কমলা দ্বীপ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(অরেঞ্জ আইল্যান্ড থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কমলা দ্বীপ
স্থানীয় নাম:
橘子洲
长沙橘子洲.jpg
২০০৬ সালে কমলা দ্বীপ।
কমলা দ্বীপ গণচীন-এ অবস্থিত
কমলা দ্বীপ
কমলা দ্বীপ
ভূগোল
অবস্থানশিয়াং নদী, চাংশা, হুনান
স্থানাঙ্ক২৮°১১′০৩″ উত্তর ১১২°৫৭′৪১″ পূর্ব / ২৮.১৮৪১২১° উত্তর ১১২.৯৬১২৯° পূর্ব / 28.184121; 112.96129স্থানাঙ্ক: ২৮°১১′০৩″ উত্তর ১১২°৫৭′৪১″ পূর্ব / ২৮.১৮৪১২১° উত্তর ১১২.৯৬১২৯° পূর্ব / 28.184121; 112.96129
আয়তন৯১.৬৪ একর (৩৭.০৯ হেক্টর)
দৈর্ঘ্য৫ কিমি (৩.১ মাইল)
প্রস্থ৪০–১৪০ মিটার (১৩০–৪৬০ ফুট)
প্রশাসন
চীন
জনপরিসংখ্যান
জনসংখ্যা১০০ (প্রশাসক)
ভাষাম্যান্ডারিন
শিয়াং
জাতিগত গোষ্ঠীসমূহহান চীনা
অতিরিক্ত তথ্য
চীনা নাম
চীনা
আক্ষরিক অর্থকমলা দ্বীপ
জুৎজি ঝৌ
চীনা
আক্ষরিক অর্থকমলা দ্বীপ

কমলা দ্বীপ (চীনা: 桔子洲 or 橘子洲; ফিনিন: Júzi Zhōu) হল চীনের, হুনান প্রদেশের চাংশার শিয়াং নদীতে অবস্থিত একটি দ্বীপ[১] দ্বীপটি জু দ্বীপ (桔洲 or 橘洲; Júzhōu; "Orange Isle") এবং শুইলু দ্বীপ (সরলীকৃত চীনা: 水陆洲; প্রথাগত চীনা: 水陸洲; ফিনিন: Shuǐlù Zhōu; আক্ষরিক: "উভচর দ্বীপ") নামেও পরিচিত। শিয়াং নদীর কেন্দ্রে অবস্থিত এই নদী দ্বীপটি একটি দীর্ঘ এবং সরু বালুচর। এর দৈর্ঘ্য ৫ কিলোমিটার (৩.১ মা), প্রস্থ ৪০ থেকে ১৪০ মিটার (১৩০ থেকে ৪৬০ ফু) এবং মোট আয়তন ৩,৭০,৯০০ বর্গমিটার (৯১.৬৪ একর)।[২][৩] ২০০১ সালে, কমলা দ্বীপটি চাংশা ইউয়েলু মাউন্টেন পর্যটন এলাকার একটি মনোরম স্থান হয়ে ওঠে। এটি একটি জাতীয় AAAAA (5A) পর্যায়ের আকর্ষণস্থল ছিল এবং একটি জাতীয় দর্শনীয় স্থান।[৪] ৩ আগস্ট ২০১৬ সালে, জাতীয় পর্যটন প্রশাসন কমলা দ্বীপকে গুরুতর সুরক্ষা ঝুঁকি, দুর্বল স্যানিটেশন, পর্যটন পরিষেবা কার্যক্রমে মারাত্মক অবক্ষয় এবং নিয়ন্ত্রণহীন ব্যবস্থাপনার কারণে 5A পর্যটন অঞ্চলের যোগ্যতা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়।[৫]

