আব্দুল ওদুদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
মোঃ আব্দুল ওদুদ
চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ (জাতীয় সংসদের নির্বাচনী এলাকা)
কাজের মেয়াদ
৫ জানুয়ারি ২০১৪ – ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮
প্রধানমন্ত্রীশেখ হাসিনা
পূর্বসূরীহারুনুর রশীদ
উত্তরসূরীহারুনুর রশীদ
কাজের মেয়াদ
** ফেব্রুয়ারী ২০২৩ – চলমান
প্রধানমন্ত্রীশেখ হাসিনা
পূর্বসূরীহারুনুর রশীদ
উত্তরসূরী--
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1964-01-01) ১ জানুয়ারি ১৯৬৪ (বয়স ৫৯)
চক-আলমপুর গ্রাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, পূর্ব পাকিস্তান (বর্তমানে- বাংলাদেশ)
রাজনৈতিক দলআওয়ামী লীগ
জীবিকারাজনীতিবিদ
ওয়েবসাইটwww.abdulwadudmp.com

মোঃ আব্দুল ওদুদ চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলায় জন্মগ্রহণকারী বাংলাদেশের রাজনীতিবিদ। তিনি বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের নির্বাচনী এলাকা চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ এর বর্তমান সংসদ সদস্য।[১]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

তিনি ১৯৬৪ সালের ১ জানুয়ারি চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার চক-আলমপুর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মোঃ আব্দুল লতিফ বিশ্বাস এবং মাতা মোসাম্মাৎ জেবুন নেসা। পাঁচ বোন ও তিন ভাইয়ের মধ্যে আব্দুল ওদুদ পিতা-মাতার সর্বকনিষ্ঠ সন্তান। বাল্যজীবনে তিনি ছিলেন একজন ভালো ফুটবল খেলোয়াড়। ঐতিহ্যবাহী মহারাজপুর প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে তিনি প্রাথমিক শিক্ষা সমাপ্ত করে রাজশাহী শিরোইল উচ্চ বিদ্যালয়ে ষষ্ঠ শ্রেণীতে ভর্তি হন। সেই সময় রাজনৈতিক কারণে তিনি একবার কারাবরণও করেন। এতে তার পড়ালেখার ক্ষতিও হয়। তবুও থেমে থাকেননি, পূনরায় দশম শ্রেণীতে ভর্তি হয়ে মহারাজপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ১৯৭৮ সালে এস.এস.সি পরীক্ষা দেন।

তিনি বিবাহিত। স্ত্রীর নাম মোসাম্মাৎ মজির্না ওদুদ। তিনি তিন সন্তানের জনক।

রাজনৈতিক জীবন[সম্পাদনা]

বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ-এর চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক। এলাকার খেলাধুলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা, গ্রাম্য বিচার-সালিশসহ প্রায় সকল সামাজিক কাজেই তিনি ছোটবেলা থেকেই নেতৃত্ব দিতেন। এভাবে তিনি এলাকার লোকজনের আস্থা অর্জন করেন। এক পর্যায়ে তিনি রাজনীতিতে অংশগ্রহণ করেন। ২০০৮ সালে অনুষ্ঠিত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনোয়ন লাভ করেন এবং জাতীয় সংসদের ৪৫নং আসন চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ থেকে জয়লাভ করেন। তিনি ২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতাহীন হিসেবে দ্বিতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নৌকার পক্ষে পুনরায় প্রতিদ্বন্দিতা করেন। কিন্তু একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়বাদী দল(বিএনপি) এর মনোনীত ধানের শীষের পদপ্রার্থী মোঃ হারুনুর রশিদের কাছে পরাজিত হন। দলীয় সিদ্ধান্তে প্রায় চার বছর পর মোঃ হারুনুর রশিদ এবং অন্যান্য বিএনপি সাংসদরা পদত্যাগ করলে পহেলা ফেব্রুয়ারী, ২০২৩ একাদশ জাতীয় সংসদ উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এই উপনির্বাচনেও তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়নে নিকটতম প্রতিদ্বন্দী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মোঃ সামিউল হক লিটন কে পরাজিত করে পুনরায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। বর্তমান সরকারের হাতকে শক্তিশালী করে অবহেলিত চাঁপাইনবাবগঞ্জের জনপদকে আধুনিকতার ছোঁয়ায় রাঙানোর স্বপ্নদ্রষ্টা তিনি।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Constituency 45_10th_En"। বাংলাদেশ সংসদ। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৩-৩১