ইদার রাজ্য

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ইদার রাজ্য
ઈડર
ব্রিটিশ ভারত দেশীয় রাজ্য
আ. ১২৫৭–১৯৪৮
Mahi Kantha Agency during British India 1820-1933 with States and Thanas.svg
মাঝে অবস্থিত চিত্রাংশে বৃহত্তর ক্ষেত্রে নীল রঙে দর্শিত ইদার রাজ্য
রাজধানীইদার
আয়তন 
• ১৯০১
৪,৩২৩ বর্গকিলোমিটার (১,৬৬৯ বর্গমাইল)
জনসংখ্যা 
• ১৯০১
১,৬৮,৫৫৭
 • ধরনপূর্ণ রাজতন্ত্র
ইতিহাস 
• প্রতিষ্ঠিত
আ. ১২৫৭
১৯৪৮
উত্তরসূরী
ভারত
বর্তমানে যার অংশগুজরাট,  ভারত
ইদারের মহারাজা প্রতাপ সিং

ইদার রাজ্য, ছিলো ব্রিটিশ শাসিত ভারতে অবস্থিত একটি ১৫ তোপ সেলামী সম্মানপ্রাপ্ত ক্ষুদ্র দেশীয় রাজ্য, যা বর্তমানে ভারতের অন্তর্গত৷ ব্রিটিশ ভারতে এটি বম্বে রাজ্যের গুজরাট বিভাগের বরোদা এবং গুজরাট রাজ্য এজেন্সির মহীকাণ্ঠা এজেন্সিতে অবস্থিত রাজ্যগুলির মধ্যে একটি ছিলো।[১] রাজ্যটির রাজধানী ও প্রশাসনিক দপ্তর ছিলো ইদারে, এটি বর্তমানে গুজরাট রাজ্যের সবরকাণ্ঠা জেলায় অবস্থিত৷

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ইদার দেশীয় রাজ্যটি আনুমানিক ১২৫৭ খ্রিস্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত হয়, রাজ্যের শাসকরা ছিলেন রাঠোর রাজপুত৷[২][৩] ইদারের পুরাতন শাসকরা ছিলেন ভলাসুর গোষ্ঠীর কোলী জনজাতির প্রতিনিধিরা৷ শেষ কোলী শাসক গুজরাট বিজয়নগর রাজ্যের রাঠোর রাজপুত দ্বারা পরাজিত হলে রাঠোরদের পরবর্তী বারো প্রজন্ম এই রাজ্যে কতৃত্ব প্রতিষ্ঠিত করে৷ ১৬৫৬ খ্রিস্টাব্দে মুরাদ বখশ-এর নেতৃত্বে মুঘলরা এই রাজ্য দখল করে৷ এরপর ইদার মুঘলদের গুজরাট বিভাগের অংশ হয়ে ওঠে৷ ১৭২৯ খ্রিস্টাব্দে যোধপুরের মহারাজার দুই ভাই আনন্দ সিং ও রাই সিং বলপূর্বক এই রাজ্য দখল করে৷ তারা রাজ্যে ইদার, আহমেদনগর, মোরাসা, বাড, হারসোল, পরন্তীজ এবং বিজাপুর জেলা দখল করেন৷ এ ব্যতীত অন্য পাঁচটি জেলা তাদের নতুন রাজ্যের করদে পরিণত হয়৷ ১৭৫৩ খ্রিস্টাব্দে দমজী গায়কোয়াড়ের নেতৃত্বে মারাঠারা এই রাজ্য দখল করে আনন্দ সিংকে যুদ্ধে নিহত করেন৷ ভাইয়ের মৃত্যুর খবর শুনে রাই সিং সৈন্য একত্রিত করে অভিযান চালিয়ে পুনরায় রাজ্য দখল করেন৷ তিনি আনন্দ সিঙের পুত্রকে সিংহাসনে বসিয়ে নিজে তার প্রতিনিধিত্ব করেন৷ ১৭৬৬ খ্রিস্টাব্দে রাই সিঙের মৃত্যুর পর মারাঠারা আবার রাজ্যে ত্রাস সৃষ্টি করলে আনন্দ সিঙের পুত্র রাও শিউসিং পরন্তীজ এবং বিজাপুর জেলা মারাঠা পেশোয়াদের এবং মোরাসা, বাড, হারসোল গায়কোয়াড়দের হাতে তুলে দেন৷ [৪]

১৮৭৫ খ্রিস্টাব্দের তথ্য অনুসারে ইদারের মোট রাজস্বের পরিমাণ ছিলো ৬০,০০০ মুদ্রা, যার ৩,০৩৪ মুদ্রা তারা বরোদা গায়কোয়াড়দের কর দিতেন৷ ১৮৭৫ খ্রিস্টাব্দে রাজ্যটির জনসংখ্যা ছিলো ২,১৭,৩৮২ জন৷ এই সময়ে যোধ পরিবারের রাঠোর রাজপুত শাসক ব্রিটিশদের থেকে ১৫ তোপ সেলামীর সম্মানপ্রাপ্ত হন৷ [৫]

