ইউনাইটেড রাশিয়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
ইউনাইটেড রাশিয়া
Единая Россия
সভাপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ (২০১২ থেকে)
প্রতিষ্ঠাতাবৃন্দ সার্গে শয়গু
ইউরি লাঝকভ
মিন্তিমার শাইমিয়েভ
প্রতিষ্ঠা ১ ডিসেম্বর ২০০১ (২০০১-১২-০১)
একীভূতকরণ ফাদারল্যান্ড - অল রাশিয়া
ইউনিটি
আওয়ার হোম - রাশিয়া
যুব শাখা ইয়ং গার্ড অব ইউনাইটেড রাশিয়া
সদস্যপদ  (২০১৩) ২,০৭৩,৭৭২[১]
মতাদর্শ রুশ রক্ষণশীলতাবাদ[২][৩]
জাতিয় রক্ষণশীলতাবাদ[৪]
স্ট্যাটিবাদ[৫]
কেন্দ্রপন্থী[৬][৭]
স্টেট দুমায় আসন
২৩৮ / ৪৫০
আঞ্চলিক সংসদে আসন
২,৮৪০ / ৩,৭৮৭
ওয়েবসাইট
er.ru

ইউনাইটেড রাশিয়া (রুশ: Еди́ная Росси́я; Yedinaya Rossiya) রাশিয়ার বর্তমান ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল। রাশিয়া প্রজাতন্ত্রের অন্যতম বৃহত্তম দল এটি। রাশিয়া সরকারের আইনসভা স্টেট দুমা’র ৪৫০ আসনের মধ্যে ২৩৮টি আসন এ দলের দখলে রয়েছে যা শতাংশের আকারে দাড়ায় ৫২.৮৯।

ইউনিটিফাদারল্যান্ড - অল রাশিয়া পার্টি একীভূত হয়ে ডিসেম্বর, ২০০১ সালে বর্তমান নামে পরিচিতি পাচ্ছে। বর্তমান রাষ্ট্রপতিশাসিত প্রশাসনের নীতি নির্ধারণে দলটি সমর্থন দিচ্ছে। বর্তমান রাষ্ট্রপতি ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে দলের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক রয়েছে। দলের সাবেক প্রধান হিসেবে পুতিন এর সফলতা লাভের প্রধান ব্যক্তি। এছাড়াও, দেশের অর্থনীতির উন্নয়নেও দলটি ভূমিকা রাখছে। ২০০৭ সালে দলটির জনপ্রিয়তা ছিল ৬৪.৪০%। ২০১১ সালের দুমা নির্বাচনে এর জনপ্রিয়তা কিছুটা হ্রাস পেয়ে ৪৯.৩২% দাড়িয়েছে। তাস্বত্ত্বেও কমিউনিস্ট পার্টির (১৯.১৯%) তুলনায় এটি অনেকাংশেই এগিয়ে রয়েছে। রাশিয়ার বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ও সাবেক রাষ্ট্রপতি দিমিত্রি মেদভেদেভ ২৬ মে, ২০১২ তারিখ থেকে দলীয় প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

আদর্শ[সম্পাদনা]

