আলাউদ্দিন মুহাম্মদ খোয়ারিজমশাহ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
দ্বিতীয় মুহাম্মদ
খোয়ারিজমের শাহ
রাজত্ব১২০০ – ১২২০
পূর্বসূরিআলাউদ্দিন তেকিশ
উত্তরসূরিজালালউদ্দিন খোয়ারিজম শাহ
জন্ম১১৬৯
মৃত্যু১২২০
আবাসকুন, কাস্পিয়ান সাগরের নিকটে, বর্তমান ইরান
দাম্পত্য সঙ্গীচিচেক খাতুন
বংশধরজালালউদ্দিন খোয়ারিজম শাহ
রুকনউদ্দিন কুরসাঞ্জদি
কুতুবউদ্দিন উজলাক শাহ
কিয়াসউদ্দিন পির শাহ
ইয়াহিয়া হুর শাহ
কুমাখতি শাহ
আক শাহ
খান সুলতান
আইসি খাতুন
পূর্ণ নাম
লকব: আলাউদ্দিন (সংক্ষেপে), ইস্কান্দারে সানি
কুনিয়া: আবুল ফাতেহ
মূল নাম: মুহাম্মদ
তুর্ক ডাকনাম: সানজার
নসব: মুহাম্মদ ইবনে তেকিশ ইবনে আরসালান ইবনে আতসিজ ইবনে মুহাম্মদ ইবনে আনুশতেগিন
রাজবংশআনুশতেগিন রাজবংশ
পিতাআলাউদ্দিন তেকিশ
মাতাতারকান খাতুন
ধর্মইসলাম (সুন্নি)

আলাউদ্দিন মুহাম্মদ খোয়ারিজমশাহ (ফার্সি: علاءالدین محمد خوارزمشاه) ছিলেন খোয়ারিজমীয় সাম্রাজ্যের শাহ ১২০০ থেকে ১২২০ সাল পর্যন্ত তিনি ক্ষমতায় ছিলেন। খোয়ারিজমে মঙ্গোলদের হামলার সময় তিনি ক্ষমতায় ছিলেন। মঙ্গোলদের হামলায় তার সাম্রাজ্য ধ্বংস হয়ে যায়।

শাসনকাল[সম্পাদনা]

আলাউদ্দিন তেকিশের মৃত্যুর পর মুহাম্মদ শাহ হন। ক্ষমতাসীন হওয়ার পর গিয়াসউদ্দিন মুহাম্মদমুইজউদ্দিন তার সাম্রাজ্যে হামলা করেন। এর কয়েক সপ্তাহ পরে ঘুরি ভ্রাতৃদ্বয় পশ্চিমে খোরাসানের দিকে তাদের বাহিনী নিয়ে যাত্রা করেন। নিশাপুর জয় করার পর মুইজউদ্দিনকে রাই জয়ের জন্য প্রেরণ করা হয়। কিন্তু মুইজউদ্দিন গুরগানের পর বেশিদূর অগ্রসর হতে পারেননি। এ কারণে গিয়াসউদ্দিন তার উপর ক্ষুব্ধ হয়েছিলেন। তাদের দুই ভাইয়ের মধ্যে এটি একমাত্র মনোমালিন্যের ঘটনা ছিল বলে জানা যায়।[১][২]

১২০২ সালে হেরাতে গিয়াসউদ্দিন অসুস্থতার কারণে মারা যান। দ্বিতীয় মুহাম্মদ এসময় সুযোগ কাজে লাগিয়ে হেরাত অবরোধ করেন। কিন্তু মুইজউদ্দিন তাকে প্রতিহত করতে সক্ষম হন। তিনি খোয়ারিজম পর্যন্ত অগ্রসর হয়ে রাজধানী গুরগঞ্জ অবরোধ করেন। দ্বিতীয় মুহাম্মদ কারা খিতান খানাতের কাছে সহায়তা চাইলে তারা সাহায্য হিসেবে একটি সেনাদল পাঠায়। এই অবস্থায় মুইজউদ্দিন পিছু হটতে বাধ্য হন। ফেরার সময় ১২০৪ সালে আন্দখুদে তিনি একটি লড়াইয়ে পরাজিত হন।[৩][৪] ১২০৬ সালে মুইজউদ্দিন নিহত হন। এরপর তার সাম্রাজ্য সেনাপতিদের মধ্যে বিভক্ত হয়ে যায়। তন্মধ্যে অন্যতম ছিলেন গিয়াসউদ্দিন মাহমুদ। দ্বিতীয় মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিনের কাছ থেকে বলখতিরমিজ দখল করে নিয়েছিলেন।[৫] তবে অভিযানের সময় তিনি কারা-খিতান খানাতের হাতে বন্দী হন। তের মাস পর তিনি মুক্তি পান এবং পুনরায় গিয়াসউদ্দিনের রাজ্যে হামলা করে হেরাত দখল করেন। এরপর তিনি ঘুর হামলা করে গিয়াসউদ্দিনকে বন্দী করেন। এরপর গিয়াসউদ্দিন মুহাম্মদের কর্তৃত্ব মেনে নেন। দ্বিতীয় মুহাম্মদ ১২০৭ সালে সমরকন্দ দখল করেন। ১২১০ সালে তিনি তাবারিস্তান দখল করেন। এছাড়াও তাশখন্দ ও ফারগানা দখল করেছিলেন। ১২১২ সালে কারাখানিরা তার কাছে পরাজিত হয়।

