আইজল ফুটবল ক্লাব

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(আইজল এফসি থেকে পুনর্নির্দেশিত)
আইজল
আইজল ফুটবল ক্লাবের লোগো.png
পূর্ণ নামআইজল ফুটবল ক্লাব[১]
ডাকনামদ্যা পিপলস ক্লাব (জনগণের ক্লাব)[২]
সংক্ষিপ্ত নামএএফসি
প্রতিষ্ঠিত১৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৮৪; ৩৮ বছর আগে (1984-02-14)
মাঠরাজীব গান্ধী স্টেডিয়াম
ধারণক্ষমতা২০,০০০
মালিকরবার্ট রোমাউইয়া রয়তে[৩][৪]
প্রধান কোচইয়ান ল
লীগআই-লিগ
২০২১–২২ আই-লিগআই-লিগ, ৮/১৩

আইজল ফুটবল ক্লাব (এছাড়াও সংক্ষেপে আইজল এফসি নামে পরিচিত) ভারতের মিজোরাম রাজ্যের আইজল শহরের একটি পেশাদার ফুটবল ক্লাব।[৫] এটি আই-লিগ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়।[৬][৭] ১৯৮৪-তে সৃষ্ট এই ক্লাব প্রথমবার ২০১৫ সালে আই-লিগ দ্বিতীয় বিভাগ জয়লাভ করে[৮]উত্তর-পূর্ব ভারতের প্রথম ক্লাব হিসেবে ভারতের কোনো বড় ফুটবল প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়।[৯] এরপর সরাসরি আই-লিগ খেলার সুযোগ পায়। এই দল ঘরোয়া মিজোরাম প্রিমিয়ার লিগ প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে থাকে।[১০][১১]

পোশাক ও প্রতীক[সম্পাদনা]

শিশু সমর্থকের সঙ্গে আইজল এফসির আফগান খেলোয়াড় মাসিহ সাইঘানি, রাজীব গান্ধী স্টেডিয়াম, ২০১৭

দলের রং হল লাল ও সাদা। প্রতীকে রয়েছে মিজোরামের মানচিত্রের ওপর খ্রিস্টীয় ক্রুশ এবং মাঝখানে একটি ফুটবল।[১২]

মাঠ[সম্পাদনা]

রাজীব গান্ধী স্টেডিয়াম[সম্পাদনা]

মিজোরামের আইজলে অবস্থিত রাজীব গান্ধী ফুটবল স্টেডিয়াম হল আইজলের ঘরের মাঠ।[১৩] এটি কৃত্রিম অ্যাস্ট্রোটার্ফ নির্মিত ও ২০,০০০ ধারণক্ষমতা বিশিষ্ট। এটি আইজলের আই-লিগ ও মিজোরাম প্রিমিয়ার লিগ উভয় প্রতিযোগিতার ম্যাচগুলি আয়োজন করে।[১৪][১৫]

মুম্বই এফসির বিপক্ষে গোল করার পর রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামে আইজলের জোয়েল সানডে, ২০১৬

লামুয়াল অ্যাস্ট্রোটার্ফ স্টেডিয়াম[সম্পাদনা]

লামুয়াল অ্যাস্ট্রোটার্ফ স্টেডিয়াম, আইজলের প্রাক্তন ঘরের মাঠ

২০১৫ পর্যন্ত আইজলের ঘরের মাঠ ছিল লামুয়াল অ্যাস্ট্রোটার্ফ স্টেডিয়াম। এটি মূলত মিজোরাম প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচগুলি আয়োজন করত।[১৬] এটির একদিকে দর্শকাসন ও ধারণক্ষমতা ৫,০০০।[১৭][১৮]

পোশাক প্রস্তুতকারক ও পৃষ্ঠপোষক[সম্পাদনা]

সময় পোশাক প্রস্তুতকারক শার্ট পৃষ্ঠপোষক
২০১১—১৫ রিন রিন স্পোর্টস[১৯] নর্থইস্ট কনসালটেন্সি সার্ভিসেস (NECS)[২০][২১]
২০১৫—বর্তমান ভামোস[২২]

সমর্থক ও প্রতিদ্বন্দ্বিতা[সম্পাদনা]

সমর্থক[সম্পাদনা]

