অসমীয়া ভাষা উন্নতি সাধিনী সভা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অসমীয়া ভাষা উন্নতি সাধিনী সভা
সংক্ষেপেঅ.ভা.উ.সা.
গঠিত১৮৮৮
উদ্দেশ্যঅসমীয়া ভাষা-সাহিত্যের উন্নতি সাধন
দাপ্তরিক ভাষা
অসমীয়া
প্রথম সম্পাদক
শিবরাম শর্মা বরদলৈ

অসমীয়া ভাষা উন্নতি সাধিনী সভা (ইংরেজি: Assamese Language Development Society) সংক্ষেপে আভাউসা একটি অসমীয়া সাহিত্য সংগঠন ছিল। ১৮৮৮ সনের ২৫ আগষ্ট তারিখে সংগঠনটির জন্ম হয়।[১] এটি ছিল অসম সাহিত্য সভার পূর্ববর্তী পর্যায়।[২] প্রথম সম্পাদক ছিলেন শিবরাম শর্মা বরদলৈ। অসমীয়া ভাষা উন্নতি সাধিনী সভার মুখ্য উদ্দেশ্য ছিল অসমীয়া-ভাষা সাহিত্যের উন্নতি সাধন। এই সংগঠনটিই প্রথম যা অসমীয়া সাহিত্যকে আধুনিক রুপ দিয়েছিল।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ঊনবিংশ শতিকার অষ্টম দশকে কলকাতায় অধ্যয়নরত অসমীয়া ছাত্রেরা অসমীয়া ভাষাকে অসমীয়া জাতীয়তাবাদ গঠনের মুল কারক রুপে চিহ্নিত করে। এই ছাত্রেরা ১৯৮৮ সনের ২৫ আগষ্ট তারিখে অসমীয়া ভাষার উন্নতির জন্য অসমীয়া ভাষা উন্নতি সাধিনী সভা গঠন করে[১][৩]। ।

উদ্দেশ্য[সম্পাদনা]

অসমীয়া ভাষা উন্নতি সাধিনী সভার মুখ্য উদ্দেশ্য সমূহ ছিল[৪]:

  • পুরাতন গ্রন্থ সংগ্রহ ও প্রকাশ
  • অসমের সকল শিক্ষানুষ্ঠানে অসমীয়া ভাষার প্রচলন
  • অশুদ্ধ ব্যাকরণ ও অশুদ্ধ বর্ণ-বিন্যাসের স্থানে শুদ্ধ ব্যাকরণ ও বর্ণ-বিন্যাসের প্রচলন
  • সংস্কৃত বা অন্যান্য ভাষায় লিখিত উৎকৃষ্ট গ্রন্থের অনুবাদকরণ
  • অসমের সামাজিক ও ধার্মিক রীতি-নীতির বৃত্তান্ত সংগ্রহ ও ইতিহাস প্রনয়ন
  • সাহিত্য ও পুস্তকের অভাব দূরীকরন ইত্যাদি

জোনাকী আলোচনা পত্রিকায় সভার উদ্দেশ্যসমূহ উল্লেখ করা হয়েছিল। উল্লেখিত উদ্দেশ্যসমূহ নিম্নরুপ:[১][৩]

অন্যান্য কার্যক্রম[সম্পাদনা]

জোনাকী আলোচনা পত্রিকা[সম্পাদনা]

সভায় দায়িত্বে নেওয়া বিভিন্ন কার্যক্রমের অন্যতম ছিল অসমীয়া মাসিক পত্রিকা জোনাকীর প্রকাশ। ১৯৮৯ সনে মাসিক পত্রিকা জোনাকীর জন্ম হয়। সভার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বিষয়ে এই আলোচনা পত্রিকায় নিয়মীতভাবে প্রকাশীত করা হত।[১]

বাণ রঙ্গমঞ্চ[সম্পাদনা]

বহুদিন পূর্বে অসমীয়া অভিনেতারা বাঙালি অভিনেতার সহিত বেঙ্গলী আ্যামেচার থিয়েটার পার্টীর সহিত একসঙ্গে অভিনয় করিত। কিন্তু দুইভাষিক শিল্পীর মধ্যে থাকা অমিলের জন্য ১৯০৩ সনে অসমীয়া অভিনয় শিল্পী সমাজ বিছিন্ন হয়ে বাণ থিয়েটার প্রতিষ্ঠা হয়। ১৯০৬ সনে কেবল অসমীয়া নাটক মঞ্চস্থ করার জন্য বাণ রঙ্গমঞ্চ স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেয়।[২]

সভার সহিত জড়িত ব্যক্তি[সম্পাদনা]

বিশ্বের দরবারে অসমীয়া ভাষার পরিচয় তুলে ধরার জন্য প্রারম্ভিক অবস্থায় প্রচেষ্টা করা কয়েকজন ব্যক্তির নাম নিম্নে উল্লেখ করা হল:[১]

  • বেণুধর রাজখোয়া, ডালিমচন্দ্র বড়া, লক্ষ্মীপ্রসাদ চলিহা, রামাকান্ত বড়ুয়া, কৃষ্ণপ্রসাদ দুয়রা, রমাকান্ত বরকাকতি, গুণীন্দ্রনাথ বড়ুয়া, গোপালতন্ত্র বড়ুয়া, লক্ষেশ্বর শর্মা, তীর্থনাথ কাকতি, হেমচন্দ্র গোস্বামী, কণকলাল বড়ুয়া, কৃষ্ণকুমার বড়ুয়া, চন্দ্রকমল বেজবড়ুয়া, ঘনশ্যাম বড়ুয়া, কমলচন্দ্র শর্মা, লক্ষ্মীনাথ বেজবড়ুয়া। চন্দ্র কুমার আগরওয়ালা ।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Dutta, Uddipan। "The Growth of Print Nationalism and Assamese Identity in Two Early Assamese Magazines"। Sarai। পৃষ্ঠা 6। ৯ নভেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ এপ্রিল ২০১০ 
  2. "Culture cradle inspires icon to end song drought - Bhupen Hazarika sings paean to glory of Ban Theatre at start of two-day centenary celebrations"। The Telegraph। Monday, September 05, 2005। ৫ জুন ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ 4 April 2010  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |তারিখ= (সাহায্য)
  3. "Axomiā Bhāxā Unnati Xādhini Xabhār Karjya Biboroni"। Jonaki5 (7)। 
  4. ড° সত্যেন্দ্রনাথ শর্মা (১৯৮৯)। অসমীয়া ভাষার সমীক্ষাত্মক ইতিবৃত্ত। গুৱাহাটী। পৃষ্ঠা ৩১৭, ৩১৮।