আউট অব দ্য ওয়ার্ল্ড অ্যাডভেঞ্চার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ডিসেম্বর ১৯৫০ সংখ্যার প্রচ্ছদ; শিল্পি অজানা।

আউট অব দ্য ওয়ার্ল্ড অ্যাডভেঞ্চার একটি পাল্প ম্যাগাজিন যার ১৯৫০ সালের এর জুলাই ও ডিসেম্বরে দুটি সংখ্যা প্রকাশিত হয়েছিল। এতে কল্পবিজ্ঞান কাহিনীর সাথে কিছু পৃষ্ঠা কমিকসও থাকত। এটা ডোনাল্ড এ. ওলহিম দ্বারা সম্পাদিত ও অ্যাভন  র্তৃক প্রকাশিত হয়। বিক্রি ছিল খুবই হতাশা জনক এবং মাত্র দুই সংখ্যার প্রকাশের পর অ্যাভন এর প্রকাশনা বন্ধ করে দেয়।

প্রকাশনার ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৫০ এর দশকে যুক্তরাষ্ট্রে কল্প বিজ্ঞান সাহিত্যের প্রকাশনা জগৎে নাটকীয় পরিবর্তন হয়। ১৯৪৯ এর শুরুতে, একটি প্রধান পত্রিকা বাদে প্রায় সকল পত্রিকাই পাল্প ফরম্যাটে রুপান্তরিত হয়েছিল; ১৯৫৫ সালের শেষ দিকে, এদের বেশির ভাগের প্রকাশনা বন্ধ হয়ে যায় অথবা ডাইজেস্ট ফরম্যাটে পরিবর্তিত হয়।[১] পাল্প মার্কেটের এই হঠাৎ পতনের সময়ও কিছু পাল্প কল্প বিজ্ঞান পত্রিকা এই সময় প্রকাশিত হতে থাকে; আউট অব দ্য ওয়ার্ল্ড এডভেঞ্চার ছিল তাদের মধ্যে একটি;[২]

১৯৪৭ সালে অ্যাভন, ডোনাল্ড এ. ওলহিম এর সম্পাদনায়, অ্যাভন ফ্যান্টাসি রিডার প্রকাশ করেছিল, যা ছিল ডাইজেস্ট ফরম্যাটে ফ্যান্টাসি কাহিনীর সংকলন।[note 1] দুই বছর পর অ্যাভনের প্রেসিডেন্ট, জোসেফ মেয়ারস একটি কল্পবিজ্ঞান পত্রিকা প্রকাশের সিদ্ধান্ত নেন, এবং পরিকল্পনাটি অর্থনৈতিক কারণে বাতিল হবার আগেই ওলহিম এর জন্য ছয়টি কাহিনী কিনে ফেলেন। [৩][note 2] পরবর্তী বৎসর অ্যাভন এর মুদ্রাক্ষরিক জে. ডব্লিও. ক্লেমেন্ট, মেয়ার কে কয়েক পাতা কমিকস সহ একটি পাল্প পত্রিকা প্রকাশের পরামর্শ দেন। মেয়ারস ওলহ্যামকে ধারণাটির উপর কাজ করতে বলেন। [৪] ভেবেছিলেন যে, এই অতিরিক্ত বিভাগটি কমিক প্রেমীদের কে পাল্প কিনতে উৎসাহিত করবে। [৫] এবং ১৫৫০ সালের জুলাইতে ওলহ্যাম যুগ্মভাবে দুটি পত্রিকা প্রকাশ করেন, দ্য স্পারক্লিং লাভ  এবং আউট অব দ্য ওয়ার্ল্ড এডভেঞ্চার । [৪][৬] রোমান্স ম্যাগাজিনটি এক সংখ্যা পরেই বিক্রি মন্দার কারণে বন্ধ হয়ে যায়; কিন্তু আউট অব দ্য ওয়ার্ল্ড এডভেঞ্চার সেই তুলনায় দ্বিতীয় সংখ্যা প্রকাশের জন্য প্রতিশ্রুতিশীল মনে হয়েছিল, যা ডিসেম্বর ১৯৫০ সালে প্রকাশ হয়েছিল,এর সাথে আংশিক কমিকস যুক্ত তৃতীয় একটি পত্রিকা, পাইওনিয়ায় ওয়েস্টার্ন প্রকাশিত হয়েছিল [৪][৭] যা এক সংখ্যার পরই মন্দা বিক্রির কারণে আর সামনে বাড়েনি।[৪]

