেনিকো বেরার্দি হলুদ কার্ড ৯০' ৭৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৯'
১৩ এমেরসন ৭৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৯'
২৫ রাফায়েল তোলোই ৯০+১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯০+১'
ম্যানেজার:
ইতালি রোবের্তো মানচিনি

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
লোরেনৎসো ইনসিনিয়ে (ইতালি)[৬]

সহকারী রেফারি:[২৩]
তোমাশ ক্লানচনিক (স্লোভেনিয়া)
আন্দ্রাশ কোভাচিচ (স্লোভেনিয়া)
চতুর্থ রেফারি:
ফের্নান্দো রাপায়িনি (আর্জেন্টিনা)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
হুয়ান পাবলো বেলাত্তি (আর্জেন্টিনা)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
বাস্টিয়ান ডানকার্ট (জার্মানি)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
মার্কো ফ্রিৎস (জার্মানি)
ক্রিস্টিয়ান গিটেলমান (জার্মানি)
পাভেল গিল (পোল্যান্ড)

চেক প্রজাতন্ত্র বনাম ডেনমার্ক

[সম্পাদনা]
চেক প্রজাতন্ত্র[২৫]
ডেনমার্ক[২৫]
গো তোমাশ ভাৎসলিক
রা.ব্যা. ভ্লাদিমির সুফাল
সে.ব্যা. ওন্দ্রেই চেলুস্তকা ৬৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৫'
সে.ব্যা. তোমাশ কালাস হলুদ কার্ড ৮৬'
লে.ব্যা. ১৮ ইয়ান বোরিল
সে.মি. তোমাশ হোলেশ ৪৬তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৪৬'
সে.মি. ১৫ তোমাশ সুচেক (অধি:)
রা.উ. ১২ লুকাশ মাসোপুস্ত ৪৬তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৪৬'
অ্যা.মি. আন্তোনিন বারাক
লে.উ. ১৩ পেত্র শেভচিক ৭৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৯'
সে.ফ. ১০ পাত্রিক শিক ৭৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৯'
বদলি খেলোয়াড়:
১১ মিখায়েল ক্রমেনচিক হলুদ কার্ড ৮৪' ৪৬তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৪৬'
১৪ ইয়াকুব ইয়াঙ্কতো ৪৬তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৪৬'
ইয়াকুব ব্রাবেৎস ৬৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৫'
২০ মাতেই ভিদ্রা ৭৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৯'
ভ্লাদিমির দারিদা ৭৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৯'
ম্যানেজার:
চেক প্রজাতন্ত্র ইয়ারোস্লাভ শিলহাভি
গো ক্যাসপার স্মাইকেল
সে.ব্যা. অ্যান্দ্রেয়াস ক্রিস্টেনসেন ৮১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮১'
সে.ব্যা. সিমোন কেয়ার (অধি:)
সে.ব্যা. ইয়ানিক ভেস্টারগার্ড
রা.মি. ১৭ ইয়েন্স স্ট্রিগার লারসেন ৭০তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭০'
সে.মি. ২৩ পিয়ের-এমিল হোইবিয়ার্গ
সে.মি. টমাস ডেলেনি ৮১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮১'
লে.মি. ইওয়াকিম ম্যালে
রা.ফ. মার্টিন ব্র্যাথওয়েট
সে.ফ. ১২ ক্যাসপার ডলবার্গ ৫৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৫৯'
লে.ফ. ১৪ মিকেল ডামসগার্ড ৫৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৫৯'
বদলি খেলোয়াড়:
২০ ইউসুফ পোলসেন ৫৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৫৯'
১৫ ক্রিস্টিয়ান নরগার্ড ৫৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৫৯'
১৮ ড্যানিয়েল ভ্যাস ৭০তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭০'
ইওয়াকিম আন্দারসেন ৮১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮১'
২৪ মাটিয়াস ইয়েনসেন ৮১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮১'
ম্যানেজার:
ডেনমার্ক ক্যাসপার ইয়ুলম্যান্দ

