আসিফ নজরুল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আসিফ নজরুল
জন্মআসিফ নজরুল
১২ জানুয়ারি ১৯৬৬
শিক্ষাপিএইচডি, SOAS, University of London, ১৯৯৯ সাল
পেশাঅধ্যাপক
দাম্পত্য সঙ্গীশীলা আহমেদ (বি. ২০১৩)
ওয়েবসাইটasifnazrul.com

ড. আসিফ নজরুল (জন্মঃ ১২ জানুয়ারি ১৯৬৬) একজন বাংলাদেশী অধ্যাপক,গবেষক, কলামিস্ট ও সুশীল সমাজের কর্মী। তিনি বর্তমানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত আছেন।[১]

শিক্ষা[সম্পাদনা]

আসিফ নজরুল ১৯৯৯ সালে সোয়াস (স্কুল অফ ওরিয়েন্টাল অ্যান্ড আফ্রিকান স্টাডিজ) ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন থেকে তার পিএইচডি সম্পন্ন করেন।[২] পরবর্তীতে জার্মানীর বন শহরের ইনভাইরনমেন্টাল ল' সেন্টার থেকে তিনি পোস্ট ডক্টরেট ফেলোশিপ অর্জন করেন। তিনি স্কুল অফ ওরিয়েন্টাল অ্যান্ড আফ্রিকান স্টাডিজে একজন কমনওয়েলথ ফেলো হিসেবে কাজ করেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

আসিফ নজরুল একজন সংবিধান বিশেষজ্ঞ এবং টেলিভিশন ব্যক্তিত্ব। ইউএনডিপি, এডিবিসহ মানবাধিকার সংস্থা, আইনের শাসন, পরিবেশগত সমস্যা ইত্যাদি ভিত্তিক বিভিন্ন ধরনের আন্তর্জাতিক সংস্থার সাথে তার কনসালট্যান্ট হিসাবে কাজ করার অনেক অভিজ্ঞতা আছে।

তিনি প্রথম আলোডেইলি স্টার পত্রিকায় নিয়মিত কলাম লিখেন।[৩] ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক হিসেবে যোগদানের পূর্বে ১৯৯১ সালে তিনি একটি বহুল প্রচারিত সাপ্তাহিক পত্রিকা বিচিত্রায় কাজ করতেন। তিনি কিছু সময় বাংলাদেশ সরকারের একজন সরকারি কর্মকর্তা (ম্যাজিস্ট্রেট) হিসেবে কাজ করেছেন। বর্তমানে তিনি রাজনৈতিক বিশ্লেষক হিসেবে পরিচিত। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মিডিয়ায় তাকে প্রায়ই দেখা যায়। যেমনঃ বিবিসি, সিএনএন এবং আল জাজিরা ইত্যাদি।

গত শতকের নব্বইয়ের দশকের শুরুতে তিনি একজন ঔপন্যাসিক হিসেবে সুপরিচিত হন। তিনি ৯টি উপন্যাস ও ৪টি নন-ফিকশন গল্প লিখেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

২০১৩ সালের ডিসেম্বর মাসে আসিফ নজরুল বাংলাদেশি লেখক হুমায়ূন আহমেদের মেয়ে শীলা আহমেদকে বিয়ে করেন। উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য) </ref> তার সাবেক স্ত্রী ছিলেন অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী। তাদের বৈবাহিক সম্পর্ক কয়েক বছর স্থায়ী ছিলো।

আসিফ নজরুলকে ২০১৩ সালের মে মাসে টেলিফোন করে হত্যার হুমকি দেওয়া হয়েছিলো। ধারনা করা হয়, সরকারের সমালোচনা করার জন্যই তাকে এই হুমকি দেওয়া হয়েছিলো।[৪]

আসিফ নজরুল সাউথ এশিয়ান ফর হিউম্যান রাইটস নামের একটি আঞ্চলিক মানবাধিকার সংস্থার একজন নির্বাহী ব্যুরো সদস্য। তিনি একই সাথে বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িত।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Bureau Members"। South Asians for Human Rights। ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৫। 
  2. Islam, Nazrul; Martinez, Isabel; Mgbeoji, Ikechi; Xi, Wang (২০০১)। Environmental Law in Developing Countries: Selected Issues। IUCN। পৃষ্ঠা xi। আইএসবিএন 978-2-8317-0625-2 
  3. Nazrul, Asif (২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১০)। "Independence of the Higher Judiciary"The Daily Star  একের অধিক |কর্ম= এবং |সংবাদপত্র= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)একের অধিক |work= এবং |newspaper= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)
  4. "Asif Nazrul warned to shun talk-show or be killed"New Age। ২৫ মে ২০১৩। ২৭ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা।  একের অধিক |কর্ম= এবং |সংবাদপত্র= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)একের অধিক |work= এবং |newspaper= উল্লেখ করা হয়েছে (সাহায্য)