ইরান-ইসরায়েল প্রক্সি সংঘাত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মধ্যপ্রাচ্যে ইসরায়েল (কমলা) ও ইরান (সবুজ)

ইরান-ইসরায়েল প্রক্সি সংঘাত,[১] বা ইরান-ইস্রায়েল প্রক্সি যুদ্ধ [২] এবং ইরান-ইসরায়েল শীতল যুদ্ধ[৩] হচ্ছে একবিংশ শতাব্দীতে ইরান ও ইস্রায়েলের মধ্যে সংঘটিত প্রক্সি যুদ্ধ। এই দ্বন্দ্বে ইজরায়েলের বিরুদ্ধে ইরানীয় নেতৃত্বের লক্ষ্য হচ্ছে ইসরায়েলের বিরোধিতা করা এবং ইহুদি রাষ্ট্র হিসেবে ইসরায়েলকে ভেঙ্গে ফেলা[৪] এবং এর পাল্টা হিসেবে ইসরায়েলের লক্ষ্য ইরান সরকারের অর্জিত পারমাণবিক অস্ত্র প্রতিরোধ করা এবং লেবাননের হিজবুল্লাহ নামক রাজনৈতিক-যোদ্ধা সংগঠনের মত ইরানের মিত্র ও প্রক্সিকে ধ্বংস করা।

১৯৭৯ সালের ইরানীয় বিপ্লবের পর ইজরায়েলের প্রতি ইরানের শত্রু অবস্থান থেকে ধীরে ধীরে এই দ্বন্দ্ব শুরু হয়, যখন দক্ষিণ লেবানন সংঘাতের (১৯৮৫-২০০০) সময় ইরান হিজবুল্লাহ্‌কে সমর্থন করে, আর ২০০৫ সালের মধ্যে একটি প্রক্সি দ্বন্দ্বে পরিণত হয়। ২০০৬ সালে ইরান ২০০৬ সালের লেবানন যুদ্ধের সময় হিজবুল্লাহকে সমর্থন করতে সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিল এবং সমান্তরালে হামাস এবং ফিলিস্তিনি ইসলামী জিহাদকে সমর্থন করা শুরু করে। অন্যদিকে ইজরায়েল ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচির ক্ষতি করার জন্য একটি প্রচারাভিযান শুরু করে, যার জন্য ইসরায়েল ইরানের অভ্যন্তরে বেশ কয়েকটি শাসক-বিরোধী মিলিশিয়াকে ব্যবহার করে। সিরিয়ার গৃহযুদ্ধ শুরু হওয়ার পর এই সংঘাত আরো বেড়ে যায় এবং ২০১৮ সালের মধ্যে সরাসরি ইরান-ইজরায়েলি যুদ্ধে পরিণত হয়।

এই সংঘর্ষের মূল বিষয়গুলোর মধ্যে রয়েছে ইজরায়েলের বিরোধী দলগুলোর প্রতি ইরানের সমর্থন, ইরান বিরোধী বিদ্রোহী দলগুলোর প্রতি ইজরায়েলের সমর্থন, ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচি এবং ইরানের অন্যান্য প্রতিদ্বন্দ্বী যেমন সৌদি আরব এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে ইজরায়েলের সম্পর্ক। সিরিয়ার গৃহযুদ্ধে উভয় দেশের সম্পৃক্ততা দুই রাষ্ট্রের মধ্যে সরাসরি সংঘাতের জন্য অতিরিক্ত সম্ভাবনা রচনা করেছে।[৫]

ইরান হিজবুল্লাহ [৬] হামাস [৭] এবং পিআইজেকে উল্লেখযোগ্য প্রদান করেছে, অন্যদিকে ইজরায়েল ইরানের পিপলস মুজাহেদিন অফ ইরানকে সমর্থন জুগিয়েছে [৮] এবং সরাসরি ইরানীয় লক্ষ্যবস্তুতে গুপ্তহত্যা ও হামলা চালিয়েছে। [৯][১০] জরায়েল ইরানের বিরুদ্ধে সাইবার যুদ্ধ পরিচালনা করেছে এবং প্রকাশ্যে ইরানের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক সামরিক অভিযানের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। [১১]