এই ক্লাবের সমর্থকরা রেড আর্মি নামে পরিচিত। তারাই প্রথম ভারতীয় ফুটবলে আলট্রা বা বড় আকারের পতাকা বা ব্যানারের ব্যবহার করে ভারতীয় ফুটবলের মানসিকতায় এক চরম বিপ্লব ঘটায়। ২০,০০০ ধারণক্ষমতা বিশিষ্ট রাজীব গান্ধী স্টেডিয়াম ম্যাচের সময় রেড আর্মি দ্বারা পরিপূর্ণ থাকে।[২৩]

প্রতিদ্বন্দ্বিতা[সম্পাদনা]

উত্তর-পূর্ব ডার্বি[সম্পাদনা]

উত্তর-পূর্ব ভারত-এর বিভিন্ন ফুটবল ক্লাব যেমন, শিলং লাজং ফুটবল ক্লাব, নেরোকা এফসি[২৪], ট্রাউ এফসি প্রভৃতির সাথে আইজলের প্রতিদ্বন্দ্বিতা উত্তর-পূর্ব ডার্বি নামে পরিচিত।[২৫][২৬][২৭][২৮]

মিজোরাম ডার্বি[সম্পাদনা]

ঘরোয়া মিজোরাম প্রিমিয়ার লিগ ও এমএফএ সুপার লিগে ছিঙ্গা ভেঙ এফসি[২৯][৩০][৩১] ও চাঙমারি এফসির[৩২][৩৩] সাথে আইজলের প্রতিদ্বন্দ্বিতা লক্ষ্যণীয়।

রেকর্ড[সম্পাদনা]

মরসুম ভিত্তিক[সম্পাদনা]

মরসুম ডিভিশন দল অবস্থান দর্শক সংখ্যা ফেড কাপ/সুপার কাপ ডুরান্ড কাপ এএফসি চ্যাম্পিয়নস লিগ এএফসি কাপ
২০১২ আই-লিগ দ্বিতীয় বিভাগ ২৩ বাছাইপর্ব
২০১৩ ২৬ গ্রুপ পর্ব
২০১৪ ১১ গ্রুপ পর্ব
২০১৫
২০১৫–১৬ আই-লিগ রানার্স-আপ
২০১৬–১৭ ১০ ৬,৯৪৩ সেমি-ফাইনাল সেমি-ফাইনাল
২০১৭–১৮ ১০ ৪,২৫৬ কোয়ার্টার-ফাইনাল প্লে অফ পর্ব গ্রুপ পর্ব
২০১৮–১৯ ১১ ২,৮৮১
২০১৯–২০ ১১ ১০ ৫,২০৩
২০২০–২১ ১১
২০২১–২২ ১৩
নির্দেশিকা
  • দর্শক সংখ্যা = মোট লিগে গড় দর্শক উপস্থিতি

মহাদেশীয়[সম্পাদনা]

১৪ আগস্ট ২০১৮ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।
প্রতিযোগিতা খে ড্র হা স্বগো বিগো গোপা
এএফসি চ্যাম্পিয়নস লিগ −২
এএফসি কাপ ১৬ −১১
মোট ১৯ –১৩

সর্বমোট[সম্পাদনা]

৩ মার্চ ২০২২ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।
মরসুম ডিভিশন মহাদেশীয় সর্বোচ্চ গোলদাতা
ডিভিশন খে ড্র হা স্বগো বিগো খে ড্র হা স্বগো বিগো খেলোয়াড় গোল
২০১২ আই-লিগ দ্বিতীয় বিভাগ ২০ ১১ ৩০ ৪২ অনুত্তীর্ণ ভারত মাইকেল লালরেমরুয়াতা ১১
২০১৩ ১৫ ১৩ নাইজেরিয়া জাস্টিস মর্গ্যান
২০১৪ ভারত লালনুন্তলুয়াঙ্গা
২০১৫ ১৪ ১১ ৪৫ ২০ লাইবেরিয়া আলফ্রেড জারয়ান 9
২০১৫–১৬ আই-লিগ ১৬ ১৫ ২১ নাইজেরিয়া জোয়েল সানডে
২০১৬–১৭ ১৮ ১১ ২৪ ১৪ কোত দিভোয়ার কামো স্টিফেন বায়ি
২০১৭–১৮ ১৮ ২১ ১৮ ১৯ রোমানিয়া আন্দ্রেই আয়নেস্কু ১২
২০১৮–১৯ ২০ ২৭ ২৮ অনুত্তীর্ণ লাইবেরিয়া আনসুমানা ক্রোমাহ
২০১৯–২০ ১৫ ১৭ ১৯ ভারত রছারজেলা
২০২০–২১ ১০ ১৩ ভারত আর মালসামতলুয়াঙ্গা

ভারত লালরেমসাঙ্গা ফানাই
ভারত ব্র্যান্ডন ভানলালরেমডিকা

২০২১–২২ ১৭ ১০ ২৩ ২৬ ? ?