১২১৭ সালে তিনি সির দরিয়া থেকে পারস্য উপসাগরের সমস্ত অঞ্চল জয় করেন। এরপর তিনি নিজেকে শাহ ঘোষণা করে খলিফার কাছ থেকে অনুমোদন প্রার্থনা করেন। খলিফা আন-নাসির তার দাবি অগ্রাহ্য করায় তিনি তার বাহিনী নিয়ে বাগদাদের দিকে অগ্রসর হন। তবে জগ্রোস পর্বতমালা অতিক্রমের সময় তার দল ভীষণ তুষারঝড়ের কবলে পড়ে।[৬] এসময় অসংখ্য সৈনিক নিহত হয়। পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় তিনি ফিরে আসেন।

পতন[সম্পাদনা]

১২১৮ সালে চেঙ্গিস খান শাহর সাথে বাণিজ্য বিষয়ে যোগাযোগ করেন। ইতিমধ্যে চেঙ্গিস খান চীনের দুই তৃতীয়াংশ অঞ্চল জয় করেছিলেন। তিনি একটি বণিকদল খোয়ারিজমে প্রেরণ করেন। শাহ তাদেরকে গুপ্তচর চিহ্নিত করে তাদের বন্দী ও সম্পদ বাজেয়াপ্ত করেন। পরে তাদেরকে মৃত্যুদন্ড দেয়া হয়।

দ্বিতীয় মুহাম্মদের মৃত্যু। রশিদউদ্দিন হামাদানির রচিত জামি আল-তাওয়ারিখ গ্রন্থের চিত্র।

চেঙ্গিস খান এরপর মধ্য এশিয়ায় অভিযান চালান। তিনি সমরকন্দ, বুখারা, ওতরার ও অন্যান্য শহরে হামলা চালান। মুহাম্মদ শাহর রাজধানী উরগঞ্জও শীঘ্রই মঙ্গোলদের হস্তগত হয়। চেঙ্গিস খানের অভিযানের ফলে খোয়ারিজমের শহরগুলি ধ্বংস হয়ে যায়। ধ্বংসযজ্ঞের পরিমাণ ছিল অগনিত। অসংখ্য ঐতিহাসিক নিদর্শন এসময় ধ্বংস হয়।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

আলাউদ্দিন মুহাম্মদ পালিয়ে যান। পরে কাস্পিয়ান সাগরের একটি দ্বীপে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Ahmad Hasan Dani et al. History of civilizations of Central Asia, vol. IV, Delhi, Motilal Banarsidass Pub. (1999) আইএসবিএন ৮১-২০৮-১৪০৯-৬, p182
  2. Enc. Islam, article: Muhammad, Mu'izz al-Din
  3. A Global Chronology of Conflict: From the Ancient World to the Modern Middle, Vol. I, ed. Spencer C. Tucker, (ABC-CLIO, 2010), 269.
  4. Farooqui Salma Ahmed, A Comprehensive History of Medieval India: From Twelfth to the Mid-Eighteenth Century, (Dorling Kindersley Pvt., 2011), 53-54.
  5. Michel Biran, The Empire of the Qara Khitai in Eurasian History, (Cambridge University Press, 2005), 70.
  6. Rafis Abazov, Palgrave Concise Historical Atlas of Central Asia, 43.

উৎস[সম্পাদনা]

আলাউদ্দিন মুহাম্মদ খোয়ারিজমশাহ
জন্ম: ১১৬৯ মৃত্যু: ১২২০
শাসনতান্ত্রিক খেতাব
পূর্বসূরী
আলাউদ্দিন তেকিশ
খোয়ারিজমীয় সাম্রাজ্যের শাহ
১২০০-১২২০
উত্তরসূরী
জালালউদ্দিন খোয়ারিজম শাহ

টেমপ্লেট:Anushtiginid Dynasty