অরবিন্দ আপ্তে

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অরবিন্দ আপ্তে
চিত্র:অরবিন্দ আপ্তে.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামঅরবিন্দরাও লক্ষ্মণরাও আপ্তে
জন্ম(১৯৩৪-১০-২৪)২৪ অক্টোবর ১৯৩৪
বোম্বে, মহারাষ্ট্র, ব্রিটিশ ভারত
মৃত্যু৫ আগস্ট ২০১৪(2014-08-05) (বয়স ৭৯)
পুনে, ভারত
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাউদ্বোধনী ব্যাটসম্যান, উইকেট-রক্ষক
সম্পর্কমাধব আপ্তে
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ৯২)
২ জুলাই ১৯৫৯ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৫৮
রানের সংখ্যা ১৫ ২৭৮২
ব্যাটিং গড় ৭.৫০ ৩৩.৫১
১০০/৫০ -/- ৬/-
সর্বোচ্চ রান ১৬৫
বল করেছে - ১০২
উইকেট -
বোলিং গড় - ৩৮.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট - -
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং - ১/২১
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং -/- ১৪/১
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২ আগস্ট ২০১৯

অরবিন্দরাও লক্ষ্মণরাও আপ্তে (এই শব্দ সম্পর্কেউচ্চারণ ; হিন্দি: अरविंद आप्टे; জন্ম: ২৪ অক্টোবর, ১৯৩৪ - মৃত্যু: ৫ আগস্ট, ২০১৪) তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের বোম্বে এলাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা ভারতীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। ভারত ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৫৯ সালে ভারতের পক্ষে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ভারতীয় ক্রিকেটে মুম্বই ও রাজস্থান দলের প্রতিনিধিত্ব করেন অরবিন্দ আপ্তে। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, উইকেট-রক্ষণে দক্ষতা ছিল তার।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

১৯৫৫-৫৬ মৌসুম থেকে ১৯৭০-৭১ মৌসুম পর্যন্ত অরবিন্দ আপ্তের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল।

ঘরোয়া রঞ্জী ট্রফি প্রতিযোগিতায় ৭০ গড়ে রান সংগ্রহের ন্যায় সুন্দর ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শনের স্বীকৃতিস্বরূপ ১৯৫৯ সালে সংরক্ষিত উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে ইংল্যান্ড গমনের জন্যে মনোনীত হন। আক্রমণধর্মী উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান হিসেবে প্রভূতঃ সুনাম কুড়ান। ব্যাপক ও বিস্তৃতভাবে স্ট্রোকের ফুলঝুড়ি ছোটাতেন। ১৯৭২ সাল পর্যন্ত প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলতে থাকেন। ছয়টি সেঞ্চুরি করেন। ৩৩.৫১ গড়ে ২৭৮২ রান তুলেছিলেন অরবিন্দ আপ্তে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন অরবিন্দ আপ্তে। ২ জুলাই, ১৯৫৯ তারিখে লিডসে স্বাগতিক ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো টেস্ট ক্রিকেট খেলতে নামেন। ইংল্যান্ডের জিওফ পুলারহ্যারল্ড রোডসের সাথে অরবিন্দ আপ্তের একযোগে টেস্ট অভিষেক পর্ব সম্পন্ন হয়। ঐ খেলায় তার দল ইনিংস ও ১৭৩ রানে পরাভূত হয়।[১] এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল।

ঐ সফরে মাঝারিমানের সফলতা পান। তিনটি সেঞ্চুরি সহযোগে ২৭.৫৩ গড়ে ৮৮১ রান তুলেন। ডার্বিশায়ারের বিপক্ষে ১৬৫ রানের ইনিংস খেলেন। নরি কন্ট্রাক্টরের আঘাতের কারণে লিডসে সিরিজের তৃতীয় টেস্টে খেলার সুযোগ পান। ৮ ও ৭ রান তুলে উভয় ইনিংসেই অ্যালেন মসের শিকারে পরিণত হন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

মটর সাইকেল চালনায় বেশ আগ্রহী ছিলেন। ১৯৪৯ সালে বেন্টলি এমকে ষষ্ঠ রাউন্ড মুম্বইয়ে অংশ নেন। ১৯৫৩ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত লর্ডস টেস্টে নিয়মিতভাবে উপস্থিত থাকতেন। ১৯৯৯ সালে নতুন গণমাধ্যম কেন্দ্র নির্মাণের পূর্বে খরিদকৃত ফ্লাট থেকে মাঠে খেলার দৃশ্য দেখতেন।

৫ আগস্ট, ২০১৪ তারিখে ৭৯ বছর বয়সে মুত্রথলির ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে পুনেতে অরবিন্দ আপ্তের দেহাবসান ঘটে।[২] তার ভ্রাতা মাধব আপ্তে ভারতের পক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছিলেন।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "India in England (1959): Scorecard of third Test"। Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ আগস্ট ২, ২০১৯ 
  2. Arvind Apte succumbs to prostate cancer
  3. Joshi, Harit (৫ অক্টোবর ২০১২)। "The cricketing journey of Madhav Apte"Mid Day। সংগ্রহের তারিখ ২ আগস্ট ২০১৯ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]