কোচিং রেকর্ড[সম্পাদনা]

৫ মার্চ ২০২২ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।
নাম দেশ শুরু শেষ খে ড্র হা স্বগো বিগো জয়%
হ্মিংথানা যাদেং  ভারত ১ জুলাই ২০১৪ ২০ আগস্ট ২০১৫ ১৪ ১১ ৪৫ ২০ ৭৮.৫৭
ম্যানুয়েল রেতামেরো ফ্রেইল  স্পেন ১৭ আগস্ট ২০১৫[৩৪] ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ ১৬.৬৭
জহর দাস  ভারত ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৬[৩৫] ৮ নভেম্বর ২০১৬ ১৫ ২২ ৩১ ৩৩.৩৩
খালিদ জামিল  ভারত ২০ ডিসেম্বর ২০১৬[৩৬] ১ আগস্ট ২০১৭[৩৭] ২২ ১৩ ২৯ ১৮ ৫৯.০৯
পাউলো মেনেজেস  পর্তুগাল ২ আগস্ট ২০১৭[৩৮] ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ১৪ ১৩ ১৪ ২৮.৫৭
সন্তোষ কাশ্যপ  ভারত ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮[৩৯] ২১ জুন ২০১৮ ৪০.০০
গিফট রাইখান  ভারত ২২ জুন ২০১৮[৪০][৪১] ৭ জানুয়ারি ২০১৯ ১১ ১২ ১৮ ১৮.১৮
স্ট্যানলে রোজারিও  ভারত ৯ জানুয়ারি ২০১৯[৪২] ১৮ জানুয়ারি ২০২১ ২৫ ১০ ৩৩ ৩০ ২৮.০০
ইয়ান ল  ভারত ১৯ জানুয়ারি ২০২১ ১ এপ্রিল ২০২১ ১৩ ২০ ১২ ৫৩.৮৫
১৯ অক্টোবর ২০২১ বর্তমান ০০০.০০

আন্তর্জাতিক খেলোয়াড়[সম্পাদনা]

নিম্নলিখিত খেলোয়াড়দের নিজ নিজ দেশের হয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে সিনিয়র বা যুব আন্তর্জাতিক ক্যাপ রয়েছে। যেসব খেলোয়াড়ের নাম তালিকাভুক্ত, তারা আইজল এফসি-এর হয়ে খেলার আগে বা পরে তাদের দেশের প্রতিনিধিত্ব করেছে।[৪৩]

এশিয়া[সম্পাদনা]

আফ্রিকা[সম্পাদনা]

  • ঘানা জোসেফ আদজেই (২০১৯–২০)[৫০]
  • মালি আব্দুলায়ে কানৌতে (২০১৯–২০)[৫১]
  • মালি আমাদৌ আলৌ সিসোকো (২০১৯–২০)[৫২]
  • উগান্ডা রিচার্ড কাসাগ্গা (২০১৯–২১)[৫৩][৫৪]

ইউরোপ[সম্পাদনা]

  • রোমানিয়া আন্দ্রেই আয়নেস্কু (২০১৭–১৮)[৫৫]

দক্ষিণ আমেরিকা[সম্পাদনা]

  • প্যারাগুয়ে এঞ্জো প্রোনো জেলায়া (২০১৮)[৫৬]
  • ত্রিনিদাদ ও টোবাগো উইলিস প্লাজা (২০২১–বর্তমান)[৫৭]
  • ত্রিনিদাদ ও টোবাগো রবার্ট প্রাইমাস (২০২২–বর্তমান)[৫৮]

সম্মাননা[সম্পাদনা]

লিগ[সম্পাদনা]

কাপ[সম্পাদনা]

মহাদেশীয় (এএফসি)[সম্পাদনা]

মহাদেশীয় রেকর্ড[সম্পাদনা]

মরসুম প্রতিযোগিতা পর্ব ক্লাব হোম অ্যাওয়ে অবস্থান
২০১৮[৭০] এএফসি চ্যাম্পিয়নস লিগ প্রারম্ভিক পর্ব ২ ইরান জোব আহান ১–৩[৭১] প্রারম্ভিক পর্ব
এএফসি কাপ[৭২] গ্রুপ ই মালদ্বীপ নিউ রেডিয়্যান্ট ২–১ ৩–১ ৪র্থ
ভারত বেঙ্গালুরু ১–৩ ৫–০
বাংলাদেশ আবাহনী লিমিটেড (ঢাকা) ০–৩ ১–১