ডোনাল্ড এ. ওলহিম ছিলেন সংখ্যা দুটির সম্পাদক। প্রথম সংখ্যায় প্রকাশিত সম্পাদকীয় অনুযায়ী,  তাঁর সম্পাদকীয় নীতি ছিল আন্তগ্র্রহ কাহিনীর প্রতি অণুরক্ত। ম্যাগাজিনটি বিভিন্ন ধরনের লেখকদের লেখা প্রকাশ করত এদের মধ্যে কেউ ছিলেন সু পরিচিত আবার কেউ বা আরো সাফল্যের জন্য লিখতেন; প্রথম ইস্যু্তে লিখেছিলেন : এ. ই. ভ্যান ভগট , লেস্টার দেল রে, ক্রিস নেভিল, উইলিয়াম ট্যান, ম্যাক রেনল্ডস, রে ক্যুমিংস এবং এ.বারটাম শ্যান্ডলার। কল্প বিজ্ঞান কাহিনীর গবেষক মাইক অ্যাসলে এবং ওয়েন্ডি বসফিল্ড উভয়েই পত্রিকার সেরা লেখা হিসেবে বিবেচনা করেছেন , ট্যান এর লেখা গল্প ,"পাজল অব পেরিপেরি"। [৪] ৩২ পৃষ্ঠার কমিকস সেকশন অ্যাভন প্রকাশিত কমিকস গুলো "আউট অব দিস ওয়ার্ল্ড" থেকে নেয়া কমিকস, এর মধ্যে ছিল  জন মিশেল এবং গার্ডনার ফক্স এর লিখিত কমিক্স; রবার্ট ই হাওয়ার্ড এর "কোনান" সিরিজ অবলম্বনে গল্প ছিল , "ক্রম দ্য বারবারিয়ান ", এবং এর ইলাশট্রেশন করেছিলেন জন  গুন্টা ।[৪][৮][৫] মাইকেল, ওলহিম এর কাছে ফিউচারিয়ান্স এর সদস্যদের মতই, কল্প বিজ্ঞানের ভক্ত এবং উদিয়মান লেখকদের সংঘ, পত্রিকার দুটি সংখ্যার জন্য মুল কমিকস গুলো এঁকেছিলেন,[৯] যদিও কানাডিয়ান সংস্করণ এর দ্বিতীয় সংখ্যায় একটি ভিন্ন কমিকস ছাপা হয়েছিল।[৮] ভেতরের আর্টওয়ার্ক এর  দায়িত্বে ছিলেন, অ্যাভন এর আর্ট ডিরেক্টর, ওলহিম এর বদলে, এবং অ্যাভন এর কমিক্স এর কাজ যারা করতেন যেমন ​​উইলিয়াম ম্যাকউইলিয়াম, তাদের ব্যবহার করা হয়।[৪]

গ্রন্থপঞ্জির বিবরন[সম্পাদনা]

আউট অব দ্য ওয়ার্ল্ড এডভেঞ্চার  দ্বি মাসিক হিসেবে প্রকাশিত হবার কথা ছিল, কিন্তু  মাত্র দুটি সংখ্যা প্রকাশিত হয়েছিল, তারিখ ছিল জুলাই ও ডিসেম্বর ১৯৫০। দুটি সংখ্যাতেই মূল্য ২৫ সেন্ট ছাপা থাকত; প্রতিটি সংখ্যাই ছিল ১২৮ পৃষ্ঠার এবং পাল্প ফরম্যাটের। দুটি সংখ্যারই প্রকাশক ছিল অ্যাভন পিরিওডিকালস।[৪] পত্রিকাটির একটি কানাডিয়ান সংস্করণ প্রকাশিত হয়েছিল, এগুলোও ছিল ২৫ সেন্ট মূল্যমানের। কানাডিয়ান সংস্করণে তারিখের উল্লেখ্য ছিল না, কিন্তু সংখ্যাগুলো প্রকাশিত হয়েছিল নভেম্বর ১৯৫০ এবং এপ্রিল ১৯৫১ সালে।[৮]

টীকা[সম্পাদনা]

পাদটিকা[সম্পাদনা]

  1. Ashley (1976), p. 106.
  2. Ashley (2000), pp. 220–223.
  3. Davin (2006), p. 179.
  4. Bousfield (1985), pp. 467–471.
  5. Ashley (2005), pp. 4−5.
  6. Nevins (2007), p. 176.
  7. Dinan (1983), p. 49.
  8. Edwards, Malcolm; Ashley, Mike (6 October 2012).
  9. Davin (2006), p. 174.

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  • Ashley, Michael (1976). The History of the Science Fiction Magazine Vol. 3 1946–1955. Chicago: Contemporary Books, Inc. ISBN 0-8092-7842-1. 
  • Ashley, Mike (2000). The Time Machines:The Story of the Science-Fiction Pulp Magazines from the beginning to 1950. Liverpool: Liverpool University Press. ISBN 0-85323-865-0. 
  • Ashley, Mike (2005). Transformations: The Story of the Science Fiction Magazines from 1950 to 1970. Liverpool: Liverpool University Press. ISBN 0-85323-779-4. 
  • Bousfield, Wendy (1985). "Out of This World Adventures". In Tymn, Marshall B.; Ashley, Mike. Science Fiction, Fantasy, and Weird Fiction Magazines. Westport CT: Greenwood Press. pp. 467–471. ISBN 0-313-21221-X. 
  • Davin, Eric Leif (2006). Partners in Wonder: Women and the Birth of Science Fiction 1926–1965. Lanham MD: Lexington Books. ISBN 978-0-7391-1267-0. 
  • Dinan, John A. (1983). The Pulp Western. Boalsburg PA: Borgo Press. ISBN 1-59393-003-8. 
  • Nevins, Jess (2007). Pulp Magazine Holdings Directory: Library Collections in North America and Europe. Jefferson NC: McFarland & Company. ISBN 978-0-7864-3068-0.