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
টমাস ডেলেনি (ডেনমার্ক)[৬]

সহকারী রেফারি:[২৫]
সান্ডার ভান রোকেল (নেদারল্যান্ডস)
এরউইন জিনস্ট্রা (নেদারল্যান্ডস)
চতুর্থ রেফারি:
সের্গেই কারাসেভ (রাশিয়া)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
ইগত দেমেশকো (রাশিয়া)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
পল ভান বোকেল (নেদারল্যান্ডস)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
কেভিন ব্লম (নেদারল্যান্ডস)
ফিলিপ্পো মেলি (ইতালি)
মার্কো দি বেল্লো (ইতালি)

ইউক্রেন বনাম ইংল্যান্ড

[সম্পাদনা]
ইউক্রেন ০–৪ ইংল্যান্ড
প্রতিবেদন
ইউক্রেন[২৭]
ইংল্যান্ড[২৭]
গো হেয়র্হি বুশ্চান
সে.ব্যা. ১৩ ইলিয়া জাবারনি
সে.ব্যা. সের্হি ক্রিভৎসভ ৩৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৩৫'
সে.ব্যা. ২২ মিকোলা মাতভিয়েঙ্কো
রা.মি. ২১ অলেকসান্দ্র কারাভায়েভ
সে.মি. সের্হি সিদোরচুক ৬৪তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৪'
সে.মি. ১৭ অলেকসান্দ্র জিনচেঙ্কো
লে.মি. ১৬ ভিতালি মিকোলেঙ্কো
অ্যা.মি. ১০ মিকোলা শাপারেঙ্কো
সে.ফ. রোমান ইয়ারেমচুক
সে.ফ. আন্দ্রি ইয়ারমোলেঙ্কো (অধি:)
বদলি খেলোয়াড়:
১৫ ভিক্তর সিহানকভ ৩৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৩৫'
১৪ ইয়েভহেনি মাকারেঙ্কো ৬৪তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৪'
ম্যানেজার:
ইউক্রেন আন্দ্রি শেভচেঙ্কো
গো জর্ডান পিকফোর্ড
রা.ব্যা. কাইল ওয়াকার
সে.ব্যা. জন স্টোনস
সে.ব্যা. হ্যারি ম্যাগুয়ার
লে.ব্যা. লুক শ ৬৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৫'
সে.মি. ডেকলান রাইস ৫৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৫৭'
সে.মি. ১৪ ক্যালভিন ফিলিপস ৬৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৫'
রা.উ. ১৭ জেডন সানচো
অ্যা.মি. ১৯ ম্যাসন মাউন্ট
লে.উ. ১০ রাহিম স্টার্লিং ৬৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৫'
সে.ফ. হ্যারি কেন (অধি:) ৭৩তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৩'
বদলি খেলোয়াড়:
জর্ডান হেন্ডারসন ৫৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৫৭'
১২ কিরান ট্রিপিয়ার ৬৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৫'
১১ মার্কাস রাশফোর্ড ৬৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৫'
২৬ জুড বেলিংহ্যাম ৬৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৫'
১৮ ডোমিনিক কালভার্ট-লুইন ৭৩তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৩'
ম্যানেজার:
ইংল্যান্ড গ্যারেথ সাউথগেট

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
হ্যারি কেন (ইংল্যান্ড)[৬]

সহকারী রেফারি:[২৭]
মার্ক বর্শ (জার্মানি)
স্টেফান লুপ (জার্মানি)
চতুর্থ রেফারি:
কার্লোস দেল সেরো গ্রান্দে (স্পেন)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
হুয়ান কার্লোস ইয়ুস্তে হিমেনেস (স্পেন)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
মার্কো ফ্রিৎস (জার্মানি)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
ক্রিস্টিয়ান ডিনগার্ট (জার্মানি)
ক্রিস্টিয়ান গিটেলমান (জার্মানি)
বাস্টিয়ান ডানকার্ট (জার্মানি)