দলটির নীতিগত কোন পরিষ্কার আদর্শ নেই।[৮] কিন্তু প্রশাসনের সাথে সম্পৃক্ত ও সমর্থনদানকারী রাজনীতিবিদ ও কর্মকর্তাদের চিন্তাধারাকে দলটি স্বাগতঃ জানায়।[৯] আদর্শবিহীন ভোটারদের কাছেই এর গ্রহণযোগ্যতা বেশী।[১০] তা স্বত্ত্বেও ইউনাইটেড রাশিয়াকে ‘সকল দলকে ধরা’ বা ‘শক্তিধর দলরূপে’ প্রায়শঃই মূল্যায়ন করা হয়ে থাকে।[১১][১২] ২০০৯ সালে দলটি তাদের প্রাতিষ্ঠানিক আদর্শ হিসেবে রুশ রক্ষণশীলতার কথা জানায়।[২][৩]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ইউরি লুঝকভের নেতৃত্বাধীন ফাদারল্যান্ড - অল রাশিয়া (ওভিআর) দলের অগ্রযাত্রাকে রুখে দিতে ১৯৯৯ সালের দুমা নির্বাচনের তিন পূর্বে ইউনিটি ব্লক গঠন করা হয়। এ দল গঠনে ক্রেমলিনের অভ্যন্তর থেকে বিরাটভাবে সমর্থন ব্যক্ত করা হয়। ঐ সময় রাষ্ট্রপতি বরিস ইয়েলৎসিন বেশ অ-জনপ্রিয় ছিলেন। প্রধানমন্ত্রী ভ্লাদিমির পুতিনের জনপ্রিয়তাও ধীরে ধীরে কমছিল। সার্গেই শোইগুকে দলীয় প্রধান হিসেবে মনোনয়ন দেয়া হয়।[১৩]

মস্কোসহ অন্যান্য শহরে চেচেনিয়া প্রজাতন্ত্রের দাবীতে সন্ত্রাসীদের বোমাবর্ষণের প্রেক্ষিতে সেনা প্রেরণ করলে ১৯৯৯ সালের শরতে প্রধানমন্ত্রী পুতিনের জনপ্রিয়তা দু্ই সংখ্যায় পৌঁছে। যুদ্ধের ফলাফলে পুতিনের জনপ্রিয়তা দ্রুত বৃদ্ধি পায়। রাষ্ট্রনিয়ন্ত্রিত আরটিআরের তুলনায় বরিস বেরেজোভস্কির নিয়ন্ত্রিত চ্যানেল ওয়ানে ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গীতে দেখানো হয়।[১৪]

১৯৯৯ সালের নির্বাচনে দলটি ব্যাপক সাফল্য লাভ করে। ওভিআরের ১৩.৩% তুলনায় দলটি মোট ভোটের ২৩.৩% পায়। তন্মধ্যে কমিউনিস্ট পার্টি ২৪.৩% ভোট পেয়েছিল।[১৩][১৪] ইউনিটি’র বিজয়ে প্রধানমন্ত্রী তাঁর সক্ষমতা দেখান।[১৪] এ ফলাফলে ২০০০ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রধান প্রতিদ্বন্দ্ব্বী প্রার্থী লুঝকভ ও ইয়েভগেনি প্রিমাকভকে পরাজিত করেন। এছাড়াও, ৩১ ডিসেম্বর, ১৯৯৯ তারিখে বরিস ইয়েলৎসিনের রাষ্ট্রপতি হিসেবে পদত্যাগও পুতিনের রাজনৈতিক জীবনকে নিষ্কন্টক করে দেয়।[১৩]

দল গঠন[সম্পাদনা]

১৯৯৯ সালের দুমা নির্বাচনের পর দলটিকে স্থায়ীভাবে গঠনের উদ্যোগ নেয়া হয়। দুমায় নির্বাচিত অনেক স্বতন্ত্র সদস্যকে দলের সভায় যোগদানের আমন্ত্রণ জানানো হয়। এছাড়াও ওভিআর-এর দলীয় প্রধান ইউরি লুঝকভ স্বয়ং সভায় যোগ দেন।[১৩] এপ্রিল, ২০০১ সালে ওভিআর ও ইউনিটি দল যৌথভাবে তাদের দলকে একীভূত করার ঘোষণা দেন। জুলাই, ২০০১ সালে একীভূত দলটিকে ইউনিয়ন অব ইউনিটি এন্ড ফাদারল্যান্ড নামে কংগ্রেসে পরিচিতি ঘটানো হয়। ডিসেম্বর, ২০০১ সালে এটি অল-রাশিয়ান পার্টি অব ইউনিটি এন্ড ফাদারল্যান্ড বা সংক্ষেপে ইউনাইটেড রাশিয়া নামে পরিচিত করা হয়। মার্চ, ২০০৩ সালে দলের দ্বিতীয় কংগ্রেসে সার্গেই শোইগু পদত্যাগ করেন ও দলের নতুন নেতা হিসেবে বরিস গ্রাইজলভকে নির্বাচিত করা হয়।[১৫]

