আসাম রাজ্যিক সংগ্রহালয়

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আসাম রাজ্যিক সংগ্রহালয়

আসাম রাজ্যিক সংগ্রহালয় হল উত্তর পূর্ব ভারতের মুখ্যসংগ্রহালয়। আসাম রাজ্যিক সংগ্রহালয়টি গুয়াহাটি মহানগরীর দীর্ঘ পুখুরীর দক্ষিণে অবস্থিত। আসাম রাজ্যিক সংগ্রহালয়টি কামরূপ অনুসন্ধান সমিতি স্থাপন করেছিল এবং ১৯৪০ সালের ২১এপ্রিল তখনকার অবিভক্ত আসামের গভর্নর স্যার রবার্ট রেইড দ্বারা উন্মুক্ত করা হয়েছিল।[১] আসাম রাজ্যিক সংগ্রহালয় হল রায় বাহাদুর কনক লাল বরুয়ার মানস সন্তান।[২] আসাম রাজ্যিক সংগ্রহালয়টির দায়িত্ব ১৯৫৩ সালে আসাম সরকার নেয় এবং এটিকে শিক্ষা বিভাগের সংগ্রহালয় এবং পুরাতত্ত্বের অধীনে রাখে।[১] পি ডি চৌধুরী ছিলেন সংগ্রহালয়টির প্রথম সঞ্চালক।[২] ১৯৮৩ সালের এই দুটি বিভাগ (সংগ্রহালয় এবং পুরাতত্ত্ব সঞ্চালকালয়) পৃথক করা হয়।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

আসাম রাজ্যিক সংগ্রহালয়ের ইতিহাস আরম্ভ হয় বিশ শতকের প্রারএনে । এর প্রতিষ্ঠাতা সংস্থান কামরূপ অনুসন্ধান সমিতি ছিল ১৯১২ সালে একদল স্বেচ্ছাসেবক দ্বারা গঠিত হওয়া এক সংস্থান। [৩] কামরূপ অনুসন্ধান সমিতি অঞ্চলটিতে ছড়িয়ে থাকা বহু ঐতিহাসিক সম্পদ আহরণ করে নিজে সংগ্রহ করেছিল। কামরূপ অনুসন্ধান সমিতির স্বেচ্ছাসেবকদের আহরণ করা সম্পদসমূহকে নিজে সংগ্রহালয় সাজিয়ে ফেলেছিল যেখানে ছিলে শিলাচিত্র এবং ভিন্ন ভিন্ন সামগ্রী। তাঁদের মূল উদ্দেশ্য ছিল সম্পদসমূহের সংরক্ষণ এবং প্রদর্শন।[৩] সংগ্রহালয়টির প্রথমে নাম ছিল আসাম প্রাদেশিক সংগ্রহালয় এবং উন্মুক্ত করেছিল অবিভক্ত আসামের গভর্নর স্যার রবার্ট নেইল রেইড ১৯৪০ সালের ২১এপ্রিল।[৩] পরে ১৯৫৩ সালের ১ এপ্রিল আসাম সরকার সংগ্রহালয়টির দায়িত্ব নেয়। সংগ্রহালয়টিকে একটি সাংস্কৃতিক সংগ্রহালয় হিসাবে গঠন করার ইচ্ছা করা হয়েছিল যদিও এটি মূলতঃ একটি পুরাতাত্ত্বিক সংগ্রহালয় ছিল। [৩] পি ডি চৌধুরীর সময়ে বিভিন্ন বিভাগের গ্যালারি যোগ করে সংগ্রহালয়টিকে বহুমুখী সংগ্রহালয় করা হয়। [৩]

কামরূপ অনুসন্ধান সমিতির সংগ্রহসমূহ সংগ্রহালয়টিকে যথেষ্ট মর্যাদা দিয়েছিল। কামরূপ অনুসন্ধান সমিতি থেকে সংগ্রহালয়টির লাভ করা বিভিন্ন সম্পদসমূহের পরিমাণ ছিল এরূপ:[৪]

  • শিলা চিত্র -৮৬টি
  • ধাতুর সামগ্রী-৩০
  • কাঠচিত্র এবং অন্য কাঠের সামগ্রী-৮
  • টেরাকোটা ভাস্কর্য্য-১৮
  • প্রাচীন মাটির পাত্র এবং সামগ্রী-৪৬
  • আহোম যুগের কাপড়-৩৬
  • জনজাতীয় বস্তু-১৯
  • মুদ্রা-৩৩
  • নানারকম বস্তু-২৫
  • সাঁচি পাতার পুথি-২৫৬