সেমি-ফাইনাল

[সম্পাদনা]

ইতালি বনাম স্পেন

[সম্পাদনা]
ইতালি[২৯]
স্পেন[২৯]
গো ২১ জানলুইজি দন্নারুম্মা
রা.ব্যা. জোভান্নি দি লোরেনৎসো
সে.ব্যা. ১৯ লেওনার্দো বোনুচ্চি হলুদ কার্ড ১১৮'
সে.ব্যা. জর্জো কিয়েল্লিনি (অধি:)
লে.ব্যা. ১৩ এমেরসন ৭৩তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৩'
সে.মি. ১৮ নিকোলো বারেল্লা ৮৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৫'
সে.মি. জর্জিনিয়ো
সে.মি. মার্কো ভেররাত্তি ৭৩তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৩'
রা.উ. ১৪ ফেদেরিকো কিয়েজা ১০৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০৭'
লে.উ. ১০ লোরেনৎসো ইনসিনিয়ে ৮৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৫'
সে.ফ. ১৭ চিরো ইম্মোবিলে ৬১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬১'
বদলি খেলোয়াড়:
১১ দোমেনিকো বেরার্দি ৬১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬১'
২৫ রাফায়েল তোলোই হলুদ কার্ড ৯৭' ৭৩তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৩'
১২ মাত্তেও পেসসিনা ৭৩তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৩'
মানুয়েল লোকাতেল্লি ৮৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৫'
আন্দ্রেয়া বেলত্তি ৮৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৫'
২০ ফেদেরিকো বের্নারদেস্কি ১০৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০৭'
ম্যানেজার:
ইতালি রোবের্তো মানচিনি
গো ২৩ উনাই সিমোন
রা.ব্যা. সেসার আসপিলিকুয়েতা ৮৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৫'
সে.ব্যা. ১২ এরিক গার্সিয়া ১০৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০৯'
সে.ব্যা. ২৪ এমেরিক লাপোর্ত
লে.ব্যা. ১৮ জর্দি আলবা
ডি.মি. সের্হিও বুস্কেৎস (অধি:) হলুদ কার্ড ৫১' ১০৬তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০৬'
সে.মি. কোকে ৭০তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭০'
সে.মি. ২৬ পেদ্রি
রা.উ. ১১ ফেরান তোরেস ৬১তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬১'
লে.উ. ১৯ দানি ওলমো
সে.ফ. ২১ মিকেল ওয়ারসাবাল ৭০তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭০'
বদলি খেলোয়াড়:
আলভারো মোরাতা ৬১তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬১'
জেরার্ত মোরেনো ৭০তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭০'
১৬ রোদ্রি ৭০তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭০'
মার্কোস ইয়োরেন্তে ৮৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৫'
১০ থিয়াগো ১০৬তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০৬'
পাও তোরেস ১০৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০৯'
ম্যানেজার:
স্পেন লুইস এনরিকে

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
ফেদেরিকো কিয়েজা (ইতালি)[৬]

সহকারী রেফারি:[২৯]
মার্ক বর্শ (জার্মানি)
স্টেফান লুপ (জার্মানি)
চতুর্থ রেফারি:
সের্গেই কারাসেভ (রাশিয়া)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
মাকসিম গাভ্রিলিন (রাশিয়া)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
মার্কো ফ্রিৎস (জার্মানি)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
ক্রিস্টিয়ান ডিনগার্ট (জার্মানি)
ক্রিস্টিয়ান গিটেলমান (জার্মানি)
বাস্টিয়ান ডানকার্ট (জার্মানি)