১৮ ডিসেম্বর ২০১৭ সালে, জাতীয় পর্যটন সম্পদ পরিকল্পনা এবং উন্নয়ন মানের মূল্যায়ন কমিটি একটি বিশেষজ্ঞ গ্রুপ পর্যালোচনার জন্য প্রেরণ করে এবং কমলা দ্বীপকে পর্যটন অঞ্চল 5A যোগ্যতার জন্য পুনরায় বিবেচনা করে।[৬]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

চিন রাজবংশের চীন সম্রাট হুইয়ের রাজত্বের ইয়ংশিং সময়ে, ৩০৫ খ্রিস্টপূর্বাব্দে কমলা দ্বীপ নথিভুক্ত হওয়ার প্রথম দলীল পাওয়া যায়।[৭] তাং রাজবংশের সময়, কবি তু ফু তাওলিন মঠ এবং ইউয়েলুশান মঠ পরিদর্শন (সরলীকৃত চীনা: 岳麓山道林二寺行; প্রথাগত চীনা: 嶽麓山道林二寺行; ফিনিন: yuè lù shān dào lín èr sì xíng) শিরোনামে একটি কবিতা লিখেছিলেন, যেখানে কমলা দ্বীপের নাম উল্লেখ করা হয়। এটি শিয়াওশিয়াং এর অষ্ট দর্শন - রিভার অ্যান্ড স্কাই: সানসেট স্নো-এর তালিকায় ছিল।

কমলা দ্বীপ চিং রাজবংশের শেষদিকে, ১৯০৪ সালে খুলে দেয়া হয়।[৭]

১৯১১ থেকে ১৯৪৯ সাল পর্যন্ত অনেক বিদেশী দূতাবাস এবং কনসুলেট এই দ্বীপে নির্মিত হয়েছিল।[৭] ১৯১১ সাল থেকে এই দ্বীপটিতে ব্রিটিশ এবং জাপানি কনস্যুলেট, শুল্ক ও কর বিভাগ এবং ব্রিটিশ, জার্মান, আমেরিকান এবং জাপানী ব্যবসায়ীদের আবাসসহ বিদেশী বসতি স্থাপন শুরু করে। চীন প্রজাতন্ত্রের সময়ে থাং শেঙ্গঝির একটি ম্যানশনও ছিল। এখনও কয়েকটি ভবন সংরক্ষিত করে রাখা হয়েছে।[৭]

মাও ৎসে-তুং জীবনের প্রথম দিকে চাংশায় বসবাস করতেন। তিনি এবং তার বন্ধু হা শুহাং, শিয়াও জিশাং, ছাই হেসেন, শিয়াও সান এবং শিয়াং জিংইউন শিয়াং নদীতে সাঁতার কাটতেন।[৮] ১৯২৫ সালে তিনি এখানে "তুষারপাত· চাংশা" নামের একটি কবিতা লিখেন এবং এই দ্বীপ নিয়ে তার অনুভূতি প্রকাশ করেন। গণপ্রজাতন্ত্রী চীন প্রতিষ্ঠার পরে তিনি সাতবার কমলা দ্বীপের অপর প্রান্তে শিয়াং নদীতে গিয়েছিলেন। ১৯৭৪ সালে, ৮১ বছর বয়সী মাও ৎসে-তুং শেষবারের মতো হুনানের চাংশায় ফিরে এসেছিলেন। ১৯৮২ সালে, কমলা দ্বীপ পার্ক নির্মিত হয়।

২০১০-এর দশক হতে, অরেঞ্জ আইল মিউজিক ফেস্টিভ্যাল এই দ্বীপটিতে আয়োজিত হয়ে আসছে।[৯][১০][১১][১২]

২০শে ডিসেম্বর, ২০০৯ সালে, তরুণ মাও সেতুং-এর ভাস্কর্য এই দ্বীপে নির্মিত হয়।[১৩][১৪] ২০১৪ সালের ২৯ এপ্রিল চাংশা মেট্রো লাইন ২-এর প্রথম ধাপটি দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয় এবং কমলা দ্বীপ স্টেশনও খোলা হয়।