ইজরায়েল ইরানকে ইরাক ও সিরিয়া থেকে লেবানন পর্যন্ত একটি নিরবচ্ছিন্ন স্থল পরিবহন রুট গঠনের চেষ্টার জন্য অভিযুক্ত করেছে,[১২][১৩][১৪] যাকে ইজরায়েল একটি উল্লেখযোগ্য কৌশলগত হুমকি হিসেবে দেখে।[১৫]

ইরান ইজরায়েলকে একটি অবৈধ "ইহুদীবাদী শাসক" (জায়োনিস্ট রেজিম) হিসেবে বিবেচনা করে এবং ইরানের নেতৃত্ব ইজরায়েলকে মুসলমানদের প্রতি শত্রুভাবাপন্ন আমেরিকার মক্কেল রাষ্ট্র হিসেবে অভিযুক্ত করেছে। [১৬]

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Bell, John; Zada, John (১০ নভেম্বর ২০১১)। "Israel's self-fulfilling prophecy on Iran"Al Jazeera। ২০ জানুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ আগস্ট ২০১৪...proxy conflict between Israel and Iran... 
  2. Gerges, Fawas (৫ মে ২০১৩)। "Israel attacks show Syria's conflict becoming a regional proxy war"The Daily Telegraph। ২৯ আগস্ট ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ আগস্ট ২০১৪ 
  3. Ahmari, Sohrab (৯ মার্চ ২০১২)। https://web.archive.org/web/20190702170324/https://www.tabletmag.com/jewish-news-and-politics/93510/iran-around-tel-aviv। ২ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০১৯  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  4. (প্রতিবেদন)।  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)
  5. Holmes, Oliver; Dehghan, Saeed Kamali (১০ মে ২০১৮)। "Fears grow as Israel and Iran edge closer to conflict"The Guardian। ২৭ মার্চ ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০১৯Israel and Iran have been urged to step back from the brink after their most serious direct confrontation, with Israeli missiles being fired over war-torn Syria in a "wide-scale" retaliatory attack many fear could drag the foes into a spiralling war. 
  6. Blanford, Nicholas (২৩ জুন ২০১৩)। "Why Hezbollah has openly joined the Syrian fight"The Christian Science Monitor। ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০১৯ 
  7. Horowitz, Richard (৯ এপ্রিল ২০১৪)। "Why Is Iran Shipping Arm to Hamas and Hezbollah?"The Blaze। ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  8. Williams, Brian (৬ ডিসেম্বর ২০১৪)। "Israel teams with terror group to kill Iran's nuclear scientists, U.S. officials tell NBC News"NBC News। ২৯ নভেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  9. Ben-Yishai, Ron (১২ জানুয়ারি ২০১২)। "Killing the brains"Ynet। ১০ জুন ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০১২ 
  10. Bettini, Daniel (১৩ জানুয়ারি ২০১৯)। "IDF chief reveals Israel's 'silent' war on Iran"Ynetnews। ৩০ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ আগস্ট ২০১৯ 
  11. New York Times, 4 Sept. 2019, "The Secret History of the Push to Strike Iran: Hawks in Israel and America Have Spent More than a Decade Agitating for War Against the Islamic Republic’s Nuclear Program. Will Trump Finally Deliver?"
  12. Ahronheim, Anna (৭ জুন ২০১৭)। "Top Israeli intel official: Threat of Iran's Mideast dominance 'immediate'"The Jerusalem Post। ১৫ জুলাই ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুন ২০১৭ 
  13. "Tehran's land corridor through Syria, a reality"The Jordan Times। ১৩ জুন ২০১৭। ৬ নভেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০১৯ 
  14. Perry, Smadar (১৪ জুন ২০১৭)। "Iran gaining foothold in the region and nearing Israeli border"Ynet। ২ মে ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০১৯ 
  15. "Mossad chief: Iran will pose threat to Israel with or without nuclear deal"The Jerusalem Post। ২১ মার্চ ২০১৭। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০১৯ 
  16. "Palestine from the viewpoint of Imam Khomeini"Tibayan Cultural and Informational Institute। ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ জুলাই ২০১৬ [যাচাইকরণ ব্যর্থ হয়েছে]