ইন্ডিয়ান নেভাল এয়ার আর্ম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ইন্ডিয়ান নেভাল এয়ার আর্ম
প্রতিষ্ঠা১৯৪৮[১]
দেশভারত
ধরননৌসম্বন্ধীয় বিমানচালনা
ভূমিকাসমুদ্র থেকে বিমান-যুদ্ধ, সমতলে আক্রমণ, ডুবোজাহাজ বিনাশী যুদ্ধ, অনুসন্ধান ও উদ্ধার, আকাশপথে পরিদর্শন, আবহাওয়া পর্যবেক্ষণ, এবং উপাদান পরিবহন।
আকার২১ স্কোয়াড্রন
৫,০০০ কর্মী[২]
প্রায় ২৪৬ বিমান[৩]
অংশীদারভারতীয় নৌবাহিনী
কমান্ডার
সহকারী চিফ অফ নেভাল স্টাফ (এয়ার)রেয়ার অ্যাডমিরাল পিজি পাইনামুটিল[৪]
প্রতীকসমূহ
রাউন্ডেলরাউন্ডেল
ফিন ফ্ল্যাশভারতীয় ফিন ফ্ল্যাশ
Aircraft flown
জঙ্গী বিমানমিকোয়ান মিগ-২৯ কে
হেলিকপ্টারএইচএএল ধ্রুব, কামভ কেএ-২৭, কামভ কেএ-৩১, এসএইচ-৩ সি কিং, ওয়েস্টল্যান্ড সি কিং, এইচএএল চেতক
ইউটিলিটি হেলিকপ্টারএইচএএল ধ্রুব
আটককারী বিমানমিকোয়ান মিগ-২৯ কে
প্রহরী বিমানইলিউশিন ইল-৩৮, বোয়িং পি-৮আই, ডোরনিয়ার ডু২২৮
গোয়েন্দা বিমানআইএআই হেরন, আইএআই অনুসন্ধানকারী এম কে২
প্রশিক্ষণ বিমানবিএই হক, এইচএএল কিরণ, পাইলেটাস পিসি-৭, পিপিসট্রেল ভাইরাস)

ইন্ডিয়ান নেভাল এয়ার আর্ম বিমান চালনা শাখা এবং ভারতীয় নৌবাহিনীর গুরুত্বপূর্ণ যুদ্ধ বাহিনী, যার যুদ্ধবিমান বাহক ভিত্তি করে আক্রমনের ক্ষমতা আছে, বহর বিমান প্রতিরক্ষা, সামুদ্রিক পরিদর্শন, এবং ডুবোজাহাজ বিনাশী যুদ্ধ

গোয়াতে নেভাল এভিয়েশন ফ্ল্যাগ অফিসার (ফোনা) বায়ু বাহিনীর কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য উপস্থিত হয়। ফোনা, গোয়া অঞ্চলে নৌবাহিনীর ফ্ল্যাগ কর্মকর্তা (এফওজিএ) হিসাবেও কাজ করে।[৫]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১১ মে ১৯৫৩ সালে, কোচিনে, প্রথম নৌ বিমান কেন্দ্র, আইএনএস গরুড়-এর উদ্বোধন করা হয়েছিল।[৬] শর্ট সিল্যান্ড এবং ফেইরি ফায়ারফ্লাই বিমান ব্যবহার করে, ৫৫০ নম্বর স্কোয়াড্রনের সম্পাদনও এই সময় হয়।[৭][৮][৯]

১৯৬০ সালে, সি হকস বিমান নিয়ে গঠিত ৩০০ নং হোয়াইট টাইগার্স স্কোয়াড্রন,[১০][১১] নিযুক্ত হয়।

