আলান্দুর মেট্রো স্টেশন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আলান্দুর
চেন্নাই মেট্রো স্টেশন
Train at Alandur station (2).jpg
স্টেশনে পৌঁছে একটি ট্রেন।
লাইনসবুজ লাইন
নীল লাইন
প্ল্যাটফর্মপার্শ্ব প্ল্যাটফর্ম
রেলপথ
নির্মাণ
গঠনের ধরনউত্তোলিত
প্ল্যাটফর্মের স্তর
ইতিহাস
চালু২৯ জুন ২০১৫ (2015-06-29) (সবুজ লাইন)
২১ সেপ্টেম্বর ২০১৬ (2016-09-21) (নীল লাইন)
ট্রাফিক
যাত্রীসমূহ১০,০০০/দিন (২০১৮)[১]
পরিষেবা
পূর্ববর্তী স্টেশন   চেন্নাই মেট্রো   পরবর্তী স্টেশন
নীল লাইন
সবুজ লাইন
শেষ স্টেশন
অবস্থান

আলান্দুর মেট্রো স্টেশন বা আলন্দুর মেট্রো স্টেশন একটি উত্তোলিত মেট্রো স্টেশন যা নীল লাইন এবং চেন্নাই মেট্রোর গ্রিন লাইনের অংশ এবং এটি দুটি লাইনগুলির মধ্যে একটি বিনিময় কেন্দ্র হিসাবে কাজ করে। স্টেশনটি বর্তমানে চেন্নাই মেট্রোর দুটি স্টেশনের মধ্যে একটি যেখানে দুটি লাইন মিলিত হয়, অন্যটি চেন্নাই সেন্ট্রাল মেট্রো স্টেশন। এটি শহরটির প্রথম বহু-স্তরীয় (মাল্টি-লেভেল) রেলওয়ে স্টেশন।[২] এটি একমাত্র স্টেশন যেখানে দুটি করিডোরের যাত্রীরা ভ্রমণের দিকটি স্যুইচ করতে পারে।[৩]

স্টেশন[সম্পাদনা]

স্টেশনটি চেন্নাই মেট্রোর দুটি পৃথক করিডরের জন্য বিনিময় কেন্দ্র হিসাবে কাজ করে, এই দুটি লাইন স্টেশনের দুটি ভিন্ন স্তরে নির্মিত হয়েছে- প্রথমটি গুইন্ডি থেকে অফিসার ট্রেনিং একাডেমী (ওটিএ) এবং চেন্নাই বিমানবন্দরের দিকে এবং দ্বিতীয়টি লাইন সিএমএমটি থেকে সেন্ট থমাস মাউন্ট স্তেস্নের দিকে গিয়েছে।[৪]

সাব স্টেশন প্রাপ্তি[সম্পাদনা]

সিএমআরএল প্রকল্পের জন্য স্টেশনের কাছে তামিলনাড়ু বিদ্যুৎ বোর্ড কর্তৃক একটি ২৩০-কেভি গ্রহণকারী সাবস্টেশন (আরএসএস) নির্মিত হচ্ছে। টি এন ই বি কাছাকাছি অবস্থিত টিএনইবি সাব-স্টেশন (টিএনইবি কর্তৃক নির্মিত হচ্ছে) থেকে ১১০ কেভি বিদ্যুৎ সরবরাহ করবে আরএসএস-এ, যা দুটি ট্রান্সফরমার দ্বারা ৩৩ কেভি থেকে ২৫ কেভি পর্যন্ত ধাপে ধাপে সরবরাহ করা হবে।

উপলব্ধ সুবিধা[সম্পাদনা]

ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডে মেট্রো স্টেশনের কাছাকাছি আসার ঘানা জংশনে তিনটি এসি বাস আশ্রয় কেন্দ্র স্থাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে, যা আন্তঃমন্ত্রণালয় পরিবহন কেন্দ্র হয়ে উঠবে। প্রতিটি আশ্রয়স্থল ৩৭০ বর্গফুটের বেশি হবে, যেজেখানে৩২ জন যাত্রী বসতে এবং ৪৫ জন যাত্রী দাঁড়াতে পড়বে। আশ্রয়ের অন্যান্য সুবিধাগুলিতে এটিএম, সিসিটিভি, সিকিউরিটি গার্ড, পাবলিক প্রস্রাব, পানীয় জল, কফি ভেন্ডিং মেশিন এবং বাস আগমন সম্পর্কে ঘোষণা অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

বাণিজ্যিক কেন্দ্র[সম্পাদনা]

চেন্নাই মেট্রো প্রকল্পের প্রথম ধাপে পাঁচটি স্টেশনে মধ্যে একটি হল আলন্দুর স্টেশন, যা বাণিজ্যিক হাব রূপান্তর করা হয়েছে, অন্য স্টেশনগুলি হল সিএমবিটি, অরুবাক্কাম, এককাতুথাঙ্গল এবং অশোক নগর। স্টেশনটির পিছনে গাড়ি পার্কের জন্য একটি বেসমেন্ট এবং স্টিল ফ্লোর দিয়ে ১,১৮,০০০ বর্গফুট ভবন নির্মাণ করা হয়েছে।[৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; Hindu_FOBConstructionBegins নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  2. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; DC_DesignedForExcellence নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  3. Raja Simhan, T. E. (৪ মে ২০১২)। "Multi-level Metro rail corridor structure coming up at Alandur"Business Line। Chennai: The Hindu। সংগ্রহের তারিখ ৪ ফেব্রু ২০১৫ 
  4. "ஆலந்தூரில் பிரமாண்ட மெட்ரோ ரயில் நிலையம்"Chennai Online (Tamil ভাষায়)। Chennai: Chennai Online। ১৪ এপ্রিল ২০১২। ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ নভে ২০১২ 
  5. TNN (২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৪)। "In less than a year, you can park, shop and ride at metro rail stations"The Times of India। Chennai: The Times Group। সংগ্রহের তারিখ ৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]