২০০৮ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ইউনাইটেড রাশিয়ার পক্ষে পুতিনের পরিবর্তে দিমিত্রি মেদভেদেভকে মনোনয়ন দেয়া হয়। পুতিনের আশীর্বাদপুষ্ট হয়ে ৭১% ভোটে সুষ্পষ্ট বিজয় পান মেদভেদেভ। রাষ্ট্রপতি হিসেবে পুতিনকে তাঁর প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মনোনয়ন দেয়া হয়। এপ্রিল, ২০০৮ সালে দলের প্রধান হিসেবে পুতিন মনোনয়নপত্র গ্রহণ করেন। কিন্তু ঘোষণা দেন যে, তার মানে এই নয় যে তিনি দলের সদস্য। মেদভেদেভও দলের সদস্য হতে অস্বীকৃতি জানান।[১৩] ২০০৮ সালের নির্বাচনে আগ্রারিয়ান পার্টির পক্ষ থেকে মেদভেদেভের প্রার্থীতাকে সমর্থন জানানো হয়। পরবর্তীতে দলটি ইউনাইটেড রাশিয়ার সাথে একীভূত হয়।[১৬]

২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১১ তারিখে কংগ্রেসের দ্বাদশ সম্মেলন অণুষ্ঠিত হয়। ঐ সম্মেলনে মেদভেদেভ বলেন যে, ভ্লাদিমির পুতিন২০১২ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। তাঁর এ ঘোষণাকে প্রতিনিধিগণ দাঁড়িয়ে স্বাগতঃ জানায়। প্রায় ১২,০০০ প্রতিনিধি, অতিথি ও সাংবাদিক ঐ সভায় অংশ নিয়েছিলেন।[১৭][১৮] ২৬ মে, ২০১২ তারিখে অণুষ্ঠিত ত্রয়োদশ কংগ্রেসে মেদভেদেভকে ইউনাইটেড রাশিয়ার সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত করা হয়।

দলটি স্টেট দুমায় বর্তমানে ২৩৮টি আসন দখলে রেখেছে।[১৪] ২৯ কমিটির ১৫টিতেই সভাপতিত্ব করছে তারা। দুমার স্টিয়ারিং কমিটি দুমা কাউন্সিলের ১৬ আসনের ১০টিই তাদের দখলে। দুমার স্পীকার হিসেবে ইউনাইটেড রাশিয়ার সার্গেই নারিস্কিন রয়েছেন।[১৯]

সদস্য পদ[সম্পাদনা]

১৩ জানুয়ারি, ২০০৩ তারিখে ইউনাইটেড রাশিয়ার সদস্য সংখ্যা ছিল ২৫৭,০০০জন। দলটির তুলনায় লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টি অব রাশিয়া (৬০০,০০০) ও কমিউনিস্টদের (৫০০,০০০) তুলনায় পিছিয়ে রয়েছে।[১৫] এপ্রিল, ২০০০৮ সালে ইউনাইটেড রাশিয়া দাবী করে যে, তাদের সদস্য সংখ্যা ১.৯৮ মিলিয়ন।[২০] মার্চ, ২০০৮ সালের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের পর টিমোথি জে. কল্টন, হেনরি ই. হেল এবং মাইকেল ম্যাকফলের জরীপে জানা যায়, রুশ জনগোষ্ঠীর ৩০% দলের প্রতি অণুগত।[১৩]

মূল্যায়ন[সম্পাদনা]

