আশ্রয়ণ প্রকল্প

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আশ্রয়ণ প্রকল্প
আশ্রয়ণ প্রকল্পের লোগো.png
গঠিত১৯৯৭
সদরদপ্তরঢাকা, বাংলাদেশ
যে অঞ্চলে
বাংলাদেশ
দাপ্তরিক ভাষা
বাংলা
ওয়েবসাইটআশ্রয়ণ প্রকল্প

আশ্রয়ণ প্রকল্প (আশ্রয়ণ-২ প্রকল্প নামেও পরিচিত), বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অধীনস্থ একটি সরকারী উন্নয়ন প্রকল্প যার মাধ্যমে গৃহহীন এবং বাস্তুচ্যুত মানুষদের জন্য বাসস্থান নির্মাণ করা হয়। যুগ্ম সচিব মোঃ মাহবুব হোসেন এই প্রকল্পের প্রধান।[১][২][৩][৪]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

আশ্রয়ণ প্রকল্পটি ১৯৯৭ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকার গৃহহীনদের জন্য বাসস্থান তৈরির উদ্যোগ থেকে শুরু করেছিল। ২০১৮ সালে প্রকল্পটি ২০১৯ সালের মধ্যে ২৫০ হাজার গৃহহীন পরিবারের জন্য কক্সবাজারে ১৩৯টি মাল্টিলেভেল ভবন সম্পন্ন করার পরিকল্পনা ঘোষণা করে। ভবনগুলি সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের অধীনে নির্মিত হয়েছে।[৫] নলডাঙ্গা উপজেলাতে প্রকল্পের প্রাপকরা অভিযোগ করেছেন, স্থানীয় ইউনিয়ন সদস্য ও বাংলাদেশ যুব লীগের সদস্যরা এই প্রকল্পে তালিকাভুক্তি নিশ্চিত করতে পরিবারের কাছে ঘুষ চেয়েছেন।[৬][৭]

আশ্রয়ণ-৩[সম্পাদনা]

নোয়াখালী জেলার হাতিয়া উপজেলার ভাসান চরে বাংলাদেশের রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য একলক্ষ ঘর নির্মাণের লক্ষ্য নিয়ে আশ্রয়ণ-৩ প্রকল্পটি সম্প্রসারণের ঘোষণা করছ সরকার।[৮] ২০২০ সালের জানুয়ারিতে রোহিঙ্গা নেতা এবং মানবাধিকার গোষ্ঠীর বিরোধিতা সত্ত্বেও প্রকল্পটি এগিয়ে চলেছে। বাংলাদেশের শরণার্থী বিষয়ক মন্ত্রী বলেছিলেন যে এই দ্বীপটি "আবাসের জন্য প্রস্তুত", যদিও তিনি এই স্থানান্তরের কোন সময়সূচি দেননি। সরকার বিদেশি সাংবাদিক বা রোহিঙ্গা নেতাদের ভাসান চরে যাওয়ার অনুমতি দেয়নি। দ্বীপটি ২০ বছরেরও কম বয়সী এবং কেউ কেউ মনে করেন যে পরবর্তী বর্ষায় এটি অদৃশ্য হবে না এমন কোনও গ্যারান্টি নেই।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "আশ্রয়ণ-২ প্রকল্প"ashrayanpmo.gov.bd (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৯ 
  2. "আশ্রয়ণ-২ প্রকল্প"ashrayanpmo.gov.bd (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৯ 
  3. "Ashrayan Project, a ray of hope for the poor"theindependentbd.com। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৯ 
  4. "Ashrayan project helps distressed families get new life"Daily Sun (ইংরেজি ভাষায়)। ১ আগস্ট ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৯ 
  5. "Ashrayan Project: 4,400 families in Cox's Bazar to get homes"Dhaka Tribune। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৯ 
  6. "Irregularities tarnish Ashrayan project in Naldanga"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ১১ এপ্রিল ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৯ 
  7. Hossen, M. Anwar (২০১৭)। Water Policy and Governance in South Asia: Empowering Rural Communities (ইংরেজি ভাষায়)। Taylor & Francis। পৃষ্ঠা 127। আইএসবিএন 9781134996896। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৯ 
  8. Khokon, Sahidul Hasan। "Bangladesh: Govt takes up Ashrayan-3 project to shelter Rohingya refugees"India Today (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৯ 
  9. "Will thousands of Rohingya refugees be sent to a remote island?"Los Angeles Times। জানুয়ারি ২৩, ২০২০। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২০