১৯২৪ খ্রিস্টাব্দে রাজ্যটিকে পশ্চিম ভারত রাজ্য এজেন্সির অন্তর্ভুক্ত করা হয়৷ ১৯৪০ এর শুরুর দিকে এটিকে আবার রাজপুতানা এজেন্সিতে স্থানান্তরিত করা হয়৷ ১৯৪৭ খ্রিস্টাব্দে ভারতের স্বাধীনতা লাভের পর জওহার রাজ্যের শাসক ভারতীয় অধিরাজ্যে যোগদানের ইচ্ছা প্রকাশ করে একীভূতকরণের দলিল স্বাক্ষর করলে ১৯৪৮ খ্রিস্টাব্দের ১০ই জুন রাজ্যটিকে ভারতের বম্বে রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত করা হয়৷[৬] এটি বর্তমানে (১৯৬০ খ্রিস্টাব্দে বম্বে রাজ্য থেকে গুজরাট ও মহারাষ্ট্র রাজ্য গঠনের পর থেকে) গুজরাট রাজ্যের সবরকাণ্ঠামেহসানা জেলায় অবস্থিত৷[৭]

শাসকবর্গ[সম্পাদনা]

ইদার দেশীয় রাজ্যের শাসকগণ ১৭৩৭ খ্রিস্টাব্দে মহারাজাধিরাজ মহারাজা উপাধিতে ভূষিত হন।[৮]

  • ১২৫৭ - .... : রাও সোনিংজী
  • .... - .... ১৬ জন মধ্যবর্তী শাসক
  • .... - ১৬৫৬ : রাও জগন্নাথজী
  • ১৬৫৬ - ১৬৫৮ : দ্বিতীয় পুঞ্জজী রাও
  • ১৬৫৮ - ১৬৫৯ : অর্জুনদাসজী রাও
  • ১৬৬৪ - ১৬৬৯ : গোপীনাথজী রাও
  • ১৬৬৯ - ১৬৭৯ : করণসিংজী রাও
  • ১৬৭৯ - ১৭৩১ : নৈরাজ্য
  • ১৭৩১ - ১৭৫৩ : মহারাজাধিরাজ মহারাজা শ্রী আনন্দসিংজী সাহেব বাহাদুর
  • ১৭৫৩ - ১৭৯১ : মহারাজাধিরাজ মহারাজা শ্রী শিবসিংজী আনন্দসিংজী সাহেব বাহাদুর
  • ১৭৯১ : মহারাজাধিরাজ মহারাজা শ্রী ভবানীসিংজী শিবসিংজী সাহেব বাহাদুর
  • ১৭৯১ - ১৮৩৩ : মহারাজাধিরাজ মহারাজা শ্রী গম্ভীরসিংজী ভবানীসিংজী সাহেব বাহাদুর
  • ১৮৩৩ - ১৮৬৮ : মহারাজাধিরাজ মহারাজা শ্রী স্যার জীবনসিংজী গম্ভীরসিংজী সাহেব বাহাদুর
  • ১৮৬৮ - ১৯০১ : হিস হাইনেস মহারাজাধিরাজ মহারাজা শ্রী স্যার কেশরীসিংজী জীবনসিংজী সাহেব বাহাদুর
  • ১৯০১ : হিস হাইনেস মহারাজাধিরাজ মহারাজা শ্রী কৃষ্ণসিংজী কেশরীসিংজী সাহেব বাহাদুর
  • ১৯০১ - ১৯০২ : পদ শূন্য
  • ১৯০২ - ১৯১১ : হিস হাইনেস মহারাজাধিরাজ মহারাজা শ্রী স্যার প্রতাপসিংজী সাহেব বাহাদুর
  • ১৯১১ - ১৯৩১ : লেফটেন্যান্ট কলোনেল হিস হাইনেস মহারাজাধিরাজ মহারাজা শ্রী স্যার দৌলতসিংজী সাহেব বাহাদুর
  • ১৯৩১ - ১৯৪৯ : হিস হাইনেস মহারাজাধিরাজ মহারাজা শ্রী স্যার হিম্মতসিংজী সাহেব বাহাদুর

তার পরবর্তী সমস্ত শাসকই ছিলেন নামমাত্র রাজা।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Imperial Gazetteer of India, v. 20, p. 127.
  2. Indian Princely Medals: A Record of the Orders, Decorations, and Medals by Tony McClenaghan, pg 179
  3. Dhananajaya Singh (১৯৯৪)। The House of Marwar। Lotus Collection, Roli Books। পৃষ্ঠা 13। He was the head of the Rathore clan of Rajputs, a clan which besides Jodhpur had ruled over Bikaner, Kishengarh, Idar, Jhabhua, Sitamau, Sailana, Alirajpur and Ratlam, all States important enough to merit gun salutes in the British system of protocol. These nine Rathore States collectively brought to India territory not less than 60,000 square miles in area. 
  4. he Imperial Gazetteer of India pg. 198
  5. The Imperial Gazetteer of India pg 196–198
  6. Wiki Source, White Paper on Indian States (1950)/Part 4/Instrument of Accession 
  7. Columbia-Lippincott Gazetteer, p. 824
  8. http://www.indianrajputs.com/view/idar