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Aizawl Football Club profile and archive ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৩ মে ২০২১ তারিখে globalsportsarchive.com. Retrieved 11 May 2021.
  2. Muralidharan, Ashwin (৩০ নভেম্বর ২০১৮)। "The curious case of Aizawl FC's champions from 2016-17 season"www.goal.comGoal। ২০ জুলাই ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুলাই ২০২১ 
  3. "Meet 'Triple R', the Aizawl FC Owner Now Gunning To Be Mizoram MLA"thequint। ২৭ মার্চ ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ মার্চ ২০১৯ 
  4. "Aizawl FC will be an all-Mizo team one day: owner Robert Royte"hindustantimes.com। ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  5. Bharat, Khelchandra (৬ জুলাই ২০১৬)। "Durand Cup 2016: Minerva Academy FC Gets Direct Entry Along With 7 Other Clubs"indianfootballnetwork.com। Indian Football Network। ১২ জুলাই ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ আগস্ট ২০১৬ 
  6. "East Bengal vs Aizwal FC (1-1) Feb 25 2019 Live updates and Scorecard"www.footballcritic.com। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২০ জুলাই ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ডিসেম্বর ২০২০ 
  7. "Malsawmzuala, Lalrammawia strikes hand Aizawl FC 2-0 win over Gokulam Kerala FC"timesofindia.indiatimes.comThe Times of India। ২০ জানুয়ারি ২০২১। ২০ জানুয়ারি ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ এপ্রিল ২০২১ 
  8. Jitendran, Nikhil (৭ মে ২০১৫)। "Aizawl FC become Mizoram's inaugural representatives in the I-League"www.goal.comGoal। ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ মে ২০১৫ 
  9. "Shillong Lajong v Aizawl Match Report, 30/04/2017, I-League"www.goal.com। ৬ মে ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০১৭ 
  10. Dipta Dey, Sayak (১৭ নভেম্বর ২০১৭)। "I-League 2017/18 : What does the season have in store?"sportskeeda.com (ইংরেজি ভাষায়)। ৪ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৩-০৩ 
  11. Chaudhuri, Arunava (১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩)। "Mizoram Premier League: Mizoram Police, Dinthar FC and Aizawl FC win"www.sportskeeda.com। SportsKeeda। ১৮ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ জানুয়ারি ২০১৭ 
  12. Aizawl FC official ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৬ এপ্রিল ২০২২ তারিখে ফেসবুক। Retrieved ২৫ অক্টোবর ২০২১।
  13. tirhkahthawla। "Mualpui Stadium Design"। misual.com। ২৭ মে ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ আগস্ট ২০১২ 
  14. "Aizawl FC are Mizo Premier League Champions"The All India Football Federation। ১৭ ডিসেম্বর ২০১৫। ১২ এপ্রিল ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জানুয়ারি ২০১৭ 
  15. tirhkahthawla। "Mualpui Stadium Design"। misual.com। ২৭ মে ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ আগস্ট ২০১২ 
  16. "CHHINGA VENG FC EMERGE CHAMPION OF 2018 MFA SUPER CUP"golie365.com। ২৩ জুলাই ২০১৮। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  17. "Lammual-ah Gallery sak hna tan dawn ta"The Zozam Times। ১৫ এপ্রিল ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ আগস্ট ২০১২ 
  18. Zothansanga, John (১ সেপ্টেম্বর ২০১৮)। "Mizoram Premier League kicks off for the 2018 season"indianexpress.comThe Indian Express। ২০ ডিসেম্বর ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ নভেম্বর ২০১৮ 
  19. "Sports in Mizoram"mizoramonline.in। ২৫ অক্টোবর ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ অক্টোবর ২০২১ 
  20. Das Sharma, Amitabha (১৯ জানুয়ারি ২০১৮)। "Aizawl looks to build future with own hands"The Hindu। ১১ মে ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ 
  21. Zaidi, Waseem (২১ জানুয়ারি ২০২২)। "I-LEAGUE: Introducing shirt sponsors of every I-league club for 2021-22 season"www.khelnow.com। Khel Now। ২২ জানুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  22. "Aizawl FC announce Vamos as Kit Sponsor"Facebook.com। ২০ নভেম্বর ২০২০। ১১ মে ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২১ 
  23. "When it comes to attendance figures, is the I-League better than the ISL?"Scroll.in। ১১ মে ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০২১ 
  24. "Neroca FC vs. Aizawl FC - Football Match Summary"ESPN। ৬ ডিসেম্বর ২০১৯। ২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০২১ 