আকর্ষণ[সম্পাদনা]

  • হুনান কালচার করিডোর
  • অন ওয়াটার অ্যামিউজমেন্ট করিডোর
  • কমলা বাগান
  • প্রাকৃতিক উদ্যান
  • সুরেলা অতিথিদের পার্ক
  • কেনাকাটা এবং খাবারের প্লাজা
  • জিওয়াইএম কেন্দ্র
  • রিল্যাক্সেশন রিসর্ট
  • বন্যপ্রাণী পার্ক

চিত্রশালা[সম্পাদনা]

একটি মণ্ডপ। 
উল্লেখযোগ্য হুনানের ব্যক্তিদের ভাস্কর্য। 
 
 
ওয়াংজিয়াং প্যাভিলিয়ন। 
 
 
 
 

পরিবহন[সম্পাদনা]

  • হেংইয়াঙ্গের উত্তরে শিয়াং নদীকে অতিক্রমকারী প্রথম সেতু হিসেবে ১৯৭২ সালে চালু হওয়া অরেঞ্জ আইল ব্রিজটি পূর্ব এবং পশ্চিম দিকে উভয় পার্শ্বকে সরাসরি দ্বীপের রোড নেটওয়ার্কের সাথে সংযোগ করেছে। সাপ্তাহিক ছুটি এবং জাতীয় দিবস সমূহে সকাল ৭টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত জনসাধারণের জন্য প্রবেশাধিকার নিষিদ্ধ।
  • পথচারীদের জন্য পার্কটিতে সরাসরি প্রবেশের সুবিধা প্রদান করে চাংশা মেট্রোর লাইন ২-এর জুৎজিঝৌ স্টেশন, ২০১৩ সালে চাংশার প্রথম পাতাল রেল বিভাগের অংশ হিসেবে খোলা হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Orange Isle to Hold the Opening Ceremony of Hunan International Tourism Festival"enghunan.gov.cn। ২০০৯। ২০১৪-০৩-১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  2. 长沙橘子洲风景区Tencent (চীনা ভাষায়)। ২০১৬-০৬-০১। 
  3. "Brief Introduction to Orange Isle Scenic Spot"। ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ৩ মে ২০১৮ 
  4. "橘子洲风景区"腾讯大湘网। সংগ্রহের তারিখ ৩ মে ২০১৯ 
  5. "国家旅游局撤消2家5A级景区 严重警告3家5A级景区 新批准6家5A级景区"中华人民共和国国家旅游局। ২০১৬-০৮-০৩। ২০১৬-০৮-১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০৮-০৩ 
  6. 网易। "长沙橘子洲景区重回国家5A级 去年8月曾被摘牌"news.163.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০২-২৪ 
  7. 140年前的水陆洲,江神庙、拱极楼曾热闹非凡续Xinhua (চীনা ভাষায়)। ২০১৩। ২০১৬-০৩-০৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  8. 伟人伫立橘洲头 毛泽东雕像背后的故事Ifeng (চীনা ভাষায়)। ২০০৯। 
  9. "Orange Isle Music Festival kick off in C China"Xinhua। ২০১০। 
  10. "2013 Orange Isle Music Festival to Rock Changsha Sept 8-9"echinacities.com। ২০১৩। 
  11. "the 2012 Orange Isle Music Festival"enghunan.gov.cn। ২০১২। ২০ মে ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ নভেম্বর ২০১৯ 
  12. "3rd Orange Isle Music Festival"enghunan.gov.cn। ২০১৩। ১৯ মে ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ নভেম্বর ২০১৯ 
  13. 32米高青年毛泽东像矗立橘子洲头Ifeng (চীনা ভাষায়)। ২০০৯। 
  14. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি" 毛泽东诞辰116周年:橘子洲毛泽东雕塑揭幕Red.net (চীনা ভাষায়)। ২০০৯। ১২ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ নভেম্বর ২০১৯ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]