আতিকা ইবনে যায়েদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

আতিকা ইবনে যায়েদ ইবনে আমর ইবনে নুফাইল মুহাম্মাদের একজন নারী সাহাবা, ইসলামের দ্বিতীয় খলিফা উমরের স্ত্রী[১] এবং আশারায়ে মুবাশশিরা সাহাবা সাঈদ ইবনে যায়েদের বোন ছিলেন।[২] তিনি একজন কবিও ছিলেন, তিনি তার প্রয়াত স্বামীদের নিয়ে সবসময় শোকাহত ছিলেন এবং কবিতা রচনা করতেন।[৩][৪][৫] তিনি দেখতেও অনেক সুন্দরী ছিলেন।[৬]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

আতিকা ইবনে যায়েদ যায়েদ ইবনে আমরের কন্যা ছিলেন। তিনি কুরাইশ বংশের বনু আদি গোত্রের কন্যা ছিলেন। তার ভাইয়ের নাম ছিল সাঈদ ইবনে যায়েদ। তিনি ইসলাম প্রচারের প্রথমদিকেই ইসলাম গ্রহণ করেছিলেন এবং হিজরতে অংশগ্রহণ করেছিলেন।[৭][৮]

১ম বিবাহ[সম্পাদনা]

তার প্রথম বিবাহ হয় তার চাচাত ভাই জায়েদ ইবনে খাত্তাবের সাথে। সম্ভবত এই স্বামীর সাথেই তিনি মক্কা থেকে মদিনায় হিজরত করেছিলেন। ৬৩২ খ্রিষ্টাব্দে জায়েদ ইয়ামামার যুদ্ধে শহীদ হলে আতিকা দ্বিতীয় বিয়ে করেন।[৯]

২য় বিবাহ[সম্পাদনা]

আতিকা ইবনে যায়েদ দ্বিতীয় বিয়ে করেছিলেন আবু বকরের পুত্র আব্দুল্লাহ ইবনে আবু বকরকে। বলা হয়ে থাকে আবদুল্লাহ তখন মুসলিম সেনা বাহিনীতে কাজ করতে ব্যস্ত হয়ে পরেছিল। আল বালাযুরি বলেন, আবু বকর তার পুত্র আবদুল্লাহকে তালাক দিতে আদেশ করেছিলেন, কেননা আতিকা বন্ধ্যা নারী ছিল। আবদুল্লাহর অনিচ্ছা সত্ত্বেও তিনি আতিকাকে তালাক প্রদান করেছিলেন।[১০]

৩য় বিবাহ[সম্পাদনা]

আতিকার চাচাত ভাই উমর ইবনুল খাত্তাব তাকে পুনরায় বিবাহের পরামর্শ দেয়, এক পর্যায়ে উমর নিজেই আতিকাকে বিবাহ করেন এবং এই তাদের ঘরে ইয়াদ ইবনে উমর[১১] নামে একটি পুত্র জন্মগ্রহণ করে। ৬৪৪ খ্রিষ্টাব্দে উমর খলিফা থাকা অবস্থায় নিহত হন।[১২]

৪র্থ বিবাহ[সম্পাদনা]

উমরের মৃত্যুর পরে আতিকা ইবনে যায়েদ আশারায়ে মুবাশশিরা সাহাবা সেনা অফিসার জুবায়ের ইবনে আল আওয়ামকে বিবাহ করেছিলেন এবং তাদের বৈবাহিক জীবন সুন্দর ও স্বাভাবিকভাবেই চলেছিল। ৫৫৬ খ্রিষ্টাব্দে উটের যুদ্ধে নিহত হলে আতিকা আবার বিবাহে আবদ্ধ হন।[১৩]

৫ম বিবাহ[সম্পাদনা]

জুবায়ের মৃত্যুবরণ করার পরে আতিকা আলী ইবনে আবি তালিবের পুত্র হোসাইনের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছিলেন।[১৪]

মৃত্যু[সম্পাদনা]

আতিকা ইবনে যায়েদ ৬৭২ খ্রিষ্টাব্দে মৃত্যুবরণ করেছেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ইসলামী বিশ্বকোষ (১ম খন্ড)। পৃষ্ঠা ৩০৯। 
  2. আয়নী, ২খণ্ড। পৃষ্ঠা ২৭৮। 
  3. (ইবন সা'দ, ৩/১ খন্ড- ৭৯ ) 
  4. হামাসা (Freytag)। পৃষ্ঠা ৪৯৩। 
  5. আগানী, ১৬ খণ্ড- ১৩৩-৫ 
  6. খিযানাতুল আদাব, ৪র্থ খণ্ড। পৃষ্ঠা ৩৫১। 
  7. ইবনে সা'দ, ৮ম খণ্ড- ১৯৩-৫ 
  8. ইবনে কুতায়বা উয়ুনুল আখবার, ৪খণ্ড- ১১৪ 
  9. Muhammad ibn Saad. Kitab al-Tabaqat al-Kabir vol. 8. Translated by Bewley, A. (1995). The Women of Madina. London: Ta-Ha Publishers. 
  10. Abbott, N. (1942). Aishah - the Beloved of Mohammed. Chicago: University of Chicago Press. 
  11. (ইবনে সা'দ, ৩/১খণ্ড- ১৯০) 
  12. Abbott, N. (1942). Aishah - the Beloved of Mohammed. Chicago: University of Chicago Press. 
  13. Ahmed, L. (1992). Women and Gender in Islam: Historical Roots of a Modern Debate, p. 76. New Haven & London: Yale University Press. 
  14. Shuraydi, H. (2014). The Raven and the Falcon: Youth versus Old Age in Medieval Arabic Literature. Leiden: Brill.