  25. "It's so much more than a northeastern derby – Times of India"The Times of India। ১৯ এপ্রিল ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-১২-২১ 
  26. "H2H Comparison - Neroca vs. Aizawl"int.soccerway.com (ইংরেজি ভাষায়)। ১৯ এপ্রিল ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০১-১৭ 
  27. "I-League: Aizawl FC seek resurgence against TRAU FC"The Statesman (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০২-১০। ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১১ 
  28. "Aizawl v Shillong Lajong Starting XIs, 17/01/17, I-League | Goal.com"Goal.com। ২৭ জানুয়ারি ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জানুয়ারি ২০২১ 
  29. Zothansanga, John (১৬ আগস্ট ২০১৭)। "Mizoram celebrated Independence Day with what they know and love best"indianexpress.com। The Indian Express। ১৬ আগস্ট ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  30. "Aizawl win Mizo Premier League, defeat holders Chhinga Veng 5-4 in shootout"Scroll.in। ৮ নভেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মার্চ ২০২১ 
  31. "Chhinga Veng FC Crowned Champions of LG Independence Cup 2018"golie365.com। ১৫ আগস্ট ২০১৮। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  32. MPL: Aizawl down Chanmari in semifinal first leg ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৬ এপ্রিল ২০২২ তারিখে The Times of India. Retrieved 30 July 2021.
  33. MPL 2019 -- Aizawl FC beat Chanmari FC in first leg of semi-finals ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৩০ জুলাই ২০২১ তারিখে The Fan Garage. Retrieved 30 July 2021.
  34. "Aizawl FC Appoints Manuel Retamero Fraile As Head Coach Of Their First Team"I-League। ১৯ আগস্ট ২০১৫। ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ জানুয়ারি ২০১৬ 
  35. "Aizawl FC part ways with Manuel Retamero, Jahar Das appointed as new head coach"Goal.com। ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৬। ১০ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  36. Das Sharma, Amitabah (২২ মে ২০১৬)। "Mohun Bagan floors Aizawl, wins 14th Fed Cup title"The Hindu। ৮ নভেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ অক্টোবর ২০১৬ 
  37. "Former Aizawl FC coach Khalid Jamil joins NorthEast United FC"The News Mill (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৬-১৯। ২৬ নভেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৬-১৯ 
  38. "I-League champions Aizawl FC sign Portugal's Paulo Menezes as new head coach"FirstPost। ৩০ জুলাই ২০১৭। ১১ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ ডিসেম্বর ২০১৭ 
  39. "Santosh Kashyap appointed Aizawl FC head coach"Hindustan Times (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-০২-১৩। ৯ মে ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৫-১৬ 
  40. "I-League: Aizawl FC snap up Gift Raikhan from Neroca FC"। goal.com। ৬ জুন ২০১৮। ১০ জুন ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০১৮ 
  41. "Gift Raikhan as Head Coach"। Aizawl FC (official Facebook page)। ৬ জুন ২০১৮। ২০ জুলাই ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০১৮ 
  42. "Aizawl FC appoint Stanley Rozario as Head Coach"The Away End। ১৪ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  43. "Aizawl FC: Players from A-Z"Worldfootball.net। ২৯ অক্টোবর ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ অক্টোবর ২০২১ 
  44. Achal, Ashwin (৯ এপ্রিল ২০১৭)। "From Aleppo to Aizawl - the story of Mahmoud Amnah"sportstar.thehindu.comSportstar। ১৬ জুন ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২২ 
  45. "I-League 2017: Aizawl 1-0 Churchill Brothers- Yugo's late winner seals the victory for the defending champs"Goal.com। ১৩ ডিসে ২০১৭। ১৩ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ জুন ২০১৮ 
  46. Sayak Dipta, Dey (২ অক্টোবর ২০১৮)। "I-League 2018/19 : Aizawl FC rope in Bektur Talgat Uulu"sportskeeda.comSportskeeda। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ 
  47. "Breaking: Abhishek Rijal signed for I-League side Aizawl FC"dailylivescores.com। Daily Live Scores। ৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  48. "Aizawl FC squad 2020–21"Soccerway.com। ৯ মে ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২ জানুয়ারি ২০২০ 
