আলী যাকের

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search
আলী যাকের
Aly-Zaker.jpg
জন্ম (১৯৪৪-১১-০৬) ৬ নভেম্বর ১৯৪৪ (বয়স ৭৪)
রতনপুর ইউনিয়ন, চট্টগ্রাম, ব্রিটিশ ভারত (বর্তমানে বাংলাদেশ)
জাতীয়তাবাংলাদেশী
পেশাঅভিনেতা , পরিচালক, ব্যবসায়ী, বিজ্ঞাপনী সংস্থা এশিয়াটিকের কর্ণধার
যে জন্য পরিচিতমঞ্চ ও টেলিভিশন অভিনেতা
দাম্পত্য সঙ্গীসারা যাকের
সন্তান
পিতা-মাতা
  • মুহাম্মদ তাহের
  • রেজিয়া তাহের

আলী যাকের (জন্ম: ৬ই নভেম্বর, ১৯৪৪) একজন বিখ্যাত বাংলাদেশী অভিনেতা, ব্যবসায়ী ও কলামিস্ট। তিনি টেলিভিশন ও মঞ্চ নাটকে সমান জনপ্রিয়।[১] তিনি একই সাথে দেশীয় বিজ্ঞাপনশিল্পের একজন পুরোধা ব্যক্তিত্ব। আলী যাকের বাংলাদেশের বিজ্ঞাপনী সংস্থা এশিয়াটিক থ্রি সিক্সটির কর্ণধার। তিনি বাংলাদেশের কালের কন্ঠ পত্রিকায় নিয়মিত কলাম লিখে থাকেন। তাঁর সহধর্মিনী সারা যাকেরও একজন বিখ্যাত অভিনেত্রী। আলী যাকের ২০১০ সালের ডিসেম্বরে বাংলাভিশনের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক অনুষ্ঠান ভালোবাসার বাংলাদেশ উপস্থাপনা করেন।[২]

শিল্পকলায় অবদানের জন্য ১৯৯৯ সালে বাংলাদেশ সরকার তাঁকে দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান একুশে পদকে ভূষিত করে।

মঞ্চনাটক[সম্পাদনা]

১৯৭২ সালের আলী যাকের আরণ্যক নাট্যদলের হয়ে মামুনুর রশীদের নির্দেশনায় মুনীর চৌধুরীর কবর নাটকটিতে প্রথম অভিনয় করেন যার প্রথম প্রদর্শনী হয়েছিল ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউশনে। ১৯৭২ সালের জুন মাসের দিকে আতাউর রহমানজিয়া হায়দারের আহ্বানে নাগরিক নাট্যসম্প্রদায়ে যোগ দেন। ঐ দলে তিনি আতাউর রহমানের নির্দেশনায় বুড়ো শালিকের ঘাড়ে রোঁ নাটকে প্রথম অভিনয় করেন, যার প্রথম মঞ্চায়ন হয়েছিল ওয়াপদা মিলনায়তনে । ১৯৭৩ সালে নাগরিক নাট্যসম্প্রদায়ে তিনি প্রথম নির্দেশনা দেন বাদল সরকারের বাকি ইতিহাস নাটকে, যা ছিল বাংলাদেশে প্রথম দর্শনীর বিনিময়ে নাট্য প্রদর্শনীর যাত্রা।[৩]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

নাগরিক নাট্যসম্প্রদায়ের জন্য বিশ্বখ্যাত বিদেশী নাটকের বাংলা রূপান্তর আর নাটক নির্দেশনা এসব কাজে আলী যাকের ব্যস্ত ছিলেন। ১৯৭৩ সালে ঐ দলে যোগ দেন সারা যাকের যাকে শুরুতে চোখেই পড়েনি আলী যাকেরের। একটি নাটকের প্রদর্শনীর আগের দিন একজন অভিনেত্রী হঠাৎ অসুস্থ হয়ে গেলে সারা যাকেরকে দেওয়া হয় চরিত্রটিতে অভিনয় করতে। আলী যাকেরের ওপর দায়িত্ব পড়ে তাকে তৈরি করার চরিত্রটার জন্য এবং খুব দ্রুত চরিত্রটির সাথে নিজেকে মানিয়ে নেন সারা যাকের। এই প্রতিভায় মুগ্ধ হয়ে যান আলী যাকের। ১৯৭৭ সালের এই ঘটনার রেশ ধরেই আলী যাকের আর সারা যাকেরের বিয়ে হয়।[৪] এই দম্পতির দুই সন্তান, পুত্র অভিনেতা ইরেশ যাকের ও কন্যা স্রিয়া শারবোজোয়া।

চলচ্চিত্র[সম্পাদনা]

টেলিভিশন নাটক[সম্পাদনা]

মঞ্চ নাটক[সম্পাদনা]

  • দেওয়ান গাজীর কিসসা
  • গ্যালিলিও
  • কবর

পুরস্কার[সম্পাদনা]

  • শিল্পকলায় অবদানের জন্য একুশে পদক - ১৯৯৯[৫]
  • অভিনয়ের জন্য ‘দ্য ডেইলি স্টার-স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড সেলিব্রিটিং লাইফ’ - ২০১৮[৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. কমল, এরশাদ (২২ ফেব্রুয়ারি ২০০৯)। "Aly Zaker: Reporter in the frontline"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৩০ অক্টোবর ২০১০ 
  2. যাকের, আলী। "উপস্থাপক আলী যাকের"বাংলাদেশ প্রতিদিন। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  3. যাকের, আলী (৭ অক্টোবর ২০১০)। "মঞ্চে প্রথম"দৈনিক প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  4. হাসান, বিপুল (১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১১)। "ভালোবাসার ঘর-সংসার"বাংলা নিউজ২৪। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  5. "আলী যাকের-নূর-সারা যাকের সংবর্ধিত"দৈনিক ইনকিলাব (ইংরেজি ভাষায়)। ৮ জুলাই ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৮ অক্টোবর ২০১৮ 
  6. "আজীবন সম্মাননা পাচ্ছেন তিন গুণী"দৈনিক প্রথম আলো। ৮ অক্টোবর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৮ অক্টোবর ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]