উইলি কাবাইয়েরো

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(উইলি ক্যাবালেরো থেকে পুনর্নির্দেশিত)
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
উইলি কাবাইয়েরো
Willy Caballero 20180106.jpg
২০১৮ সালে চেলসির হয়ে উইলি কাবাইয়েরো
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম উইলফ্রেড দানিয়েল কাবাইয়েরো লাসকানো[১]
জন্ম (১৯৮১-০৯-২৮) ২৮ সেপ্টেম্বর ১৯৮১ (বয়স ৩৬)
জন্ম স্থান সান্তা এলেনা, আর্জেন্টিনা
উচ্চতা ১.৮৬ মি (৬ ফু ১ ইঞ্চি)[২]
মাঠে অবস্থান গোলরক্ষক
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব চেলসি
জার্সি নম্বর
জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন*
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
২০০১–২০০৪ বোকা জুনিয়র্স ১৫ (০)
২০০৪–২০১১ এলচে ১৮৬ (০)
২০০৬ আর্সেনাল সারান্দি (ধার) ১৩ (০)
২০১১–২০১৪ মালাগা ১১৭ (০)
২০১৪–২০১৭ ম্যানচেস্টার সিটি ২৩ (০)
২০১৭– চেলসি (০)
জাতীয় দল
২০০১ আর্জেন্টিনা অনূর্ধ্ব ২০ (০)
২০১৮– আর্জেন্টিনা (০)
  • পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে এবং ২ এপ্রিল ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

‡ জাতীয় দলের হয়ে খেলার সংখ্যা এবং গোল ২৭ মার্চ ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

উইলফ্রেদো দানিয়েল "উইলি" কাবাইয়েরো লাসকানো (স্পেনীয়: Wilfredo Daniel Caballero Lazcano) (জন্ম: ২৮শে সেপ্টেম্বর ১৯৮১) হলেন আর্জেন্টিনার একজন পেশাদার ফুটবলার, যিনি প্রিমিয়ার লীগের ক্লাব চেলসি এবং আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের হয়ে একজন গোলরক্ষক হিসেবে খেলেন।

তিনি তার ক্যারিয়ারের বেশির ভাগ সময় স্প্যানীয় ক্লাব এলচে এবং মালাগাকে প্রতিনিধিত্ব করার মাধ্যমে কাটিয়েছেন এবং লা লিগায় অংশগ্রহণ করেছেন। ২০১৪ সালের গ্রীষ্মে তিনি ম্যানচেস্টার সিটির সাথে স্বাক্ষর করেন, সেখানে তিনি ২০১৬ লীগ কাপ জয়লাভ করেন।

২০১৮ সালে, তিনি আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের সিনিয়র পর্যায়ে অভিষেক করেন। এছাড়াও তিনি ২০০৪ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে স্বর্ণজয়ী এবং ২০০৫ ফিফা কনফেডারেশন্স কাপে রানার-আপ হওয়া আর্জেন্টিনা দলে ছিলেন, কিন্তু কোনো ম্যাচ খেলেননি।

আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

ক্যাবালেরো আর্জেন্টিনার হয়ে অনূর্ধ্ব ২০ পর্যায়ে খেলেছেন, যেখানে তিনি ২০০১ ফিফা বিশ্ব যুব চ্যাম্পিয়নশিপের শেষ দুই ম্যাচ খেলে দলকে জয়ী হতে সাহায্য করেছিলেন।[৩] ২০০৪ সালে, জার্মান লাক্সের বদলি খেলোয়াড় হিসেবে ২০০৪ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে স্বর্ণজয়ী আর্জেন্টিনা দলে ছিলেন।

ক্যাবালেরো ২০০৫ ফিফা কনফেডারেশন্স কাপে আর্জেন্টিনা দলে থাকা সত্ত্বেও তাকে কোনো ম্যাচে নেওয়া হয়নি।[৪] ২০১৪ সালের নভেম্বর মাসে, তৎকালীন আর্জেন্টিনা ম্যানেজার জেরার্ডো মার্টিনো ক্রোয়েশিয়া এবং পর্তুগালের বিরুদ্ধে অনুষ্ঠিত দুই প্রীতি ম্যাচের জন্য দলে ডাক পান।[৫] এর প্রায় ৪ বছর পর ২০১৮ সালের ২৩শে মার্চে, ৩৬ বছর বয়সে, তিনি আর্জেন্টিনার হয়ে অভিষেক করেন, ম্যানচেস্টারে অনুষ্ঠিত সে ম্যাচে তার দল ইতালি ২–০ গোলে হারিয়েছিল।[৬]

সম্মাননা[সম্পাদনা]

ক্লাব[সম্পাদনা]

বোকা জুনিয়র্স

ম্যানচেস্টার সিটি

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

আর্জেন্টিনা যুব

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Updated squads for 2017/18 Premier League confirmed"। Premier League। ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  2. "Willy Caballero: Overview"। Premier League। সংগ্রহের তারিখ ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  3. উইলি কাবাইয়েরোফিফা প্রতিযোগিতার রেকর্ড (ইংরেজি)
  4. ""Nos debíamos un partido así"" ["We had a game like this coming our way"]। La Nación (স্পেনীয় ভাষায়)। ১০ জুন ২০০৫। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মার্চ ২০১৮ 
  5. "International football: Argentina recall Carlos Tevez for Croatia and Portugal friendlies"Sky Sports। ২৭ অক্টোবর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০১৬ 
  6. "Con goles de Banega y Lanzini, y sin Messi, Argentina le ganó 2–0 a Italia" [With goals from Banega and Lanzini, and without Messi, Argentina beat Italy 2–0]। La Nación (স্পেনীয় ভাষায়)। ২৩ মার্চ ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মার্চ ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]