ঠিক পরের বছরে (১৯৬১), ভারতীয় নৌবাহিনী আইএনএস বিক্রান্ত (পূর্বের এইচএমএস হারকিউলিস ) অধিগ্রহণ করেছিল।[১২] বিক্রান্তের প্রাথমিক এয়ারউইংয়ে ছিল ব্রিটিশ হকার সি হক বোমারু বিমান এবং একটি ফরাসি আলাইজ ডুবোজাহাজ বিনাশী বিমান। ১৮ই মে ১৯৬১ সালে, প্রথম জেটটি জাহাজে অবতরন করেছিল, এটি চালিয়ে এনেছিলেন লেফটেন্যান্ট (পরবর্তীতে অ্যাডমিরাল) আর এইচ তাহালিয়ানি। সে বছর, ৩৩০ নং কোবরা স্কোয়াড্রন (এলাইজ বিমানের সমন্বয়ে)[১১][১৩]) চালু হয়। গোয়ার মুক্তি এবং একাত্তরের ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধসহ বেশ কয়েকটি বড় ভারতীয় সামরিক পদক্ষেপে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেওয়ার পরে, ১৯৯৭ সালের জানুয়ারি মাসে একে বন্ধ করা হয়[১৪] এবং একটি যাদুঘর জাহাজে পরিণত করা হয়।[১৫]

১৯৭৬ সালে, গোয়ার ডাবোলিমে, ভারতীয় বিমানবাহিনী, ৩১২ নং আলব্যাট্রস স্কোয়াড্রনকে সুপার কনস্টেলেশন বিমান হস্তান্তর করেছিল।[১৬][১৭] সেই সময়ে মোটামুটি পুরানো বিমান হওয়ায় এগুলি ১৯৮৩ সালের মধ্যে সক্রিয় পরিষেবা থেকে প্রত্যাহার করা হয়েছিল। সামুদ্রিক টহল ভূমিকা চালু রাখতে এদের বদলে সোভিয়েত বিমানগুলি আনা হয়েছিল। ১৯৭৭ সালে ৩১৫ নং উইংড স্ট্যালিয়নস স্কোয়াড্রনকে ইলিউশিন ইল-৩৮ বিমান দিয়ে কাজ শুরু করা হয়েছিল।[১৮]

১৯৬১ সালের ডিসেম্বরে আইএনএস বিক্রান্ত অপারেশন বিজয়ে অর্থাৎ পর্তুগাল থেকে গোয়ার মুক্তিতে অংশ নিয়েছিল। এর ভূমিকাটি ছিল মূলত ৪০ ঘণ্টা দীর্ঘ সেনা অভিযানের সময় বিদেশী নৌ হস্তক্ষেপ রোধ করা।[১৯]

পূর্ব পাকিস্তানের সফল নৌ অবরোধে আইএনএস বিক্রান্ত প্রধান ভূমিকা পালন করেছিল।[২০] আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জে অবস্থান করে, শত্রুতার প্রাদুর্ভাবেই বিক্রান্ত চট্টগ্রামের দিকে চালিত হয়েছিল, একে রাস্তা দেখিয়ে নিয়ে গিয়েছিল চিতা-শ্রেণী রণতরি আইএনএস ব্রহ্মপুত্র, এবং আইএনএস বিয়াস[২১] ১৯৭১ সালের ৪ঠা ডিসেম্বর সকালে বিক্রান্ত থেকে আটটি সি হক বিমান কক্সবাজারে বিমান হামলা চালায়, ৬০ নটিক্যাল মাইল (১১০ কিমি; ৬৯ মা) দূর থেকে। সেদিন সন্ধ্যায় বিমান বহর চট্টগ্রাম বন্দরে হামলা চালায়। অন্যান্য আক্রমণগুলি হয়েছিল খুলনা ও মংলা লক্ষ্য করে। পিটিআইয়ের একটি বার্তায় লেখা হয়েছিল, "চট্টগ্রাম বন্দরে আগুন জ্বলছে, কারণ (পাকিস্তান) ইস্টার্ন নেভাল ফ্লিটের জাহাজ ও বিমানে বোমা এবং রকেট হামলা চালানো হয়েছে। একটিও জাহাজকে চট্টগ্রাম থেকে সমুদ্রে পাঠানো যায়নি"। বিক্রান্ত থেকে শুরু হওয়া বিমান হামলাগুলি ১৯৭১ সালের ১০ই ডিসেম্বর পর্যন্ত চলেছিল।

প্রদত্ত নৌ গোয়েন্দা তথ্য অনুসারে, ছদ্মবেশী বণিক জাহাজ ব্যবহার করে, পাকিস্তান নৌবাহিনীর ভারতীয় নৌ অবরোধ ভেঙে দেওয়ার অভিপ্রায় বিক্রান্তের সি হক চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার বন্দরে নৌ-পরিবহনে আঘাত হানে, সেখানে বেশিরভাগ বণিক জাহাজ ডুবে যায় বা ভেঙে যায়।