নভেম্বর, ২০১১ সালে জনমত সমীক্ষায় দেখা যায় যে, এক-তৃতীয়াংশ রুশ মনে করে যে, ইউনাইটেড রাশিয়া অসৎ ও চোরের দল।[২১] ২০১১ সালের আইনসভার নির্বাচনের পর কিছু নেতার বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ আনা হয় ও দল পুণর্গঠনের উদ্যোগ নেয়া হয়।[২২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. [Information on the number of members of the political party "UNITED RUSSIA" in each of its regional offices (as at 1 January 2011)] |trans-title= |title= প্রয়োজন (সাহায্য) (DOC) (রুশ ভাষায়)। minjust.ru/। ১ ফেব্রুয়ারি ২০১১। সংগৃহীত ৩০ মার্চ ২০১৫ 
  2. White, Stephen (২০১১)। Understanding Russian Politics। Cambridge University Press। পৃ: ৩৬২। 
  3. Mezhuev, Boris V. (২০১৩)। "Democracy in Russia: Problems of legitimacy"। Power and Legitimacy—Challenges from Russia (Routledge)। পৃ: ১১৫। 
  4. Chaisty, Paul; Whitefield, Stephen (২০ এপ্রিল ২০১৫)। "Putin’s Nationalism Problem"। E-International Relations 
  5. Wolfram Nordsieck (২০১১)। "Parties and Elections in Europe, Russia"। Parties-and-elections.eu। সংগৃহীত ৩০ মার্চ ২০১৫ 
  6. "Russia parliament elections: How the parties line up"। BBC News। ৬ মার্চ ২০১২। 
  7. "United Russia"। Georgetown University। সংগৃহীত ২৯ মার্চ ২০১৫ 
  8. Roberts, S. P. (২০১২)। Putin's United Russia Party। Routledge Series on Russian and East European Studies। Routledge। পৃ: ১৮৯। আইএসবিএন 9781136588334 
  9. Way, Lucan (২০১০)। "Resistance to Contagion: Sources of Authoritarian Stability in the Former Soviet Union"। Democracy and Authoritarianism in the Postcommunist World (Cambridge University Press): 246–247। 
  10. Hutcheson, Derek S. (২০১০)। "Political marketing techniques in Russia"। Global Political Marketing (Routledge)। পৃ: ২২৫। 
  11. Remington, Thomas (২০১৩)। "Patronage and the Party of Power: President—Parliament Relations under Vladimir Putin"। Power and Policy in Putin's Russia (Routledge)। পৃ: ১০৬। 
  12. Moraski, Bryon J. (২০১২)। "The Duma's electoral system: Lessons in endogeneity"। Routledge Handbook of Russian Politics and Society (Routledge)। পৃ: ১০৯। 
  13. Hale, Henry E. (২০১০)। "Russia's political parties and their substitutes"। in White, Stephen। Developments in Russian Politics 7। New York: Palgrave Macmillan। আইএসবিএন 978-0-230-22449-0 
  14. McFaul, Michael; Stoner-Weiss, Kathryn (২০১০)। "Elections and Voters"। in White, Stephen। Developments in Russian Politics 7। New York: Palgrave Macmillan। আইএসবিএন 978-0-230-22449-0 
  15. White, Stephen (২০০৫)। "The Political Parties"। in White, Gitelman, Sakwa। Developments in Russian Politics 6। Duke University Press। আইএসবিএন 0-8223-3522-0 
  16. "Russia's Agrarian Party to merge with United Russia"Xinhuanet। China View। সংগৃহীত ১৯ ডিসেম্বর ২০১৪ 
  17. Медведев рекомендовал Путина в президенты
  18. Народ к возврату готов — Политика МК
  19. [১] Official site of Russian Duma
  20. United Russia Website.
  21. "Putin Faces Push to Regain Support After Election"The Wall Street Journal। ৬ ডিসেম্বর ২০১১। সংগৃহীত ১০ ডিসেম্বর ২০১১ 
  22. Michael Schwirtz (২৮ ডিসেম্বর ২০১১)। "An Insider Takes a Public Stand Against Putin’s Party"The New York Times। সংগৃহীত ২৮ ডিসেম্বর ২০১১ 

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]