আবেগঘন সংগীত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
Jump to navigation Jump to search

সেন্টিমেন্টাল ব্যালেড বা আবেগ ঘন সংগীতের আর অনেক নাম রয়েছে একে পপ ব্যালেড ,রক ব্যালেড এবং রক ব্যালেড ও বলা হয় । এটি সংগীতের এক আবেগী ধরন যা প্রেমের আবেগী সম্পর্ক, একাকীত্ব, মাদক আসক্তি, রাজনীতি এবং ধর্ম এসব বিষয়কে গানের প্রতিপাদ্য হিসেবে ব্যবহার করা হয়। এই সংগীত অত্যন্ত শ্রুতিমধুর হয়ায় এটা শ্রোতাদের কাছে খুবই তাড়াতাড়ি ভালো লেগে যায়।

সেন্টিমেন্টাল ব্যালেড সকল ধরনের মিউজিক শ্রেণীতেই পাওয়া যায়,পপ, কান্ট্রি, ফোক, রক,আর অ্যান্ড বি। এটা সাধারণত ধীর গতির ও লয়ের শ্রুতি মধুর ধরণের হয়ে থাকে। এই ধরণের গানে ধ্বনিতাত্বিক বাদ্যযন্ত্র গীটার, পিয়ানো, সেক্সোফোন এবং কোন কোন ক্ষেত্রে অর্কেস্ট্রা সেট ব্যবহার করা হয়। আধুনিক এবং মূলধারার ব্যালেডে সিন্থেসাইজার, ড্রামস এবং কিছু ক্ষেত্রে নৃত্য তাল ব্যবহার করা হয়।

পরে 19 শতকের প্রথম দিকে টিনের প্যান অ্যালির সঙ্গীত শিল্পে আত্মাভাবাপন্ন সেন্টিমেন্টাল ব্যালেড উৎপত্তি হয় । প্রাথমিকভাবে "টিয়ার-জারকার্স" বা "ড্রিং-রুম ব্যালেড" নামে পরিচিত, তারা সাধারণত অনুভূতিমূলক, আখ্যান, স্ট্রফিক গানগুলি পৃথকভাবে বা একটি অপেরা অংশ হিসাবে প্রকাশ পায়,। বিংশ শতাব্দীর প্রথম দিকে সংগীতগুলির নতুন শৃঙ্খলে উঠতে শুরু করলে তাদের জনপ্রিয়তা কমে যায়, কিন্তু অনুভূতির সাথে সম্পর্কযুক্ত হওয়ার কারণে 1 9 50-এর দশক থেকে ধীর গতির গানের জন্য ব্যবহৃত শব্দভাণ্ডারটি ব্যবহার করা হয়।.