আবদুল্লাহ ইবনে তাহির আল-খোরাসানি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
আবদুল্লাহ ইবনে তাহির আল-খোরাসানি
তাহির আমির
রাজত্বকাল ৮২৮–৮৪৫
জন্ম ৭৯৮
জন্মস্থান ইরান
মৃত্যু ৮৪৫
মৃত্যুস্থান নিশাপুর
পূর্বসূরি তালহা ইবনে তাহির
উত্তরসূরি তাহির ইবনে আবদুল্লাহ
রাজবংশ তাহিরি রাজবংশ
পিতা তাহির ইবনে হুসাইন
ধর্মবিশ্বাস ইসলাম (সুন্নি)

আবদুল্লাহ ইবনে তাহির (ফার্সি: عبدالله طاهر, আরবি: عبد الله بن طاهر الخراساني) (আনুমানিক ৭৯৮–৮৪৪/৫) ছিলেন খোরাসানের তাহিরি গভর্নর। ৮২৮ সাল থেকে মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত তিনি এই পদে ছিলেন।

তাহিরি রাজবংশের মানচিত্র

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

আবদুল্লাহ প্রথম জীবনে তার পিতা তাহির ইবনে হুসাইনের অধীনে কাজ করেছেন। আল-আমিনআল-মামুনের মধ্যকার গৃহযুদ্ধের পর তিনি শান্তি ফিরিয়ে আনার কাজ করেছেন। পরবর্তীতে তিনি তার উত্তরসুরি হিসেবে আল-জাজিরার গভর্নর হয়। এসময় তাকে বিদ্রোহী নাসর ইবনে শাবাসকে দমন করতে হয়। ৮২৪ থেকে ৮২৬ সালের মধ্যে তিনি নাসরকে আত্মসমর্পণ করাতে সক্ষম হন। এরপর তাকে মিশর পাঠানো হয়। এখানে তিনি আবদুল্লাহ ইবনুল সারির নেতৃত্বে সংঘটিত উত্থান প্রতিহত করেন। এছাড়াও তিনি সাত বছর পূর্বে আন্দালুসিয়ান মুসলিমদের হস্তগত হওয়া আলেক্সান্দ্রিয়া পুনরুদ্ধার করেন। বহিষ্কৃত আন্দালুসিয়ানরা এরপর বাইজেন্টাইন ক্রিটে চলে যায় এবং ক্রিট আমিরাত প্রতিষ্ঠা করে।

শাসনকাল[সম্পাদনা]

৮২৮ সালে ভাইয়ের মৃত্যুর পর আবদুল্লাহ খোরাসানের গভর্নর হলেও তিনি ৮৩০ সালে নিশাপুর পৌছান। এর মধ্যে তিনি বেশ কিছু বিদ্রোহ দমনে নিয়োজিত ছিলেন। আবদুল্লাহর ভাই আলি এসময় তার ডেপুটি হিসেবে দায়িত্বপালন করেছেন।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

আবদুল্লাহ নিশাপুরে মারা যান। তার মৃত্যুর পর তাহির ইবনে আবদুল্লাহ তার উত্তরসুরি হন। সেলজুক উজির নিজামুল মুলকের মতানুযায়ী আবদুল্লাহকে নিশাপুরে দাফন করা হয়েছিল।[১]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Bosworth 1975, পৃ. 106।
পূর্বসূরী
তালহা ইবনে তাহির
তাহিরি আমির
৮২৮–৮৪৫
উত্তরসূরী
তাহির ইবনে আবদুল্লাহ