ইউন-সক ইয়ল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ইউন-সক ইয়ল
윤석열
尹錫悅
[[File:|border|frameless|upright=1]]
দক্ষিণ কোরিয়ার নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি
দায়িত্ব গ্রহণ
১০ই মে, ২০২২
যার উত্তরসূরীমুন জায়ে-ইন
দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধান অভিশংসক
কাজের মেয়াদ
২৫শে জুলাই, ২০১৯ – ৪ঠা মার্চ, ২০২১
রাষ্ট্রপতিমুন জায়ে-ইন
পূর্বসূরীমুন মু-ইল
উত্তরসূরীচো নাম-কোয়ান (কার্যনির্বাহী)
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1960-12-18) ১৮ ডিসেম্বর ১৯৬০ (বয়স ৬১)
সিউল, দক্ষিণ কোরিয়া
রাজনৈতিক দলপিপল পাওয়ার (২০২১ থেকে)
দাম্পত্য সঙ্গীকিম কুন-হি (বি. ২০১২)
শিক্ষাসিউল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় (আইনবিদ্যায় স্নাতক, আইনবিদ্যায় স্নাতকোত্তর)
পেশারাজনীতিবিদ
জীবিকাআইনজীবী
স্বাক্ষর
কোরীয় নাম
হাঙ্গুল
হাঞ্জা
সংশোধিত রোমানীকরণYun Seok-yeol
ম্যাক্কিউন-রাইশাওয়াYun Sŏkyŏl
আইপিএ[jun sʰʌ̹k̚.jʌ̹ɭ]

ইউন-সক ইয়ল (হাঙ্গুল: 윤석열; হানজা: 尹錫悅; জন্ম ১৮ই ডিসেম্ব্রে, ১৯৬০) একজন দক্ষিণ কোরীয় রাজনীতিবিদ, প্রাক্তন জন-অভিশংসক ও আইনজীবী, যিনি ২০২২ খ্রিস্টাব্দের মার্চ মাসে দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হন। এর আগে তিনি ২০১৯ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত রাষ্ট্রপতি মিন জায়ে-ইনের অধীনে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধান অভিশংসক হিসেবে কাজ করেন।[১]

ইউন-সক ইয়ল দক্ষিণ কোরিয়ার রাজধানী সিউল (সউল) নগরীতে জন্মগ্রহণ করেন এবং সউল জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে উচ্চশিক্ষা লাভ করেন। দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধান অভিশংসক হিসেবে তিনি ২০১৬ খ্রিস্টাব্দে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি পার্ক গেউন-হিয়েকে ক্ষমতার অপব্যবহারের দায়ে অভিযুক্ত করে দোষী সাব্যস্ত করতে প্রধান ভূমিকা রাখেন।[১][২] তিনি দক্ষিণ কোরিয়ার রক্ষণশীল পিপল পাওয়ার পার্টির একজন সদস্য হিসেবে ২০২২ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে অংশ নেন এবং স্বল্প ব্যবধানে ডেমোক্রেটিক পার্টির মনোনীত প্রার্থী লি জায়ে-মিউংয়ের বিরুদ্ধে ভোটে নির্বাচিত হন। ২০২২ সালের ১০ই মে তারিখে তিনি দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন শুরু করবেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Who is Yoon Seok-youl, South Korea's conservative candidate for president?"The Economistআইএসএসএন 0013-0613। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২২ 
  2. Shin, Hyonhee (নভেম্বর ৫, ২০২১)। "S.Korea's ex-top prosecutor to challenge Moon's party in 2022 presidential election"Reuters (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০২২