আদল্ফ মেঞ্জু

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আদল্ফ মেঞ্জু
জন্ম
আদল্ফ জঁ মেঞ্জু

(১৮৯০-০২-১৮)১৮ ফেব্রুয়ারি ১৮৯০
মৃত্যু২৯ অক্টোবর ১৯৬৩(1963-10-29) (বয়স ৭৩)
বেভারলি হিলস, ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
সমাধিহলিউড ফরেভার সমাধি, ক্যালিফোর্নিয়া
যেখানের শিক্ষার্থীকর্নেল বিশ্ববিদ্যালয়
পেশাঅভিনেতা
কার্যকাল১৯১৪-১৯৬০
দাম্পত্য সঙ্গীক্যাথরিন কন টিনস্লে
(বি. ১৯২০; বিচ্ছেদ. ১৯২৭)

ক্যাথরিন কারভার
(বি. ১৯২৮; বিচ্ছেদ. ১৯৩৪)

ভেরে টিসডেল
(বি. ১৯৩৪; মৃ. ১৯৬৩)

আদল্ফ জঁ মেঞ্জু (১৮ ফেব্রুয়ারি ১৮৯০ - ২৯ অক্টোবর ১৯৬৩)[১] ছিলেন একজন মার্কিন অভিনেতা।[২] তিনি নির্বাক ও সবাক উভয় ধরনের চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনি দ্য ফ্রন্ট পেজ (১৯৩১) চলচ্চিত্রে ওয়াল্টার বার্নস চরিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। তার অভিনীত অন্যান্য উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রগুলো হল চার্লি চ্যাপলিনের আ ওম্যান অব প্যারিস (১৯২৩), যাতে তিনি শ্রেষ্ঠাংশে অভিনয় করেন; রুদল্ফ ভালেন্তিনোর সাথে দ্য শেখ (১৯২১); আর্নস্ট লুবিচের দ্য ম্যারিজ সার্কেল (১৯২৪); মারলেনে ডিট্রিশগ্যারি কুপারের সাথে মরক্কো (১৯৩০); জ্যানেট গেনরফ্রেড্রিক মার্চের সাথে আ স্টার ইজ বর্ন (১৯৩৭); এবং কার্ক ডগলাসের সাথে স্ট্যানলি কুবরিকের পাথস অব গ্লোরি (১৯৫৭)।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

মেঞ্জু ১৮৯০ সালের ১৮ই ফেব্রুয়ারি পেন্সিলভেনিয়ার পিট্‌সবার্গ শহরে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা আলবের মেঞ্জু (১৮৫৮-১৯১৭) ছিলেন ফরাসি এবং তার মাতা নোরা জয়েস (১৮৬৯-১৯৫৩) ছিলেন আইরিশ, যিনি গ্যালওয়েতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন।[৩] তার ভাই অঁরি আর্তুর মেঞ্জু (১৮৯১-১৯৫৬) তার এক বছরের ছোট। তিনি রোমান ক্যাথলিক ধর্মাবলম্বী হিসেবে বেড়ে ওঠেন এবং কালভার মিলিটারি একাডেমিতে পড়াশোনা করেন। পরবর্তী কালে তিনি কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে প্রকৌশল বিষয়ে ডিগ্রি অর্জন করেন। এই সময়ে তিনি ভডেভিল মঞ্চের প্রতি আকৃষ্ট হন এবং অভিনয় শুরু করেন। ১৯১৬ সালে দ্য ব্লু এনভেলপ মিস্ট্রি দিয়ে তার চলচ্চিত্রে অভিষেক হয়। প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর অ্যাম্বুলেন্সের ক্যাপ্টেন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। বিদেশ যাওয়ার পূর্বে তিনি এই কাজের জন্য পেন্সিলভেনিয়ায় প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

যুদ্ধ থেকে ফিরে এসে ১৯২১ সালে তিনি রুদল্ফ ভালেন্তিনোর সাথে দ্য শেখ এবং দ্য থ্রি মাস্কেটিয়ার্স চলচ্চিত্রে অভিনয় করে তারকা খ্যাতি অর্জন করেন। ১৯২৩ সালে চার্লি চ্যাপলিনের আ ওম্যান অব প্যারিস চলচ্চিত্রে শ্রেষ্ঠাংশে অভিনয় করে তিনি সেরা পোশাক পরিধানকারী হিসেবে তার ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠিত করেন। তিনি নয়বার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সেরা পোশাক পরিধানকারীর স্বীকৃতি লাভ করেন।[৪] পরের বছর তিনি আর্নস্ট লুবিচের দ্য ম্যারিজ সার্কেল (১৯২৪) ছবিতে অভিনয় করেন।

১৯৩০-এর দশকে তিনি দ্য ফ্রন্ট পেজ (১৯৩১) চলচ্চিত্রে ওয়াল্টার বার্নস চরিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। এছাড়া তিনি মারলেনে ডিট্রিশগ্যারি কুপারের সাথে মরক্কো (১৯৩০); জ্যানেট গেনরফ্রেড্রিক মার্চের সাথে আ স্টার ইজ বর্ন (১৯৩৭); এবং কার্ক ডগলাসের সাথে স্ট্যানলি কুবরিকের পাথস অব গ্লোরি (১৯৫৭) অভিনয় করেন।

ব্যক্তিগত জীবন ও মৃত্যু[সম্পাদনা]

মেঞ্জু ১৯২০ সালে ক্যাথরিন কন টিনস্লিকে বিয়ে করেন, যা ১৯২৭ সালে বিবাহ বিচ্ছেদের মধ্যে সমাপ্ত হয়। ১৯২৮ সালে তিনি ক্যাথরিন কারভারকে বিয়ে করেন এবং ১৯৩৪ সালে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। ১৯৩৪ সালে তিনি ভেরে টিয়াসডেলকে বিয়ে করেন। ১৯৬৩ সালে তার মৃত্যু পর্যন্ত এই দাম্পত্য সম্পর্ক ঠিকে ছিল। তারা একটি পুত্র সন্তান দত্তক নেন।

মেঞ্জু ১৯৬৩ সালের ২৯শে অক্টোবর ক্যালিফোর্নিয়ার বেভারলি হিলসে মৃত্যুবরণ করেন। তাকে হলিউড ফরেভার সমাধিতে সমাহিত করা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Adolphe Menjou | American actor"এনসাইক্লোপিডিয়া ব্রিটানিকা (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জানুয়ারি ২০১৯ 
  2. "অবিচুয়ারি"। ভ্যারাইটি। ৩০ অক্টোবর ১৯৬৩। পৃ. ৭১।
  3. অনোফ্রিও, জ্যান (১৯৯৯)। Pennsylvania Biographical Dictionary (ইংরেজি ভাষায়)। সমারসেট পাবলিশার্স ইঙ্ক.। আইএসবিএন 9780403099504। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জানুয়ারি ২০১৯ 
  4. "Overview of Adolphe Menjou"টার্নার ক্লাসিক মুভিজ। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জানুয়ারি ২০১৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]