আপেল সস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
বাণিজ্যিকভাবে প্রক্রিয়াজাতকৃত আপেল সস
জার্মান শৈলীতে ডুমো ডুমো করে কাটা আপেলের সস

আপেল সস উত্তর আমেরিকাইউরোপের কিছু অংশে[১] বহুল ব্যবহৃত এক প্রকার সস যা খোসা ছাড়ানো অথবা খোসাযুক্ত কিংবা উভয় প্রকার আপেল থেকে তৈরি করা হয়ে থাকে এবং এটি হতে পারে মশলাদার বা মিষ্ট নয়তো ভিন্ন কোন স্বাদের। সসে টক বা মিষ্টি যেকোন স্বাদের প্রাধান্যের জন্য বহু পরিসরের বিচিত্র রকমের আপেল ব্যবহার করা হয়।[২][৩] মশলাদার নোনতা স্বাদের আপেল সস তৈরিতে পূর্বে টক আপেল ব্যবহার করা হত।[৪]

সুপারমার্কেট এবং অন্যান্য খুচরা বিক্রেতার দোকানে এখন আপেল সসের বিভিন্ন বাণিজ্যিক সংস্করণ তৈরিকৃত অবস্থায় সুলভ মূল্যে পাওয়া যায়।

প্রস্তুত প্রণালী[সম্পাদনা]

আপেলের কাই বা পিউরি তৈরি

আপেল পিষে নিষ্কাশণকৃত রস (আপেল সিডার) ও আপেল ফলকে পানি সহযোগে রান্নার মাধ্যমে এই সস তৈরি করা হয়। সচরাচর অম্লের মাত্রার বৃদ্ধি পেলে পিউরি নিখুঁত হয়। ফল, সব্জি বা ডাল পেষণ করে যে কাই বা মণ্ড পাওয়া যায় তাকে পিউরি বলা যেতে পারে। উচ্চ মাত্রায় টকযুক্ত ব্র্যামলি আপেল থেকে খুবই ভাল মানের পিউরি পাওয়া যায়। সসে ব্যবহৃত আপেল খোসা ছাড়ানো বা খোসাযুক্ত হতে পারে। খোসা ছাড়ানো না হয়ে থাকলে সাধারণত যন্ত্রের মাধ্যমে বীজ ও খোসা আলাদা করা হয়।[৫] চিনি ছাড়াও সুবাসের জন্য এতে দারুচিনিকাবাব চিনির মত মশলা এমনকি রেড হট নামের এক প্রকার ক্যান্ডিও যোগ করা হয়। সসের নিরাপদ সংরক্ষণে পর্যাপ্ত পরিমাণ অম্লত্বের নিশ্চয়তার জন্য তদুপরি এর রঙ বজায় রাখার জন্য এতে লেবুর রস, সাইট্রিক অ্যাসিড অথবা অন্য কোন অম্লোৎপাদী উপাদান যোগ করা যেতে পারে। এছাড়াও রঙ সংরক্ষণে অ্যাসকরবিক অ্যসিড (ভিটামিন সি) ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

আপেল সস ফুটিয়ে তৈরি না করে বরং আগুনে সেঁকে তৈরি করা হয়, আর এভাবে রান্নার পূর্বে আপেলের খোসা এবং ভিতরের বীজ ও শক্ত অংশ ফেলে দেওয়া হয়।[৬]

বাড়িতে তৈরি এবং বাণিজ্যিকভাবে তৈরি টিনজাত আপেল সসের তাজাভাব বজায় রাখতে একে তাপ দিয়ে জীবাণুমুক্তকরণ করা হয়।[৭]

আপেল বাটার[সম্পাদনা]

আপেল বাটার হল আপেল সসের অত্যন্ত ঘনীভূত এক সংস্করণ। আপেল বাটারে উচ্চ মাত্রায় চিনির মিশ্রণ একে এক দীর্ঘ আয়ুষ্কাল প্রদান করে।[৮]

  1. Palmatier, Robert Allen (২০০০)। Food: a dictionary of literal and nonliteral termsবিনামূল্যে নিবন্ধন প্রয়োজন। Greenwood। পৃষ্ঠা 11আইএসবিএন 978-0-313-31436-0 
  2. Erin Huffstetler, "The 11 Best Apples for Applesauce", The Spruce Eats 10/02/2019
  3. "Recommended Uses of Apple Varieties", in Tim Burford, Apples of North America: Exceptional Varieties for Gardeners, Growers, and Cooks, 2013, আইএসবিএন ১৬০৪৬৯২৪৯৯, p. 278
  4. উদ্ধৃতি ত্রুটি: <ref> ট্যাগ বৈধ নয়; hale নামের সূত্রটির জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  5. Mark Bittman, How to Cook Everything: Simple Recipes for Great Food, 20th anniversary edition, 2019, আইএসবিএন ১৩২৮৫৪৫৬৭৯, p. 364
  6. Eliza Acton, Modern Cookery, for Private Families, 1860, p. 124
  7. "Applesauce"NY Apple Association (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-২৩ 
  8. Rosenstein, Mark (১৯৯৯)। In Praise of Apples: A Harvest of History, Horticulture & Recipes। Lark Books। পৃষ্ঠা 135। আইএসবিএন 978-1-57990-124-0। সংগ্রহের তারিখ ১১ জানুয়ারি ২০১১