এছাড়া সমিতি কিছু বৈদেশিক মুদ্রাও দান করে যায়। [৪]

সংগ্রহসমূহ[সম্পাদনা]

আসাম রাজ্যিক সংগ্রহালয়টিতে আসাম এবং উত্তর পূর্ব ভারতের সমাজ সংস্কৃতির সাথে জড়িত বহু অমূল্যসম্পদ সংগ্রহ করে রাখা হয়েছে। [৫]। আসাম রাজ্যিক সংগ্রহালয়টিতে মোট ১৩৮০২ টি সম্পদ আছে। এর ১৬২১ টি প্রদর্শিত করা হয়।[৫] আসাম রাজ্যিক সংগ্রহালয়টিতে ৪২টা মাষ্টারপিস্ বস্তু আছে তার মধ্যে উল্লেখযোগ্যসমূহ হল:[৫]

  • ১১ শতকের বুদ্ধ মূর্তি : এটিকে বিহারে পাওয়া গেছিল।
  • ১৩ - ১৪ শতকের নটরাজ মূর্তি : এটিকে গুয়াহাটির আমবারীতে পাওয়া গিয়েছিল।
  • ১৯ শতকের বুদ্ধ মূর্তি (কাগজের মণ্ড) : এটিকে মার্ঘেরিটার বুদ্ধ বিহার পাওয়া গিয়েছিল।
  • ৯ - ১০ম শতকের কাঁসার ঘণ্টা : এটিকে গুয়াহাটির ওদালবাক্রা কাহিলিপাড়ায় পাওয়া গিয়েছিল।
  • ৯ - ১১ শতকের ব্রঞ্জের মহিষমর্দিনী: এটিকে গুয়াহাটির ওদালবাক্রা কাহিলিপাড়ায় পাওয়া গিয়েছিল।
  • ৫ম শতকের নগাজারী খনিকরগ্রাম: এটিকে গোলাঘাটর খনিকরগ্রামে পাওয়া গিয়েছিল।
  • ২য় বিশ্বযুদ্ধর জাপানিজ বোমা: এটিকে কোহিমাতে পাওয়া গিয়েছিল।
  • ১৬ শতকের সর্পস্তম্ভ: এটিকে শদিয়াতে পাওয়া গিয়েছিল।
  • ১১ - ১২ শতকের বিষ্ণু মূর্তি : এটিকে গুয়াহাটির ওলুবারীতে পাওয়া গিয়েছিল।
  • শেষ মধ্যযুগর আদিবাসীর দুর্গা: এটিকে মঙ্গলদৈতে পাওয়া গিয়েছিল।
  • ২য় বিশ্বযুদ্ধর স্টেন গান:এটিকে কোহিমাতে পাওয়া গিয়েছিল।

সংগ্রহালয়টিতে থাকা শাখাসমূহ[সম্পাদনা]

এই বহুমুখী সংগ্রহালয়টিতে কয়েকটি শাখা আছে। এই শাখাসমূহ হল:[৫]

  • পাঠোদ্ধার বা পুরালেখ শাখা
  • ভাস্কর্য্য শাখা
  • ভূতত্ত্ব শাখা
  • কলা এবং কারুশিল্প
  • গান্ধী কর্নার
  • পুরানো পোষাক
  • সংগীতর বাদ্যযন্ত্র
  • সাহিত্য শাখা
  • চিত্রকলা শাখা
  • যুদ্ধ অস্ত্র ইত্যদি

খোলার সময়[সম্পাদনা]

সংগ্রহালয়টির সাধারণ জনতার জন্য খোলা রাখার সময় এমনটি:[১]

সোমবারে সংগ্রহালয়টি বন্ধ রাখা হয়। অন্য বারে সংগ্রহালয়টি সকাল ১০ টা থেকে সন্ধ্যা ৫ টা পর্যন্ত খোলা রাখা হয়। মাসের ২য় এবং ৩য় শনিবারে সংগ্রহালয়টি বন্ধ রাখা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "The Assam State Museum - Directorate of Museum - Government Of Assam, India"museums.assam.gov.in 
  2. http://www.abhijna-emuseum.com/museums-of-india/the-assam-state-museum-a-brief-introduction/
  3. Kalita, A(2017)Education through Museum: A Historical Study of the Assam State Museum, Guwahati,International Journal of Humanities & Social Science Studies,. 347-353
  4. Choudhury, R. D., (1966) Handbook Of Assam State Museum, Guwahati, Directorate of Museum
  5. "Master Pieces of Assam State Museum - Directorate of Museum - Government Of Assam, India"museums.assam.gov.in