ইউভাইস কারনাইন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ইউভাইস কারনাইন
ক্রিকেট তথ্য
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই
ম্যাচ সংখ্যা - ১৯
রানের সংখ্যা - ২২৯
ব্যাটিং গড় - ১৯.০৮
১০০/৫০ -/- -/-
সর্বোচ্চ রান - ৪১*
বল করেছে - ১০৫.৫
উইকেট - ১৬
বোলিং গড় - ৩১.৫৬
ইনিংসে ৫ উইকেট -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - ৫/২৬
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/- ১/-
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৫

শাওল হামিদ ইউভাইস কারনাইন (জন্ম: ১১ আগস্ট, ১৯৬২) কলম্বোয় জন্মগ্রহণকারী শ্রীলঙ্কার সাবেক ক্রিকেটার। ১৯৮৪ থেকে ১৯৯০ মেয়াদে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের পক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশ নিয়েছেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি মিডিয়াম ফাস্ট বোলার ছিলেন। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে মুরস স্পোর্টস ক্লাবনন্দেস্ক্রিপ্টস ক্রিকেট ক্লাবের প্রতিনিধিত্ব করেন ইউভাইস কারনাইন

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

১৯৮২-৮৩ মৌসুমে মুরস স্পোর্টস ক্লাব ও নন্দেস্ক্রিপ্টস ক্রিকেট ক্লাবের পক্ষে খেলেন তিনি।[১] মার্চ, ১৯৮৪ সালে সফরকারী নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তার একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে। মোরাতুয়ার টাইরোন ফার্নান্দো স্টেডিয়ামে অণুষ্ঠিত ঐ খেলায় তিনি পাঁচ-উইকেট লাভ করেছিলেন।[২] এরপূর্বে অর্জুনা রানাতুঙ্গা’র সাথে ৭ম উইকেট জুটিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন ও ২৪ বলে ২৮ রান তুলেছিলেন। পরে বোলিংয়ে নেমে ২৬ রানে ৫ উইকেট দখল করেন তিনি ও নিউজিল্যান্ড দলকে ১১৬ রানে অল-আউটে সবিশেষ ভূমিকা রাখেন। এরফলে একদিনের আন্তর্জাতিকের ইতিহাসে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে অভিষেকেই পাঁচ-উইকেট লাভের বিরল কৃতিত্বের অধিকারী হন তিনি। ব্যাট ও বলে সমান অবদান রেখে শ্রীলঙ্কার জয়ে অবদান রাখায় তিনি ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার পান।[১] উইজডেন ক্রিকেটার্স অ্যালমেনাক কর্তৃপক্ষ তার ভূয়সী প্রশংসা করে।[৩]

বিশ্ব সিরিজ ক্রিকেটক্রিকেটে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশীপে খেলার জন্য তাকে মনোনীত করা হয়। উভয় প্রতিযোগিতাই ১৯৮৪-৮৫ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়ায় অণুষ্ঠিত হয়েছিল। তন্মধ্যে, বিশ্ব সিরিজ ক্রিকেটে ৯ খেলায় ৪৩.২৫ গড়ে ১৭৩ রান তোলেন।[৪] কিন্তু অধিক রান দেয়ায় তার বোলিং বেশ সমালোচনার পর্যায়ে চলে যায়। ১৯৮৮ সালে উইলস এশিয়া কাপে ভারতকে পরাজিত করার ক্ষেত্রে তিনিও ভূমিকা রাখেন। ১৯৯০ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতে অণুষ্ঠিত অস্ট্রাল-এশিয়া কাপে খেলেন। এ প্রতিযোগিতায় তিনি সর্বশেষ খেলেন।

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর নেয়ার পর শ্রীলঙ্কা জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের নির্বাচকমণ্ডলীর অন্যতম সদস্য হিসেবে রয়েছেন।[৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. P Jayasekera, Johann। "Sri Lanka / Players / Shaul Karnain"ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০১৫ 
  2. "Statistics / Statsguru / One-Day Internationals / Bowling records"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০১৫ 
  3. "Second One-day International Sri Lanka v New Zealand 1983-84"Wisden Cricketers' Almanack। reprinted by ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০১৫ 
  4. "Statistics / Statsguru / SHU Karnain / One-Day Internationals"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০১৫ 
  5. Fidel Fernando, Andrew। "Woutersz named SL team manager for Pakistan, India series"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০১৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]