  49. "Aizawl FC official: New Signing"Twitter.com। Aizawl Football Club। ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  50. Banerjee, Ritabrata (৩ জুলাই ২০২০)। "Indian football: Foreign players of I-League clubs who are still in India"Goal.comGoal। ২৮ জুন ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০২১ 
  51. Seal, Arnab Lall। "Aizawl sign Mali striker Abdoulaye Kanoute"www.timesofindia.indiatimes.com (ইংরেজি ভাষায়)। The Times of India। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  52. "Player profile and career stations: Amadou Alou Sissoko"globalsportsarchive.com। Global Sports Archive। ১৪ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ মার্চ ২০২২ 
  53. Chaudhuri, Arunava (২৭ ডিসেম্বর ২০১৮)। "Aizawl FC strengthen their defence by signing Uganda's Juuko Richard Kassaga!"arunfoot.com। Arunava about Football। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০২১ 
  54. Sportstar, Team। "I-League: Indian Arrows stuns Mohammedan Sporting, Sudeva draws with Aizawl"sportstar.thehindu.com (ইংরেজি ভাষায়)। ৩০ নভেম্বর ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০২-১৫ 
  55. Parasar, Swapnaneel (২৭ আগস্ট ২০১৭)। "I-League: Aizawl FC bolster squad by signing Romanian striker Andrei Ionescu"Goal.comGoal। ৪ মার্চ ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ মার্চ ২০২২ 
  56. Enzo Prono Zelaya ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৮ অক্টোবর ২০২১ তারিখে Benjamin Strack-Zimmermann. national-football-teams.com. Retrieved 28 October 2021.
  57. "Aizawl FC official"Twitter। ২৬ নভেম্বর ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ নভেম্বর ২০২১ 
  58. "Primus, Plaza join India's Aizawl FC"trinidadexpress.comTrinidad Express (Daily)। ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২২। ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২২ 
  59. "I-League 2017: Aizawl FC 1–0 Minerva Punjab – Supersub Ashutosh wins it at the death"। ১৩ জানুয়ারি ২০১৭। ১৫ জানুয়ারি ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  60. Jitendran, Nikhil (৭ মে ২০১৫)। "Aizawl FC become Mizoram's inaugural representatives in the I-League"। ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১০ মে ২০১৫ 
  61. "Aizawl FC crowned Mizoram Premier League Champions"blog.cpdfootball.de। ২০ জুলাই ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০২১ 
  62. "Mizoram Premier League 2018–19"goalie365.com। Goalie365। ১১ জুলাই ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০২১ 
  63. "Chhinga Veng Champions"www.inkhel.com। Inkhel Mizo Sports Website hmasa ber। ৯ ডিসেম্বর ২০১৭। ২১ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ এপ্রিল ২০১৮ 
  64. Das, Amlan (২১ মে ২০১৬)। "Mohun Bagan win 2016 Federation Cup with 5–0 rout of Aizawl FC"sportskeeda.com। ২৬ মে ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২১ মে ২০১৬ 
  65. "List of Winners/Runners-Up of the Bordoloi Trophy:"indianfootball.de। ৩০ নভেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ মার্চ ২০২১ 
  66. "MFA Super Cup Champion Aizawl FC"inkhel.com। ২৭ আগস্ট ২০১৬। ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  67. "Bethlehem Vengthlang FC lift Mizoram Super Cup defeating I-League club Aizawl FC"sportskeeda.com। Sportskeeda। ৮ ডিসেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  68. Chaudhuri, Arunava। "Mizoram Independence Cup: Chhinga Veng FC beat Aizawl FC to lift title!"arunfoot.com। Arunava about Football। ২০ নভেম্বর ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ 
  69. "AFC Cup: Bengaluru FC's group stage tie against I-League champions Aizawl FC postponed"Firstpost। ৫ মার্চ ২০১৮। ১৫ জানুয়ারি ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 
  70. Mukherjee, Soham; Easwar, Nisanth V (১ এপ্রিল ২০২০)। "How have Indian clubs fared in AFC Champions League and AFC Cup?"goal.comGoal। ১৫ এপ্রিল ২০২১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ মার্চ ২০২১ 
  71. "Zob Ahan 3–1 Aizawl"Soccerway। ১৬ নভেম্বর ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৫ মার্চ ২০২১ 
  72. 2018 AFC Cup stats ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৮ ডিসেম্বর ২০১৯ তারিখে the-afc.com. Retrieved 19 July 2021

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]