আবু সাইয়িদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পাকিস্তান জাতীয় পরিষদের সদস্য -(এমএনএ)

অধ্যাপক আবু সাইয়িদ
Prof. Dr. Abu Sayeed 24 November 1996.jpg
অধ্যাপক ডক্টর আবু সাইয়িদ
তথ্য প্রতিমন্ত্রী, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
কাজের মেয়াদ
১২ জুন ১৯৯৬ – ১৬ জুলাই ২০০১
পূর্বসূরীনাজমুল হুদা
উত্তরসূরীএম শামসুল ইসলাম
পাবনা-৮ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
৭ মার্চ ১৯৭৩ – ৬ নভেম্বর ১৯৭৬
পাবনা-১ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১২ জুন ১৯৯৬ – ১৬ জুলাই ২০০১
পূর্বসূরীমনজুর কাদের
উত্তরসূরীমতিউর রহমান নিজামী
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1945-11-01) ১ নভেম্বর ১৯৪৫ (বয়স ৭৫)
বৃশালিখা গ্রাম, বেড়া উপজেলা, পাবনা জেলা
রাজনৈতিক দলগণফোরাম
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
প্রাক্তন শিক্ষার্থীরাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

অধ্যাপক আবু সাইয়িদ (জন্ম: ১ নভেম্বর ১৯৪৫) বাংলাদেশের এবং পাবনা জেলার রাজনীতিবিদ, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও সাবেক তথ্য প্রতিমন্ত্রী যিনি তৎকালীন পাবনা ৮ ও পাবনা ১ আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন।[১][২]

জন্ম ও প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

আবু সাইয়িদ ১ নভেম্বর ১৯৪৫ সালে পাবনা জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। ২০১৩ সালে আবু সাইয়িদ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন তার পিএইচডি গবেষণার বিষয় ছিল "ইন্ডিপেন্ডেন্স অফ বাংলাদেশ: এ ডিপলোমেটিক ওয়ার" (বাংলাদেশের স্বাধীনতা: একটি কূটনৈতিক যুদ্ধ)।[৩]

রাজনৈতিক ও কর্মজীবন[সম্পাদনা]

আবু সাইয়িদ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও রাকসু ভিপি ছিলেন। তিনি ১৯৭০ সালে তৎকালীন পাকিস্তানের জাতীয় পরিষদের সদস্য ছিলেন। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সাত নম্বর সেক্টরে উপদেষ্টা ও ক্যাম্প ইনচার্জ ছিলেন। ১৯৭২ সালে গঠিত ৩৪ সদস্য বিশিষ্ট বাংলাদেশের সংবিধান প্রণয়ন কমিটির সদস্য ছিলেন।[৩]

১৯৭৩ সালের প্রথম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে তৎকালীন পাবনা-৮ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি।[১] ১৯৭৫ সালে তিনি শেখ মুজিবুর রহমানের বাকশাল সরকার কর্তৃক পাবনা জেলার গভর্নর নিযুক্ত হন।

১২ জুন ১৯৯৬ সালের সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে পাবনা-১ (সাঁথিয়া -বেড়া) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। সপ্তম জাতীয় সংসদে তিনি তথ্য প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।[২]

তিনি ১৯৯১ সালের পঞ্চম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাকশালের প্রার্থী হিসেবে, ২০০১ সালের অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে, ২০১৪ সালের দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ও ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে গণফোরাম থেকে পাবনা-১ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করে পরাজিত হন।[৪]

গ্রন্থ[সম্পাদনা]

আবু সাইয়িদ বিভিন্ন বিষয়ে গ্রন্থ রচনা করেন। তার উল্লেখযোগ্য গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে:

  • ফ্যাক্টস্ এন্ড ডকুমেন্টস: বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড
  • বাংলাদেশের স্বাধীনতা: যুদ্ধের আড়ালে যুদ্ধ
  • মুক্তিযুদ্ধ: সিক্রেট ডিপ্লোম্যাসি
  • মুক্তিযুদ্ধ: উপেক্ষিত গেরিলা
  • সাধারণ ক্ষমা ঘোষণার প্রেক্ষিত ও গোলাম আযম
  • যুদ্ধাপরাধ: প্রেক্ষিত বাংলাদেশ
  • বাংলাদেশ থ্রেট অব ওয়ার
  • মুক্তিযুদ্ধের দলিল লণ্ডভণ্ড এবং অতঃপর
  • বাংলাদেশের স্বাধীনতা: কুটনৈতিক যুদ্ধ

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "১ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. "৭ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "Prof Abu Sayeed attains PhD"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৩-০৮-০৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৮-১০ 
  4. "আবু সাইয়িদ, আসন নং: ৬৮, পাবনা-১"দৈনিক প্রথম আলো। ২৫ আগস্ট ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ আগস্ট ২০২০