উজবেকিস্তানের সংবিধান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
Stamps of Uzbekistan, 2007-52.jpg

উজবেকিস্তানের সংবিধান ১৯৯২ সালের ৮ ডিসেম্বরে উজবেকিস্তানের সুপ্রিম কাউন্সিলের একাদশ অধিবেশনে গৃহীত হয়। এটি উজবেকিস্তান প্রজাতন্ত্রের ১৯৭৮ সালের সংবিধানের বদলে প্রতিস্থাপিত হয়। (Article 15) এটি উজবেকিস্তান প্রজাতন্ত্রের সর্বোচ্চ আইন (অনুচ্ছেদ ১৫) উজবেকিস্তানের সংবিধান ছয়টি অংশ এবং ২৬ টি অধ্যায়ে বিভক্ত।

সংক্ষিপ্ত বিবরণ[সম্পাদনা]

উজবেকিস্তানের সংবিধান শক্তিশালী নির্বাহী বিভাগ, আইন বিভাগ (সুপ্রিম এসেম্বলি অব উজবেকিস্তান বা অলি মাজলিস) এবং বিচার বিভাগের মধ্যে নামেমাত্র পার্থক্য সৃষ্টি করে। 

উজবেকিস্তানের রাষ্ট্রপতি, যিনি পাঁচ বছরের জন্য প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত হয়ে থাকেন, এবং মাত্র একবার তার এ মেয়াদ বৃদ্ধি হতে পারে, সংবিধান অনুসারে তিনি রাষ্ট্রে প্রধান এবং সর্বোচ্চ নির্বাহী ক্ষমতার অধিকারী। সামরিক বাহিনীর সর্বাধিনায়ক হিসাবে রাষ্ট্রপতি দেশে জরুরি অবস্থা কিংবা যুদ্ধ ঘোষণা করতে পারেন। রাষ্ট্রপতি অলি মাজলিসের  বিবেচনার জন্য প্রধানমন্ত্রী পদে প্রার্থী মনোনয়ন করা এবং মন্ত্রীসভার সব সদস্যদের নিয়োগ দেওয়া, জাতীয় তিন আদালতের বিচারপতি নিয়োগ করা, অলি মাজলিসে অনুমোদনের জন্য যে কোন বিষয় উত্থাপন করা এবং নিম্ন আদালতের সকল সদস্য নিয়োগ দেওয়ার ক্ষমতার অধিকারী।  রাষ্ট্রপতির সংসদ ভেঙে দেওয়ার অধিকারও আছে। www.lex.uz.[১]

আইন সভার (নিম্নকক্ষ) ১৫০ জন জনপ্রতিনিধি পাঁচ বছরের জন্য নির্বাচিত হন। নিম্নকক্ষই উজবেকিস্তানের আইনবিভাগের সর্বোচ্চ প্রতিষ্ঠান। আইন সভা সাংবিধানিক আদালতের সম্মতিতে রাষ্ট্রপতি কর্তৃক বাতিল হতে পারে। বাতিল করার এই বিধিটি আইন বিভাগ এবং নির্বাহী বিভাগের ক্ষমতার ভারসাম্য রক্ষার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। সিনেটের ১০০ জন সদস্যের মধ্যে ১৬ জন প্রত্যক্ষভাবে রাষ্ট্রপতি কর্তৃক মনোনীত হন।  অলি মাজলিস আইন প্রণয়ন করে, যা রাষ্ট্রপতি কর্তৃক সংসদে কিংবা উচ্চাদালত কর্তৃক অথবা প্রক্যুরেটর জেনারেল (দেশটির সর্বোচ্চ আইন প্রয়োগকারী কর্তৃপক্ষ) কর্তৃক অথবা স্বায়ত্বশাসিত কারাকালপাকস্তান প্রজাতন্ত্রের সরকার কর্তৃক প্রবর্তিত হতে পারে। আইন ছাড়াও আন্তর্জাতিক চুক্তি, রাষ্ট্রপতির অধ্যাদেশ এবং জরুরি অবস্থা অবশ্যই অলি মাজলিসে অনুমোদিত হতে হবে।[১]

জাতীয় বিচার ব্যবস্থায় সাংবিধানিক আদালত, সুপ্রিম কোর্ট, এবং উচ্চ অর্থনৈতিক আদালত অন্তর্ভূক্ত। নিম্ন আদালত আঞ্চলিক, জেলা ও শহর পর্যায়ে বিদ্যমান আছে। সব পর্যায়ের বিচারপতিদেরকে রাষ্ট্রপতি নিয়োগ দান করেন এবং অলি মাজলিস অনুমোদন করে।  সরকারের অন্যান্য বিভাগের নামমাত্র স্বাধীনতা থাকলেও আদালতের উপর নির্বাহী বিভাগের কার্যকর নিয়ন্ত্রণে আছে।  সোভিয়েত যুগের নিয়মের মতোই প্রক্যুরেটর জেনারেল এবং আঞ্চলিক ও স্থানীয় পর্যায়ে তার সমকক্ষরা রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা এবং ফৌজদারি অপরাধের তদন্ত কর্মকর্তা, এটি এমন একটি পদ্ধতি, যা বিবাদির বিচার পূর্ব অধিকার সীমিত করে দেয়।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1.  This article incorporates public domain material from the Library of Congress document: Nancy Lubin (March 1996).