আবদুল মোমিন (রাজনীতিবিদ)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এ্যাডভোকেট

আবদুল মোমিন
খাদ্য, ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
১৯৭৪ – ১৫ আগস্ট ১৯৭৫
যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী
কাজের মেয়াদ
১৫ আগস্ট ১৯৭৫ – ৬ নভেম্বর ১৯৭৫
ময়মনসিংহ-২২ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
৭ মার্চ ১৯৭৩ – ৬ নভেম্বর ১৯৭৬
ময়মনসিংহ-১৬ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১৮ ফেব্রুয়ারি ১৯৭৯ – ১২ ফেব্রুয়ারি ১৯৮২
নেত্রকোণা-২ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১ আক্টোবর ২০০১ – ১৬ জুলাই ২০০৪
নেত্রকোণা-৪ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১২ জুন ১৯৯৬ – ১ আক্টোবর ২০০১
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১৯২৯
নেত্রকোণা, বেঙ্গল প্রেসিডেন্সি, ব্রিটিশ ভারত
(বর্তমান বাংলাদেশ)
মৃত্যু১৬ জুলাই ২০০৪
বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ, ঢাকা
নাগরিকত্বব্রিটিশ ভারত (১৯৪৭ সাল পর্যন্ত)
পাকিস্তান (১৯৭১ সালের পূর্বে)
বাংলাদেশ
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
দাম্পত্য সঙ্গীরেবেকা মমিন
প্রাক্তন শিক্ষার্থীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়

আবদুল মোমিন (১৯২৯-১৬ জুলাই ২০০৪) বাংলাদেশের নেত্রকোণা জেলার রাজনীতিবিদ, আইনজীবী ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক যিনি তৎকালীন পূর্বপাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য, সংসদ সদস্য ও মন্ত্রী ছিলেন।

জন্ম ও প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

আবদুল মোমিন ১৯২৯ সালে নেত্রকোণার মোহনগঞ্জের কাজিয়াটিতে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা খান আবদুল আজিজ আহমদ। তিনি ১৯৪৫ সালে মোহনগঞ্জ হাই স্কুল থেকে ম্যাট্রিক, ১৯৪৭ সালে কলকাতার প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইএ, ১৯৫০ সালে ঢাকা বিশ্বাবদ্যালয় থেকে বিএ অনার্স, ১৯৫১ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমএ এবং ১৯৫৮ সালে ঢকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এলএলবি ডিগ্রী অর্জন করেন।

রাজনৈতিক ও কর্মজীবন[সম্পাদনা]

আবদুল মোমিন আইনজীবী, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ছিলেন। তিনি ১৯৬৪ সালে আওয়ামীলীগে যোগদান করে ১৯৬৬ সালে আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক ও নেত্রকোণা মহকুমা আওয়ামীলীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। ৬ দফা আন্দোলন, ভাষা আন্দোলন, ১৯৫৪ সালের যুক্তফ্রন্ট নির্বাচন ও বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে অংশগ্রহণসহ তৎকালীন সকল রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে তিনি সক্রিয় ভূমিকা রাখেন। ১৯৭০ সালের তৎকালীন পূর্বপাকিস্তান প্রাদেশিক নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য (এমএনএ) নির্বাচিত হন। ১৯৭২ সালে তিনি এম সি এ হিসেবে সংবিধান কমিটির সদস্য ছিলেন। ১৯৭৩ সালের প্রথম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে তৎকালীন ময়মনসিংহ-২২ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[১] ১৯৭৪ সালে শেখ মুজিবর রহমানের মন্ত্রিসভায় খাদ্য ও বেসামরিক সরবরাহ, ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রী নিযুক্ত হন। তিনি খন্দকার মোশতাক আহমেদের মন্ত্রিসভাও সদস্য ছিলেন।[২][৩]

১৯৭৯ সালের দ্বিতীয় জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে তৎকালীন ময়মনসিংহ-১৬ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[৪]

তিনি ১২ জুন ১৯৯৬ সালের সপ্তম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে নেত্রকোণা-৪ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[৫] [৬]

২০০১ সালের অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে নেত্রকোণা-২ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[৭] [৮]

১৯৯১ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে নেত্রকোণা-৪ আসনে পরাজিত হয়েছিলেন।[৭]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

আবদুল মোমিন ১৬ জুলাই ২০০৪ সালে বাংলাদেশ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "১ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. "আওয়ামী লীগ চায় ধরে রাখতে, বিএনপির আশা পুনরুদ্ধার"www.bhorerkagoj.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০২-২০ 
  3. Rahman, Syedur। Historical Dictionary of Bangladesh (ইংরেজি ভাষায়)। Scarecrow Press। পৃষ্ঠা 305। আইএসবিএন 9780810874534। সংগ্রহের তারিখ ৯ অক্টোবর ২০১৬ 
  4. "২য় জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  5. "আবদুল মোমিন, নেত্রকোণা-২"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১১-২৬ 
  6. "৭ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  7. "আবদুল মমিন, নেত্রকোণা-৪"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১১-২৬ 
  8. "৮ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  9. "The Daily Star Web Edition Vol. 5 Num 50"archive.thedailystar.net। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১১-২৬