আলাপ:পর্নোগ্রাফির বিরোধিতা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

পর্নোগ্রাফির বিরোধিতা[সম্পাদনা]

পর্নোগ্রাফিতে মানুষের ইন্দ্রিয়সুখ সম্পর্কিত স্বাভাবিক আচরণ যেমন, সস্নেহ আলিঙ্গন, প্রণয়স্পর্শ, চুমু ইত্যাদি আন্তরিক ব্যাপারগুলোকে এড়িয়ে যাওয়া হয়। পর্নোগ্রাফি ক্যামেরা শুধুমাত্র যেটাকে ফোকাস করে তা হলো নারীর যৌনাঙ্গের ভিতর পুরুষের যৌনাঙ্গের প্রবেশ । যৌনসুখের চেয়ে ক্যামেরার সামনে পরিপাটি হয়ে এক্সপ্রেশন দেয়াটা বেশি প্রাধান্য পায়। হঠাৎ করে দুজন প্রেমসঙ্গী নিরিবিলি একটা যায়গায় একা হয়ে যাওয়ার পর কি পরিস্থিতি হবে! কিভাবে দুজনের মধ্যকার শারিরিক চাওয়াটা ধাপে ধাপে উঠে আসবে? আগে এগুলো মানুষের কাছে অতীব গুরুত্বপূর্ণ ছিল। কিন্তু পর্নোগ্রাফি বলছে, জামা ছিঁড়ে ফেল, ঢুকে যাও! Idhaya Thamarai (আলাপ) ০৭:৪৩, ৮ জুলাই ২০১৭ (ইউটিসি)