আর্সেনাল স্টেডিয়াম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আর্সেনাল স্টেডিয়াম
হহহবারি, "দ্য হোম অফ ফুটবল"
Arsenal Stadium interior North Bank.jpg
পূর্ণ নাম আর্সেনাল স্টেডিয়াম
অবস্থান হাইবারি, লন্ডন, ইংল্যান্ড
মালিক আর্সেনাল ফুটবল ক্লাব
অপারেটর আর্সেনাল
ধারণক্ষমতা
৩৮,৪১৯ জন থেকে সর্বোচ্চ ৭৩,০০০ জন
মাঠের আয়তন
১০৯×৭৩ গজ / ১০০×৬৭ m[১]
নির্মাণ
উন্মোচন ৬ সেপ্টেম্বর, ১৯১৩
পুন: সংস্কার ১৯৩২-৩৬, ১৯৯২-৯৩
বন্ধ করা হয়েছে মে ৭, ২০০৬
ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে ২০০৬; আবাসন প্রকল্পের জন্য বরাদ্দ
নির্মাণ খরচ ১২৫,০০০ ইউরো (১৯১৩ সালে)
১৭৫,০০০ ইউরো (১৯৩০ সালে নতুন করে সাজাতে)
স্থপতি আরকিবাল্ড লেইতচ (১৯১৩ সালে মূলটির)
ক্লদে ফেরিয়ার এবং উইলিয়াম বিনি (১৯৩০ সালে নতুন করে সাজাতে)
ভাড়াটিয়া
আর্সেনাল (১৯১৩-২০০৬)

আর্সেনাল স্টেডিয়াম দক্ষিণ লন্ডনের হাইবারিতে অবস্থিত একটি ফুটবল মাঠ। ৬ সেপ্টেম্বর, ১৯১৩ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত এটি ছিল আর্সেনালের নিজেদের মাঠ। স্থানের নাম হাইবারি হওয়াতে স্টেডিয়ামটি হাইবারি নামে বেশি পরিচিত। স্টেডিয়ামটির নকশা করেছেন তৎকালীন বিখ্যাত ফুটবল স্থপতি আরকিবাল্ড লেইতচ। নকশা ছিল সেই সময়কার ইংল্যান্ডের অন্য সকল মাঠের অনুরূপ। তিনদিকে খোলা গ্যালারি এবং একদিকে আশ্রয় শিবির। ১৯৩০ সালে মাঠে বিশাল আকারের পরিবর্তন আনা হয়। পূর্ব এবং পশ্চিম দিকে নতুন আর্ট ডেকো, নর্থ ব্যাংক এবং ক্লক এন্ড গ্যালারির ছাদ তৈরি করা হয়। তখন মাঠটি ৬০,০০০ দর্শক ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন ছিল। ১৯৯০ সাল পর্যন্ত মাঠটিতে সর্বোচ্চ ৫৭,০০০ দর্শক খেলা দেখতে পারতো। পরে টেইলর রিপোর্ট এবং প্রিমিয়ার লীগের নিয়ম অনুসারে কর্তৃপক্ষ সম্পূর্ণ গ্যালারিতে আসন স্থাপন করতে বাধ্য হয়। ধারণ ক্ষমতা তখন নেমে আসে ৩৮,৪১৯ জনে। ধারণ ক্ষমতা আরও কমে যায় যখন চ্যাম্পিয়ন্‌স লীগের ম্যাচ আয়োজন করার জন্য অতিরিক্ত বিজ্ঞাপন মঞ্চ তৈরি করা হয়। হাইবারি স্টেডিয়ামের সম্প্রসারণ এর আশেপাশের জায়গার মালিকদের বিরোধিতার ফলে সম্ভব ছিলনা। যা ছিল ক্লাবটির সর্বোচ্চ রাজস্ব আদায়ের পথে একটি বিরাট বাধা। এতসব সীমাবদ্ধতার কথা চিন্তা করে আর্সেনাল ১৯৯৯ সালে ৬০,০০০ আসন সংখ্যা বিশিষ্ট অ্যাশবুরটন (পরবর্তীরে এমিরেট্‌স স্টেডিয়াম) তৈরি করার পরিকল্পনা হাতে নেয়। ২০০৬ সালে এমিরেট্‌স স্টেডিয়াম তৈরি শেষ হবার পর ক্লাবটি আবাসন প্রকল্পের হাতে মাঠটি ছেড়ে দেয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Questions & Answers"Arsenal.com। সংগৃহীত ২০০৭-০১-২৩