ইসোয়াতিনি জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ইসোয়াতিনি
ডাকনামসিহলাঙ্গু
অ্যাসোসিয়েশনইসোয়াতিনি ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন
কনফেডারেশনক্যাফ (আফ্রিকা)
প্রধান কোচদোমিনিক কুনেনে
অধিনায়কসিয়াবঙ্গা এমলিলি
সর্বাধিক ম্যাচটনি সাবেদজে (৭১)
শীর্ষ গোলদাতাফেলিক্স বাডেনহর্স্ট (১৩)
মাঠসোমহোলো জাতীয় স্টেডিয়াম
ফিফা কোডSWZ
ওয়েবসাইটwww.nfas.org.sz
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ১৫৪ হ্রাস(৭ এপ্রিল ২০২১)[১]
সর্বোচ্চ৮৮ (এপ্রিল–মে ২০১৭)
সর্বনিম্ন১৯০ (সেপ্টেম্বর–অক্টোবর ২০১২)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ১৭৭ বৃদ্ধি(২৪ এপ্রিল ২০২১)[২]
সর্বোচ্চ১১৭ (জুন ২০১৬)
সর্বনিম্ন১৮১ (২০১৩)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
যুক্তরাজ্য সোয়াজিল্যান্ড ২–০ মালাউই 
(সোয়াজিল্যান্ড; ১ মে ১৯৬৮)
বৃহত্তম জয়
 জিবুতি ০–৬ সোয়াজিল্যান্ড 
(জিবুতি; ৯ অক্টোবর ২০১৫)
বৃহত্তম পরাজয়
 মিশর ১০–০ সোয়াজিল্যান্ড 
(আলেকজান্দ্রিয়া, মিশর; ২২ মার্চ ২০১৩)

ইসোয়াতিনি জাতীয় ফুটবল দল (ইংরেজি: Eswatini national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ইসোয়াতিনির প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম ইসোয়াতিনির ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ইসোয়াতিনি ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়।[৩] এই দলটি ১৯৭৮ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৭৬ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা আফ্রিকান ফুটবল কনফেডারেশনের সদস্য হিসেবে রয়েছে। ১৯৬৮ সালের ১লা মে তারিখে, ইসোয়াতিনি প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; সোয়াজিল্যান্ডে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে ইসোয়াতিনি সোয়াজিল্যান্ডের কাছে ২–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে।

২০,০০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট সোমহোলো জাতীয় স্টেডিয়ামে সিহলাঙ্গু নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় ইসোয়াতিনির রাজধানী এম্বাবানেতে অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন দোমিনিক কুনেনে এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন গ্রিন মাম্বার রক্ষণভাগের খেলোয়াড় সিয়াবঙ্গা এমলিলি

ইসোয়াতিনি এপর্যন্ত একবারও ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। অন্যদিকে, আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্সেও ইসোয়াতিনি এপর্যন্ত একবারও অংশগ্রহণ করতে সক্ষম হয়নি।

সিজা সেলবি দ্‌লামিনি, এমজলিসি এমথেথোয়া, মাচাওয়ে দ্‌লামিনি, টনি সাবেদজে এবং ফেলিক্স বাডেনহর্স্টের মতো খেলোয়াড়গণ ইসোয়াতিনির জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে ইসোয়াতিনি তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (৮৮তম) অর্জন করে এবং ২০১২ সালের সেপ্টেম্বর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ১৯০তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে ইসোয়াতিনির সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ১১৭তম (যা তারা ২০১৬ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ১৮১। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
৭ এপ্রিল ২০২১ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[১]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
১৫২ বৃদ্ধি  গাম্বিয়া ১০৪৩.৪৫
১৫৩ অপরিবর্তিত  মালয়েশিয়া ১০৪০.০২
১৫৪ হ্রাস  ইসোয়াতিনি ১০৩৯.২৪
১৫৫ অপরিবর্তিত  মালদ্বীপ ১০৩৮.৩১
১৫৬ বৃদ্ধি  ডোমিনিকান প্রজাতন্ত্র ১০৩৬.২২
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
২৪ এপ্রিল ২০২১ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
১৭৫ হ্রাস  ইরিত্রিয়া ১১৪৩
১৭৬ বৃদ্ধি  আফগানিস্তান ১১৩৭
১৭৭ বৃদ্ধি  ইসোয়াতিনি ১১২০
১৭৮ বৃদ্ধি  ইন্দোনেশিয়া ১১১৭
১৭৯ বৃদ্ধি  বার্বাডোস ১১০৫

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ যুক্তরাজ্যের অংশ ছিল যুক্তরাজ্যের অংশ ছিল
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০ ফিফার সদস্য ছিল না ফিফার সদস্য ছিল না
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮
স্পেন ১৯৮২ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
মেক্সিকো ১৯৮৬
ইতালি ১৯৯০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪ উত্তীর্ণ হয়নি
ফ্রান্স ১৯৯৮
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২
জার্মানি ২০০৬
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০
ব্রাজিল ২০১৪
রাশিয়া ২০১৮
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ০/১১ ১৯ ১১ ১৫ ৩৯

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ৭ এপ্রিল ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ৭ এপ্রিল ২০২১ 
  2. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ২৪ এপ্রিল ২০২১। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০২১ 
  3. zana-arts ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০০৬-০৯-২৫ তারিখে

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]