আর্মিন স্টাইগেনবার্গার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আর্মিন স্টাইগেনবার্গার
সাদা-কালো প্রতিকৃতি
স্টাইগেনবার্গার, ২০১৭ সালে চট্টগ্রামে
স্থানীয় নাম
Armin Steigenberger
জন্ম (1965-01-07) ৭ জানুয়ারি ১৯৬৫ (বয়স ৫৪)
নুরেমবার্গ, জার্মানি
বাসস্থানমিউনিখ, জার্মানি
জাতীয়তাজার্মান
পেশাকবি, উপন্যাসিক, সম্পাদক
কার্যকাল?-বর্তমান
দাম্পত্য সঙ্গীক্রিস্টল স্টাইগেনবার্গার (বি. ২০০০)

আর্মিন স্টাইগেনবার্গার (জন্ম জানুয়ারি ৭, ১৯৬৫, নুরেমবার্গ), একজন জার্মান কবি, উপন্যাসিক, সম্পাদক।[১]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

আর্মিন স্টাইগেনবার্গার জানুয়ারি ৭, ১৯৬৫ সালে জার্মানির নুরেমবার্গে জন্ম নেন।[২]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

আর্মিন স্টাইগেনবার্গার মিউনিখ টেকনিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্থাপত্যকলায় অধ্যয়ন করেছেন, এবং পরবর্তীতে ২০০০ সাল পর্যন্ত এ পেশায় নিয়োজিত ছিলেন। ১৯৯০-এর দশকের শেষের দিকে তিনি মিউনিখ সাহিত্য ব্যুরোর সভাপতি ছিলেন। বিংশ শত্ব্দীর শুরু থেকে কাজ করে যাচ্ছেন ফ্রীল্যান্স লেখক এবং পাঠক ও লেখক সেমিনারের আয়োজক হিসেবে। পাশাপাশি কাজ করছেন লোরা মিউনিখের দুটি বেতার সম্প্রচারে এবং আউসা.ডেম জার্মান সাহিত্য পত্রিকার সহ-সম্পাদক হিসেবে।[৩] তিনি "রাইম ফ্রি" নামক কাব্যসংঘের সদস্য। কারিন ফেলনার এবং আর্মিন স্টাইগেনবার্গারকে মিউনিখের সমসাময়িক গীতিকাব্যের অন্যতম চালিকা শক্তি হিসেবে গণ্য করা হয়।[৪] প্রধানত কবি হলেও, তিনি লিখেছেন করেছেন উপন্যাস এবং নাটক। এছাড়াও তার অসংখ্য নিবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে জার্মানীর বিভিন্ন সাহিত্য পত্রিকায়।

এছাড়াও তিনি ২০০৭ থেকে ২০১৫ পর্যন্ত, এনরিকো স্ট্রাথাউসেনের সাথে উপস্থাপক হিসেবে কাজ করেছেন "বিউটিফুল স্টাটারিং" নামক বেতার অনুষ্ঠানে। অনুষ্ঠানটি তোতলামো এবং এ সম্পর্কিত সামাজিক দৃষ্টিভঙ্গি ও এর ফলাফল স্বরুপ বৈষম্য নিয়ে কাজ করত। অনুষ্ঠানটিকে তোতলামো সংক্রান্ত সামাজিক বৈষম্যের বিপরীতে একটি সফল প্রচেষ্টা বলে ধরা হত। অনুষ্ঠানটির দুজন উপস্থাপকই তোতলা ছিলেন এবং বিষয়টি তৎকালীন সময়ে অদ্ভুত এবং বৈশিষ্টসুচক ছিল যেহেতু সাধারণত তোতলামো বৈশিষ্ট সম্পন্ন ব্যাক্তিরা বেতার এবং টেলিভিশন মিডিয়ায় অনাকাঙ্ক্ষিত ছিলেন।

আর্মিন স্টাইগেনবার্গার বর্তমানে সস্ত্রীক, মিউনিখে বাস করেন।

পুরস্কার[সম্পাদনা]

  • ২০১৫ সালের বিশেষ পুরস্কার স্টকস্টাডের বই মেলায়।
  • ২০১৩ সালে স্টকস্টাডের সাহিত্য প্রতিযোগিতায় ২য় পুরস্কার।
  • ২০০৯ সালে ১১তম ইরসিয়ার পেগাসাসে ১ম পুরস্কার।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. টেমপ্লেট:Internetquelle
  2. "Armin Steigenberger – der (Nicht-)Satiriker*" [আর্মিন স্টাইগেনবার্গার]। signaturen magazin (জার্মান ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ নভেম্বর ২৩, ২০১৭ 
  3. "Interview mit Armin Steigenberger zur Literaturzeitschrift außer.dem"। ৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  4. Jetzt Magazin der Süddeutschen Zeitung

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]