আবুল কালাম মনজুর মোরশেদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ডক্টর

আবুল কালাম মনজুর মোরশেদ
বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক
কাজের মেয়াদ
১৯ মার্চ ১৯৯৫ – ১৫ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৭
পূর্বসূরীআবুল মনসুর মুহম্মদ আবু মুসা
উত্তরসূরীসৈয়দ মোহাম্মদ শাহেদ
ব্যক্তিগত বিবরণ
প্রাক্তন শিক্ষার্থীএডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয়
ব্রিটিশ কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
রাজশাহী গভর্নমেন্ট কলেজ
রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুল
পুরস্কারশিশু একাডেমি পুরস্কার
একুশে পদক

আবুল কালাম মনজুর মোরশেদ একজন বাংলাদেশি সাহিত্যিক যিনি বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক ছিলেন।[১][২]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

আবুল কালাম মনজুর মোরশেদ রাজশাহীতে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি রাজশাহী কলেজিয়েট স্কুল থেকে ম্যাট্রিক ও রাজশাহী গভর্নমেন্ট কলেজ থেকে আইএ পাশ করেন। এর পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা ভাষা ও সাহিত্যে বিএ ও এমএ পাশ করেন। পরে ভাষাবিজ্ঞানে এমএ ডিগ্রী অর্জন করেন কানাডার ব্রিটিশ কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন স্কটল্যান্ডের এডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

আবুল কালাম মনজুর মোরশেদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাষাবিজ্ঞান বিভাগে সংখ্যাতিরিক্ত প্রফেসর। তিনি ১৯৬৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের শিক্ষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৬৬ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রথম শিক্ষক হিসেবে যােগদান করেন। পরে আবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরে আসেন। ১৯৮৭ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৩ সালে তিনি অবসর গ্রহণ করেন।

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০০৫ থেকে ১৬ নভেম্বর ২০০৬ সাল পর্যন্ত বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

সাহিত্য চর্চা[সম্পাদনা]

আবুল কালাম মনজুর মোরশেদ স্কুল জীবন থেকে সাহিত্য চর্চা শুরু করেন। তার লেখা গল্প ও প্রবন্ধ দেশ-বিদেশের বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় প্রকাশিত হয়।

গ্রন্থ[সম্পাদনা]

তার উল্লেখযোগ্য প্রকাশিত গ্রন্থের মধ্যে রয়েছে:

  • আধুনিক ভাষাতত্ত্ব
  • রবীন্দ্রনাথ, নজরুল ও অন্যান্য প্রসঙ্গ
  • নজরুল ও অন্যান্য প্রসঙ্গ
  • সন্ত্রাসমুক্ত বাংলাদেশ
  • রাজনৈতিক সংঘাত
  • বাংলা ভাষাতত্ত্ব
  • বাংলা সম্বন্ধবাচক সর্বনাম : গঠন ও প্রকৃতি

'আধুনিক ভাষাতত্ত্ব'গ্রন্থটি তাঁর লেখা অন্যতম প্রধান গ্রন্থ।যা ভাষাবিজ্ঞানের মৌলিক বিষয়াবলি পাঠের জন্য ছাত্র-শিক্ষক সকলের কাছেই সমাদর লাভ করেছে।

পুরস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]