আইএনএস বিরাট থেকে একটি সি হ্যারিয়ার যাত্রা শুরু করছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "The Naval Air Arm"। The Indian Navy। ২৮ ডিসেম্বর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ জুলাই ২০১৪ 
  2. Bharat-Rakshak – Indian Navy – Administrative Structure ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৫ মার্চ ২০০৯ তারিখে, bharat-rakshak.com
  3. "Archived copy"। ২ মার্চ ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ মার্চ ২০১৯ 
  4. Bharat-Rakshak.com ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২ মার্চ ২০০৮ তারিখে: NAVY SENIOR APPOINTMENTS & OFFICERS LIST
  5. Indian Navy Information Resource and Facilitation Centre (১৮ মে ২০০৬)। "Indian Navy Information Resource and Facilitation Centre – Content"। Irfc-nausena.nic.in। ২০১৩-১২-২৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৩ 
  6. Baranwal, Sukhdeo Prasad (১৯৭১)। ''Military Year-book'' – India 1965। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৬-২৭ 
  7. "Bharat-Rakshak.com – Indian Navy Timeline – "11 May 1953: First Naval Air Station, INS Garuda, inaugurated at Cochin. No.550 Squadron (consisting of Sealand and Firefly aircraft) commissioned""। ১৯ নভেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১৯ 
  8. "Naval Aviation Museum, Dabolim, Goa, India – http://www.warbirdsofindia.com"। ৫ জুলাই ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১৯  |title= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)
  9. "Naval Aviation Museum, Dabolim, Goa, India – http://www.warbirdsofindia.com"। ৫ জুলাই ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১৯  |title= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)
  10. "Bharat-Rakshak.com – Indian Navy Timeline – "1960: No.300 White Tigers Squadron (consisting of Sea Hawk aircraft) commissioned.""। ১৯ নভেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১৯ 
  11. "Naval Aviation Museum, Dabolim, Goa, India – http://www.warbirdsofindia.com"। ৫ জুলাই ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১৯  |title= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)
  12. Baranwal, Sukhdeo Prasad (১৯৭১)। ''Military Year-book'' – India 1965। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৬-২৭ 
  13. Bishop, Chris; Chant, Christopher (২০০৪-১০-১৫)। ''Aircraft Carriers: The World's Greatest Naval Vessels and Their Aircraft'' By Richard Jones, Chris Bishop, Chris Chant, Christopher Chantআইএসবিএন 9780760320051। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৬-২৭ 
  14. ''Students' Britannica India'' By Dale Hoiberg, Indu Ramchandani। ২০০০। আইএসবিএন 9780852297605। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৬-২৭ 
  15. {{Webarchive|url=https://web.archive.org/web/20080902224303/
  16. "Naval Aviation Museum, Dabolim, Goa, India – http://www.warbirdsofindia.com"। ১৯ জুলাই ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১৯  |title= এ বহিঃসংযোগ দেয়া (সাহায্য)
  17. "Bharat-Rakshak.com – Indian Navy Timeline – "1976: No.312 Albatross Squadron (consisting of Super Constellation aircraft) commissioned.""। ১৯ নভেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১৯ 
  18. "Bharat-Rakshak.com – Indian Navy Timeline – "01 October 1977: No.315 Winged Stallions Squadron (consisting of IL-38 aircraft) commissioned.""। ১৯ নভেম্বর ২০০৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ নভেম্বর ২০১৯ 
  19. Sun, 04/01/2009 – 21:45। "Sankalp India Foundation – "What happened during Operation Vijay (1961)?""। Sankalpindia.net। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৬-২৭ 
  20. Aircraft Carriers: The World's Greatest Naval Vessels and Their Aircraft ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৭ জুন ২০১৪ তারিখে By Richard Jones, Chris Bishop, Chris Chant, Christopher Chant
  21. "YouTube documentary"। Youtube.com। ১৩ এপ্রিল ২০০৭। ১১ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:Indian Navy Aircraft Squadrons টেমপ্লেট:Ship classes of the Indian Navy