ইংল্যান্ড বনাম ডেনমার্ক

[সম্পাদনা]
ইংল্যান্ড[৩১]
ডেনমার্ক[৩১]
গো জর্ডান পিকফোর্ড
রা.ব্যা. কাইল ওয়াকার
সে.ব্যা. জন স্টোনস
সে.ব্যা. হ্যারি ম্যাগুয়ার হলুদ কার্ড ৪৯'
লে.ব্যা. লুক শ
সে.মি. ১৪ ক্যালভিন ফিলিপস
সে.মি. ডেকলান রাইস ৯৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯৫'
রা.উ. ২৫ বুকায়ো সাকা ৬৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৯'
অ্যা.মি. ১৯ ম্যাসন মাউন্ট ৯৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৯৫'
লে.উ. ১০ রাহিম স্টার্লিং
সে.ফ. হ্যারি কেন (অধি:)
বদলি খেলোয়াড়:
জ্যাক গ্রিলিশ ৬৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৯' ১০৬তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০৬'
জর্ডান হেন্ডারসন ৯৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯৫'
২০ ফিল ফোডেন ৯৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৯৫'
১২ কিরান ট্রিপিয়ার ১০৬তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০৬'
ম্যানেজার:
ইংল্যান্ড গ্যারেথ সাউথগেট
গো ক্যাসপার স্মাইকেল
সে.ব্যা. অ্যান্দ্রেয়াস ক্রিস্টেনসেন ৭৯তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৭৯'
সে.ব্যা. সিমোন কেয়ার (অধি:)
সে.ব্যা. ইয়ানিক ভেস্টারগার্ড ১০৫তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ১০৫'
রা.উ.ব্যা. ১৭ ইয়েন্স স্ট্রিগার লারসেন ৬৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৭'
লে.উ.ব্যা. ইওয়াকিম ম্যালে
সে.মি. ২৩ পিয়ের-এমিল হোইবিয়ার্গ
সে.মি. টমাস ডেলেনি ৮৮তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৮৮'
রা.উ. মার্টিন ব্র্যাথওয়েট
সে.ফ. ১২ ক্যাসপার ডলবার্গ ৬৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৭'
লে.উ. ১৪ মিকেল ডামসগার্ড ৬৭তম মিনিটে মাঠ ত্যাগ করেছেন ৬৭'
বদলি খেলোয়াড়:
১৮ ড্যানিয়েল ভ্যাস হলুদ কার্ড ৭২' ৬৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৭'
২০ ইউসুফ পোলসেন ৬৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৭'
১৫ ক্রিস্টিয়ান নরগার্ড ৬৭তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৬৭'
ইওয়াকিম আন্দারসেন ৭৯তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৭৯'
২৪ মাটিয়াস ইয়েনসেন ৮৮তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ৮৮'
১৯ ইয়োনাস উইন্ড ১০৫তম মিনিটে মাঠে প্রবেশ করেছেন ১০৫'
ম্যানেজার:
ডেনমার্ক ক্যাসপার ইয়ুলম্যান্দ

ম্যান অব দ্য ম্যাচ:
হ্যারি কেন (ইংল্যান্ড)[৬]

সহকারী রেফারি:[৩১]
হেসেল স্টেগস্ট্রা (নেদারল্যান্ডস)
ইয়ান ডে ভ্রিস (নেদারল্যান্ডস)
চতুর্থ রেফারি:
ওভিদিউ হাতেগান (রোমানিয়া)
সংরক্ষিত সহকারী রেফারি:
সেবাস্তিয়ান গেয়র্গে (রোমানিয়া)
ভিডিও সহকারী রেফারি:
পল ভান বোকেল (নেদারল্যান্ডস)
সহকারী ভিডিও সহকারী রেফারি:
কেভিন ব্লম (নেদারল্যান্ডস)
ক্রিস্টিয়ান গিটেলমান (জার্মানি)
পাভেল গিল (পোল্যান্ড)

ফাইনাল

[সম্পাদনা]
ইতালি[৩৩]
ইংল্যান্ড[৩৩]
গো ২১ জানলুইজি দন্নারুম্মা
রা.ব্যা. জোভান্নি দি লোরেনৎসো
সে.ব্যা. ১৯ লেওনার্দো বোনুচ্চি